X
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

অবশেষে ধরা পড়লো ‘চেয়ারম্যান’

আপডেট : ২৮ মে ২০২১, ২১:১৭

হেন কোনও কুকর্ম নেই যার জন্য মামলা হয়নি তার বিরুদ্ধে। এলাকায় অপরাধজগতের ‘চেয়ারম্যান’ তিনি। এ নামেই চেনে সাঙ্গপাঙ্গ ও লেনদেনকারীরা। সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, জোড়া খুন ও মাদক ব্যবসার অভিযোগসহ মাথার ওপর আটটি মামলার খড়গ। তবুও প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিল। একাধিকবার পুলিশের হাতে গ্রেফতার হলেও জামিনে বেরিয়ে আবারও পুরোদস্তুর মাদক কারবারি! রাত হলেই তার বাড়িতে শুরু হতো মাদকসেবীদের আনাগোনা। অবশেষে ধরা পড়লো কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের সরা ভোগরাম গ্রামের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী মফিজুল ইসলাম। বুধবার (২৬ মে) বিকালে কুড়িগ্রাম সদর থানা পুলিশের একটি দল ঘণ্টাব্যাপী অভিযান চালিয়ে মফিজুলকে তার নিজের গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে। এ সময় হেরোইন ও ইয়াবাসহ মাদক সেবনের বেশ কিছু উপকরণও জব্দ করে পুলিশ। সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মো. শাহরিয়ার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মফিজুল সরা ভোগরাম গ্রামের জব্বার আলীর ছেলে। মাদক দুনিয়ায় সে ‘চেয়ারম্যান’ নামেও পরিচিত।

এলাকাবাসী জানায়, তার বাড়ি কুড়িগ্রাম-চিলমারী সড়কের পাশে হওয়ায় মাদক ব্যবসায়ী ও সেবীরা সহজে লেনদেন সেরে দ্রুত স্থান ত্যাগ করতে পারতো। মফিজুলের গ্রেফতারে এলাকাবাসীর মধ্যে আপাতত স্বস্তি নেমে এসেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন প্রতিবেশী জানান, মফিজুলকে যতবার পুলিশ ধরে নিয়ে গিয়েছিল ততবার সে জামিনে বেরিয়ে আসতো। সে বেরিয়ে এলেই এলাকায় মাদকসেবী ও কারবারীদের আনাগোনা বেড়ে যেত।

ওসি খান মো. শাহরিয়ার জানান, পুলিশের খাতায় মফিজুল ইসলাম কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও জোড়াখুনের অভিযোগসহ আটটি মামলা রয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ মে) তাকে আদালতে নেওয়া হবে।

/এফএ/

সম্পর্কিত

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২২:২৬

রংপুরসহ বিভাগের দুটি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের আইসিইউ শয্যা ফাঁকা নেই। এতে মুমূর্ষু রোগীরা চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. মোতাহারুল ইসলাম জানান, রংপুর বিভাগের আট জেলার মানুষের জন্য আইসিইউ শয্যা আছে মাত্র ২৪টি। এর মধ্যে  দিনাজপুর করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১৬টি এবং রংপুরে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে আটটি রয়েছে। আইসিইউ বেড সংখ্যা বৃদ্ধি করার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। শিগগিরই আরও কিছু আইসিইউ বেড স্থাপন করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আইসিইউ শয্যা খালি না থাকা ও সাধারণ শয্যায় অতিরিক্ত রোগীর বিষয়টি বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সাংবাদিকদের জানানো হয়। রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, রংপুরে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে একশ শয্যার হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করা হলেও সেখানে আইসিইউ শয্যা আছে কাগজ-কলমে ১০টি। কিন্তু দুটি আইসিইউ শয্যার যন্ত্রপাতি নেই। ফলে আটটি শয্যা দিয়ে চলছে করোনা হাসপাতালের কার্যক্রম। অন্যদিকে, রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে ৩১ বেডের করোনা ইউনিট চালু করা হয়েছে সম্প্রতি। কিন্তু সেখানে আইসিইউ শয্যা নেই। শুধু মুমূর্ষু রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহ করার লাইন রয়েছে। সেই অক্সিজেন সরবরাহ লাইনও চলছে জোড়াতালি দিয়ে। তার পরেও দুই হাসপাতালে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত করোনা রোগী আছেন ১৯০ জন। অথচ দুটি হাসপাতালে শয্যা আছে ১৩১টি। ফলে ৫৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী মেঝেতে অবস্থান করছেন।

অন্যদিকে, দিনাজপুর করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ১৬টি আইসিইউ শয্যার একটিও খালি নেই। এই হাসপাতালেও মোট শয্যার অতিরিক্ত রোগী রয়েছেন। সেখানে ২৬৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন আছেন।

নাম প্রকাশ করার শর্তে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক কর্মকর্তা জানান, আইসিইউ সাপোর্ট দেওয়া জরুরি করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষু এমন অন্তত ১৫ রোগীকে তা দেওয়া যাচ্ছে না।

এদিকে, রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় পূর্বঘোষিত ৫০ শয্যার নতুন আইসোলেশন ওয়ার্ড চালু ও আইসিইউ সুবিধা নিশ্চিত করাসহ চার দফা বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছে ‘জনতার রংপুর’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। বুধবার বিকালে সংগঠনটির পক্ষ থেকে হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল করিমকে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এ সময় জনতার রংপুরের আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মামুনুর রহমান, সংগঠক গৌতম রায়, মাজিদুল ইসলাম লিটন, আব্দুল কুদ্দুস, রফিক সরকারসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

স্বারকলিপিতে বলা হয়, করোনা রোগীদের চিকিৎসায় হাসপাতালে আইসিইউ ও শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি, পর্যাপ্ত হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলা সরবরাহসহ অন্যান্য চিকিৎসাসামগ্রী সরবরাহ, বিনামূল্যে প্রয়োজনীয় ওষুধ প্রদান করা, চিকিৎসক ও নার্সসহ সংশ্লিষ্টদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

জনতার রংপুরের আহ্বায়ক ডা. সৈয়দ মামুনুর রহমান জানান, রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় সক্ষমতা থাকলেও তা কাজে লাগানো হচ্ছে না। এতে করোনা আক্রান্ত রোগীরা কাঙ্ক্ষিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের পশ্চিমে নতুন একটি ভবনে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট আরেকটি আইসোলেশন ওয়ার্ড চালুর ঘোষণা দেয়া হলেও তা বাস্তবায়নে কর্তৃপক্ষ কালক্ষেপণ করছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল ইসলাম জানান, জরুরি বিভাগের পশ্চিমে নতুন একটি ভবনে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট আরেকটি আইসোলেশন ওয়ার্ড চালুর প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কিন্তু প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসামগ্রী না থাকায় বিলম্ব হচ্ছে। মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়ে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

১৫ দিন ধরে ফাঁকা নেই করোনা ইউনিট, চালু হচ্ছে আরও ৫০ শয্যা

১৫ দিন ধরে ফাঁকা নেই করোনা ইউনিট, চালু হচ্ছে আরও ৫০ শয্যা

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২২:০০

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগের ঘটনায় গ্রেফতার মূল আসামি কুলসুম আক্তার ও তার সহযোগী মর্জিনাকে দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বিকালে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের ভার্চুয়াল আদালত তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নেজাম উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আজ দায়ের করা মামলায় কুলসুম আক্তার ও তার সহযোগী মর্জিনা আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলাম। শুনানি শেষে আদালত প্রত্যেকের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে ভোরে নগরীর পতেঙ্গা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এরপর কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আকাশ মাহমুদ ফরিদ বাদী হয়ে দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে বিকালে তাদের আদালতে তোলা হয়।

গ্রেফতার কুলসুম আক্তার লোহাগাড়া উপজেলার গোরস্তান মাঝের পাড়া আহাম্মদ মিয়ার বাড়ির আনু মিয়ার মেয়ে। কুলসুম ২০০৬ সালে কোহিনুর আক্তার নামে এক পোশাককর্মী হত্যায় যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। তার হয়ে মিনু আক্তার দুই বছর নয় মাস ১০ দিন কারাভোগ করেন।

মামলার এজাহার ও আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৬ সালের জুলাই মাসে মোবাইলে কথা বলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে নগরীর রহমতগঞ্জের একটি বাসায় পোশাককর্মী কোহিনুর আক্তার পারভীনকে গলা টিপে হত্যা করা হয়। এরপর তার লাশ একটি গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি করেন কুলসুম আক্তার। ওই ঘটনায় করা অপমৃত্যু মামলার তদন্ত শেষে আদালতে হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ এনে প্রতিবেদন জমা দেয় পুলিশ।

২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে তৎকালীন অতিরিক্ত চতুর্থ মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. নুরুল ইসলাম আসামি কুলসুম আক্তারকে পারভীন হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। সেই সঙ্গে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়। 

ওই সাজা পরোয়ানায় কুলসুম আক্তারের পরিবর্তে মিনু আক্তার ২০১৮ সালের ১২ জুন কারাগারে যান। মিনু দুই বছর নয় মাস ১০ দিন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে ছিলেন। এরপর বিষয়টি তার পরিবার আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতের নজরে আনলে জামিনে মুক্তি পান। গত ২৮ জুন রাতে বায়েজিদ লিংক রোডে দুর্ঘটনায় মিনু নিহত হন। মিনু নিহতের ঘটনাকে রহস্যজনক দাবি করে সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়েছেন আইনজীবী গোলাম মাওলা মুরাদ।

ওই সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেছেন, মিনুর মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। মাত্র ১৩ দিন আগে কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন। বাসা থেকে চার কিলোমিটার দূরে রাস্তায় মিনু সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন, নাকি অন্য কেউ মিনুকে হত্যা করেছে? এটি তদন্ত হওয়া উচিত। পরে এ ঘটনায় বায়েজিদ থানায় মামলা করে পুলিশ। মামলাটি তদন্তাধীন।

/এএম/

সম্পর্কিত

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

কুমিল্লায় লকডাউনের ছয় দিনে ১২ লাখ টাকা জরিমানা আদায় 

কুমিল্লায় লকডাউনের ছয় দিনে ১২ লাখ টাকা জরিমানা আদায় 

মোটরসাইকেল চালককে টেনে-হিঁচড়ে ৫ কিলোমিটার নিয়ে গেলো ট্রাকটি

মোটরসাইকেল চালককে টেনে-হিঁচড়ে ৫ কিলোমিটার নিয়ে গেলো ট্রাকটি

যার সাজা খেটেছিলেন মিনু, সেই কুলসুম গ্রেফতার

যার সাজা খেটেছিলেন মিনু, সেই কুলসুম গ্রেফতার

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২১:৫৮

কু‌ড়িগ্রা‌মের সদর উপ‌জেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের ব্রহ্মপুত্র ন‌দে এক জে‌লের ব‌ড়শিতে ধরা পড়েছে বিশালাকারের এক বোয়াল। বৃহস্প‌তিবার (২৯ জুলাই) বিকা‌লে র‌ফিকুল ইসলাম না‌মের ওই জেলের ব‌ড়‌শি‌তে ১৫ কে‌জি ওজ‌নের মাছ‌টি ধরা প‌ড়ে।

প‌রে তার কাছ থে‌কে বোয়াল‌টি কি‌নে নেন আরেক জেলে মাইদুল ইসলাম। তিনি কু‌ড়িগ্রাম শহ‌রের পৌর বাজারে এটি বি‌ক্রি কর‌তে আনেন।

মাইদুল জানান, র‌ফিকুল ইসলা‌মের ব‌ড়‌শিতে ১৫ কে‌জির বোয়াল‌টি ধরা প‌ড়ে। গতকালও তার (র‌ফিকু‌লের) ব‌ড়‌শিতে ২২ কে‌জি ওজ‌নের এক‌টি বোয়াল ধরা প‌ড়ে‌ছিল। দুধকুমার ও ব্রহ্মপুত্র ন‌দে প্রায়ই এমন বড় আকৃ‌তির বোয়াল ও বাঘাইড় ধরা প‌ড়ে।

যাত্রাপুরের বা‌সিন্দা জে‌লে মাইদুল আরও জানান, ১৫ কে‌জি ওজ‌নের বোয়াল‌টির তি‌নি প্রতি কে‌জি এক হাজার ২০০ টাকা করে দাম চা‌চ্ছেন। সে হি‌সে‌বে মাছ‌টির দাম পড়বে ১৮ হাজার টাকা।

রাত ৯টা পর্যন্ত ক্রেতারা মাছ‌টি দরদাম কর‌লেও বি‌ক্রি হয়‌নি। অনেকে মাছ‌টি দেখ‌তে এসে নি‌জে‌দের মোবাইল ফো‌নে ছ‌বিও তুল‌ে নেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

সিনোফার্মের টিকা নিলেন ২২৬ চীনা নাগরিক

সিনোফার্মের টিকা নিলেন ২২৬ চীনা নাগরিক

নির্মাণাধীন সড়ক ভবনের ছাদ ধসে ৩ শ্রমিক আহত

নির্মাণাধীন সড়ক ভবনের ছাদ ধসে ৩ শ্রমিক আহত

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২২:০৭

শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলায় বর পছন্দ না হওয়ায় বিয়ের চার দিনের মাথায় এক কিশোরী (১৫) আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা করেছেন তার বাবা।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ধানকাটি ইউনিয়নের চরপাতালিয়া এলাকার বাড়ি থেকে কিশোরীর লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ মর্গে পাঠায় পুলিশ।

এর আগে সোমবার (২৬ জুলাই) একই ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মোল্লাকান্দি গ্রামের নুর মোহাম্মাদ বেপারির দুবাই প্রবাসী ছেলে জহিরুল ইসলামের (৩৫) সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

কিশোরীর চাচাতো ভাই ও প্রতিবেশীরা জানান, স্থানীয় বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল কিশোরী। উচ্চশিক্ষা গ্রহণের স্বপ্ন ছিল তার। এ জন্য বিয়েতে রাজি ছিল না। পরিবারের চাপে বিয়ে করতে বাধ্য হয়েছে। কিন্তু বরের বয়সের বিষয়টি তাকে জানানো হয়নি। পরে জানতে পারে বরের সঙ্গে ২০ বছর বয়সের ব্যবধান। এ জন্য বর পছন্দ হয়নি।

বিষয়টি নিয়ে বর ও নিজের পরিবারের সঙ্গে রাগারাগি হয় তার। সকালে সবার অজান্তে বাড়ির ছাদে বিষপান করে। পরে দ্রুত তাকে ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কিশোরীর বাবা কোনও কথা বলতে রাজি হননি। তবে তাদের এক ঘনিষ্ঠ আত্মীয় বলেছেন, ‘পরিবারের লোভের কারণে মেয়েটিকে জীবন দিতে হলো।’

ধানকাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক পিন্টু বলেন, ‘শুনেছি বয়সের ব্যবধানের কারণে স্বামীকে অপছন্দ হওয়ায় মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে।’ 

ডামুড্যা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শরীফ আহম্মেদ বলেন, মেয়ের বাবা থানায় অপমৃত্যুর মামলা করেছেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/এএম/এমওএফ/

সম্পর্কিত

৭১ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ায় তরুণীর আত্মহত্যা

৭১ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ায় তরুণীর আত্মহত্যা

৩ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরি চলাচল শুরু

৩ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরি চলাচল শুরু

রাস্তা পার হতে গিয়ে প্রাণ হারালেন স্বামী-স্ত্রী

রাস্তা পার হতে গিয়ে প্রাণ হারালেন স্বামী-স্ত্রী

টিকার নিবন্ধনে জনপ্রতি নেওয়া হয় দেড় হাজার টাকা!

টিকার নিবন্ধনে জনপ্রতি নেওয়া হয় দেড় হাজার টাকা!

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২১:২৭

লকডাউন অমান্য করে নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার বদলকোট ইউনিয়নের পাটোয়ারী বাড়িতে মায়ের চেহলাম অনুষ্ঠান আয়োজন করায় ছেলেকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বেলা সাড়ে ১২টায় ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও চাটখিল উপজেলা  নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ এস এম আবু সালেহ মোহাম্মদ মোসা এ অভিযান পরিচালনা করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বদলকোট ইউনিয়নের পাটোয়ারী বাড়ির বজলুল রশীদ তার মৃত মায়ের জন্য লকডাউনের মধ্যেও জনসমাগম করে চেহলাম অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন। বিষয়টি জানতে পেরে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালিয়ে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে আয়োজককে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করে। একইসঙ্গে জনসমাগম না করে রান্না করা খাবার দাওয়াত পাওয়া সবার ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করে চাটখিল থানার পুলিশ।

/এফআর/

সম্পর্কিত

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

৭১ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ায় তরুণীর আত্মহত্যা

৭১ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ায় তরুণীর আত্মহত্যা

কুমিল্লায় লকডাউনের ছয় দিনে ১২ লাখ টাকা জরিমানা আদায় 

কুমিল্লায় লকডাউনের ছয় দিনে ১২ লাখ টাকা জরিমানা আদায় 

সর্বশেষ

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

‘মানবপাচার মামলার প্রসিকিউশনে ত্রুটিগুলোর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে’

তালেবান নিয়ন্ত্রিত প্রদেশে প্রবল বন্যায় ১৫০ জনের মৃত্যু

তালেবান নিয়ন্ত্রিত প্রদেশে প্রবল বন্যায় ১৫০ জনের মৃত্যু

সৌদি আরব থেকে ফেরত পাঠালে হজ-ওমরাহ ছাড়া প্রবেশ করা যাবে না

সৌদি আরব থেকে ফেরত পাঠালে হজ-ওমরাহ ছাড়া প্রবেশ করা যাবে না

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

অনির্দিষ্টকাল ইরানের সঙ্গে আলোচনা চলতে পারে না: মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনির্দিষ্টকাল ইরানের সঙ্গে আলোচনা চলতে পারে না: মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় র‌্যাবের অভিযান

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় র‌্যাবের অভিযান

করোনার 'সুপার স্প্রেডার' রাষ্ট্র হওয়ার পথে মিয়ানমার

করোনার 'সুপার স্প্রেডার' রাষ্ট্র হওয়ার পথে মিয়ানমার

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

ফেরি ‘শাহজালাল’ দুর্ঘটনার অনুসন্ধানে চার সদস্যের কমিটি

ফেরি ‘শাহজালাল’ দুর্ঘটনার অনুসন্ধানে চার সদস্যের কমিটি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

সিনোফার্মের টিকা নিলেন ২২৬ চীনা নাগরিক

সিনোফার্মের টিকা নিলেন ২২৬ চীনা নাগরিক

নির্মাণাধীন সড়ক ভবনের ছাদ ধসে ৩ শ্রমিক আহত

নির্মাণাধীন সড়ক ভবনের ছাদ ধসে ৩ শ্রমিক আহত

ক্যাম্প থেকে পালিয়ে কুড়িগ্রামে আটক ৯ রোহিঙ্গা

ক্যাম্প থেকে পালিয়ে কুড়িগ্রামে আটক ৯ রোহিঙ্গা

সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার কথা স্বীকার

সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার কথা স্বীকার

© 2021 Bangla Tribune