রুমিন ফারহানার আবেদন নিয়ে তোলপাড়

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৩৯, আগস্ট ২৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:২৫, আগস্ট ২৫, ২০১৯





রুমিন ফারহানাবিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানার সরকারি প্লটের জন্য করা আবেদনের জেরে তোলপাড় শুরু হয়েছে। এরইমধ্যে এই আবেদনের কপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি নিয়ে বিব্রত হওয়ার পাশাপাশি তার আবেদন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়াকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেছেন তিনি।

রুমিন ফারহানা শপথ নেওয়ার পর থেকে বর্তমান সংসদকে ‘অবৈধ’ বলে আসছেন। পাশাপাশি সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডেরও কঠোর সমালোচক তিনি। এ অবস্থায় সরকারের কাছে প্লট চাওয়ায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে।
গত ৩ আগস্ট গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের কাছে ঢাকার পূর্বাচল আবাসিক এলাকায় ১০ কাঠার প্লট চেয়ে আবেদন করেন তিনি।
তবে আবেদনের বিষয়ে রুমিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, একজন সাংসদ হয়ে আইনি প্রক্রিয়া মেনেই আবেদন করেছেন তিনি। অবৈধ কিছু করেননি। গোপন তথ্যসমৃদ্ধ তার আবেদন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার বিষয়টিকে তিনি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেন।
জাহিরুল ইসলাম নামে একজন তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, “পূর্বাচলে জমি চাইলেন সংসদকে ‘অবৈধ’ বলা বিএনপির রুমিন ফারহানা! সরকার প্লট দিলে ‘চিরকৃতজ্ঞ’ থাকবেন বলেও উল্লেখ করেছেন বিএনপি থেকে মনোনীত সংরক্ষিত নারী আসনের এই সাংসদ।”
রওনক আরেফিন নামে আরেকজন লিখেছেন, “রুমিন ফারহানা, আপনি অবৈধ সংসদে কেন গেলেন? গিয়েছেন, ভালো কথা। তাহলে যে জমির জন্য আবেদন করেছেন সেটা কি বৈধ? দেশ ও দলের কথা ভাবুন। যদি প্রত্যেক সংসদ সদস্য জমি পায় তাহলে আপনাকেও দেওয়া হবে।”
তবে রুমিন ফারহানা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এটি একটি সাধারণ রাষ্ট্রীয় আবেদন। জাতীয় সংসদের অন্যান্য এমপি করেছেন এবং আমিও করেছি।’ তবে তিনি প্লট পাবেন বলে মনে করেন না।
তিনি বলেন, ‘গোপন রাষ্ট্রীয় তথ্যসমৃদ্ধ একটি আবেদন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যাওয়াকে আমি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেই মনে করি। কারণ, অন্য সাংসদদের কারো আবেদন প্রকাশ হয়নি। রাষ্ট্রীয় গোপন নথি একমাত্র মন্ত্রণালয় প্রকাশ করতে পারে। সেই আবেদনে আমার ব্যক্তিগত ফোন নম্বরসহ অনেক তথ্যই রয়েছে।’
প্রতিনিয়ত অসংখ্য ফোন পেয়ে হ্যারাসমেন্টের শিকার হচ্ছেন দাবি করে রুমিন বলেন, ‘এতে বোঝা যায় এই রাষ্ট্র ভিন্নমত একেবারেই সহ্য করতে পারছে না। আমাকে চাপে ফেলতে নানা কৌশলের আশ্রয় নিচ্ছে।’ সম্প্রতি সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের শুল্কমুক্ত গাড়ি পাওয়ার বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।
বিএনপির এই নেত্রী বলেন, ‘আমার ফেসবুক আইডি পর্যন্ত হ্যাক করে রাখা হয়েছে। আমি জনগণকে যে প্রশ্নের উত্তর দেবো সেই সুযোগ পর্যন্ত আমার কাছে নেই।’ তার দাবি, পুলিশ এই হ্যাকিংয়ের ঘটনায় মামলা নেয়নি। তাকে সম্ভাব্য সব উপায়ে কোণঠাসা করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।
জানতে চাইলে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘রুমিন ফারহানার আবেদন আমি পেয়েছি। বিধিমোতাবেক ব্যবস্থা নেবো।’ এমপিদের প্লট ও ফ্ল্যাট দেওয়ার ক্ষেত্রে যে নিয়ম-নীতি রয়েছে তা এ ক্ষেত্রেও অনুসরণ করা হবে বলে জানান তিনি।
প্রসঙ্গত, রুমিন তার আবেদনে বলেন, ঢাকা শহরে তার কোনও জায়গা, প্লট, জমি নেই। ওকালতি ছাড়া অন্য কোনও ব্যবসা বা পেশা নেই। প্লট বরাদ্দ দেওয়া হলে তিনি ‘চিরকৃতজ্ঞ’ থাকবেন বলেও আবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

/ইউআই/এসএস/এইচআই/এমওএফ/

লাইভ

টপ