চেনা মাঠে জয়ের খোঁজে বাংলাদেশ

Send
রবিউল ইসলাম
প্রকাশিত : ১০:২৮, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:১৯, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯

1মিরপুরের ২২ গজে অনেক সময় কাটিয়েছেন সাকিব-মুশফিকরা। চেনা এই সবুজ চত্বরে একটি জয়ের খোঁজে বাংলাদেশ। গত কয়েক দিনের বয়ে বেড়ানো দুঃস্বপ্ন ঝেড়ে ফেলে ঘুরে দাঁড়ানোর মিশন সাকিবের দলের সামনে। শুক্রবার ত্রিদেশীয় সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শুরু হতে যাওয়া ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টেলিভিশন।  

বিশ্বকাপের পর থেকেই হারের বৃত্তে বন্দী বাংলাদেশ। ইংল্যান্ডে ৮ ম্যাচের তিনটি জেতা দলটি শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে হয়েছে হোয়াইটওয়াশ। এমনকি ঘরের মাটিতে আফগানিস্তানের কাছে একমাত্র টেস্ট ম্যাচও হেরেছে। এই ব্যর্থতার দগদগে ক্ষত নিয়েই শুক্রবার সন্ধ্যায় মাঠে নামবে তারা। কিন্তু সিরিজের প্রথম ম্যাচেই বৃষ্টি চোখ রাঙাচ্ছে। সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ক্রিকেটপ্রেমীদের কপালে ফেলেছে দুশ্চিন্তার ভাঁজ।

৯ মাস পর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে খেলতে নামবে বাংলাদেশ। গত ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে এখানে শেষবার টি-টোয়েন্টি খেলেছিল তারা। চেনা মাঠ হলেও দীর্ঘদিন পর মিরপুরের ২২ গজে সাকিব-মুশফিকরা অস্বস্তিতে পড়লেও অবাক হওয়ার কিছু নেই। চট্টগ্রাম টেস্টে ব্যাটে-বলে একেবারেই খুঁজে পাওয়া যায়নি বাংলাদেশকে। বোলিংয়ে পাশ মার্ক দেওয়া গেলেও ব্যাটিংটা হয়েছে যাচ্ছেতাই। আফগান লেগ স্পিনার রশিদ খানের ঘূর্ণি জাদুতেই মূলত বড় ব্যবধানে হার মানে বাংলাদেশ। চট্টগ্রাম টেস্টের স্মৃতি ভুলে বাংলাদেশ দল তাকিয়ে একটি জয়ের দিকে। ঘরের মাঠে একাধিক টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেললেও এবারই প্রথম ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

2এপর্যন্ত দুই দলের ৯ বারের সাক্ষাতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ জিতেছে ৫ বার। যদিও শেষ পাঁচ ম্যাচের তিনটিতেই জিতেছে জিম্বাবুয়ে। পুরানো স্মৃতির পাশাপাশি সাদা বলের লড়াইয়ে ফিরে স্বাভাবিকভাবেই ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী স্বাগতিকরা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচটা জিতে এই দ্বৈরথে আরও একটু এগিয়ে থাকার সুযোগ সাকিবদের সামনে।

ম্যাচের আগের সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো। ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী শোনালো দক্ষিণ আফ্রিকান কোচের কণ্ঠ, ‘সাদা বলের ক্রিকেটে বাংলাদেশ নিজেদের দিনে যে কোনও দলকেই হারাতে পারে। আমাদের দলে কিছু বিশ্বমানের পারফর্মার রয়েছে। দলের খেলোয়াড়দের অভিজ্ঞতার দিকে তাকান, এই দলে দক্ষতার কোনও ঘাটতি নেই। আমার মনে হয় আমরা যদি আমাদের সেরাটা খেলতে পারি, তাহলে আমাদের হারানো খুব কঠিন হয়ে যাবে।'

3ম্যাচটি ঘিরে কঠোর অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার ফ্লাড লাইটের আলোয় অনুশীলন করেছে সাকিবরা। সন্ধ্যা ৬টায় থেকে শুরু হওয়া অনুশীলনে দেখা গেছে ভিন্ন এক আবহ। যেখানে অভিজ্ঞদের ছাড়িয়ে গেছে তারুণ্যের উপস্থিতি। 

যদিও ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রস্তুতি, কিন্তু ভাবনায় অস্ট্রেরিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তাই তো সেরা দল গড়তে তরুণদের বাজিয়ে দেখার মহড়াই চললো মিরপুরের মাঠে। শুরুতে কাছাকাছি নেটে সৌম্য সরকারের সঙ্গে ব্যাটিং করেছেন আফিফ হোসেন। পেসার-স্পিনার আলাদা হয়ে বোলিং করেন নেটে। মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে বোলিং করেছেন ইয়াসিন আরাফাত, মেহেদী রানা, সাইফউদ্দিন। মেহেদী-তাইজুলরা অন্য নেটে হাত ‍ঘুরিয়েছেন। শুরুতে আফিফ সামলান স্পিনারদের, সৌম্য পেসারদের। পরে নেটে আসেন মুশফিকুর রহিম। 

4খানিক পরই শুরু হয় বৃষ্টি। রাত সাড়ে ৮টায় বৃষ্টি নামার আগ পর্যন্ত এভাবেই চলতে থাকে অনুশীলন। বৃষ্টি থামার পর মুশফিকের পাশের নেটে ব্যাটিং করেন সাকিব আল হাসান। পরে যোগ দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও সাব্বির রহমান। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের ব্যাটিং অর্ডারেও দেখা যেতে পারে এমন চিত্র।

এদিকে বাংলাদেশের অনুশীলনের আগেই জিম্বাবুয়ে একাডেমি মাঠে দুপুর থেকেই ঘাম ঝরিয়েছে। এমনিতেই প্রস্তুতি ম্যাচ জিতে অনেকটাই নির্ভার তারা। আইসিসির নিষেধাজ্ঞা থাকলেও এ সিরিজ দিয়ে নিজেদের মেলে ধরার প্রত্যয় জিম্বাবুয়ের। তাইতো মাঠের খেলায় স্বাগতিকদের বিন্দুমাত্র ছাড় না দেওয়ার অঙ্গীকার তাদের। সংবাদ সম্মেলনে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা বলেছেন, ‘আমরা এখানে বেশ কয়েকটি টি-টোয়েন্টি খেলেছি। আমরা কন্ডিশন সম্পর্কেও জানি। অতএব আমরা পিছিয়ে থেকে শুরু করছি না। প্রস্তুতি ম্যাচটা ভালোই গিয়েছে। সব ঠিকভাবে এগোচ্ছে। যদিও মূল ম্যাচটি হবে ভিন্ন।’

/আরআই/এফএইচএম/

লাইভ

টপ