X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

খুলনা মেডিক্যালে ৬ মৃত্যু, ৫ জনই পজিটিভ

আপডেট : ২৫ জুন ২০২১, ১৩:৩৮

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল করোনা ইউনিটে আরও ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে পাঁচ জনই করোনা পজিটিভ ও একজনের উপসর্গে মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (২৫ জুন) খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ২৫ জুন সকাল ৮টা পর্যন্ত এখান ১৫৪ জন ভর্তি হন। এর মধ্যে রেড জোনে ৯৬ জন, ইয়োলো জোনে ২৩ জন, এইচডিইউতে ২০ জন ও আইসিইউতে ১৬ জন রয়েছেন।

হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হন ৩৯ জন ও ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২২ জন।

এদিকে খুলনার সরকারি-বেসরকারি তিনটি হাসপাতালে ২৫ জুন সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি গতরাতে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ পিসিআর ল্যাবে আরও ১৯৯ জন পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে খুলনা জেলারই ১৭৬ জন।

খুলনার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ১৪ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। মোট ভর্তি আছেন ৬৯ জন, মারা গেছে একজন।

বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রধান ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত হাসপাতালে ৯৪ রোগী ভর্তি হন। এরমধ্যে দুই রোগীর মৃত্যু হয়। এরা হলেন পিরোজপুর সদরের রহিমা বেগম (৮০) ও খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গার শাহানা জামান (৫৭)। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫ নমুনা পরীক্ষায় ২২ জনের রেজাল্ট পজিটিভ আসে।

খুমেক পিসিআর ল্যাবের পরীক্ষায় ১৯৯ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। যা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৫১.৫৫ শতাংশ। এর আগে বুধবার খুমেক ল্যাবে শনাক্তের হার ছিল ৩৪ শতাংশ, মঙ্গলবার ছিল ৪০ শতাংশ, আর সোমবার ছিল ৩১ শতাংশ।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, খুমেকের পিসিআর মেশিনে বৃহস্পতিবার মোট ৩৮৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ১৯৯ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। যার মধ্যে খুলনার ৩২১ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ১৭৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া বাগেরহাটে ১৪ জন, যশোরে ছয় জন, সাতক্ষীরায় দুই জন, ও গোপালগঞ্জ জেলার একজন রয়েছেন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

পুকুরে ভাসছিল দুই শিশুর মরদেহ

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৮:৫০

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সুহিলপুর গ্রামের পুকুর থেকে তাবাসসুম আক্তার (৪) ও উমর মিয়া (৬) নামে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উমর সুহিলপুর গ্রামের মানিক মিয়ার ছেলে এবং তাবাসসুম একই গ্রামের মহসিন মিয়ার মেয়ে।

সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাদ হাজারী আঙ্গুর জানান, দুপুরে ওমর ও তাবাসসুম বাড়ির উঠানে খেলছিল। হঠাৎ করে তারা সেখান থেকে হারিয়ে যায়। দীর্ঘক্ষণ খোঁজাখুঁজি করে বাড়ির অদূরে একটি পুকুরে তাদের মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা লাশ উদ্ধার করেন।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

নুডলস কিনতে গিয়ে নিখোঁজের ৫ দিন পর মিললো শিশুর লাশ

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৮:৩৯

হবিগঞ্জের মাধবপুরে ঈদের দিন নুডলস কিনতে গিয়ে নিখোঁজ হয় তাহমিনা আক্তার লিজা (১০)। এর পাঁচ দিন পর রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে ভারতীয় সীমান্ত এলাকা সংলগ্ন একটি জঙ্গল থেকে তার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের আইলাবই গ্রামের সাগর আলীর মেয়ে লিজা। ঈদের দিন সকালে দোকানে নুডলস কিনতে বের হয়। পরে আর বাড়ি ফেরেনি। এ ঘটনায় লিজার মা সেলিনা আক্তার গত বৃহস্পতিবার মাধবপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। 

রবিবার দুপুরে স্থানীয় এক নারী জঙ্গলে লাকড়ি কুড়াতে গেলে অর্ধগলিত লাশ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার শুরু করলে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। খবর পেয়ে হবিগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (মাধবপুর সার্কেল) মহসিন আল মুরাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। 

সাগর আলীকে তালাক দিয়ে আইলাবই গ্রামের রুস্তম আলীর ছেলে মনসুর আলীকে বিয়ে করেন সেলিনা আক্তার। পরে মনসুর আলী সেলিনাকে তালাক দেন। এরপর সৌদি আরব যান সেলিনা। দেশে ফিরে মামার বাড়িতে মেয়েকে নিয়ে বসবাস শুরু করেন। 

সেলিনা আক্তার বলেন, মনসুর আলী তার কাছ থেকে অনেক টাকা-পয়সা নিয়ে আত্মসাৎ করেছেন। লিজাকে তিনিই হত্যা করতে পারেন বলে তার ধারণা। 

মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক জানান, শিশুটির মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। 

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

খেলায় লাল কার্ড দেখানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

খেলায় লাল কার্ড দেখানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

মাইকে ঘোষণা দিয়ে ২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষ

মাইকে ঘোষণা দিয়ে ২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষ

নিখোঁজের দুই দিন পর পর্যটকের লাশ উদ্ধার

নিখোঁজের দুই দিন পর পর্যটকের লাশ উদ্ধার

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৮:১৯

গাজীপুরের টঙ্গীতে খাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নিজ ভাইয়ের বন্ধুদের বিরুদ্ধে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে (১৫) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত তিন জনকে গ্রেফতার করেছে। রবিবার সকাল সাড়ে ৯টায় টঙ্গীর আউচপাড়া থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপির) টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলম গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো– নরসিংদীর রায়পুর উপজেলার বাঁশগাড়ী গ্রামের হানিফ মিয়ার ছেলে রফিকুল ইসলাম ওরফে রফিক (১৯), চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ উপজেলার বইসিক গ্রামের আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে নাঈম শেখ (১৯) এবং শেরপুরের নকলা উপজেলার ধনাকুশা (নদীর পাড় টংগের বাসা) গ্রামের আব্দুল গনির ছেলে মনিরুল ইসলাম (১৮)। অভিযুক্তরা সবাই গাজীপুরের টঙ্গী পশ্চিম থানার কাঠালদিয়া কলাবাগান এলাকায় থাকে। 

ওসি জানান, ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া উপজেলার লেবুনিয়া গ্রামের এক ব্যক্তি বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী মেয়েসহ পরিবার নিয়ে টঙ্গীর মধ্য আউচপাড়ার সফি উদ্দিন রোড সংলগ্ন মাহবুবের বাসার ভাড়া থাকেন। আসামিরা শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ওই বাসার গেটে যায়। এ সময় কিশোরীকে তার ভাইয়ের বন্ধু রফিক টঙ্গী কলেজ গেটের একটি হোটেলে খাওয়ানোর কথা বলে একটি রিকশায় ওঠায়। পরে বড় দেওড়া এলাকার নান্দুর মণ্ডল রোডের জনৈক মোশারফের বাড়ির ভাড়াটিয়া কাউসারের বাসায় নিয়ে যায় তাকে। সেখানে রফিক ও তার দুই সহযোগী মনিরুল ও নাঈম কিশোরীর মুখ চেপে ধরে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর তারা একটি রিকশায় উঠিয়ে মেয়েটিকে বাসায় পাঠিয়ে দেয়। সে বাসায় এসে পরিবারের সদস্যদের কাছে ঘটনা জানালে তার বাবা বাদী হয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানায় ওই তিন জনকে অভিযুক্ত করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা (নং ২৪) দায়ের করেন। 

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

১৫ লাখেও ‘শাকিব খান’ ‘ডিপজল’কে বিক্রি করেননি জিসান

১৫ লাখেও ‘শাকিব খান’ ‘ডিপজল’কে বিক্রি করেননি জিসান

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঢাকার পথে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৮:০০

ভারত থেকে আসা ২০০ মেট্রিক টন তরল মেডিক্যাল অক্সিজেন (এলএমও) সিরাজগঞ্জ বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছানোর পর থেকেই খালাসের কাজ চলছে। এরমধ্যে একটি ট্যাংকলরি ২০ টন তরল অক্সিজেন নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে।

রবিবার (২৫ জুলাই) বিকাল পৌনে ৪টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম রেলওয়ে স্টেশন থেকে ট্যাংকলরিটি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অবস্থিত সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্টের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। বাকিগুলো পর্যায়ক্রমে অক্সিজেন নিয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন লিন্ডের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও প্রশাসন বিভাগের ব্যবস্থাপক সুফিয়া আক্তার ওহাব। 

এর আগে ভারতের ঝাড়খণ্ড প্রদেশের জামশেদপুর টাটানগর থেকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আমদানি করা ২০০ মেট্রিক টন তরল অক্সিজেন শনিবার (২৪ জুলাই) রাত ১০টার দিকে বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করে। বেনাপোল বন্দরে আমদানি সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে ১০টি কনটেইনারবাহী অক্সিজেন এক্সপ্রেস রওনা দেয়। আজ সকাল ৭টায় ঈশ্বরদী স্টেশন হয়ে বেলা পৌনে ১১টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছায়।

বাকিগুলো পর্যায়ক্রমে অক্সিজেন নিয়ে যাবে

এ সময় সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ, সিরাজগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. রামপদ রায়, লিন্ডের সুফিয়া আক্তার ওহাব, গ্যাস বিভাগের বিক্রয় ও বিপণন শাখার মহাব্যবস্থাপক নুরুর রহমান, বঙ্গবন্ধু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মোসাদ্দেক হোসেন, স্টেশন মাস্টার মো. ইসমাইল হোসেনসহ সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসন, রেলওয়ে ও রেলওয়ে পুলিশ, পুলিশ, স্বাস্থ্য বিভাগ ছাড়াও অন্যান্য বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। 

সুফিয়া আক্তার ওহাব বলেন, আমরা ভালোভাবে ২০০ টন অক্সিজেন নিয়ে এসে এই অবধি পৌঁছেছি। সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসনসহ সবাই আন্তরিক সহযোগিতা করেছেন। এছাড়া লিন্ডে চেষ্টা করছে করোনাকালীন অক্সিজেনের যে চাহিদা বেড়েছে তার যতটুকু সম্ভব জোগান দিতে। 

নুরুর রহমান জানান, যেহেতু প্রতিটি ট্যাংকলরিতে ২০ টন করে মোট ২০০ টন তরল অক্সিজেন লোড হয়ে ঢাকায় যাবে, সেক্ষেত্রে অক্সিজেনবাহী প্রতিটি ট্যাংকলরি লোড হতে দুই ঘণ্টার মতো সময় লাগার কথা। তবে চাপ কম থাকায় প্রায় চার ঘণ্টার মতো সময় লাগছে। যেহেতু দুইটার বেশি একসঙ্গে লোড করা যাচ্ছে না, সেক্ষেত্রে সম্পূর্ণ অক্সিজেন আনলোড করতে পর্যায়ক্রমে পাঁচবারে অন্তত ২০ ঘণ্টা সময় লাগবে।

রাজিব দেবনাথ বলেন, স্টেশনের সামনের দিকে জায়গা কম থাকায় আমরা একসঙ্গে দুইটার বেশি ট্যাংকলরিতে লোড করতে পারছি না। তাই ১০টি ট্যাংকলরিতে লোড করতে অনেক সময় লাগবে। যদি অক্সিজেনবাহী ট্রেনের বাল্ব বক্স (অক্সিজেন আনলোড মেশিন) স্টেশনের সামনে না হয়ে উল্টো দিকে থাকতো, তাহলে একসঙ্গে সবগুলোই লোড করা সম্ভব হতো। 

সিরাজগঞ্জের সিভিল সার্জন রামপদ রায় বলেন, এটা আমাদের করোনাকালীন চিকিৎসা সেবায় অক্সিজেনের যে সংকট তা অনেকাংশেই লাঘব করবে। এবার আসা শুরু হলো, এখন পর্যায়ক্রমে ভারত থেকে অক্সিজেন আসতেই থাকবে। এছাড়া এখান থেকে ঢাকায় নেওয়ার পরে সারাদেশের চাহিদা অনুযায়ী স্বাস্থ্য বিভাগ বণ্টন করবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা। 

জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদ বলেন, করোনার এই ক্রান্তিলগ্নে ২০০ টন অক্সিজেন দেশে আসাটা আমাদের অনেক বড় অর্জন। যেহেতু এবারই ট্রেনযোগে এনে সিরাজগঞ্জে প্রথম ভারত থেকে আসা অক্সিজেন খালাস হলো, তাই এখান থেকে আবার লোড ট্যাংকারে করে ঢাকায় যাবে। পরবর্তীতে আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে দেখবো এটা সরাসরি ঢাকায় নেওয়া যায় কিনা। তাহলে আরও সময় বাঁচবে।

/এসএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম স্টেশনে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম স্টেশনে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ধাওয়ায় ৩ যাত্রী ফেরি থেকে নদীতে

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:৪৪

ভোলায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তাড়াহুড়া করে ফেরিতে উঠতে গিয়ে নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড সদস্যদের ধাওয়ায় তিন যাত্রী নদীতে পড়ে যান। পরে তারা সাঁতরে পাড়ে উঠতে সক্ষম হন। রবিবার (২৫ জুলাই) সকালে ইলিশা ঘাটের কলমীলতা ফেরিতে ওঠার সময় এ ঘটনা ঘটে। ফেরিটি ভোলার ইলিশা থেকে লক্ষ্মীপুরের মজুচৌধুরী হাট ঘাট রুটে চলাচল করে। সেখান থেকে যাত্রীরা ঢাকা, কুমিল্লা, নোয়াখালী চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলায় যাতায়াত করেন।

নদীতে পড়ে যাওয়া তিন যাত্রীদের একজন রুবেল হোসেনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তিনি একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করেন। দুই দিনের ছুটি নিয়ে বাড়িতে এসেছিলেন। রবিবারের মধ্যে ঢাকায় পৌঁছাতে না পারলে তার চাকরিটা থাকবে না। জরুরি ভিত্তিতে ঢাকা যাওয়ার জন্য রওনা দিয়েছিলেন। কোস্টগার্ডের ধাওয়া ও যাত্রীদের চাপে তিনি নদীতে পড়ে যান। এতে তার প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র ভিজে গেছে।

ভোলা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবু আবদুল্লাহ খান বলেন, ‘লকডাউনের মধ্যে ইলিশা ফেরিঘাটে সকাল থেকেই যাত্রীদের চাপ ছিল। তাদের বুঝিয়ে বাড়ি ফেরানোর চেষ্টা করছি। ঘাটে ফেরি আসার এক পর্যায়ে যাত্রীরা আমাদের বাধা অতিক্রম করে ফেরিতে উঠতে যান। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের গতিরোধ করলে যাত্রীদের চাপে ঘাটের গ্যাংওয়ে থেকে তিন জন নদীতে পড়ে যান। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাদের উদ্ধার করা হয়।’

ভোলার জেলা প্রশাসক মো. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, ‘ভোলার ফেরি ও লঞ্চঘাটে আমাদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে একটি টিম, র‌্যাব, কোস্টগার্ড, নৌ পুলিশ ও জেলা পুলিশ সদস্যরা অবস্থান করছেন। বিদেশগামী যাত্রী ও জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ফেরিতে উঠতে দেওয়া হচ্ছে না। পাশাপাশি বিআইডব্লিউটিএ’র দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের এ বিষয়ে বলা হয়েছে। তারাও যাত্রী পারাপারে কঠোর অবস্থানে আছেন।’

ইলিশা নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ জালাল বলেন, ‘কঠোর লকডাউনের তৃতীয় দিনে আজ রবিবার ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটের ইলিশা ফেরিঘাটে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলাগামী যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। ইলিশা ফেরিঘাটে আসা যাত্রীদের আমরা বুঝিয়ে বাড়ি ফেরত পাঠানোর জন্য চেষ্টা করছি। কিন্তু অনেক যাত্রী আমাদের বাধা উপেক্ষা করে ফেরিতে ওঠার চেষ্টা করছেন।’

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

সর্বশেষ

পুকুরে ভাসছিল দুই শিশুর মরদেহ

পুকুরে ভাসছিল দুই শিশুর মরদেহ

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

কারিগরিতে পদোন্নতি

কারিগরিতে পদোন্নতি

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

বিনা চার্জে বিকাশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ফি

বিনা চার্জে বিকাশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ফি

নুডলস কিনতে গিয়ে নিখোঁজের ৫ দিন পর মিললো শিশুর লাশ

নুডলস কিনতে গিয়ে নিখোঁজের ৫ দিন পর মিললো শিশুর লাশ

প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে নির্মিত শহীদ মিনারের তালিকা চেয়েছে সরকার

প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে নির্মিত শহীদ মিনারের তালিকা চেয়েছে সরকার

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

‘অপ্রতিরোধ্য হামলা’ চালানোর সক্ষমতা রয়েছে রাশিয়ার: পুতিন

‘অপ্রতিরোধ্য হামলা’ চালানোর সক্ষমতা রয়েছে রাশিয়ার: পুতিন

বোলারদের উদারতায় ফুলে-ফেঁপে উঠলো জিম্বাবুয়ের স্কোরবোর্ড

বোলারদের উদারতায় ফুলে-ফেঁপে উঠলো জিম্বাবুয়ের স্কোরবোর্ড

ফের চার বিভাগে দৈনিক শনাক্ত হাজারের বেশি

করোনাভাইরাসফের চার বিভাগে দৈনিক শনাক্ত হাজারের বেশি

গৃহকর্মীর ছদ্মবেশে স্বর্ণালংকারসহ টাকা চুরি, গ্রেফতার নুপুর রিমান্ডে

গৃহকর্মীর ছদ্মবেশে স্বর্ণালংকারসহ টাকা চুরি, গ্রেফতার নুপুর রিমান্ডে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

খুলনা বিভাগে বেড়েছে শনাক্ত ও মৃত্যু

খুলনা বিভাগে বেড়েছে শনাক্ত ও মৃত্যু

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বে যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বে যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

খুলনার ৪ হাসপাতালে ফের মৃত্যু বেড়েছে

খুলনার ৪ হাসপাতালে ফের মৃত্যু বেড়েছে

© 2021 Bangla Tribune