সেকশনস

অবশেষে দেশে অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমোদন

আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:১৯

করোনা প্রাদুর্ভাবের প্রায় ১০ মাস পর দেশে করোনার অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমোদন দিলো স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। রবিবার (২৪ জানুয়ারি) সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, অনেক দিনের দাবি ছিল অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দেওয়ার। এখন এটা চালু করার অনুমতি দিয়ে দিয়েছি। আজ আপনাদের যখন বললাম তখন থেকেই এটা চালু হয়ে গেলো।

এর আগে কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটিসহ জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা একাধিকবার অ্যান্টিবডি পরীক্ষার দাবি জানিয়ে এসেছেন। বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন, দেশে ভ্যাকসিন দেওয়ার আগে অ্যান্টিবডি টেস্ট চালু করা দরকার।

গত ১৭ সেপ্টেম্বর পরামর্শক কমিটিও তাদের সভায় অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি টেস্টের ওপর গুরুত্বারোপ করে। কমিটি তাদের সভা শেষে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তখন বলেছিল, বর্তমানে পিসিআর টেস্টের মাধ্যমে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হচ্ছে, যার পরিমাণ তুলনামূলক কম। কোভিড-১৯ পরীক্ষা বৃদ্ধি করতে পারলে কোভিড-১৯ সংক্রমণ আরও বেশি শনাক্ত করার সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য জাতীয় পরামর্শক কমিটি অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি টেস্টের জন্য একাধিকবার পরামর্শ দেয়।

জাতীয় পরামর্শক কমিটি মনে করে, তিন পদ্ধতিতে (পিসিআর, অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি টেস্ট) কোভিড-১৯ পরীক্ষা কার্যক্রম পাশাপাশি থাকলে তা কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবিলায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

গত ১৭ সেপ্টেম্বর সরকার দেশে অ্যান্টিজেন টেস্টের অনুমতি দেয়।

এর আগে গত ৩ জুন কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি করোনা শনাক্তে র‌্যাপিড টেস্টের জন্য সুপারিশ করে। তারা আরটি পিসিআর (রিভার্স ট্রান্সক্রিপটেজ পলিমারেজ রিঅ্যাকশন) পরীক্ষার সঙ্গে সঙ্গে অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি পরীক্ষা করার পক্ষেও মত দেন।

কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এখন সেরোসার্ভিল্যান্স নিয়ে কাজ করার সময় এসে গেছে, যার জন্য অ্যান্টিবডি টেস্ট চালু করাও প্রয়োজন। এটা করা গেলে বিশ্ব মহামারি নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি সংক্রমণ পরিস্থিতির একটি পরিষ্কার চিত্র পাওয়া যাবে।’

তিনি বলেন, ‘সংক্রমণ বুঝতে হলে অ্যান্টিবডি টেস্ট শুরু করা জরুরি। সেরোসার্ভিল্যান্স ছাড়াও অ্যান্টিবডি টেস্টের গুরুত্ব রয়েছে প্লাজমা থেরাপির জন্য।

কোভিড-১৯ ল্যাবরেটরি পরীক্ষা সম্প্রসারণ নীতিমালা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ কমিটির প্রধান অধ্যাপক ডা. লিয়াকত আলী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মহামারির সময়ে ইনফেকশন কতজনের হয়েছে, সেটা অ্যান্টিবডি টেস্ট ছাড়া বলা যায় না। তাই এ সময়ে অ্যান্টিবডি টেস্ট খুব জরুরি, নয়তো পরিসংখ্যান সঠিক হবে না। আসলে দেশে কতজন সংক্রমিত হয়েছে, আবার কতজনের শরীরে অ্যান্টিবডি গ্রো করেছে, কিন্তু পোস্ট কোভিড সিন্ড্রোমে মারা গেছেন, সেটা জানার জন্য হলেও অ্যান্টিবডি টেস্ট দরকার।

/জেএ/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

সংকট সামলাতে এলএনজি সরবরাহ বাড়ছে

সংকট সামলাতে এলএনজি সরবরাহ বাড়ছে

জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড

জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড

শাহবাগে আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ

শাহবাগে আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ

অসচ্ছল শিল্পীদের মাসিক ভাতা বাড়নো হবে: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

অসচ্ছল শিল্পীদের মাসিক ভাতা বাড়নো হবে: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট ফর ডিজিটাল ব্যাংকিং পুরস্কার পাচ্ছেন ড. আতিউর

লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট ফর ডিজিটাল ব্যাংকিং পুরস্কার পাচ্ছেন ড. আতিউর

‘মুজিববর্ষে সোনার বাংলা সবুজ করার লক্ষ্যে বৃক্ষরোপণ অভিযান’

‘মুজিববর্ষে সোনার বাংলা সবুজ করার লক্ষ্যে বৃক্ষরোপণ অভিযান’

রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠক শনিবার

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠক শনিবার

নিবন্ধন সাড়ে ৪০ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখ মানুষ

নিবন্ধন সাড়ে ৪০ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখ মানুষ

সর্বশেষ

শিশু গৃহকর্মীর গায়ে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা!

শিশু গৃহকর্মীর গায়ে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা!

হারানো টাকা উদ্ধারে ‘চালপড়া’ খাইয়ে সন্দেহ, নারী শিক্ষকের জিডি

হারানো টাকা উদ্ধারে ‘চালপড়া’ খাইয়ে সন্দেহ, নারী শিক্ষকের জিডি

হ্যান্ডকাপ খুলে পালিয়েছে মাদক ব্যবসায়ী, চলছে চিরুনি অভিযান

হ্যান্ডকাপ খুলে পালিয়েছে মাদক ব্যবসায়ী, চলছে চিরুনি অভিযান

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

সংকট সামলাতে এলএনজি সরবরাহ বাড়ছে

সংকট সামলাতে এলএনজি সরবরাহ বাড়ছে

নির্বাচন থেকে মুখ ফিরিয়েও এবার তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বী তারা

ডিরেক্টরস গিল্ড নির্বাচন ২০২১নির্বাচন থেকে মুখ ফিরিয়েও এবার তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বী তারা

৬ বছর পর রাণীনগর আ. লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

সভাপতি হেলাল সা. সম্পাদক দুলু৬ বছর পর রাণীনগর আ. লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

ভেঙে পড়া গাছচাপায় নিহত ২

ভেঙে পড়া গাছচাপায় নিহত ২

প্রক্টর কার্যালয়ে শিক্ষার্থীকে পেটালো ছাত্রলীগকর্মী

প্রক্টর কার্যালয়ে শিক্ষার্থীকে পেটালো ছাত্রলীগকর্মী

ভবনের প্ল্যান পাস করিয়ে দেওয়ার নামে প্রতারণা

ভবনের প্ল্যান পাস করিয়ে দেওয়ার নামে প্রতারণা

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১১ কোটি ৩২ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১১ কোটি ৩২ লাখ ছাড়িয়েছে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড

জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড

অসচ্ছল শিল্পীদের মাসিক ভাতা বাড়নো হবে: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

অসচ্ছল শিল্পীদের মাসিক ভাতা বাড়নো হবে: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠক শনিবার

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠক শনিবার

নিবন্ধন সাড়ে ৪০ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখ মানুষ

নিবন্ধন সাড়ে ৪০ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখ মানুষ

৮ কারণে চিনি শিল্পে লোকসান

৮ কারণে চিনি শিল্পে লোকসান

কৃষি সম্পর্কিত সরকারি কর্মসূচিতে জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার সুপারিশ

কৃষি সম্পর্কিত সরকারি কর্মসূচিতে জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার সুপারিশ

‘মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ আগামী মাসে শেষ হবে’

‘মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ আগামী মাসে শেষ হবে’


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.