X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকায় ঢুকছে যাত্রীবাহী বাস

আপডেট : ২২ জুন ২০২১, ১১:৪৪

ঢাকার আশপাশের জেলাগুলোর মধ্যে নারায়ণগঞ্জও লকডাউনের আওতাভুক্ত। এ জেলা থেকে ঢাকা রুটে চলাচলরত প্রতিটি গণপরিবহনই যাত্রী পরিবহন করছে। দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরাও তেমন একটা বাধা দিচ্ছে না। তবে দূরপাল্লার কোনও বাস ছেড়ে যাওয়া বা ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। মঙ্গলবার (২২ জুন) সকালে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড ও শনিরআখড়া এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সাইনবোর্ড-গুলিস্তান সড়কের সাইনবোর্ড অংশে পুলিশের একটি চেকপোস্ট রয়েছে। সেখানে ‘রাস্তা বন্ধ’ লেখা পুলিশের একটি স্টিকার যুক্ত ব্যারিকেড রয়েছে। সেখান থেকে কিছু দূরে কয়েকজন পুলিশ সদস্য দাঁড়িয়ে রয়েছেন। যাত্রী পরিববহনের দায়ে কয়েকটি বাস ও লেগুনাকে আটকে রাখতে দেখা গেছে। তবে বাকি সবগুলো বাস ভরপুর যাত্রী নিয়ে ঢাকার দিকে ছেড়ে গেলেও বাধা দেওয়া হচ্ছে না।

চলছে গণপরিবহন এ সময় আটকে রাখা একটি লেগুনার চালক সিরাজ উদ্দিন বলেন, ‘আমার লেগুনা আটকে রাখা হলো। কিন্তু দেখেন শতশত বাস-লেগুনা যাত্রী নিয়ে গুলিস্তানে যাচ্ছে। তাদের আটকানো করা হচ্ছে না।’

শনিরআখড়া এলাকায় দেখা গেছে, ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জমুখী লোকাল পরিবহনগুলো যাত্রী পারাপার করছে। তবে এ সময় ঢাকা-কোম্পানীগঞ্জগামী তিসা গোল্ডেন নামের একটি বাস যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে বের হওয়ার সময় আটকানো হয়। পরে বাসটির নামে ট্রাফিক আইনে মামলা করেন সার্জেন্ট বিষ্ণু।

এ সময় তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘গতকাল ঢাকার আশপাশের সাত জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। লকডাউনের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ জেলাও রয়েছে। ঢাকা থেকে দূরপাল্লার কোনও বাস আমরা যেতে দিচ্ছি না। এ কারণে বাসটি আটক করা হয়েছে।’

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে চলছে গণপরিবহণ বাসের চালক নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আমরা নোয়াখালী থাকি। কাল যাত্রী নিয়ে ঢাকায় আসার পর শুনি লকডাউন দেওয়া হয়েছে। হঠাৎ করেই লকডাউন দেওয়ায় আমরা বিপদে পড়েছি।’

এদিকে, পর্যাপ্ত গণপরিবহন না পেয়ে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড থেকে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত পুরো সড়কে বিপুল সংখ্যক মানুষকে বৃষ্টির মধ্যে গণপরিবহণের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে।

 

/এসএস/আইএ/

সম্পর্কিত

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আশ্রম সেবা কার্যক্রমের বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠিত

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:৪৯

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'বঙ্গবন্ধু আনন্দ আশ্রম সেবা কার্যক্রমে’র বর্ষপূর্তি উপলক্ষে দেশব্যাপী ১২টি বৃদ্ধাশ্রমে একবেলা বিশেষ খাবার এবং খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

রবিবার (২৫ জুলাই) গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, খুলনা, সাতক্ষীরা, দিনাজপুর, রংপুর, নীলফামারী, লালমনিরহাট, জামালপুর, গাইবান্ধা, বরিশাল জেলার ১২টি বৃদ্ধাশ্রমে দুপুরে বিশেষ খাবারের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়াও বৃদ্ধাশ্রমগুলোতে  চাল, ডালসহ খাদ্যসামগ্রী এবং চিকিৎসাসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

গত বছরের ২৫ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার এন্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী অপূর্ব চক্রবর্তী ও দীপম সাহার উদ্যোগে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি যাত্রা শুরু করে।

গত ১ বছরে দেশের ১২টি জেলায় অবস্থিত বৃদ্ধাশ্রমে চাহিদামত ১৫ -২০ দিনের খাদ্যসামগ্রী, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও প্রবীণদের জন্য প্রয়োজনীয় ঔষধপত্র বিতরণ করেছে সংগঠনটি। পাশাপাশি প্রতিটি বৃদ্ধাশ্রমে ১০টি করে ফলজ ও বনজ গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে।

এছাড়াও বিভিন্ন বৃদ্ধাশ্রমে প্রবীণদের একাকীত্বের জীবনে মানবিক সঙ্গ প্রদান এবং সাইকোলজিস্টের সাহায্য নিয়ে "টকিং কিউর" পদ্ধতিতে তাদের চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী এই  কার্যক্রমের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক অমিতাভ রায় বলেন, বৃদ্ধ বাবা-মায়ের পাশে দাঁড়ানো, তাদের মুখে অন্ন তুলে দেওয়া, তাদের মুখে এক চিলতে হাসি ফোটানোর যে উদ্যোগ বঙ্গবন্ধু আনন্দ আশ্রম সেবা কার্যক্রমের সদস্যরা গ্রহণ করেছে তা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। তাদের এই মহতী উদ্যোগের একজন ক্ষুদ্রতম অংশীদার হতে পেরে ভালো লাগছে। আসুন আমরা নিজ নিজ জায়গা থেকে এই সেবা কার্যক্রমের পাশে থাকি। কারণ মনুষ্যত্ব মানুষেরই জন্যে।

/এমএস/

সম্পর্কিত

ঢাবির অনলাইন ক্লাসে অসন্তুষ্ট ৪৬ শতাংশ শিক্ষার্থী

ঢাবির অনলাইন ক্লাসে অসন্তুষ্ট ৪৬ শতাংশ শিক্ষার্থী

অনলাইনে পরীক্ষা নিতে ভিডিও টিউটোরিয়াল প্রকাশ করলো ঢাবি

অনলাইনে পরীক্ষা নিতে ভিডিও টিউটোরিয়াল প্রকাশ করলো ঢাবি

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ ঢাবি উপাচার্যের

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ ঢাবি উপাচার্যের

জ্ঞান আহরণ ও বিতরণের গৌরবগাথা নিয়ে শতবর্ষ পাড়ি দিলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: উপাচার্য

জ্ঞান আহরণ ও বিতরণের গৌরবগাথা নিয়ে শতবর্ষ পাড়ি দিলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: উপাচার্য

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:৪০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন মারা গেছেন। রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম-সচিব ও পরিচালক (জনসংযোগ) এসএম আসাদুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সিলেট-৩ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা অবস্থায় তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকার একটি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। 

এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রবিবার সকালে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় কর্মরত ইসির কর্মী মোহাম্মদ এনামুল হক (৪৪) মারা গেছেন। এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইসি'র সাত জন কর্মকর্তা-কর্মচারী মারা গেছেন।

এখনও পর্যন্ত ইসির প্রায় ১৬০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭১ জন। অন্যরা চিকিৎসাধীন আছেন বলে জানা গেছে।

 

/ইএইচএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২২

দেশে করোনায় এখন পর্যন্ত আট হাজার ৮৯০ জন স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে চিকিৎসকদের জাতীয় সংগঠন বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ)।

রবিবার ( ২৫ জুলাই) বিএমএ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

বিএমএ জানায়, আট হাজার ৮৯০ জনের মধ্যে চিকিৎসক তিন হাজার ৫৮ জন, নার্স দুই হাজার ১৭৫ জন আর অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন তিন হাজার ৬৭৫ জন।

বিএমএ আরও জানিয়েছে, গত ২০ জুলাই পর্যন্ত করোনা এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে ১৬৯ জন চিকিৎসক মারা গিয়েছেন।

করোনাতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম চিকিৎসক মারা যান গত বছরের ১৫ এপ্রিল। সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দীন আহমেদ করোনাতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুবরণকারী চিকিৎসক।

/জেএ/এমআর/

সম্পর্কিত

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২৫

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়সহ কলেজগুলোর শিক্ষার্থীদের করোনা ভাইরাস রোধক টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হলেও কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা কবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। আর টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ায় কবে থেকে ক্লাস শুরু হবে, তাও জানতে পারছেন না মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। কোনও কোনও শীর্ষ পর্যায়ের দায়িত্বশীল আলেমরা টিকা গ্রহণ করলেও শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কী সিদ্ধান্ত, তা এখনও ঠিক করতে পারেননি তারা।

কওমি মাদ্রাসার কয়েকজন সিনিয়র শিক্ষক ও একাধিক মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে সমন্বিত কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। এক্ষেত্রে বেফাক ও অন্যান্য আঞ্চলিক বোর্ডগুলোসহ কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ও এ বিষয়ে কোনও আলোচনা শুরু করেনি।

ঢাকার জামিয়া ইসলামিয়া মাখজানুল উলুম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও হেফাজতের মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার ছাত্ররা টিকা নেবে কিনা, সেটা মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ ও আল হাইআতুল উলয়া ঠিক করবে। ভ্যাকসিন কী জিনিস, আমি বুঝি না। এ বিষয়ে আমার কোনও অভিজ্ঞতা নেই।’

ঢাকার একটি মাদ্রাসার মেশকাত জামাতের (স্নাতক চূড়ান্ত) একজন শিক্ষার্থী রবিবার বিকালে বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, তাদের প্রতিষ্ঠান থেকে টিকা নেওয়ার ব্যাপারে কোনও কিছুই জানানো হয়নি। আর মাদ্রাসাও কবে নাগাদ খোলা হবে, তা অনিশ্চিত।

ঢাকার একটি কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) সরকারিভাবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ পর্যায়ে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রক্রিয়া শুরু করেছে। টিকা কার্যক্রম গুছিয়ে এনেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ও। এরইমধ্যে টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়স ১৮ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শেষ হলেই প্রতিষ্ঠান খুলবে, সরকারের পক্ষ থেকে এমন সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে।

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) একাধিক দায়িত্বশীল আলেম জানান, মাদ্রাসার ছাত্রদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে কোনও রোডম্যাপ হয়নি। ব্যক্তিগতভাবে শিক্ষার্থীদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগাযোগ করে টিকা দেওয়ার বিষয়ে উৎসাহ দেওয়া হলেও প্রাতিষ্ঠানিক কোনও নির্দেশনা নেই।

ঢাকার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক বলেন, টিকা নেওয়ার বিষয়ে শুরুতে বিভ্রান্তি থাকলেও এখন টিকা নেওয়ার পক্ষে সবাই। সুস্থ থাকতে টিকার বিকল্প নেই, এ কথাটিও ছাত্রদের কাছে তুলে ধরা হচ্ছে বিভিন্ন উপায়ে। যদিও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় অধিকাংশ শিক্ষার্থী টিকার ব্যাপারে অন্ধকারে আছে।

জামিয়া আরাবিয়া দারুল উলুম নতুনবাগ, রামপুরা মাদ্রাসার হাদিসের শিক্ষক মাওলানা ইমরানুল বারী সিরাজী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমাদের বেফাক বা হাইআ বা কোনও বোর্ড থেকেই কিছু জানানো হয়নি। কোনও ঘোষণাও আসেনি টিকার বিষয়ে। এখনও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় বোর্ডই ঠিক করবে করণীয়।’

ইমরানুল বারী জানান, মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা টিকাগ্রহণে ইতিবাচক। তবে, কী প্রক্রিয়ায় টিকা দেওয়া হবে সেজন্য অপেক্ষা করছে সবাই।

জানতে চাইলে বেফাক ও আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’র সদস্য মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা, শিক্ষকরা কীভাবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে বোর্ডগুলো এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। হাইআতুল উলয়ার দায়িত্বশীলরা এ বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছেন। তবে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।’

আল হাইআতুল উলয়া’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও জাতীয় দ্বীনী মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের সহসভাপতি মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘টিকার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে আমরা একটা গাইডলাইন করছি, চেষ্টা করছি। আমরা নিজেরা পরামর্শ করে গাইডলাইন তৈরি করেছি।’

সরকারের কাছে কোনও প্রস্তাব দেওয়া হবে কিনা, এমন প্রশ্নে ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘এটা হাইয়ার মুরুব্বিরা সরকারের সঙ্গে আলোচনা করবেন। আমরা আমাদের মতো চেষ্টা করছি।’

টিকা নিয়েছেন হাইআতুল উলয়ার চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান

সাধারণ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত না হলেও কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসান টিকা নিয়েছেন। আল-হাইআতুল উলয়া’র একজন কর্মকর্তা বাংলা ট্রিবিউনকে এ কথা জানান।

এই কর্মকর্তা আরও জানান, সিনিয়র আলেমদের মধ্যে অনেকেই নিবন্ধন করেছেন। তারা নিজ উদ্যোগে টিকা নিচ্ছেন।

কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) মাদ্রাসা খুলবে কবে?

কওমি মাদ্রাসা কবে নাগাদ ক্লাস শুরু করতে পারবে, এ নিয়ে এখনও অন্ধকারে বোর্ড ও দায়িত্বশীল আলেমরা। শিক্ষার্থীরাও বলছেন, তারা মাদ্রাসা খোলা বা ক্লাস শুরু হওয়া নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত জানতে পারছেন না।

সিলেটের একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বলেন, ‘মুরুব্বিরা চেষ্টা করছেন আগে মক্তব বিভাগ ও হেফজ বিভাগ (কোরআন শিক্ষা কার্যক্রম) চালু করতে। এরপর সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে অন্য ক্লাসগুলো শুরু হবে।’

দায়িত্বশীল একাধিক আলেম বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নয়, বরং সরকারের ক্ষোভের কারণে প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।

তারা জানান, হেফাজত ইস্যুতে সরকার মাদ্রাসাগুলোকে বন্ধ রেখেছে। কওমি মাদ্রাসার সংশ্লিষ্ট হেফাজত নেতাদের মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনবিরোধী অবস্থানের কারণে মাদ্রাসার প্রতি বিরূপ মনোভাব তৈরি হয়েছে সরকারের। আর এই ক্ষোভ উপশমে চেষ্টা করা প্রয়োজন বলে মনে করেন কোনও কোনও আলেম। এই অংশের অনেকেই মনে করেন, মাদ্রাসার ছাত্র- শিক্ষকদের বর্তমান পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিন দেওয়া প্রয়োজন।

মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘ক্ষোভটা তো সকলেরই জানা। করোনা ভাইরাসজনিত ও লকডাউন পরিস্থিতিতে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ ছিল। কিন্তু এবার প্রজ্ঞাপন দিয়ে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ করা হয়েছে। কেন বন্ধ হলো, সেটা সকলের জানা। কওমি মাদ্রাসাগুলোকে সরাসরি প্রজ্ঞাপন দিয়ে বন্ধ করা হয়েছে বিশেষ কারণে। কারণ আর উল্লেখ করার দরকার নাই। এই ক্ষোভ আমরা চাচ্ছি প্রশমন করতে। সরকারকে আস্থায় নিয়ে মাদ্রাসা খোলা দরকার।’

জানতে চাইলে হেফাজতের মহাসচিব ও ঢাকার একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল ইসলাম বলেন, ‘ এখনও তো লকডাউন চলছে। এই মুহূর্তে মাদ্রাসা খোলা সম্ভব না। লকডাউন শেষ হলে পরিস্থিতি বুঝে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন:

‘ঐতিহাসিক’ পদ্ধতিতে শিক্ষা দিচ্ছে কওমি মাদ্রাসা

সরকারি স্বীকৃতির তিন বছর: কতটা বদলেছে কওমি মাদ্রাসা?

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:০৬

জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন পাওয়ার পর বাড়িতে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করা এক তরুণীকে উদ্ধার করেছে চাঁদপুর থানা পুলিশ।

রবিবার (২৫ জুলাই) জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এর পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বাংলা ট্রিবিউনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন,  শনিবার (২৪ জুলাই)  সকাল সাড়ে দশটায় চাঁদপুর সদর থানার ওয়ারলেস স্কুল সংলগ্ন একটি ভবন থেকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে একজন তরুণী (১৮) ৯৯৯ নম্বরে ফোন করেন। তিনি অভিযোগ করেন, তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানায়। সাড়ে তিনমাস আগে তাকে মাহি এবং তার স্বামী রিপন নামে এক দম্পতি তাদের বাসায় কাজের কথা বলে নিয়ে আসে। কিন্তু তাকে দিয়ে ঘরের কাজের পরিবর্তে জোর করে পতিতাবৃত্তি করানো হচ্ছিল। এ ধরণের কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হতো। একজন খদ্দেরের ফোন থেকে টয়লেটে লুকিয়ে ৯৯৯ এ ফোন করেন ওই তরুণী। তিনি তাকে উদ্ধারের জন্য অনুরোধ জানান।

তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি চাঁদপুর সদর থানায় জানিয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানায় ৯৯৯। সংবাদ পেয়ে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। বাড়িটি শনাক্ত করেন।

চাঁদপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক মো. রাশেদুজ্জামান জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করেন এবং তাকে আটকে রেখে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তির অভিযোগে মাহি আক্তার বর্ষা ওরফে মাকসুদা বেগম মাহিকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে এসময় তার স্বামী রিপন বাসায় ছিলেন না।

এই ঘটনায় চাঁদপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

/এআরআর/এমএস/

সম্পর্কিত

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত অনলাইনে নব্য জেএমবির প্রচারণায় সক্রিয় ছিল ইমন: সিটিটিসি

গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত অনলাইনে নব্য জেএমবির প্রচারণায় সক্রিয় ছিল ইমন: সিটিটিসি

বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

স্লিপার সেলের মাধ্যমে চলছিলো জঙ্গি কার্যক্রম: সিটিটিসি

স্লিপার সেলের মাধ্যমে চলছিলো জঙ্গি কার্যক্রম: সিটিটিসি

সর্বশেষ

আশ্রম সেবা কার্যক্রমের বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠিত

আশ্রম সেবা কার্যক্রমের বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠিত

ঢাকার পথে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

ঢাকার পথে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ধাওয়ায় ৩ যাত্রী ফেরি থেকে নদীতে

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ধাওয়ায় ৩ যাত্রী ফেরি থেকে নদীতে

স্টিক দিয়ে মাথায় মেরে বসলেন আর্জেন্টিনার এক খেলোয়াড়!

অলিম্পিক হকিস্টিক দিয়ে মাথায় মেরে বসলেন আর্জেন্টিনার এক খেলোয়াড়!

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

মৃত্যু বেড়ে ২২৮, শনাক্ত ১১ হাজার ২৯১

মৃত্যু বেড়ে ২২৮, শনাক্ত ১১ হাজার ২৯১

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

অলিম্পিক টেনিসশ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

জাতীয় বায়োটেকনোলজি কুইজ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন

জাতীয় বায়োটেকনোলজি কুইজ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন

বাসাবাড়িতে চুরি করতে গৃহকর্মী নিয়োগ!

বাসাবাড়িতে চুরি করতে গৃহকর্মী নিয়োগ!

রামপুরায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

রামপুরায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মতিঝিলে গাড়ির গ্যারেজে আগুন

মতিঝিলে গাড়ির গ্যারেজে আগুন

© 2021 Bangla Tribune