X
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

করোনাকালীন বিকল্প শিক্ষাপদ্ধতি উদ্ভাবন

দেশসেরা উদ্ভাবক মাসুদুল হাসান

আপডেট : ২২ মে ২০২১, ১১:২৯

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের ইনোভেশন শোকেসিং-এ দেশসেরা উদ্ভাবক-২০২১ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মাসুদুল হাসান রনি। এ বছর সারাদেশ থেকে ৩ জন শিক্ষা অফিসার ও ২ জন সহকারী শিক্ষককে দেশসেরা উদ্ভাবক নির্বাচিত করা হয়, তাদের মধ্যে তিনি একজন। করোনাকালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের মধ্যেও কীভাবে শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা পৌঁছে দেওয়া যায় সেই পদ্ধতির উদ্ভাবন করেন তিনি। 

সম্প্রতি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ও সচিবের উপস্থিতিতে মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের ইনোভেশন শোকেসিং-এ সারাদেশ থেকে নেওয়া ইনোভেশন শোকেসিং যাচাই-বাছাই করে তাদের নির্বাচিত করা হয়।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের জুনে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হিসেবে মাসুদুল হাসান দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলায় যোগদান করেন। এরপর থেকেই তাঁর তত্ত্বাবধানে উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ের চেহারা পাল্টাতে শুরু করে। তিনি বিদ্যালয় সুসজ্জিতকরণ, ( ১৯৪৭ হতে ১৯৭১ সাল পর্যন্ত বাংলার ইতিহাস সংবলিত বিভিন্ন ছবি দ্বারা শ্রেণিকক্ষ সুসজ্জিতকরণ) মুক্তিযুদ্ধ গ্যালালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণ, সততা স্টোর, নৈতিকতা গ্যালারি, শিশু শ্রেণিতে টাইলস, পতাকা বেদিতে টাইলস, স্কুলে শহীদ মিনার নির্মাণ, শিশু পার্ক নির্মাণ, করোনাকালীন শিশুদের ক্লাস পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ সরবরাহ, বিজ্ঞান উপকরণ সরবরাহ, বিদ্যালয়গুলোতে সিসি ক্যামেরা চালু, করোনাকালীন শিশুদের পড়াশোনার ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার জন্য অনলাইনে ক্লাস নেওয়া এবং সেই ক্লাসগুলো ডাউনলোড করে শিশুদের পেনড্রাইভে করে বিতরণ করার ব্যবস্থা করাসহ শিক্ষাবান্ধব সরকারের প্রতিটি শিক্ষাভিত্তিক এজেন্ডা বাস্তবায়নে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছিলেন। এর আগে ২০২০ সালে কন্যাশিশু সুরক্ষা সেল নামের একটা ইনোভেশন নিয়ে কাজ করে তিনি দেশসেরা হয়েছিলেন।

দেশসেরা পাচঁ উদ্ভাবক এবার তাঁর উদ্ভাবিত ইনোভেটিভ আইডিয়াটিতে করোনাকালীন বিকল্প শিক্ষাপদ্ধতি নিয়ে কয়েকটি বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। সেগুলো হলো:

বাস্তবায়ন কৌশল: পাঠ পরিকল্পনা অনুযায়ী দক্ষ শিক্ষকবৃন্দের পাঠদানের অডিও ও ভিডিও (কম দামি সহজলভ্য মোবাইল উপযোগী) রেকর্ড করে বিদ্যালয়ের ল্যাপটপের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সংখ্যক মেমোরি কার্ডে কপি করে প্রান্তিক শিক্ষার্থীদের প্রদান করে করোনাকালীন পাঠদান কার্যক্রম চালু রাখা। এ কার্যক্রমে একজন শিক্ষক ফোনে সপ্তাহে ২-৩ দিন নির্ধারিত সংখ্যক শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার খোঁজ খবর নেবেন, বাড়ির কাজ দেবেন, আদায় করবেন, পাঠোন্নতি ‘স্টুডেন্ট প্রোফাইল’ রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করবেন এবং প্রধান শিক্ষকের মাধ্যমে কর্তৃপক্ষকে অবগত করবেন। ফলে মাঠ পরিকল্পনা অনুযায়ী অধ্যায়ভিত্তিক পাঠ শিশুরা সহজেই বুঝতে পারবে এবং অধিক সংখ্যক শিশু বিদ্যালয় বন্ধ থাকার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে পারবে।

আইডিয়া বাস্তবায়নে গৃহীত কার্যক্রম: করোনাকালীন শিশুদের পড়াশোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ইনোভেশন আইডিয়াটি বাস্তবায়নে বিষয়ভিত্তিক দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকবৃন্দের তালিকা প্রস্তুত করা হয়। শিক্ষক ও অভিভাবকবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা সভা ও কর্মপরিকল্পনা উপস্থাপন করা হয় এবং বিষয়ভিত্তিক দক্ষ শিক্ষকদের পাঠদানের দায়িত্ব দেওয়া হয়। ক্লাসের ভিডিও ও অডিও ধারণের জন্য ডিজিটাল স্টুডিও প্রস্তুত করা হয়। পাঠপরিকল্পনা অনুযায়ী মানসম্মত কন্টেন্টের আলোকে শিশুদের জন্য আকর্ষণীয় ও উপযোগী করে প্রতিটি বিষয়ে পাঠদানের ভিডিও ও অডিও ধারণ করা হয়। এছাড়া শিশুর মনোদৈহিক সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে একইসঙ্গে করোনাকালীন শিশুর যত্ন, করণীয় ও বর্জনীয় সম্পর্কে শিক্ষকদের মোটিভেশনাল ভিডিও/অডিও তৈরি করে শিক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছানো হয়।

ইনোভেশন কার্যক্রমের সুফল সুবিধাভোগীর দোড়গোড়ায় পৌঁছানো ও জনসম্পৃক্তকরণ: করোনাকালীন শিশুদের পড়াশোনার ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার এই কার্যক্রমে জেলা প্রশাসক, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসারবৃন্দ, প্রধান শিক্ষকবৃন্দ, সহকারী শিক্ষকবৃন্দ, এসএমসি’র সদস্য এবং অভিভাবকরা সরাসরি সম্পৃক্ত ছিলেন এবং সার্বিক সহযোগিতা করেন। জেলা প্রশাসক, দিনাজপুর এই ইনোভেশন কার্যক্রম উপলক্ষে আয়োজিত সভায় শিক্ষক ও অভিভাবকদের কার্যক্রম সম্পর্কে উদ্বুদ্ধ করেছেন এবং কয়েকজন শিশুর মাঝে পাঠদানের ভিডিও ও অডিও’র মেমোরি কার্ড প্রদান করেছেন। এ ইনোভেশন কার্যক্রমের সেবা শিশুদের দোড়গোড়ায় পৌঁছাতে শিক্ষকদের আহ্বান জানান তিনি।

ইনোভেশন কার্যক্রমটির সুফল: করোনাকালীন শিশুদের পড়াশোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে অন্যান্য চলমান কার্যক্রমের পাশাপাশি ইনোভেশন কার্যক্রমটি পরিচালনার ফলে দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর উপজেলায় পাইলটিং-এর আওতাভুক্ত বিদ্যালয়সমূহে অধিক সংখ্যক (প্রায় ৯৭ শতাংশ) শিশুকে পাঠদান কার্যক্রমের আওতায় আনা গেছে। যেসব দরিদ্র শিক্ষার্থীর অভিভাবকের স্মার্টফোন, ইন্টারনেট সংযোগ, টেলিভিশন ও ক্যাবল সংযোগ নেই তাদের সন্তানও কম দামি (৫০০-১০০০) বাটন ফোনেও মেমোরি কার্ডের মাধ্যমে দিনের যে কোনও সময় পাঠদান কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারে।

আইডিয়া সম্প্রসারণ কৌশল: অন্তর্বর্তীকালীন পাঠ পরিকল্পনা অনুযায়ী পরিচালিত ক্লাসগুলো ভিডিও/অডিওটি সংরক্ষণ করতে হবে। পরবর্তীতে যেসব শিশুর অভিভাবকের স্মার্ট ফোন, ইন্টারনেট সংযোগ, টেলিভিশন ও ক্যাবল সংযোগ নেই তাদের কাছে পৌঁছে দিয়ে সব শিশুর পড়াশোনার ক্ষতি কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।

হাকিমপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মাসুদুল হাসান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘করোনার সময়ে সারা পৃথিবী যখন স্থবির, তখন প্রাথমিকের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিষয়ে উদ্ভাবনী আইডিয়া আহ্বান করে মন্ত্রণালয়। তখন থেকেই হাকিমপুর উপজেলার শিক্ষার্থীদের জন্য করোনার সময়ের শিক্ষা পদ্ধতি বা বিকল্প নিয়ে ভাবতে থাকি। সেই ভাবনা থেকেই ‘শিক্ষকবৃন্দের পাঠদানের অডিও ও ভিডিও প্রান্তিক শিক্ষার্থীদের প্রদান (মেমোরি কার্ডে) করে করোনাকালীন পাঠদান কার্যক্রম চালু রাখা’ শীর্ষক ইনোভেশন আইডিয়া নিয়ে কাজ করেছি; যা পরবর্তীতে পাইলটিং-এর জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর কর্তৃক অনুমোদিত হয়। সম্প্রতি এর জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের ইনোভেশন শোকেসিং-এ দেশসেরা উদ্ভাবক ২০২১ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছি। এ পুরস্কার প্রাপ্তি আমাকে আগামী দিনগুলোতে ভালো কাজ করতে উৎসাহিত করবে।’

হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা মোহাম্মাদ নূর-এ আলম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘করোনাকালীন শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে তাঁর এ অনন্য অবদানের জন্য আমার পক্ষ থেকে তাকে ধন্যবাদ জানাই। করোনা মহামারির এ সময়ে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে তিনি অনলাইনে ক্লাস নেওয়া এবং সেই ক্লাসগুলো ডাউনলোড করে শিশুদের পেনড্রাইভে বিতরণের ব্যবস্থা করেছেন।’ তাঁর এই শোকেসিং পদ্ধতি যদি জাতীয়ভাবে প্রয়োগের ব্যবস্থা করা হয় তাহলে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা অনেক উপকৃত হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

 

/আইএ/

সম্পর্কিত

একটি সেতুর অপেক্ষায় ১২ গ্রামের ২০ হাজার মানুষ 

একটি সেতুর অপেক্ষায় ১২ গ্রামের ২০ হাজার মানুষ 

হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ ফেলে স্বামীর পরিবার উধাও

হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ ফেলে স্বামীর পরিবার উধাও

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে নীলফামারীতে ২০২ জনকে সহায়তা

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে নীলফামারীতে ২০২ জনকে সহায়তা

সাবেক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা লন্ডারিংয়ের মামলা

সাবেক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা লন্ডারিংয়ের মামলা

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:১৬

টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা রেল স্টেশনে বর্ধিতকরণ কাজ করতে গিয়ে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল কেটে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ফলে ঢাকা থেকে উত্তরবঙ্গগামী রুটে ট্রেন চলাচলে দুর্ঘটনা আশঙ্কা রয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঘারিন্দা রেলস্টেশন প্লাটফর্ম বর্ধিতকরণ কাজে নিয়োজিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ভেকু দিয়ে কাজ করার সময় ক্যাবলটি কেটে যায়।

স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ভেকু দিয়ে কাজ করার সময় আটটি ক্যাবলের মধ্যে একটি ক্যাবল কেটে ফেলে। এতে করে দুই নম্বর লেনের ট্র্যাক সিগন্যাল দিচ্ছে না।

ঘারিন্দা রেল স্টেশনের খালাসি (সিগন্যাল) জহুরুল হক বলেন, সিগনাল ক্যাবলটি কেটে যাওয়ায় লাইনে চলাচল করা সব ট্রেন হুমকির মুখে পড়বে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের রাজশাহীর চিফ অপারেটিং সুপারিনটেন্ডেন্ট (পশ্চিম) শহিদুল ইসলাম বলেন, কাজ করার সময় সিগন্যাল ক্যাবলটি কেটে যায়। এতে বিকল্প হিসেবে ট্রেনগুলো ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে চলাচল করবে। এতে দুর্ঘটনার শঙ্কা নেই। তবে ম্যানুয়ালে চলাচলের সময় হয়তোবা প্রতিটি ট্রেন ৫ থেকে ১০ মিনিট দেরিতে ছাড়বে। সিগনাল ক্যাবল মেরামতের জন্য লোকজন ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। খুব দ্রুতই সিগনাল ক্যাবলের মেরামত কাজ শেষ করা হবে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

৪৫ মিনিটে দুই ডোজ টিকা নিলেন নারী

৪৫ মিনিটে দুই ডোজ টিকা নিলেন নারী

টিকা কেন্দ্রে পুলিশকে থাপ্পড় মারায় প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

টিকা কেন্দ্রে পুলিশকে থাপ্পড় মারায় প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:০৮

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভালো থাকলে বাংলাদেশ ভালো থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। তিনি বলেছেন, ‘আজকের বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা রাতদিন পরিশ্রম করে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বিশ্বে বাংলাদেশকে যে জায়গায় প্রতিষ্ঠিত করেছে, এতে এখন আর পেছনে তাকানোর সুযোগ নেই।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে মুক্তিযোদ্ধা এস এম মাজহারুল হক অডিটোরিয়ামে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মিয়া মো. আলাউদ্দিনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন- স্থানীয় সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল, সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. শাহজালাল মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ভুইয়া, সাধারণ সম্পাদক খুরশীদ আলম সরকার, আড়াইহাজার পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুন্দর আলী, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়মা ইসলাম ইভাসহ অনেকে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর গড়া বাংলাদেশে এখন তারই কন্যা শেখ হাসিনা নেতৃত্ব দিয়ে অন্ধকার থেকে দেশকে আলোর পথে নিয়ে এসেছে। শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের হাত ধরে ডিজিটাল বাংলাদেশের সুযোগ পাচ্ছে দেশ। করোনা মহামারির মধ্যেও ডিজিটাল মাধ্যমে দেশের সব কর্মকাণ্ড সচল রেখেছেন। এখন শহরে নয়, গ্রামেই শহরের সব সুযোগ সুবিধা গড়ে তোলা হচ্ছে। শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষের জন্য বাসস্থান, চিকিৎসা, খাদ্য ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে যাচ্ছেন।’

পরে মন্ত্রী সবাইকে নিয়ে শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে ৭৫ পাউন্ডের একটি কেক কাটেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

৪৫ মিনিটে দুই ডোজ টিকা নিলেন নারী

৪৫ মিনিটে দুই ডোজ টিকা নিলেন নারী

টিকা কেন্দ্রে পুলিশকে থাপ্পড় মারায় প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

টিকা কেন্দ্রে পুলিশকে থাপ্পড় মারায় প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

৭৫ পাউন্ডের কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন

৭৫ পাউন্ডের কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন

শেষ হলো যশোর রোডে সুবাতাসের পদযাত্রা

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:১১

শেষ হয়েছে ঐতিহাসিক যশোর রোডের পদযাত্রা। সুবাতাস (সুন্দর বাংলাদেশ ও তারুণ্যের সমন্বয়) নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে এই পদযাত্রার আয়োজন করা হয়। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় যশোর প্রেস ক্লাব থেকে পদযাত্রাটি শুরু হয়ে যশোর রোড হয়ে মঙ্গলবার বিকালে বেনাপোল চেকপোস্টে এসে শেষ হয়। পথে ১১টি স্কুলে ১৯৭১ স্মরণে গান ও কবিতা আবৃত্তিতে অংশ নেন সুবাতাসের সদস্যরা।

সুবাতাসের আহ্বায়ক হাসান আহমেদ এ পদযাত্রার উদ্দেশ্য ও কর্মসূচি নিয়ে বেনাপোল চেকপোস্টে আলোচনা করেন। এই পদযাত্রায় সাত জন সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিককর্মী অংশ নেন। অন্য ছয় জন হলেন– সাংবাদিক মাহমুদ এইচ খান, চলচ্চিত্র পরিচালক শাহিনুর আক্তার শাহীন, সংবাদকর্মী নিশাত বিজয়, শিক্ষার্থী মিঠুন চক্রবর্তী মাহি, শাখাওয়াত খান, মারজানা আক্তার।

এই আয়োজনে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে কোটি বাঙালির পদযাত্রাকে স্মরণ করার কথা উল্লেখ করে সুবাতাসের আহ্বায়ক হাসান আহমেদ বলেন, ‘পাকিস্তানিদের বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞ থেকে বাঁচতে যুদ্ধের শুরু থেকে এই সেপ্টেম্বর মাসেও বাংলাদেশ থেকে কোটি মানুষ যশোর রোড ধরে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছিল ভারতে। বাংলাদেশের শরণার্থীরা এই রোড ধরে ভারতে পাড়ি জমাচ্ছিল। তখন এই রোডটিই ছিল তাদের বেঁচে থাকার স্বপ্ন পূরণের পথ। তাদের অনেকেই পথ চলার ক্লান্তি সহ্য করতে না পেরে ঢলে পড়েছিলেন মৃত্যুর কোলে। এই রাস্তার প্রতিটি ধূলিকণাও যেন সেই হাজারো শরণার্থীর ক্লান্তি, দুর্ভোগ ও বয়ে বেড়ানো স্বপ্নের সাক্ষী।’

তিনি আরও বলেন, ‘সে সময় মার্কিন কবি অ্যালেন গিন্সবার্গ শরণার্থীদের দুর্দশা দেখে লিখেছিলেন তার বিখ্যাত কবিতা “সেপ্টেম্বর অন যশোর রোড”। যা বিশ্ব দরবারে বাঙালির সংগ্রামকে ফুটিয়ে তুলেছিল। সে সময় আয়োজিত হয়েছিল ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’। পণ্ডিত রবিশঙ্কর তার বন্ধু জর্জ হ্যারিসনকে নিয়ে নিউইয়র্কে ১ আগস্ট, ১৯৭১ সালে আয়োজন করেন কনসার্ট ফর বাংলাদেশ। বাংলাদেশের জন্য এই কনসার্টেই বব ডিলান কণ্ঠে তুলে নেন অ্যালেন গিন্সবার্গের সেই বিখ্যাত কবিতা “সেপ্টেম্বর অন যশোর রোড”। এতে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ভয়াবহতা মূর্ত হয়ে ওঠে। ইতিহাসে অন্যভাবে উঠে আসে এই যশোর রোড। এই গানকে পরবর্তীতে বাংলা অনুবাদ করে গেয়েছিলেন মৌসুমি ভৌমিক।’

নিশাত বিজয় বলেন, ‘আমরা স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরের বাংলাদেশে সেই সময়কে স্মরণ করতে চাই। শ্রদ্ধা জানাতে চাই গিন্সবার্গ, বব ডিলান, পণ্ডিত রবিশঙ্কর, জর্জ হ্যারিসন, লিওন রাসেল, রিংগো স্টার, বিলি প্রেস্টন, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় ও মৌসুমি ভৌমিককে।’

এই পদযাত্রার উদ্দেশ্য শরণার্থীদের নিজ দেশে ফেরাতে আন্তর্জাতিক তৎপরতা বৃদ্ধির দাবি, করোনাসহ ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে সচেতনতা এবং নারী-শিশুর বিরুদ্ধে সহিংসতার প্রতিবাদ।

আরও পড়ুন:  যশোর রোডে সুবাতাসের পদযাত্রা শুরু

 
/এমএএ/

সম্পর্কিত

টিকা কেন্দ্রে স্বাস্থ্যকর্মীকে থাপ্পড়, সাংবাদিক গ্রেফতার

টিকা কেন্দ্রে স্বাস্থ্যকর্মীকে থাপ্পড়, সাংবাদিক গ্রেফতার

৭৫ পাউন্ডের কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন

৭৫ পাউন্ডের কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন

যশোরে ট্রাকচাপায় যুবলীগ নেতা নিহত

যশোরে ট্রাকচাপায় যুবলীগ নেতা নিহত

৪৫ মিনিটে দুই ডোজ টিকা নিলেন নারী

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫৩

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে রোকেয়া বেগম (৪৫) নামের এক নারীকে পৌনে এক ঘণ্টার ব্যবধানে করোনাভাইরাসের দুই ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে হরিরামপুর উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন পরিষদের টিকাদান কেন্দ্রে দুই ডোজ টিকা পান ওই নারী। একদিনেই দুই ডোজ টিকা পাওয়া রোকেয়া বেগম উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের মালুচী গ্রামের সাদেক মোল্লার স্ত্রী।

কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য সহকারী গাজী আল-মামুন বলেন, ‘যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে, তাহলে বুঝতে হবে- মানুষের মাঝে সচেতনতার অভাব আছে। কারণ একজন স্বাস্থ্যকর্মী কাউকে ইচ্ছে করে দুই ডোজ টিকা  কেন দেবেন?’

জেলা সিভিল সার্জন মো. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ বলেন, ‘টিকা নিতে সকালে স্থানীয় কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন পরিষদের টিকাকেন্দ্রে যান ওই নারী। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে একবার প্রথম ডোজ নেন। এরপর পৌনে এক ঘণ্টা পর দ্বিতীয়বার টিকা নেন। খবর পেয়ে ওই নারীকে পর্যবেক্ষণে এবং মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসার কথা বলা হয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে।’

তিনি জানান, ক্ষতির সম্ভাবনা নেই। সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। ওই নারী সবার মুখে দুই ডোজের কথা শুনে দুই হাতে দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

টিকা কেন্দ্রে পুলিশকে থাপ্পড় মারায় প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

টিকা কেন্দ্রে পুলিশকে থাপ্পড় মারায় প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

টিকা কেন্দ্রে পুলিশকে থাপ্পড় মারায় প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫১

টাঙ্গাইলের সখীপুরে টিকা কেন্দ্রে পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সানিউল আলমকে থাপ্পড় মারার ঘটনায় এক প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে উপজেলার বহেড়াতৈল গণ উচ্চ বিদ্যালয় গণটিকা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। সখীপুর থানার ওসি এ কে সাইদুল হক ভূঁইয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির নাম সাদেকুল ইসলাম। তিনি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

স্থানীয়রা জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে উপজেলার বহেড়াতৈল গণ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হয়। বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাদেকুল ইসলাম তার পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে নিয়ে টিকা দিতে কেন্দ্রে যান। তিনি নিয়ম না মেনে তাদের নিয়ে কেন্দ্রের ভেতরে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু আগে থেকে টিকা নিতে আসা লোকজন ঘটনার প্রতিবাদ করে এবং পুলিশকে বিষয়টি জানান। পরে কেন্দ্রের দায়িত্বরত সখীপুর থানার সহকারী উপপরিদর্শক সানিউল আলম প্রধান শিক্ষক সাদেকুল ইসলামকে কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সানিউল আলমকে থাপ্পড় মারেন প্রধান শিক্ষক। এ ঘটনার পর সন্ধ্যায় প্রধান শিক্ষক সাদেকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ওসি এ কে সাইদুল হক ভূঁইয়া বলেন, ‘সরকারিকাজে বাধা ও পুলিশের গায়ে হাত তোলার অপরাধে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। রাতে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। বুধবার তাকে আদালতে তোলা হবে।

/এএম/

সম্পর্কিত

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

৪৫ মিনিটে দুই ডোজ টিকা নিলেন নারী

৪৫ মিনিটে দুই ডোজ টিকা নিলেন নারী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

একটি সেতুর অপেক্ষায় ১২ গ্রামের ২০ হাজার মানুষ 

একটি সেতুর অপেক্ষায় ১২ গ্রামের ২০ হাজার মানুষ 

হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ ফেলে স্বামীর পরিবার উধাও

হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ ফেলে স্বামীর পরিবার উধাও

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে নীলফামারীতে ২০২ জনকে সহায়তা

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে নীলফামারীতে ২০২ জনকে সহায়তা

সাবেক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা লন্ডারিংয়ের মামলা

সাবেক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা লন্ডারিংয়ের মামলা

ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে চুল, কেজি ৫৩০০ টাকা

ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে চুল, কেজি ৫৩০০ টাকা

কুড়িগ্রামে সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

কুড়িগ্রামে সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

রোগে ঝরে পড়ছে পান, হতাশায় হিলির চাষিরা

রোগে ঝরে পড়ছে পান, হতাশায় হিলির চাষিরা

দিনাজপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১২ কোটি টাকা

দিনাজপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১২ কোটি টাকা

সর্বশেষ

নির্বাচনে পরাজয়, দলেই সমর্থন হারাচ্ছেন লাশেট

নির্বাচনে পরাজয়, দলেই সমর্থন হারাচ্ছেন লাশেট

যেসব উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন মুফতি ইব্রাহীম

যেসব উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন মুফতি ইব্রাহীম

টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড গড়েই চলেছেন পোলার্ড

টি-টোয়েন্টিতে রেকর্ড গড়েই চলেছেন পোলার্ড

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

টাঙ্গাইলে কেটে গেছে রেল লাইনের সিগন্যাল ক্যাবল

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

শেখ হাসিনা ভালো থাকলে দেশ ভালো থাকবে: শিল্পমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune