শব্দদূষণ থেকে দেশকে মুক্ত রাখার আহ্বান পরিবেশমন্ত্রীর

Send
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:১০, এপ্রিল ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪১, এপ্রিল ২৬, ২০১৯

সচেতনতার অভাবকেই শব্দদূষণের জন্য দায়ী করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী সাহাব উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘শব্দদূষণ থেকে আমরা মুক্তি পেতে চাই। আমরা সবাই সচেতন হলে শব্দদূষণ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। শব্দদূষণের প্রধান কারণ অপ্রয়োজনে গাড়ির হর্ন বাজানো। এ কারণে আমাদের দেশে অনেক হাসপাতালের রোগী ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা সমস্যার সম্মুখীন হন।’

বুধবার (২৪ এপ্রিল) দুপুরে আন্তর্জাতিক শব্দ সচেতনতা দিবস উপলক্ষে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী সাহাব উদ্দিন।

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে শব্দদূষণ প্রতিরোধে বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের আইনে বলা আছে, ৫০ মাত্রার অতিরিক্ত হর্ন বাজালে তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা যাবে।’ শব্দদূষণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের সবাইকে অনুরোধ করবো এই অহেতুক শব্দদূষণ থেকে দেশকে মুক্ত রাখার।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিদেশে দেখেছি কোনও গাড়িতে হর্ন বাজে না। কারণ, কোনও ড্রাইভার যদি হর্ন বাজান, তাহলে সেখানের নাগরিকরা সঙ্গে সঙ্গে এর প্রতিবাদ করেন। অপ্রয়োজনে হর্ন বাজালে গাড়ির ড্রাইভারের কাছে জবাবদিহি চান তারা। কিন্তু আমাদের দেশে ড্রাইভার ভাইয়েরা অহেতুক বেশি বেশি হর্ন বাজান।’

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার বলেন, ‘শব্দদূষণ সারাবিশ্বে একটি আলোচিত বিষয়। এটি প্রতিরোধে প্রচারণা চালালে সফল হবো, তা বলা যায় না। তবে সবাই যদি এ ব্যাপারে সচেতন হয়, তাহলে এটি থেকে পুরোপুরি মুক্তি পাওয়া সম্ভব।’
পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. সুলতান আহমেদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরী।

/এএইচ/এপিএইচ/এমওএফ/

লাইভ

টপ