X
রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে নিভে গেলো চলচ্চিত্রের দুই নক্ষত্র

আপডেট : ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১৪:৩৫

ঠিক ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে নিভে গেলো চলচ্চিত্র আকাশের দুই জ্বলজ্বলে নক্ষত্র। ১৭ এপ্রিল প্রথম প্রহরে (রাত ১২টা ২০ মিনিট) এলো বাংলা চলচ্চিত্রের সবচেয়ে প্রভাবশালী অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীর মৃত্যুর খবর। তিনি একাধারে মুক্তিযোদ্ধা ও চলচ্চিত্র নির্মাতাও বটে। নারায়ণগঞ্জের জনপ্রতিনিধি হিসেবেও যিনি নেতৃত্ব দিয়েছেন জাতীয় সংসদে।

চলচ্চিত্রের এই মিষ্টি মেয়েকে বিদায় জানানোর বিউগলের সুর না থামতেই চলচ্চিত্রের আকাশে নেমে এলো আরেক দুঃসংবাদ। ঠিক ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে প্রাণ হারালেন বাংলা চলচ্চিত্রের সোনালি দিনের সুপারস্টার ওয়াসিম। শনিবার দিবাগত রাত (১৮ এপ্রিল) সাড়ে ১২টার দিকে তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান।

করোনার কাছে পরাজিত হওয়া কবরীর সঙ্গে ওয়াসিমের পার্থক্য এটুকুই—তিনি ছিলেন নেগেটিভ। বেশ কিছু দিন বার্ধক্যজনিত নানা জটিল রোগে ভুগছিলেন এই বডিবিল্ডার।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই ওয়াসিম ভাই বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন রাজধানীর শাহাবউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। আমরা তার রুহের মাগফিরাত কামনা করছি।’

ঢাকাই চলচ্চিত্রের ফিটেস্ট নায়ক হিসেবে দারুণ খ্যাতি ছিল ওয়াসিমের।

প্রখ্যাত চিত্র পরিচালক এস এম শফীর হাত ধরে চলচ্চিত্র জগতে অভিষেক ঘটে ওয়াসিমের। ১৯৭২ সালে শফী পরিচালিত ‘ছন্দ হারিয়ে গেলো’ চলচ্চিত্রের সহকারী পরিচালক হন তিনি। এতে ছোট একটি চরিত্রে অভিনয়ও করেন। ১৯৭৪ সালে আরেক প্রখ্যাত চিত্রনির্মাতা মহসিন পরিচালিত ‘রাতের পর দিন’ চলচ্চিত্রে প্রথম নায়ক হিসেবে আত্মপ্রকাশ ঘটে তার। চলচ্চিত্রটির অসামান্য সাফল্যে রাতারাতি সুপারস্টার বনে যান তিনি। এরপর ১৯৭৬ সালে মুক্তি পাওয়া এস এম শফী পরিচালিত ‘দি রেইন’ সিনেমা তাকে ব্যাপক পরিচিতি এনে দেয়।

১৯৭৩ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত চলচ্চিত্রে শীর্ষ নায়কদের একজন ছিলেন তিনি। ফোক ফ্যান্টাসি আর অ্যাকশন ছবির অপ্রতিদ্বন্দ্বী অভিনেতা ছিলেন ওয়াসিম। ১৫২টির মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।

কবরীর পর কাছাকাছি সময়ে ওয়াসিমের এমন প্রস্থানে ঢালিউডের আকাশে জমেছে কালো মেঘ। কবরীর শোক কাটিয়ে না উঠতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বাজছে ওয়াসিমকে হারানোর শাব্দিক মাতম।

‘ঢাকা অ্যাটাক’ ও ‘মিশন এক্সট্রিম’-খ্যাত নাট্যকার-নির্মাতা পুলিশ কর্মকর্তা সানী সানোয়ার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘ওয়াসিম ভাই ১৯৬৪ সালে বডি বিল্ডিংয়ে পূর্ব পাকিস্তান থেকে খেতাব পেয়েছিলেন! যেটা তখন ভাবাই যেতো না। সুঠাম দেহের অধিকারী এই নায়কের প্রতি শৈশবে জন্মেছিল অগাধ ভালোলাগা। তাই শৈশবে (১৯৮৬) বন্ধুদের সাথে জীবনে প্রথম তার সিনেমা দেখতে যাই হলে। সেই সিনেমা দেখার জন্য টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে টিকিট কেটেছিলাম। সেই থেকেই স্কুল পালিয়ে সিনেমা দেখা শুরু আমার। এখনও সেই সিনেমার সঙ্গে আছি। বলা যেতে পারে, ওয়াসিম ভাইয়ের রেশ ধরেই আজ আমার সিনেমা বানানোর হাতেখড়ি। আমাদের চলচ্চিত্রের এক মহীরুহ ছিলেন কবরী ম্যাডাম। তার প্রস্থানের শোক না কাটতে শৈশবের সুপারস্টার ওয়াসিম ভাইও চলে গেলেন! খুবই মর্মাহত হলাম। এটুকুই বলতে চাই, নায়ক ওয়াসিম—তুমি আজীবন আমার কাছে মহানায়ক হয়েই রবে।’

এদিকে ঢাকাই ছবির শেষ যুবরাজ শাকিব খান বলেন, ‘আবারও চলচ্চিত্রাঙ্গনে শোকের মাতম। একের পর এক নক্ষত্রের পতনে শূন্য হয়ে যাচ্ছে এ মাধ্যমটি। কবরী আপা চলে যাওয়ার বিষাদের মধ্যে সোনালি দিনের জনপ্রিয় নায়ক ওয়াসিম আংকেলও মারা গেলেন! তিনি ছিলেন সুঠাম, সুদর্শন ও পরিপূর্ণ এক নায়ক। জেনেছিলাম আংকেল দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। অবশেষে চলে গেলেন। তার চলে যাওয়ায় আরও এক অভিভাবক হারালো বাংলা চলচ্চিত্র। ওয়াসিম আংকেলের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি। তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই।’

ওয়াসিম অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হলো—দ্য রেইন, ডাকু মনসুর, জিঘাংসা, কে আসল কে নকল, বাহাদুর, দোস্ত দুশমন, মানসী, দুই রাজকুমার, সওদাগর, নরম গরম, ইমান, রাতের পর দিন, আসামি হাজির, মিস লোলিতা, রাজ দুলারী, চন্দন দ্বীপের রাজকন্যা, লুটেরা, লাল মেম সাহেব, বেদ্বীন, জীবন সাথী, রাজনন্দিনী, রাজমহল, বিনি সুতার মালা, বানজারান।

বয়সে কবরীর সমসাময়িক হলেও ওয়াসিম বেশি অভিনয় করেছেন অলিভিয়া, অঞ্জু ঘোষ ও শাবানার সঙ্গে। কবরী-ওয়াসিম; দুজনেরই জন্ম ১৯৫০ সালে। ওয়াসিমের জন্ম ২৩ মার্চ আর কবরীর ১৯ জুলাই। তবে কর্মজীবন আগে শুরু করেন কবরী, ১৯৬৪ সালে সুভাষ দত্তর ‘সুতরাং’ দিয়ে। অন্যদিকে ওয়াসিমের শুরুটা হয় ১৯৭২ সালে শফী পরিচালিত ‘ছন্দ হারিয়ে গেলো’ চলচ্চিত্রের সহকারী পরিচালক হিসেবে।

কবরী শেষ পর্যন্ত চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত থাকলেও ওয়াসিম নানা রোগ-ভোগে ২০১০ সাল থেকে চলচ্চিত্র থেকে দূরে সরে যান।

ওয়াসিম বিয়ে করেছিলেন চিত্রনায়িকা রোজীর ছোট বোনকে। তাদের দুটি সন্তান হয়– পুত্র দেওয়ান ফারদিন এবং কন্যা বুশরা আহমেদ। ২০০০ সালে তার স্ত্রীর অকাল মৃত্যু ঘটে। ২০০৬ সালে ওয়াসিমের কন্যা বুশরা আহমেদ ১৪ বছর বয়সে মানারাত ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের পাঁচতলা থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেন। পরীক্ষা চলাকালীন নকলের অভিযোগ তার পরিবারকে জানাবার প্রাক্কালে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে বুশরা লাফ দেন। অন্যদিকে পুত্র ফারদিন লন্ডনের কারডিফ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলএম পরীক্ষায় কৃতিত্বের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়ে ব্যারিস্টার হিসেবে আইন পেশায় নিয়োজিত।

অন্যদিকে কবরীর পাঁচ ছেলে। বড় ছেলে অঞ্জন চৌধুরী অনেক বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন। দ্বিতীয় ছেলে রিজওয়ান চৌধুরী বর্তমানে দুবাইয়ে চাকরি করছেন। তৃতীয় ছেলে শাকের ওসমান চিশতী। তিনি সিনেমা নিয়ে পড়াশোনা করেছেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। সেখানেই বসবাস করছেন এখন। চতুর্থ ছেলে কানাডা প্রবাসী। সবচেয়ে ছোট ছেলে শান ওসমান চিশতী শারীরিক প্রতিবন্ধী।

এদিকে কিংবদন্তি কবরীর পড়াশোনার গণ্ডি স্কুল না পেরুলেও ওয়াসিম ইতিহাস বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। কলেজের ছাত্রাবস্থায় তিনি বডি বিল্ডার হিসেবে নাম করেছিলেন। ১৯৬৪ সালে তিনি বডি বিল্ডিংয়ের জন্য মিস্টার ইস্ট পাকিস্তান খেতাব অর্জন করেছিলেন।

/এমএম/এমওএফ/

সম্পর্কিত

কবরীবিহীন প্রথম জন্মদিন

কবরীবিহীন প্রথম জন্মদিন

করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে কবরীর ছেলে

করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে কবরীর ছেলে

বনানীতে সমাহিত হলেন নায়ক ওয়াসিম

বনানীতে সমাহিত হলেন নায়ক ওয়াসিম

একসঙ্গে ৭৫টি ছবি: রোজিনার স্মৃতিতে ওয়াসিম

একসঙ্গে ৭৫টি ছবি: রোজিনার স্মৃতিতে ওয়াসিম

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২৬

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা বই ‘শেখ মুজিব আমার পিতা’ অবলম্বনে তৈরি হয়েছে দেশের প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র- ‘মুজিব আমার পিতা’। দ্বিমাত্রিক এ ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে লেখিকার জন্মদিনেই। 

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিনে এটি রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সে দেখানো হবে। টানা তিন দিন চলবে বিশেষ প্রদর্শনী। যেখানে পথশিশুসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির দর্শকরা ছবিটি দেখবেন। 

মুক্তির বিষয়টি জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। আজ (২৬ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বসুন্ধরা স্টার সিনেপ্লেক্সে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনের আগে হয়েছে চলচ্চিত্রটির প্রথম বিশেষ প্রদর্শনী।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ছবিটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী উদ্বোধন করবেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সেদিনসহ ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর স্টার সিনেপ্লেক্সে বিশেষ প্রদর্শনী চলবে। এরপর সারাদেশের প্রেক্ষাগৃহে এটি মুক্তি পাবে ১ অক্টোবর। আমি অনুরোধ করবো, কেউ যেন চলচ্চিত্রটির ভিডিও ফুটেজ ধারণ এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার না করেন। আইসিটি বিভাগের অর্থায়নে এই ছবিটি দেশের সম্পদ। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের যে, বাংলাদেশের প্রথম দ্বিমাত্রিক পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবি নির্মাণ হলো।’

সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক তিনি জানান, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মাঝে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তুলে ধরতে সরকার নানা ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে এই চলচ্চিত্র নির্মাণ। বঙ্গবন্ধুর জীবন সংগ্রাম থেকে যেন নতুন প্রজন্মের ছেলে-মেয়েরা অনুপ্রেরণা খুঁজে পায়, সেই চেষ্টাটি করা হয়েছে। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এই ছবির মাধ্যমে আমরা চেষ্টা করেছি বঙ্গবন্ধুর শৈশব, কৈশোর ও রাজনৈতিক যে দর্শন তা তুলে ধরতে। আর এটি তার মেয়ে ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চেয়ে কেউ ভালো বলতে পারবেন না। এ কারণেই তার বই থেকে ছবিটি তৈরি।’ ​

‘মুজিব আমার পিতা’ চলচ্চিত্রটিকে বলা হচ্ছে দেশের প্রথম ফিচার-লেংথ অ্যানিমেশন ফিল্ম। এটি পরিচালনা করছেন সোহেল মোহাম্মদ রানা।

পরিচালক জানান, তিনিসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের একদল প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থী এতে কাজ করেছেন। এর দৈর্ঘ্য ৪৯ মিনিট।

/এম/এমএম/

সম্পর্কিত

৬ টিভি চ্যানেলে ‘হাসিনা: আ ডটারস টেল’

৬ টিভি চ্যানেলে ‘হাসিনা: আ ডটারস টেল’

চাঁদে জমি কিনলেন নির্মাতা হিমু আকরাম, পেলেন নাগরিকত্বও!

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২৮

বিশ্বজুড়েই চাঁদে জমি কেনার একটা হিড়িক পড়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় মার্কিন নাগরিক ডেনিস হোপের ‘লুনার অ্যাম্বাসি’র মাধ্যমে সম্প্রতি এক একর জমি কিনেছেন জনপ্রিয় নির্মাতা হিমু আকরাম। নিয়েছেন চাঁদের নাগরিকত্বও।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর নিয়ম মাফিক ফি ও কাগজ জমা দিয়ে আবেদন করার পর ২১ সেপ্টেম্বর সেই জমির দলিল ও নাগরিকত্ব পাসপোর্ট হাতে পেয়েছেন হিমু আকরাম। চাঁদের ম্যাপেও উল্লেখ রয়েছে কোথায় তার জমি! বিষয়টি নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত এই নির্মাতা।

চাঁদে জমি কেনার বিষয়ে হিমু আকরাম বলেন, ‘এটা এক ধরনের ইলুয়েশন। কল্পনার রাজ্যে নিজের জমি! ভিখারিরও কোনও একদিন ডাকাত হতে ইচ্ছে করে! তেমন কিছুই।’ 

আরও বলেন, ‘ফুল-মুন দেখার জন্য বছরের পর বছর বহু জায়গায় গিয়েছি। পাহাড় থেকে সমুদ্রে, খোলা মাঠ থেকে গহিন বনে! সত্যি বলতে জোছনার প্রেমে পড়েই আমি চাঁদে জমি কিনেছি। বারান্দায় দাঁড়িয়ে এখন চাঁদের দিকে তাকালে মনে হয় সেখানে আমার এক টুকরো জমি আছে। হয়তো কয়েক হাজার বছর পর আমার জমিতে অন্য কারও ঘর হবে। হয়তো সেখানেও বৃষ্টি হবে। তারাও ভালোবাসবে!’

চাঁদে জমি কেনার জন্য মার্কিন নাগরিক ডেনিস হোপের ‘লুনার অ্যাম্বাসি’ই হলো সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম। যার বাংলা অর্থ চন্দ্র দূতাবাস। হিমু আকরাম লুনার অ্যাম্বাসি থেকেই জমিটি কিনেছেন। চাঁদের ‘সি অব মস্কোইন্স’-এ নিজের প্লটটি এরমধ্যে বুঝে পেয়েছেন হিমু।

১৯৮০ সাল থেকে শুরু হয়ে গত ৪১ বছর ধরে ৬০ লাখের বেশি ক্রেতার কাছে চাঁদের ৬১ দশমিক ১ কোটি একর জমি বিক্রি করেছে লুনার অ্যাম্বাসি। তাদের দাবি, ৬৭৫ জন নামি তারকা জমি কিনেছেন। যাদের মধ্যে আছেন আমেরিকার তিন সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ, জিমি কার্টার ও রোনাল্ড রিগান। বলিউড তারকাদের মধ্যে শাহরুখ খান এবং অকাল প্রয়াত সুশান্ত সিং রাজপুত। আর বাংলাদেশের তারকাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত পাওয়া গেছে হিমু আকরামকে।

হিমু জানান, জমি কেনার পর তাকে একটি বিক্রয় চুক্তি, কেনা জমির একটি স্যাটেলাইট ছবি এবং জমিটির ভৌগোলিক অবস্থান ও মৌজা-পর্চার মতো আইনি নথিও পাঠানো হয়েছে। সঙ্গে পেয়েছেন ২৫ বছরের নাগরিকত্ব। তবে ২৫ বছর পর নাগরিকত্ব রিনিউ করার সুযোগ রয়েছে।

এক একর জমি কিনতে হিমু আকরামের খরচ পড়েছে ২৭ ডলার ৪৯ পয়সা আর নাগরিকত্ব পাসপোর্ট পেতে লেগেছে ২২ ডলার ৯৯ পয়সা। হিমু বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে অনেকেই দেখি চাঁদে জমি কেনার দাবি করছেন। কিন্তু একটি বিষয় স্পষ্ট হওয়া দরকার, একমাত্র মার্কিন নাগরিকদের জন্যই এই জমি ও নাগরিকত্ব পাওয়ার বিষয়টি প্রযোজ্য। আমি মার্কিন পাসপোর্ট হোল্ডার হিসেবেই সুযোগটি পেয়েছি। এবং নিজেকে এখন থেকে চাঁদের নাগরিক বলেই ফিল করছি!’

হিমু আকরাম প্রথমে মার্কিন এবং এখন চাঁদের নাগরিকত্ব পেলেও নাটক নির্মাণের টানে বেশিরভাগ সময় ঢাকাতেই থাকেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি আলোচনায় রয়েছেন আরটিভির দীর্ঘ ধারাবাহিক ‘শান্তি মলম ১০ টাকা’র দৌলতে।

/এমএম/এমওএফ/

সম্পর্কিত

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

প্রথমটির নামে দ্বিতীয় অ্যালবামের গান! (ভিডিও)

প্রথমটির নামে দ্বিতীয় অ্যালবামের গান! (ভিডিও)

মাদককাণ্ড: পুলিশের তোপের মুখে অর্জুন পরিবার

মাদককাণ্ড: পুলিশের তোপের মুখে অর্জুন পরিবার

‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া ‘বাহার’-এ!

‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া ‘বাহার’-এ!

প্রথমটির নামে দ্বিতীয় অ্যালবামের গান! (ভিডিও)

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৭

২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এসেছিল অভিনেতা-গায়ক জন কবিরের ব্যান্ড ইনডালোর প্রথম অ্যালবাম। নামটা ছিল- ‘কখন কীভাবে এখানে কে জানে’।

১৩টি গানের এই অ্যালবামের গানগুলো হলো-দেয়ালঘড়ি, তোমার সকাল, প্লাস্টিক, পৌনঃপুনিক, ক্যানভাস, অলীক, আন্তঃনগর, কে শুনবে, অবশেষে, আইএসডি, অস্ফুট, পাথরের আড়ালে ফুল ও সেইক।

মজার বিষয় হলো- অ্যালবামের নাম ‘কখন কীভাবে এখানে কে জানে’ হলেও স্বনামের কোনও গান সেখানে ছিল না। এবার সেই গানটিই তৈরি হলো। তবে অন্য অ্যালবামের জন্য। ইনডালো তৈরি করছে নতুন অ্যালবাম ‘উত্তর খুঁজি দক্ষিণে’। সেখানেই গানটি স্থান পাচ্ছে। তবে অ্যালবাম প্রকাশের আগেই সম্প্রতি গানটি অবমুক্ত হয়েছে অন্তর্জালে। 

ব্যান্ডটির অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে এটি গতকাল (২৪ সেপ্টেম্বর) মুক্তি পেয়েছে।

জন কবির বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, নতুন গানটির কথা লিখেছেন জুবায়ের হাসান। ভিডিও পরিচালনা করেছেন রেহান রহমান। 

‘ইনডালো’র সদস্যরা হলেন জন কবির (ভোকাল ও গিটার), ডিও হক (ড্রামস), জুবায়ের হাসান (ভোকাল ও গিটার) ও বার্ট নন্দিত আড়েং (ভোকাল ও বেজ)।

গানচিত্রটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে 

/এম/এমএম/

সম্পর্কিত

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

চাঁদে জমি কিনলেন নির্মাতা হিমু আকরাম, পেলেন নাগরিকত্বও!

চাঁদে জমি কিনলেন নির্মাতা হিমু আকরাম, পেলেন নাগরিকত্বও!

মাদককাণ্ড: পুলিশের তোপের মুখে অর্জুন পরিবার

মাদককাণ্ড: পুলিশের তোপের মুখে অর্জুন পরিবার

‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া ‘বাহার’-এ!

‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া ‘বাহার’-এ!

মাদককাণ্ড: পুলিশের তোপের মুখে অর্জুন পরিবার

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৪২

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর মাদকতদন্তে নতুন মাত্রা পেয়েছে। একই কারণে ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে অর্জুন রামপালের সন্তানের মা গ্যাব্রিয়েলা ডেমেট্রিয়াডেসকে। 

আজ (২৫ সেপ্টেম্বর) আবারও নতুন করে আলোচনায় এলেন তারা। কারণ এদিন গোয়া থেকে এনসিবির হাতে গ্রেফতার হয়েছেন গ্যাব্রিয়েলার ভাই অ্যাগিসিলাওস ডেমেট্রিয়াডেস। এসময় তার কাছ থেকে মাদকও উদ্ধার করেছে পুলিশ। হয়েছে মামলাও। 
 
দক্ষিণ আফ্রিকার বাসিন্দা অ্যাগিসিলাওসকে অর্জুন পরিবারেরই অংশ মনে করা হয়। 

এদিকে, এ নিয়ে অ্যাগিসিলাওসের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা হলো। এর আগে গত বছর অক্টোবরে সুশান্ত সিং রাজপুত মামলার সঙ্গে জড়িত অভিযোগে এনসিবির হাতে গ্রেফতার হন তিনি। জামিনে বেরিয়ে আসার পর আরও একবার গ্রেফতার হন অ্যাগিসিলাওস। নাইজেরিয়ান কোকেন মামলায় সেবার হাতকড়া পড়েছিলো তার। 

অন্যদিকে, এনসিবির জোনাল ডিরেক্টর সামির ওয়াংখেড়ের নেতৃত্বে গত শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) গোয়ায় অভিযান চলে। সেদিন বেআইনিভাবে মাদক পাচার ও বিক্রির সঙ্গে সরাসরি যুক্তদের খোঁজ চালাচ্ছিলো সংস্থাটি। 

ভাইয়ের সঙ্গে গ্যাব্রিয়েলা ৩০ বছর বয়সী অ্যাগিসিলাওস প্রসঙ্গে জানা যায়, তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার বাসিন্দা। মার্কেটিংয়ের কাজে লম্বা সময় ধরে ভারতে অবস্থান করছেন। ভারতীয় পুলিশের অভিযোগ- অ্যাগিসিলাওস মার্কেটিংয়ের  আড়ালে মাদক পাচারের কাজ করেন।  

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

/এম/এমএম/

সম্পর্কিত

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

চাঁদে জমি কিনলেন নির্মাতা হিমু আকরাম, পেলেন নাগরিকত্বও!

চাঁদে জমি কিনলেন নির্মাতা হিমু আকরাম, পেলেন নাগরিকত্বও!

প্রথমটির নামে দ্বিতীয় অ্যালবামের গান! (ভিডিও)

প্রথমটির নামে দ্বিতীয় অ্যালবামের গান! (ভিডিও)

‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া ‘বাহার’-এ!

‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া ‘বাহার’-এ!

‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া ‘বাহার’-এ!

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৩৯

২০১৫ সালের নভেম্বরে টার্কিশ জনপ্রিয় মেগা সিরিয়াল ‘সুলতান সুলেমান’ দিয়ে যাত্রা করে দেশের অন্যতম সফল টেলিভিশন চ্যানেল দীপ্ত। এরপর থেকে প্রায় প্রতি বছরই নিত্যনতুন বিদেশি সিরিয়াল এনে চমক দিয়েছে চ্যানেলটি। 

তবে দেশে সর্বাধিক জনপ্রিয়তা পাওয়া ‘সুলতান সুলেমান’র চেয়েও বেশি সাড়া মিলছে আরেক টার্কিশ সিরিজ ‘বাহার’ থেকে; এমনটাই জানালো দীপ্ত টিভি।

তারা জানায়, ‘সুলতান সুলেমান’ দিয়ে দর্শক তৈরি হয়েছিল। এরপর আরও কিছু টার্কিশ সিরিজ প্রচার করি আমরা। সেগুলোও ভালো প্রভাব রাখে। আর বর্তমানে ‘বাহার’ সেটার বেশি সুফল পাচ্ছে। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এটি নিয়ে আলোচনাটা বেশি।

পাশাপাশি- পালকী, খুঁজে ফিরি তাকে, অপরাজিতা, খেলাঘর, মাশরাফি জুনিয়র-এর মতো দেশীয় ডেইলি সোপও নির্মাণ করছে চ্যানেলটি। পেয়েছে জনপ্রিয়তাও। 

তবে প্রতিষ্ঠার ৬ বছর পরও দীপ্ত কর্তৃপক্ষের কণ্ঠে হতাশার সুর। দেশীয় কনটেন্ট বা ডেইলি সোপগুলো এখনও ধুকছে, মিলছে না অর্থনৈতিক মুক্তি- এমনটাই মন্তব্য করেছেন দীপ্ত টিভির প্রধান গবেষক সুবর্ণা পারভীন।

তিনি জানান, বিদেশের সোপগুলোর বাইরে দেশীয় ডেইলি সোপগুলো প্রতিদিন প্রচার হয়। এগুলোর নির্মাণ ব্যয়ও বেশি। কিন্তু সেই তুলনায় বিজ্ঞাপন (পৃষ্ঠপোষক) পাওয়া যায় না।

বিদেশি সিরিয়াল যেভাবে দেশে আসছে ঠিক একইভাবে ভিনদেশেও দেশীয় সিরিয়াল কবে যাবে- এমন এক প্রশ্নের জবাবে সুর্বণা বলেন, ‌‘আল্টিমেট লক্ষ্য হচ্ছে, আমাদের সিরিয়ালগুলো বিশ্বব্যাপী বিদেশি সিরিজের মতো ছড়িয়ে দেওয়া। আমরা ঐদিকেই হাঁটছি। শিগগিরই সেটা করতে পারব, যদি মার্কেট (বিজ্ঞাপন) থেকে আমরা সে সাপোর্ট পাই। তবে মাথায় রাখতে হবে, বাজেট একটা ইস্যু। আমাদের বলতে দ্বিধা নেই, লোকালি যে সিরিয়ালগুলো বানাই সেগুলো আমাদের ভর্তুকি দিয়েই বানাতে হচ্ছে। মার্কেট থেকে অতটা সাপোর্ট পাচ্ছি না। একটা সময় আসবে তখন ইনশাল্লাহ আমরা পারবো। তখন আমরা দেশীয় কনটেন্টে বেশি বাজেট দিতে পারবো।’

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চ্যানেলটির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কথাগুলো বলেন এই কর্মকর্তা।

টার্কিশ ধারাবাহিক ‘বাহার’র নতুন সিজন শুরু উপলক্ষে এই আয়োজনটি করা হয়। এতে প্রধান গবেষক সুবর্ণা পারভীন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দীপ্তর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফুয়াদ চৌধুরী, মার্কেটিং হেড মোজাম্মেল হোসেন ও প্রোগ্রাম ইনচার্জ আবু রেজওয়ান ইউরেকা।

সেখানে জানানো হয়, এই মুহূর্তে দীপ্ত তিনটি দেশীয় মেগা ধারাবাহিক প্রচার করছে। এগুলো হলো- মাশরাফি জুনিয়র, মান-অভিমান ও পালকী (পুনঃপ্রচার)। 

এদিকে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে টার্কিশ ‘বাহার’র নতুন সিজন। এবার দ্বিতীয় ও তৃতীয় মৌসুম একসঙ্গে দেখানো হবে।

চ্যানেলটি জানায়, সিরিজটি বহির্বিশ্বে তিনটি মৌসুমে প্রচার হয়। তবে বাকি দুটি সিজন আর আলাদা হবে না। দীপ্ত দুটি মৌসুম একবারে দেখাবে। 

এক নারীর জীবন-সংগ্রামকে উপজীব্য করে, তুরস্কের সামাজিক প্রেক্ষাপটে নির্মিত হয়েছে ‘বাহার’।

বাহার পুরো সিরিজটি বাংলায় ডাবিং করা। এর শিল্পীদের তালিকায় আছেন—বাহার চেশমেলি (মেরিনা মিতু), সার্প চেশমেলি (শফিকুল ইসলাম), নিসান চেশমিল (নাদিয়া ইকবাল ইশরা), দোরুক চেশমিল (আনিরা মিশেল রিভা), আরিফ (আলবিনো জর্জ পাইক), এনভার সারিকাদি (অশোক কুমার বসাক), হাতিজে সারিকাদি (সাকি ফারজানা), শিরিন সারিকাদি (নিগার সুলতানা মিমি), জেইদা (ইন্দ্রাণী ঘটক), জালে দেমির (নাহিদা আখতার ইমু), মুসা দেমির (আশিক কুমার বসাক) ও ইয়েলিয (পর্ণা মিটিল্ডা কস্তা)।

/এম/এমএম/

সম্পর্কিত

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন ফিল্ম

চাঁদে জমি কিনলেন নির্মাতা হিমু আকরাম, পেলেন নাগরিকত্বও!

চাঁদে জমি কিনলেন নির্মাতা হিমু আকরাম, পেলেন নাগরিকত্বও!

প্রথমটির নামে দ্বিতীয় অ্যালবামের গান! (ভিডিও)

প্রথমটির নামে দ্বিতীয় অ্যালবামের গান! (ভিডিও)

মাদককাণ্ড: পুলিশের তোপের মুখে অর্জুন পরিবার

মাদককাণ্ড: পুলিশের তোপের মুখে অর্জুন পরিবার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কবরীবিহীন প্রথম জন্মদিন

কবরীবিহীন প্রথম জন্মদিন

করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে কবরীর ছেলে

করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে কবরীর ছেলে

বনানীতে সমাহিত হলেন নায়ক ওয়াসিম

বনানীতে সমাহিত হলেন নায়ক ওয়াসিম

একসঙ্গে ৭৫টি ছবি: রোজিনার স্মৃতিতে ওয়াসিম

একসঙ্গে ৭৫টি ছবি: রোজিনার স্মৃতিতে ওয়াসিম

দেড় শতাধিক ছবির নায়ক ওয়াসিম আর নেই

দেড় শতাধিক ছবির নায়ক ওয়াসিম আর নেই

রাজনীতির মাঠে কবরীর সঙ্গে আলাপের বাইরে আলাপ!

রাজনীতির মাঠে কবরীর সঙ্গে আলাপের বাইরে আলাপ!

ববিতার ভাষ্যে কবরীর সঙ্গে প্রথম ও শেষ দেখা

ববিতার ভাষ্যে কবরীর সঙ্গে প্রথম ও শেষ দেখা

‘আমার এখন জ্বর, সুস্থ হলে বাসায় এসো’

কবরী-সালওয়ার শেষ কথা‘আমার এখন জ্বর, সুস্থ হলে বাসায় এসো’

কবরীর ক্যারিয়ারে বাঁক বদলের গল্প...

কবরীর ক্যারিয়ারে বাঁক বদলের গল্প...

বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত কবরী

বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত কবরী

সর্বশেষ

পরিবহন ফি নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে কুবি শিক্ষার্থীরা

পরিবহন ফি নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে কুবি শিক্ষার্থীরা

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকে অফিসার পদে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকে অফিসার পদে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৫৮০ মণ্ডপে হবে দুর্গাপূজা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৫৮০ মণ্ডপে হবে দুর্গাপূজা

আরও মতবিনিময় ও সভার দিনক্ষণ জানালো বিএনপি

আরও মতবিনিময় ও সভার দিনক্ষণ জানালো বিএনপি

গণমানুষের সমর্থনের প্রতি বিশ্বাসই প্রধানমন্ত্রীর চালিকাশক্তি: স্পিকার

গণমানুষের সমর্থনের প্রতি বিশ্বাসই প্রধানমন্ত্রীর চালিকাশক্তি: স্পিকার

© 2021 Bangla Tribune