বাংলা ট্রিবিউনকে আ. লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ফরিদুন্নাহার লাইলী নারীর ক্ষমতায়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা অবিস্মরণীয়

Send
পাভেল হায়দার চৌধুরী
প্রকাশিত : ০১:২৫, জুলাই ০৫, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:৫৩, জুলাই ০৫, ২০১৬

ফরিদুন্নাহার লাইলীনারীর ক্ষমতায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকা বাংলাদেশের ইতিহাসে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী। তিনি বলেন, ক্ষমতায় এলেই শেখ হাসিনা নারীর ক্ষমতায়নে কাজ করেন। বর্তমানে সব সেক্টরে নারীর অবাধ বিচরণ, ক্ষমতা এসবই শেখ হাসিনার স্বপ্নের বাস্তবায়ন। এ দেশে  প্রধানমন্ত্রী নারী, বিরোধী দলীয় নেতা নারী, স্পিকার ও সংসদ উপনেতাও নারী। দেশের  সর্বোচ্চ আদালতে নারী বিচারকের আসনে আছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, সচিব, পাইলট, পুলিশের এসপি তথা প্রশাসনের সর্বক্ষেত্রে নারীর পদচারণা রয়েছে। সম্প্রতি বিভিন্ন বিষয়ে বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে একান্ত আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলা ট্রিবিউন: আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক জাতীয় সম্মেলন পিছিয়ে গেল কেন?
ফরিদুন্নাহার লাইলী: আওয়ামী লীগ সব সময় সাধারণ মানুষের কথা বিবেচনা করে রাজনীতি করে। গণমানুষ আওয়ামী লীগের প্রাণ। ঈদুল ফিতরের পর পরই আওয়ামী লীগের সম্মেলন পড়ে যায়। অর্থাৎ ১০/১১ জুলাই ছিল আওয়ামী লীগের সম্মেলন। মানুষ বাড়ি যাবে, আবার বাড়ি থেকে ফিরবে। এই সময়ে যদি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় মানুষের ঢাকায় ফেরা নিয়ে ভোগান্তিতে পড়তে হবে। এটা ভেবেই মূলত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে সম্মেলনের নির্ধারিত তারিখ।

বাংলা ট্রিবিউন: আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে নারী নেতৃত্ব যথেষ্ট মনে করেন কি না?

ফরিদুন্নাহার লাইলী: আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা সব সময় নারীবান্ধব। নারী ক্ষমতায়নে কী কী কাজ করা যায়, সবসময়ই তা ভাবেন তিনি। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে নারী নেতৃত্ব যথেষ্ট রয়েছে। শুধু তাই নয়, প্রত্যেক নারী তাদের দায়িত্ব পালন করছেন যথাযথভাবে। আওয়ামী লীগ তেমন দল নয় যে, নারীদের শুধু আলঙ্কারিক পদ দিয়ে বসিয়ে রাখে। এখানে যার যার দায়িত্ব অনুযায়ী কাজও করতে হয়।

বাংলা ট্রিবিউন: আগামী সম্মেলনে নারীর অংশগ্রহণ কি আরও বাড়বে?

ফরিদুন্নাহার লাইলী: অবশ্যই নারী নেতৃত্ব বাড়বে। প্রত্যেক সম্মেলনেই আওয়ামী লীগে নারী নেতৃত্ব বাড়ে। আওয়ামী লীগ সর্বস্তরে ৩৩ শতাংশ নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর।

বাংলা ট্রিবিউন: বাংলাদেশের রাজনীতিতে নারীর অংশগ্রহণ কম না বেশি?

ফরিদুন্নাহার লাইলী: যে দেশে প্রধানমন্ত্রী নারী, বিরোধী দলীয় নেতা, স্পিকার, সংসদ উপনেতা সবাই নারী, সে দেশে নারীর অংশগ্রহণ কম না বেশি প্রশ্নটা এক রকম অবান্তর। তবু আমি মনে করি রাজনীতিতে নারীর অংশগ্রহণ আরও বাড়ানো উচিত। কারণ নারী নিজেদের যোগ্যতা, গুণে আজ সমাজে মর্যাদার আসনে আসীন।

/এমএনএইচ/  

লাইভ

টপ