সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরলেন ১৮ নারীকর্মী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৬, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩০, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

70130300_1327212410790768_8968893987616194560_nসৌদি আরব থেকে দেশে ফিরে এসেছেন ১৮ নারীকর্মী। বৃহস্পতিবার ( ১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে আমিরাত এয়ারওয়েজের ই কে ৫৮২ বিমানে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তারা। বিমানবন্দরের প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের একজন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ফিরে আসা ১৮ জনের মধ্যে ভাঙা পা নিয়ে দেশে ফিরেছেন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের কাবিরুন নাহার। মাত্র ছয় মাস আগেই তিনি গৃহকর্মীর কাজ নিয়ে পাড়ি জমিয়েছিলেন সৌদি আরবে। কাবিরুন জানান, তার মতো বাকি ১৮ জন নারীকর্মীও নিয়োগকর্তার নির্যাতনের শিকার হয়ে আশ্রয় নিয়েছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের সেফহোমে।

কাবিরুন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ছয় মাস আগে যাই সৌদি। এক হাজার রিয়েল বেতন দেওয়ার কথা থাকলেও দেয় ৮০০ রিয়াল। এক মাসের টাকা পাইলেও আর পাই নাই।’ কাবিরুন আরও জানান,  কফিলের ( নিয়োগকর্তার) অতিরিক্ত কাজ আর শারীরিক নির্যাতনের কারণে তার বাড়ি থেকে পালাতে গিয়ে পা ভাঙে। এরপর তিনি দূতাবাসের সেফ হোমে আশ্রয় নেন। সেখান থেকে আউটপাস দিয়ে তাকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।   

কাবিরুনের সঙ্গে আরও ফিরেছেন ঢাকার সেতু বেগম, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রোজিনা, লালমনিরহাটের শিরিনা বেগম, নাটোরের রেবেকা, বরিশালের কুলসুম, সিলেটের জোসনা ও গাজীপুরের নাসিমা। ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের দেওয়া তথ্য মতে, গত নয় মাসে দেশে ফিরেছেন ৮৫০ নারীকর্মী।

সংস্থার প্রোগ্রাম প্রধান শরিফুল হাসান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা দেখছি, সৌদি আরব থেকে নারীকর্মীদের ফেরা একটা ধারাবাহিক প্রক্রিয়া হয়ে গেছে। শুধু নির্যাতনের শিকার হয়ে ফিরে আসা কর্মীর তালিকাই বাড়ছে। সমস্যার যে একটা স্থায়ী সমাধান প্রয়োজন তা হচ্ছে না। আমরা একদিকে নির্যাতন বন্ধ করতে পারছি না, আবার যারা ফিরে আসাদের পর্যাপ্ত সহায়তাও দিতে পারছি না।’      

 

/এসও/এমএএ/

লাইভ

টপ