X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

চিকিৎসক সংকটে কুড়িগ্রাম হাসপাতাল, নেই আইসিইউ সাপোর্ট

আপডেট : ০৪ জুলাই ২০২১, ১৩:০৯

২৫০ শয্যার হাসপাতাল, আট তলা নতুন ভবন। সীমিত পরিসরে হলেও হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা সুবিধাও যোগ হয়েছে সম্প্রতি। কিন্তু করোনা মহামারির সময়েও চিকিৎসক সংকটে ধুঁকছে হাসপাতালটি। ২৫০ শয্যার হাসপাতালে চিকিৎসক মাত্র ১৪ জন। নেই নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ)। ফলে করোনা সংক্রমণ বাড়লেও রোগীরা পাচ্ছেন না কাঙ্ক্ষিত চিকিৎসাসেবা। এমনই অবস্থা ২৫০ শয্যার কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, নতুন ভবন, ২৫০ শয্যার যাবতীয় সুবিধা ও সেন্ট্রাল অক্সিজেন সাপ্লাই থাকলেও প্রয়োজনীয় চিকিৎসকসহ অবেদনবিদ না থাকায় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরও আইসিইউ সুবিধা পাচ্ছেন না কুড়িগ্রামের রোগীরা। সরকারি হাসপাতাল তো বটেই; জেলার বেসরকারি পর্যায়ের কোনও হাসপাতালেও আইসিইউ সুবিধা নেই।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গুরুতর অসুস্থ কোনও রোগীর উন্নত চিকিৎসা কিংবা আইসিইউর জন্য ৫৫ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে রংপুর যেতে হয়। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে গেলেও জেলার সংকটাপন্ন রোগীর জীবন রক্ষা নিয়ে বাড়ছে সংশয়।

হাসপাতালের প্রশাসনিক শাখার তথ্য অনুযায়ী, ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত ৫০ শয্যার কুড়িগ্রাম হাসপাতাল পরবর্তী সময়ে ১০০ শয্যায় উন্নীত হয়। ২০১০ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণার পর হাসপাতালটি ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণের জন্য ২০১৩ সালে নতুন ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে এটি ২৫০ শয্যার হাসপাতালের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা পেতে শুরু করে। 

প্রায় চার বছর ধরে মেডিসিন ও ডাইটসহ অন্যান্য সুবিধা পেলেও শুরু থেকেই চিকিৎসক সংকটে রয়েছে হাসপাতালটি। ফলে প্রায় ২২ লক্ষাধিক জনসংখ্যার জেলার মানুষ কাঙ্ক্ষিত স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, ২৫০ শয্যায় উন্নীত হলেও হাসপাতালে মাত্র ১৪ জন চিকিৎসক কর্মরত। অথচ ২৫০ শয্যার হাসপাতালের জন্য বিভিন্ন পদে ৬৫ জন চিকিৎসকের চাহিদা পাঠানো হয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ছয়টি পদ থাকলেও হাসপাতালটিতে কোনও ইমারজেন্সি মেডিক্যাল কর্মকর্তা নেই। ২০টি পদের বিপরীতে বিভিন্ন বিভাগের কনসালট্যান্ট রয়েছেন নয়জন। ইএনটি, চক্ষু, চর্ম ও যৌন, রেডিওলজি ও প্যাথলজি বিভাগে কোনও কনসালট্যান্ট নেই। আটটি পদের বিপরীতে ইনডোর মেডিক্যা কর্মকর্তা রয়েছেন মাত্র একজন। আর মেডিক্যাল অফিসারের ১০টি পদের বিপরীতে রয়েছেন মাত্র তিনজন। নেই অবেদনবিদ, রেডিওলজিস্ট ও প্যাথলজিস্ট। রোগীর চাপ সামলাতে অনেক সময় উপ-সহকারী মেডিক্যাল কর্মকর্তা (সেকমো) দিয়ে জরুরি বিভাগ ও আউটডোর চালানো হয়।

চিকিৎসক সংকটে স্বাস্থ্যসেবার চরম দুরবস্থার কথা স্বীকার করে হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. পুলক কুমার সরকার বলেন, ‘আমরা হিমশিম খাচ্ছি। এর মধ্যে কোভিড আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে।’

রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় হাসপাতালটির কোভিড ইউনিটের বেড সংখ্যা ৫০ থেকে বাড়িয়ে ৮০ করা হয়েছে জানিয়ে আরএমও বলেন, ‘৩ জুলাই পর্যন্ত কোভিড ইউনিটে ৬৩ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ২০ জনের অবস্থা অস্থিতিশীল। রোগীর সংখ্যা বাড়লেও চিকিৎসক সংকটের কারণে ওই ইউনিটে (প্রতি ১২ ঘণ্টায়) মাত্র একজন চিকিৎসক দায়িত্ব পালন করছেন।’  

রোগী বাড়ায় সেবা দিতে চিকিৎসকদের কষ্ট হচ্ছে জানিয়ে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. শহীদুল্লাহ বলেন, ‘চিকিৎসক চেয়ে ও আইসিইউ সুবিধার জন্য আমরা বারবার কর্তৃপক্ষকে চাহিদা দিচ্ছি। তারা শুধু আশ্বাস দিচ্ছেন। এমন অবস্থায় কোনও রোগীর আইসিইউর প্রয়োজন হলে তাকে রংপুর পাঠাতে হচ্ছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তত্ত্বাবধায়ক বলেন, ‘আমাদের আইসিইউ সুবিধা সম্পন্ন কোনও অ্যাম্বুলেন্সও নেই। ফলে ঝুঁকি থাকলেও প্রয়োজনের কারণে রোগীকে রংপুরেই যেতে হচ্ছে।’

জেলায় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা উদ্বেগজনক হারে বাড়লেও আইসিইউ সুবিধা মিলছে না এমন ইঙ্গিত দিয়ে সিভিল সার্জন ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আইসিইউর জন্য আমরা বারবার কর্তৃপক্ষকে চাহিদা দিচ্ছি। কিন্তু জনবল সংকট এবং সরঞ্জামের অভাবে এই সুবিধা চালু করা সম্ভব হচ্ছে না।’

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, ‘স্বাস্থ্য বিভাগ তাদের পক্ষ থেকে কর্তৃপক্ষের কাছে আইসিইউর চাহিদা দিলে আমরা প্রশাসনিকভাবে সুপারিশ করবো।’

মহামারির এই সময়ে উপজেলা পর্যায়ে রোগীরা যেন অন্তত অক্সিজেন সুবিধা পান সেজন্য জেলার সামর্থ্যবান ও ধনাঢ্যদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান জেলা প্রশাসক।

/এএম/

সম্পর্কিত

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪৬

কুষ্টিয়ার মিরপুরে স্কুলের খেলার মাঠ দখল করে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রুহুল আজম কেরুর বিরুদ্ধে ধান চাষের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের রামনগর পশ্চিমপাড়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে এমনটা ঘটানো হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসী ও কোমলমতি শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ জানিয়েছেন।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, স্কুলটির জমি সরকারি দলিলকৃত সম্পত্তি। সরকারিকরণের চিঠিও এসেছিল। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকেও কর্মকর্তারা পরিদর্শন করেছেন। কিন্তু করোনার কারণে সরকারি নিদের্শনায় দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। এ সুযোগে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রুহুল আজম কেরু স্কুল মাঠে ধান চাষ করেছেন। কমিটির সভাপতির এমন কাণ্ডে হতবাক প্রতিষ্ঠানটির অন্য শিক্ষকরাও।
 
শিক্ষার্থীরা বলছে, আগে স্কুলমাঠে ফুটবলসহ বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলা করতাম। স্কুলের সভাপতি রুহুল আজম কেরু ধান চাষ করায় খেলাধুলা বন্ধ হয়ে গেছে। আমরা খেলাধুলার মাঠ আবার আগের মতো ফিরে পেতে চাই।

স্থানীয় রামনগর পশ্চিমপাড়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক উজ্জ্বল বলেন, স্কুলটির জমি সরকারি দলিলকৃত সম্পত্তি। প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার মান ভালো ছিল। বিদ্যালয় মাঠে ধান চাষ ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কেন যে করছেন, এটা আমার জানা নেই। 

এদিকে স্কুল মাঠে ধান চাষের বিষয়টি স্বীকার করেছেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রুহুল আজম কেরু। তিনি বলেন, ‘এত বড় একটি জায়গা ফেলে রাখবো কী করে, তাই ধান চাষ করেছি।’

মিরপুর উপজেলার সচেতন নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা নজরুল করিম বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক। প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে স্থানীয় কুর্শা ইউপি চেয়ারম্যান মো. ওমর আলীর মোবাইলফোনে একাধিকবার কল দিয়েও কথা বলা সম্ভব হয়নি। 

মিরপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মাসুদ রানা বলেন, ওই স্কুলটি আমাদের তালিকাভূক্ত প্রতিষ্ঠান নয়। শিক্ষা অফিস থেকে খোঁজ নিতে গত বৃহস্পতিবার লোক পাঠানো হয়েছিলো। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানাতে পারবো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিংকন বিশ্বাস বলেন, এমন কাজের সঙ্গে জড়িতদের ছাড় দেওয়া হবে না। দ্রুত ওই বিদ্যালয়ের মাঠে খেলার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় ‘পীর’ গ্রেফতার

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় ‘পীর’ গ্রেফতার

ড্রেনে পড়েছিল ২ যুবকের লাশ

ড্রেনে পড়েছিল ২ যুবকের লাশ

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় ‘পীর’ গ্রেফতার

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৩০

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে কথিত পীর আব্দুর রহমান ওরফে শামীমকে (৬৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাত ১টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ ফিলিপনগর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

আব্দুর রহমান ওরফে শামীম দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের দক্ষিণ ফিলিপনগর গ্রামের মৃত জেসের মাস্টারের ছেলে। বৃহস্পতিবার দৌলতপুর থানায় শামীমের বিরুদ্ধে সদর উপজেলার বড় আইলচারা গ্রামের মৃত হেলাল উদ্দিনের ছেলে খালিদ হাসান সিপাই বাদী হয়ে মামলা করেন। 

দৌলতপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম জানান, শামীমের বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়া ছাড়াও মানুষকে জিম্মি করে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও চাঁদাবাজিসহ মামলার এজাহারে আটটি অভিযোগ আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/টিটি/

সম্পর্কিত

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

ড্রেনে পড়েছিল ২ যুবকের লাশ

ড্রেনে পড়েছিল ২ যুবকের লাশ

কেন্দ্রের নির্দেশ অমান্য, বাগেরহাটে আ.লীগের ২১ নেতা বহিষ্কার

কেন্দ্রের নির্দেশ অমান্য, বাগেরহাটে আ.লীগের ২১ নেতা বহিষ্কার

ড্রেনে পড়েছিল ২ যুবকের লাশ

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:২৩

সাতক্ষীরার আশাশুনির শোভনালীতে জমিতে পানি দেওয়ার ড্রেন থেকে দুই যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন আশাশুনির শোভনালী ইউনিয়নের গোদাড়া এলাকার মোস্তফা মোল্লার ছেলে রশিদ মোল্লা (২৩), একই এলাকার রসুল পাড়ের ছেলে ইদ্রিস পাড় (২০)।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ভোরে মাঠে কাজ করতে গিয়ে কয়েকজন লাশ দেখতে পায়। পরে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। 

আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি গোলাম কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করা যাবে বলে জানান তিনি। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় ‘পীর’ গ্রেফতার

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় ‘পীর’ গ্রেফতার

কেন্দ্রের নির্দেশ অমান্য, বাগেরহাটে আ.লীগের ২১ নেতা বহিষ্কার

কেন্দ্রের নির্দেশ অমান্য, বাগেরহাটে আ.লীগের ২১ নেতা বহিষ্কার

ভাড়া দেওয়া হয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কক্ষ

ভাড়া দেওয়া হয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কক্ষ

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:০২

দুই টেস্ট ও ১০টি ওয়ানডে ম্যাচসহ প্রিমিয়ার লীগের অসংখ্য খেলা গড়িয়েছে যে মাঠে সেটি এখন পড়ে আছে নিতান্ত অবহেলায়। অনেকটাই পরিত্যক্ত অবস্থায় গত ছয় বছর ধরে পানির নিচে তলিয়ে আছে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের মাঠ। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের মালিকানাধীন আর্ন্তজাতিক মানের এ মাঠটির সংস্কারে কোনও উদ্যোগ নেই বলে অভিযোগ খেলোয়াড় ও সংগঠকদের। তাদের মতে অযত্ন-অবহেলার এক অনন্য নিদর্শন খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে দ্রুতই মাঠের সংস্কার করে খেলার উপযোগী করতে কাজ চলছে।  

সংশ্লিষ্টরা জানান, ২০০০ সালের ১০ সেপ্টেম্বর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম উদ্বোধন করেন। ২০০৬ সালে বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ম্যাচ দিয়ে আর্ন্তজাতিক ভেনু হিসেবে যাত্রা শুরু করে স্টেডিয়ামটি। দুই টেস্ট এবং ১০টি ওয়ানডেসহ প্রিমিয়ারলীগের অসংখ্য ম্যাচে রঙ ছড়িয়েছেন ক্রিকেটাররা। সর্বশেষ ২০১৫ সালে বাংলাদেশ ও ওয়েস্টইন্ডিজ টেস্ট ম্যাচের পর আর কোনও আর্ন্তজাতিক ম্যাচ মাঠটিতে গড়ায়নি। 

আউটার স্টেডিয়ামে জলাবদ্ধতা সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় আউটার স্টেডিয়াম থেকে শুরু করে মূল স্টেডিয়াম ভরা থৈ থৈ পানি আর কচুরিপানা। মাঠটি ডিএনডি প্রজেক্টের ভেতের থাকায় এবং ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে অনেক নিচু হওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায়। পাশের আউটার স্টেডিয়াম বর্তমানের হাটু পানির নিচে তলিয়ে আছে। কচুরিপানা আর কালো নোংরা পানিতে সৃষ্ট উৎকট দুর্গন্ধে টেকা দায়। আউটার স্টেডিয়ামের জলাবদ্ধতার আটকে থাকা পানি চুইয়ে মূল স্টেডিয়ামের ভেতের ঢুকে পড়ায় মাঠ পানির নিচে রয়েছে। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে পানির নিচে থাকায় এবং সংস্কার না হওয়ায় মাঠে জন্মেছে বড় বড় ঘাস। 

স্টেডিয়ামের দর্শক চেয়ারগুলো এখন বিবর্ণ ও নষ্ট হওয়ার পথে ২৫ হাজার দর্শকের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন গ্যালারিতে বসার চেয়ার, ইলেকট্রনিক স্কোরবোর্ড, ভিআইপি গ্যালারি, সাংবাদিকদের বসার স্থান (প্রেস বক্স) ক্রিকেটারদের ড্রেসিং ও ওয়েটিংরুমসহ বাথরুম সবই এখন ব্যবহারের অনুপযোগী হওয়ার পথে। হঠাৎ করে মূল রাস্তা থেকে দেখলে আর্স্তজাতিক স্টেডিয়াম না ভেবে বড় ধরনের জলাশয় ভেবে বসতে পারেন যে কেউ। 

স্টেডিয়ামের মূল মাঠে যেন ঘাসের চাষ করা হয়েছে স্থানীয় ক্রিকেটার মোহাম্মদ আহমেদ হোসেন বলেন, নারায়ণগঞ্জ থেকে ফুটবল ও ক্রিকেটের অনেক খেলোয়াড় জাতীয় পর্যায়ে খেলে সুমান অর্জন করেছেন। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য নারায়ণগঞ্জে একটি আর্ন্তজাতিক মানের স্টেডিয়াম থাকার পরেও শুধু সংস্কারের অভাবে আমরা পিছিয়ে পড়ছি। এই স্টেডিয়ামের আর্ন্তজাতিক মানের খেলা অনুষ্ঠিত হলে, অনেকেই উৎসাহ পেতো। স্থানয়িভাবে আরও খেলোয়াড় তৈরি হতো। 

তিনি আক্ষেপ নিয়ে আরও বলেন, দীর্ঘ ছয় বছর ধরে মাঠটি পানির নিচে, আউটার স্টেডিয়াম পানির নিচে থাকায় আমরা খেলাধুলা এবং প্র্যাকটিস পর্যন্ত করতে পারছি না। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যেন কোনও মাথাব্যথা নেই। 

মূল মাঠে পানি জমে থাকায় জন্মেছে বড় বড় ঘাস সাবেক ক্রিকেটার আল মামুন বলেন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ শুধু নতুন স্টেডিয়াম বানানোর প্রকল্প নিয়ে ব্যস্ত। কিন্তু এই স্টেডিয়ামটি সংস্কার করলে যে টাকা খরচ হবে, নতুন একটি স্টেডিয়াম তৈরি করলে তার থেকে দশগুণ বেশি খরচ পড়বে। কিন্তু তারা নতুন স্টেডিয়াম বানাতেই বেশি আগ্রহী। যে কারণে গত ছয় বছর ধরে পানির নিচে থাকলেও নারায়ণগঞ্জের স্টেডিয়ামটির কোনও সংস্কার হচ্ছে না। 

স্থানীয় ক্রিকেটার নাহিয়ান বলেন, ফতুল্লা খান সাহেব ওসামান আলী স্টেডিয়ামের পূর্বপাশের আউটার স্টেডিয়ামে ২০১২, ১৩ ও ১৪ সালে একাধারে প্র্যাকটিস করেছি। সে সময় আমার মতো অসংখ্য ছেলে সেখানে প্র্যাকটিস করেছে। কিন্তু মাঠটি রাস্তা থেকে নিচু হওয়ায় এবং সামান্য বৃষ্টি হলে পানি জমে  জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে। পানি নিষ্কাশনের কোনও ব্যবস্থা নেই। যে কারণে মাঠটি দীর্ঘদিন ধরেই পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে। 

তিনি আরও বলেন, একটি মাঠের অভাবে আমাদের খেলাধুলা ও প্র্যাকটিস ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, ঝরে পড়ছে উঠতি বয়সের খেলোয়াড়রা।


নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ টিটু বলেন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ চাইলে আগামী সাত দিনের মধ্যে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজ শুরু করে দিতে পারে। একজন খেলোয়াড় বা সংগঠক হিসেবে স্টেডিয়ামের দ্রুত সংস্কার শুরু করার দাবি জানাচ্ছি। 
তিনি আরও বলেন, এই মাঠে যদি একটি আর্ন্তজাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয় তবে বাংলাদেশের সব মানুষ কিন্তু নিজের দেশে খেলা হচ্ছে বলেই খেলা দেখবে। এই জন্য বলছি এটি নারায়ণগঞ্জবাসীর নয়, দেশের সম্পদ।

তবে স্টেডিয়াম সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে। সেখানে জলাবদ্ধতার পানি আটকে থাকে। স্টেডিয়ামের প্রকৃত মালিক হচ্ছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। পরিষদ ক্রিকেট বোর্ডকে মাঠটি ব্যবহারের জন্য দিয়েছিল। স্টেডিয়ামের সংস্কারের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ যৌথভাবে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মাধ্যমে একটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। ইতোমধ্যে ফিজিবিলিটি স্টাডি হয়েছে। শুনেছি খুব দ্রুতই সংস্কার কাজ শুরু হবে। এটি ভেঙে নতুন করে উঁচু করে স্টেডিয়ামের আনুসাঙ্গিক কাজ করা হবে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক এবং সিনিয়র মাঠ ব্যবস্থাপক সৈয়দ আব্দুল বাতেন বলেন,  জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ও সিবিসি যৌথভাবে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে। এরই মধ্যে বুয়েট ড্রয়িং ডিজাইনের কাজ শেষ করেছে। এখন বিল অব কনট্রাক্টের কাজ চলছে। বুয়েটের সমীক্ষা শেষে আগামী ২০ বা ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কত টাকা ব্যয় হবে সেই প্রস্তাবনা দেওয়া হবে। পরে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিয়ে সংস্কার কাজ শুরু করা হবে বলে জানান তিনি।

 

/টিটি/ 

সম্পর্কিত

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:২১

দিনাজপুরের সদর ও বিরলে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অভিযানে জঙ্গি সন্দেহে প্রায় ৪৫ জনকে আটক করা হয়েছে। কয়েকটি মসজিদে অভিযান চালানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজন সরকার। তবে নির্দিষ্ট কত জনকে আটক করা হয়েছে তা তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি।

কথা হলে তিনি জানান, ঢাকা থেকে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা কয়েকটি মসজিদে অভিযান চালিয়েছেন। তারা আমাদের সহযোগিতা চেয়েছিল, এই হিসেবে তাদের সহায়তার জন্য দিনাজপুর থেকে পুলিশ সদস্যদের দেওয়া হয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত (১৭ সেপ্টেম্বর) ১২টার দিকে ঢাকার কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট দিনাজপুর সদর উপজেলার মহারাজা মোড়ের পূর্ব দিকে বাইতুল ফালাহ জামে মসজিদে অভিযান চালায়। এ সময় সেখান থেকে ১২ জনকে আটক করা হয়। একইসময়ে বিরল উপজেলার বিরল বাজার জামে মসজিদে অভিযান চালিয়ে ১৭ জনকে আটক করে ইউনিটের সদস্যরা। এছাড়া উপজেলা আরও দুটি মসজিদ থেকে প্রায় ১৫ জনকে আটক করা হয়। 

দুটি উপজেলার অভিযানেই স্থানীয় পুলিশ সদস্যরা সহযোগিতা করেন। 

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, তাবলিগ জামায়াতের একটি দল দিনাজপুর সদর ও বিরল উপজেলায় বিভক্ত হয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করছে, এমন তথ্যের ভিত্তিতে রাতে দিনাজপুরে আসে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা। পরে তারা স্থানীয় পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে।

বাইতুল ফালাহ জামে মসজিদের খাদেম আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বৃহস্পতিবার ২২ জন মানুষ ঢাকা থেকে আসেন। তাদের মধ্যে ১২ জন এখানে অবস্থান করে বাকিরা অন্য মসজিদে থাকার কথা বলে চলে যান। রাতে এশার নামাজের পরে আমরা বাসায় চলে গেলে তারা এই মসজিদেই অবস্থান করছিল। পরে রাতে শুনতে পারি তাদেরকে পুলিশ ধরে নিয়ে গেছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

সর্বশেষ

ইভ্যালির সিইও ও চেয়ারম্যানকে ১০ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ

ইভ্যালির সিইও ও চেয়ারম্যানকে ১০ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ

আমার B ও ৯
দায় মেটাতে না পারলে দেউলিয়া ঘোষণার প্রস্তুতি ছিল ইভ্যালির

দায় মেটাতে না পারলে দেউলিয়া ঘোষণার প্রস্তুতি ছিল ইভ্যালির

ব্রিটেনের রেড লিস্ট মুক্ত হচ্ছে বাংলাদেশ

ব্রিটেনের রেড লিস্ট মুক্ত হচ্ছে বাংলাদেশ

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

স্কুল মাঠ দখল করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ধান চাষ  

© 2021 Bangla Tribune