X
বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ৯ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

স্থানীয় নির্বাচনে অনিয়মের একটা মডেল তৈরি হয়েছে: মাহবুব তালুকদার

আপডেট : ০২ মার্চ ২০২১, ১৯:৫৫

নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, ‘স্থানীয় নির্বাচনে হানাহানি, মারামারি, কেন্দ্র দখল, ইভিএম ভাঙচুর ইত্যাদি মিলে এখন অনিয়মের একটা মডেল তৈরি হয়েছে।’ সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন না হওয়ার নৈরাশ্য থেকে নৈরাজ্য সৃষ্টি হওয়ায় আশঙ্কা রয়েছে বলেও তিনি মনে করেন। মঙ্গলবার (২ মার্চ) নির্বাচন কমিশন ভবনে জাতীয় ভোটার দিবস উপলক্ষে আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মাহবুব তালুকদার বলেন, ‘নির্বাচন হচ্ছে গণতন্ত্রে উত্তরণের একমাত্র পথ। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, অংশীদারমূলক ও গ্রহণযোগ্য না হলে ক্ষমতার হস্তান্তর স্বাভাবিক হতে পারে না। নির্বাচন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য না হলে দেশের স্থিতিশীলতা, সামাজিক অস্থিরতা ও ব্যক্তির নৈরাশ্য বৃদ্ধি পায়। এর ফলে নৈরাশ্য থেকে নৈরাজ্য সৃষ্টি হওয়ায় আশঙ্কা রয়েছে। নৈরাজ্যপ্রবণতা কোনও গণতান্ত্রিক দেশের জন্য মোটেও কাম্য নয়। দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক আশা-আকাঙ্ক্ষা রূপদানের জন্য নির্বাচন কমিশনের ওপর সাংবিধানিক দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে। এই দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে না পারলে আমরা গণতন্ত্র অস্তাচলে পাঠানোর দায়ে অভিযুক্ত হবো।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে আমরা দেশব্যাপী পৌরসভা নির্বাচনের প্রায় শেষ পর্যায়ে আছি। আগামী এপ্রিল মাস থেকে ধাপে ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। স্থানীয় নির্বাচনগুলোর গতি-প্রকৃতি দেখে আমার ধারণা হচ্ছে, বহুদলীয় গণতন্ত্রের জন্য নির্বাচনের যে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড ও ভারসাম্য রক্ষিত হওয়ার প্রয়োজন ছিল, তা হচ্ছে না। এককেন্দ্রীয় নির্বাচনে স্থানীয় নির্বাচনের তেমন গুরুত্ব নেই, নির্বাচনে মনোনয়ন লাভই এখন গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। স্থানীয় নির্বাচনেও হানাহানি, মারামারি, কেন্দ্র দখল, ইভিএম ভাঙচুর ইত্যাদি মিলে এখন একটা অনিয়মের মডেল তৈরি হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত এসব ঘটনাকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলা হলেও অসংখ্য বিচ্ছিন্ন ঘটনা বা দুর্ঘটনা মিলে এক ধরনের অবিছিন্নতা তৈরি হয়, যা নির্বাচনের অনুষঙ্গ হিসেবে রূপ লাভ করে।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে সবচেয়ে চমক সৃষ্টিকারী পৌরসভা নির্বাচন হয়েছে চট্টগ্রামের রাউজানে। এখানে মেয়র ও ১২ জন কাউন্সিলর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ইতোপূর্বে উপজেলা নির্বাচনেও ঠিক এভাবে রাউজানে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন। সারা দেশে যদি এই মডেলে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জনপ্রতিনিধি হতে পারেন, তাহলে নির্বাচনে অনেক আর্থিক সাশ্রয় হয় এবং সহিংসতা ও হানাহানি থেকে রেহাই পাওয়া যায়। এতে নির্বাচন কমিশনের দায়-দায়িত্ব তেমন থাকবে না। এ অবস্থায় নির্বাচন কমিশনের আর প্রয়োজন হবে কিনা, সেটা এক বড় প্রশ্ন।’

ইভিএম বিষয়ে নিজের অবস্থান পরিবর্তনের কারণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘একসময়ে আমি ইভিএম ব্যবহারের বিরোধী ছিলাম। বিশেষভাবে কোনও প্রস্তুতি ছাড়া ও সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক দলগুলোর সম্মতি ছাড়া জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে আপত্তি করেছি। বর্তমানে প্রধানত দুটি কারণে আমি ইভিএমে ভোট গ্রহণে আগ্রহী। প্রথমত, ইভিএমে ভোট হলে নির্বাচনের আগের রাতে ব্যালট পেপারে ভোটগ্রহণ সম্ভব হয় না। দ্বিতীয়ত, বিভিন্ন কেন্দ্রে শতভাগ ভোট কাস্ট হওয়ার বিড়ম্বনা থেকে আমরা রক্ষা পেতে পারি। তবে ইভিএম ব্যবহার করে আমরা সর্বত্র ভোট জালিয়াতি, কারচুপি, কেন্দ্র দখল ইত্যাদি অভিযোগ থেকে রেহাই পেয়েছি এমন দাবি আমি করি না। কিন্তু ইভিএম ব্যবহারের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো নিরসন করার উদ্যোগ গ্রহণ অপরিহার্য।’

নির্বাচন ব্যবস্থা সংস্কারের ওপর গুরুত্ব দিয়ে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন প্রক্রিয়ার সংস্কার না হলে সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্বাচন প্রক্রিয়ায় সংস্কার না হলে নির্বাচনি ব্যবস্থাপনা প্রায় অকার্যকর হয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে সংশ্লিষ্ট সব মহলের ইতিবাচক উদ্যোগ গ্রহণ প্রয়োজন। সংস্কার না হলে এখন যে ধরনের নির্বাচন হচ্ছে, তার মান আরও নিম্নগামী হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’

 

 

/ইএইচএস/এফএস/এমওএফ/

সম্পর্কিত

চেকপোস্টে স্থির-ভিডিও চিত্র ধারণ করতে পারবে পুলিশ?

চেকপোস্টে স্থির-ভিডিও চিত্র ধারণ করতে পারবে পুলিশ?

সরকারি জায়গা দখলের অভিযোগ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে

সরকারি জায়গা দখলের অভিযোগ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে

ফেনসিডিল বিক্রি: ২ পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার, এএসপি’কে বদলি

ফেনসিডিল বিক্রি: ২ পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার, এএসপি’কে বদলি

নুরের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মামলা

নুরের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মামলা

স্ত্রীকে হত্যার পর বাসার আশেপাশেই ঘুরছিল টিটু

স্ত্রীকে হত্যার পর বাসার আশেপাশেই ঘুরছিল টিটু

উদ্ধার করা ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

উদ্ধার করা ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

হেফাজতের আরও দুই নেতা গ্রেফতার

হেফাজতের আরও দুই নেতা গ্রেফতার

হেফাজত নেতা মুফতি সাখাওয়াতসহ দুজন ২১ দিনের রিমান্ডে

হেফাজত নেতা মুফতি সাখাওয়াতসহ দুজন ২১ দিনের রিমান্ডে

৫৮ লাখ টাকার কোকেনসহ চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

৫৮ লাখ টাকার কোকেনসহ চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

মসজিদ নির্মাণ নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

মসজিদ নির্মাণ নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

ময়মনসিংহের মামলায় রফিকুল মাদানীর একদিনের রিমান্ড

ময়মনসিংহের মামলায় রফিকুল মাদানীর একদিনের রিমান্ড

হেফাজত নেতা মাওলানা কোরবান আলী রিমান্ডে

হেফাজত নেতা মাওলানা কোরবান আলী রিমান্ডে

সর্বশেষ

চীনা রাষ্ট্রদূতকে টার্গেট করে পাকিস্তানের অভিজাত হোটেলে বোমা হামলা

চীনা রাষ্ট্রদূতকে টার্গেট করে পাকিস্তানের অভিজাত হোটেলে বোমা হামলা

লকডাউনে বিকল্প চ্যানেলে চলছে মোবাইল ফোন বিক্রি

লকডাউনে বিকল্প চ্যানেলে চলছে মোবাইল ফোন বিক্রি

গোসল ফরজ অবস্থায় সেহরি খাওয়া যাবে কি?

গোসল ফরজ অবস্থায় সেহরি খাওয়া যাবে কি?

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক’ উৎপাদনের প্রস্তাব রাশিয়ার

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক’ উৎপাদনের প্রস্তাব রাশিয়ার

বাংলাদেশসহ ৩ দেশের যাত্রীদের ওমান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি

বাংলাদেশসহ ৩ দেশের যাত্রীদের ওমান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি

পুনরুদ্ধারের আহ্বানে পালিত হচ্ছে ধরিত্রী দিবস

পুনরুদ্ধারের আহ্বানে পালিত হচ্ছে ধরিত্রী দিবস

ঝড়ে বিধ্বস্ত দেশ, খাদ্য সংকট চরমে

ঝড়ে বিধ্বস্ত দেশ, খাদ্য সংকট চরমে

যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, স্বামী গ্রেফতার

যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, স্বামী গ্রেফতার

বেনজেমার নৈপুণ্যে রিয়ালের দুর্দান্ত জয়

বেনজেমার নৈপুণ্যে রিয়ালের দুর্দান্ত জয়

রাজধানীতে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

রাজধানীতে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

টাইমস হায়ার এডুকেশন র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশে চতুর্থ ইউল্যাব

টাইমস হায়ার এডুকেশন র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশে চতুর্থ ইউল্যাব

যশোরে মার্কেটে ভয়াবহ আগুন, প্রায় ১ কোটির টাকার ক্ষতি

যশোরে মার্কেটে ভয়াবহ আগুন, প্রায় ১ কোটির টাকার ক্ষতি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কৃষকদের ধান কাটতে দলের নেতাকর্মীদের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

কৃষকদের ধান কাটতে দলের নেতাকর্মীদের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

বাংলাদেশের মহিসোপানের দাবিতে ভারতের বিরোধিতা

বাংলাদেশের মহিসোপানের দাবিতে ভারতের বিরোধিতা

ভারতীয় ভিসা কার্যক্রম স্থগিত

ভারতীয় ভিসা কার্যক্রম স্থগিত

আল্লামা শফী হত্যার দৃষ্টান্তমূলক বিচার হোক: তথ্যমন্ত্রী

আল্লামা শফী হত্যার দৃষ্টান্তমূলক বিচার হোক: তথ্যমন্ত্রী

মধ্যরাত থেকে বন্ধ হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট

মধ্যরাত থেকে বন্ধ হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট

নির্মাণকাজ লকডাউনের আওতামুক্ত

নির্মাণকাজ লকডাউনের আওতামুক্ত

মুভমেন্ট পাসের আইনগত ভিত্তি নেই, এটা সহযোগিতা: আইজিপি

মুভমেন্ট পাসের আইনগত ভিত্তি নেই, এটা সহযোগিতা: আইজিপি

শ্রমিকদের নিরাপত্তার দায়িত্ব কর্তৃপক্ষের: শ্রম প্রতিমন্ত্রী

শ্রমিকদের নিরাপত্তার দায়িত্ব কর্তৃপক্ষের: শ্রম প্রতিমন্ত্রী

স্বাস্থ্যের নিয়োগে দুর্নীতি: দুদককে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান টিআইবি’র

স্বাস্থ্যের নিয়োগে দুর্নীতি: দুদককে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান টিআইবি’র

মসজিদে ২০ জনের বেশি মুসল্লি নয়

মসজিদে ২০ জনের বেশি মুসল্লি নয়

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune