‘নারীর বার্ধক্য ভয়ঙ্কর নয়, রোমাঞ্চকর’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫৮, নভেম্বর ০৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১২, নভেম্বর ০৯, ২০১৯

লিট ফেস্টের তৃতীয় দিন (৯ নভেম্বর) ভাস্কর নভেরা হলে বৃষ্টিস্নাত শেষ বিকেলে ‘এজিং: দ্য সিক্রেট অব লাইফ’ শীর্ষক সেশনে ব্রিটিশ ব্রাজিলিয়ান ঔপন্যাসিক ইরা রডরিগস ফাউলারের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন কালচারাল প্রডিউসার, পারফর্মিং আর্টিস্ট ও লেখক টেরেসা আলবার, সাংবাদিক ও লেখক মিনা লিন্ডগ্রেন এবং নরওয়েন লেখক অ্যানি ওস্টবি।


৬২ বছর বয়সী তেরেসা আলবারের আকর্ষণীয় পারফরম্যান্স দিয়ে সেশন শুরু হয়। আয়োজনে তেরেসা বলেন, ‘তরুণ বয়স থেকে স্বাভাবিক নিয়মেই মানুষকে বার্ধক্যে পা রাখতে হয়। বার্ধক্যে সমাজে নানা মানুষের অবহেলা, কটুকথার সম্মুখীন হতে হয় নারীদের। বার্ধক্য মানে জীবনের সব রঙ ফুরিয়ে যাওয়া নয়। বার্ধক্য হতে পারে রোমাঞ্চকর, হতে পারে উপভোগ্য।’
বার্ধক্যে জীবনকে স্বাধীনভাবে উপভোগ করাই সত্যিকারের জ্ঞানের পরিচয় দেওয়া বলে তিনি মনে করেন। ‘নারীর বার্ধক্য ভয়ঙ্কর নয়, রোমাঞ্চকর’–বলেন তিনি।
লেখক মিনা লিন্ডগ্রেন সম্মতি রেখেই বলেন, ‘বয়স কেবল একটি সংখ্যা, বার্ধক্য নারীকে তাদের ইচ্ছা, আকাঙ্ক্ষা থেকে বিরত রাখতে পারে না; বরং তা পূরণ করার মধ্যেই রয়েছে এ সময়ের সুখ ও শান্তি। বার্ধক্য কোনও লজ্জা নয়।’
অ্যানি ওস্টবি তার প্রকাশিত ‘হাভসং’ বই থেকে কিছু লাইন আবৃত্তি করে শোনান। তরুণ থেকে বৃদ্ধ হওয়া এই বাস্তব পর্যায়টিকে মেনে নিয়ে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ জীবনের স্বাভাবিক নিয়ম। এটিকে সুন্দরভাবে মেনে নেওয়াই শ্রেয় বলে মনে করেন অ্যানি।

/এনএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ