X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

চট্টগ্রামের সিআরবি এলাকার বৈশিষ্ট্য বজায় রাখতে আইনি নোটিশ

আপডেট : ১৪ জুলাই ২০২১, ১৯:০২

চট্টগ্রামের ‘ফুসফুস’ খ্যাত সিআরবি এলাকাকে উন্মুক্ত স্থান গণ্য করে কোনও গাছপালা ও পাহাড়-টিলা কেটে হাসপাতাল নির্মাণ না করার জন্য অনুরোধ জানিয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আইনি নোটিশ প্রেরণ করা হয়েছে।

বুধবার (১৪ জুলাই) পরিবেশ ও মানবাধিকার সংশ্লিষ্ট পাঁচটি সংগঠনের পক্ষে নোটিশটি প্রেরণ করা হয়েছে। সংগঠনগুলো হলো- পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা), পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), এসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফরম এন্ড ডেভেলপমেন্ট (এএলআরডি), নিজেরা করি এবং পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা)।

নোটিশটি রেলপথ মন্ত্রণালয় সচিব, ভূমি মন্ত্রণালয় সচিব, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সচিব, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সচিব, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক, প্রধান বন সংরক্ষক, বাংলাদেশ রেলওয়ের (পূর্বাঞ্চল)জেনারেল ম্যানেজার, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা; বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক, চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার, পরিবেশ অধিদফতরের (চট্টগ্রাম অঞ্চল) পরিচালক, কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এবং ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ এন্ড কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে পাঠানো হয়েছে।
  
নোটিশে বলা হয়েছে, সম্প্রতি পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদে দেখা যায় যে, বাংলাদেশ রেলওয়ে ও বেসরকারি সংস্থা ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ এন্ড কোম্পানি লিমিটেড যৌথভাবে ৬ একর জায়গার উপর ৫০০ শয্যা ও ১০০ আসন বিশিষ্ট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল নির্মাণ করতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। যদিও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের পরিকল্পনাতে সিআরবি এলাকাকে উন্মুক্ত স্থান হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে এবং চট্টগ্রাম নগরীর সকল পাহাড়-টিলাকে বিশেষ নিয়ন্ত্রণ অঞ্চল হিসেবে উল্লেখ করে সাংস্কৃতিক ও পরিবেশগত রক্ষিত অঞ্চল হিসেবে গণ্য করেছে। চট্টগ্রামের ফুসফুসখ্যাত অপরূপ নৈসর্গিক অঞ্চল, গুরুত্বপূর্ণ স্থাপত্যকলা এবং ইতিহাস সমৃদ্ধ সিআরবি এলাকায় বাংলাদেশ রেলওয়ের কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্য নিশ্চিত করার জন্য একটি হাসপাতাল থাকা সত্ত্বেও আরেকটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল নির্মিত হলে পাহাড়-টিলা এবং অসংখ্য গাছ কাটা পড়বে, বেশি লোক সমাগমের কারণে জীববৈচিত্র্য বিনষ্ট হবে। এতে সিআরবি অঞ্চল তার শত বছরের বৈশিষ্ট্য হারাবে এবং নির্জন এলাকাটি কোলাহলযুক্ত একটি ব্যস্ত অঞ্চলে পরিণত হবে।

‘এলাকাটি ছোট-বড় পাহাড়-টিলার সমন্বয়ে মোট ২১০ একর জুড়ে বিস্তৃত। কেবল প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কারণেই নয়, এলাকাটি ঐতিহাসিক কারণেও গুরুত্বপূর্ণ । সিআরবি, সাতরাস্তার মোড় ও টাইগার পাস ঘিরে থাকা পাহাড় ও উপত্যকায় গাছপালামণ্ডিত এলাকাটিকে চট্টগ্রামের “ফুসফুস” গণ্য করা হয়। তাছাড়া এখানে রয়েছে শিরিষতলা নামে একটি প্রশস্ত মাঠ যেখানে প্রতি বছর পহেলা বৈশাখ, পহেলা ফাল্গুন ইত্যাদি ঐতিহ্যগত উৎসব আয়োজিত হয়ে থাকে। 

নোটিশে সিআরবি এলাকাকে উন্মুক্ত স্থান হিসেবে গণ্য করে কোন ধরনের গাছ না কাটার জন্য অনুরোধ জানিয়ে এবং কোন পাহাড়-টিলা ও গাছপালা কেটে হাসপাতাল নির্মাণ না করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। পাশাপাশি এলাকাটিকে প্রচলিত আইন অনুযায়ী “বিশেষ জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ এলাকা, জাতীয় ঐতিহ্য, স্মারক বৃক্ষ এবং কুঞ্জ বন ও জীববৈচিত্র্য সমৃদ্ধ ঐতিহ্যগত স্থান ঘোষণার এবং শতবর্ষী গাছগুলোকে স্মারক বৃক্ষ হিসেবে ঘোষণারও দাবি জানানো হয়েছে।  

/বিআই/এমএস/

সম্পর্কিত

নুরুল থেকে ‘বন্দর ইসলামের’ উত্থান যেভাবে

নুরুল থেকে ‘বন্দর ইসলামের’ উত্থান যেভাবে

হেফাজত আমির বাবুনগরী আর নেই

হেফাজত আমির বাবুনগরী আর নেই

শিশু হত্যা মামলায় আল আমিনের যাবজ্জীবন

শিশু হত্যা মামলায় আল আমিনের যাবজ্জীবন

পিতা-মাতার পাশে শায়িত হবেন এমপি আলী আশরাফ

পিতা-মাতার পাশে শায়িত হবেন এমপি আলী আশরাফ

আগাম জামিন পেলেন কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৪৯

সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগের মামলায় কেয়া কসমেটিকস লিমিটেডের চেয়ারম্যান আবদুল খালেক পাঠান ও তার স্ত্রীকে আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি তাদের পাসপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। এ ছাড়াও তাদের সন্তানদের ছয় সপ্তাহের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

তাদের জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। 

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী নিতাই রায় চৌধুরী। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান, এ কে এম ফজলুল হক, ওমর ফারুক ও আসিফ হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।

এর আগে দুদকের সহকারী পরিচালক মো. শফি উল্লাহ বাদী হয়ে পৃথক পাঁচটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় তাদের বিরুদ্ধে ১৮৩ কোটি ৮৪ লাখ ৮০ হাজার ২৬৪ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও ৯৬ কোটি ২৯ লাখ ৭২ হাজার ৭৩৯ টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

জানা গেছে, আবদুল খালেক পাঠান, তার স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ের নামে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় তাদের নামে পৃথক পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাঁচ মামলায় দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারাসহ মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ২০১২ এর ৪ (২) ধারায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।

আরও পড়ুন:

কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যানসহ পাঁচজনের আগাম জামিনের আবেদন

/বিআই/ইউএস/

সম্পর্কিত

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

নকল ওষুধসহ গ্রেফতার ৩

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৩১

উৎপাদন নিষিদ্ধ ও দেশি-বিদেশি নামিদামি ব্র্যান্ডের নকল ওষুধ ও ক্রিম উদ্ধারসহ তিন জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ-ডিবি। গ্রেফতারকৃতরা হলো— ফয়সাল আহমেদ, সুমন চন্দ্র মল্লিক ও লিটন গাজী।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ঢাকার কোতোয়ালি থানার মিটফোর্ড এলাকার বিভিন্ন ওষুধের দোকানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার ও নকল ওষুধ জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের কাছ থেকে একশ’ পিস আই পিল, ১৬০ পিস সুপার গোল্ড কস্তুরি, ৩ হাজার পিস ন্যাপ্রোক্সেন প্লাস, ৩৫০ পিস বেটনোভেট-সি, এক হাজার পিস প্রটোবিট, ১১৫ বক্স ইনো, ৪০০ পিস সাঙ্গারা, ১৫০০ পিস পেরিয়াক্টিন, ১১০টি মুভ ক্রিম, ৫০০ কৌটা হোয়াইটফিল্ড, ৩০টি রিংগার্ড, ২৫০টি নিক্স রাবিং বাম, ৩০০টি ভিক্স কোল্ড প্লাস, ২০ কৌটা ভ্যাপোরাব ও ৪২০ কৌটা গ্যাকোজিমা উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ডিবির যুগ্ম কমিশনার (দক্ষিণ) মাহবুব আলম। তিনি বলেন, ‘কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী রাজধানীর মিটফোর্ডের পাইকারি ওষুধ মার্কেটের বিভিন্ন দোকানে নিষিদ্ধ ও জীবন রক্ষাকারী দেশি-বিদেশি ব্র্যান্ডের নকল ওষুধ ও ক্রিম বিক্রয় করে আসছে। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে  ভিত্তিতে ওষুধ অধিদফতরের সহায়তায় মিটফোর্ডের সুরেশ্বরী মেডিসিন প্লাজার নিচ তলার মেডিসিন ওয়ার্ল্ড ও অলোকনাথ ড্রাগ হাউস এবং হাজি রানি মেডিসিন মার্কেটের নিচতলায় রাফসান ফার্মেসিতে অভিযান চালানো হয়।’

ডিবির এই কর্মকর্তা জানান, রাজধানীর মিটফোর্ড মার্কেটটি ওষুধের পাইকারি বাজার হওয়ায় নকল ওষুধ উৎপাদন ও বাজারজাতকারী চক্র সমগ্র দেশে নকল ওষুধ ছড়িয়ে দিতে এই মার্কেটকে ক্যামোফাজ হিসেবে ব্যবহার করে আসছে।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃতরা অধিক লাভের আশায় এসব দেশি ও বিদেশি নামিদামি ব্র্যান্ডের ওষুধ ও ক্রিম তাদের সহযোগীদের কাছ থেকে সংগ্রহ করে মিটফোর্ড এলাকায় বাজারজাত করে আসছিল।

অভিযান পরিচালনকারী গোয়েন্দা লালবাগ জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার সাইফুল ইসলাম আজাদ বলেন, ‘গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করা হয়েছে। এই চক্রে আরও লোকজন রয়েছে। তাদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

/এনএল/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৪

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায়  মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামি ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য আগামী ২১ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামের আদালতে মামলাটির পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হলে আসামির আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য নতুন তারিখ ধার্য করেন আদালত।

এর আগে গত ২১ জানুয়ারি মামলাটি যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য ধার্য  ছিল। কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল মামলাটির পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহনের জন্য আদালতে আবেদন করেন। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

মামলায় অভিযোগ থেকে জানা যায়, বাবরের বিরুদ্ধে ৭ কোটি ৫ লাখ ৯১ হাজার ৮৯৬ টাকার অবৈধ সম্পদ রাখার অভিযোগ আনা হয়। কিন্তু দুদকে ৬ কোটি ৭৭ লাখ ৩১ হাজার ৩১২ টাকার সম্পদের হিসাব দাখিল করেছিলেন তিনি। তার অবৈধ সম্পদের মধ্যে প্রাইম ব্যাংক এবং এইচএসবিসি ব্যাংকে দুইটি এফডিআরে ৬ কোটি ৭৯ লাখ ৪৯ হাজার ২১৮ টাকা এবং বাড়ি নির্মাণ বাবদ ২৬ লাখ ৪২ হাজার ৬৭৮ টাকা গোপন করার অভিযোগ করা হয়।

ওই ঘটনায় ২০০৮ সালের ১৩ জানুয়ারি এই আসামির বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপন করার অভিযোগে রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করে দুদক। পরে তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক রূপক কুমার সাহা তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

/এমএইচজে/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

নকল ওষুধসহ গ্রেফতার ৩

নকল ওষুধসহ গ্রেফতার ৩

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৪

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) উগ্রবাদী মতাদর্শ প্রচার করা বইয়ের প্রকাশক হাবিবুর রহমান ওরফে শামীমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বাংলাবাজারের ইসলামি মার্কেট এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত শামীম আল রিহাব পাবলিকেশন্সের স্বত্বাধিকারী ও প্রকাশক।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিটের মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস শাখার পুলিশ সুপার মো. আসলাম খান।

তিনি বলেন, ২০১৬ সাল থেকে হাবিবুর রহমান ওরফে শামিম আল রিহাব পাবলিকেশন্স নামে একটি প্রকাশনা চালু করে। মুফতি জসীমউদ্দিন রাহমানীর একান্ত সহযোগী ফিরোজ তাকে মুফতি জসিম উদ্দিন রহমানের কিছু বই প্রকাশ করার জন্য দেয়। সে তার প্রকাশনা থেকে বইগুলো প্রকাশ ও বিক্রি করে। বই প্রকাশ সূত্রে সে মুফতি জসীমউদ্দিন রাহমানীর মতাআদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম সমর্থন করা শুরু করে। সে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য। প্রকাশনাসূত্রে আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের কতিপয় সংগঠকের সাথে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

গ্রেফতারকৃত হাবিবুর এবিটি সদস্য ও অন্যান্য অনুসারীদের কাছে মুফতি জসীমুদ্দীন রাহমানীর উগ্রবাদী বই ছাড়াও অন্যান্য উগ্রপন্থী বই-পত্রিকার প্রকাশনা সরবরাহ, বিতরণ ও অনলাইন প্লাটফর্মে গোপনে বিক্রি করতো। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে সে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের মতাদর্শের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ভিডিও কনটেন্ট সমর্থকদের সাথে শেয়ার করত।

এটিইউ’র মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস শাখার এএসপি ওয়াহিদা বলেন, উগ্রপন্থী মতাদর্শের বিভিন্ন বই গোপনে অনলাইনে এবং অফলাইনে বিক্রি ও উগ্রপন্থী কর্মকাণ্ডকে উদ্বুদ্ধ করায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। গত ১৬ সেপ্টেম্বর ময়মনসিংহ থেকে গ্রেফতারকৃত আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য কায়সার আহমেদ ওরফে মিলন ও জাহিদ মোস্তফা দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাংলাবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয় হাবিবুরকে।

/আরটি/এমএস/

সম্পর্কিত

আগাম জামিন পেলেন কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী

আগাম জামিন পেলেন কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:০৩

সরকারি অফিস থেকে ‘তথ্য চুরি’র অভিযোগে শাহাবাগ থানায় দায়ের করা মামলায় দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের পাসপোর্ট, দুটি মোবাইল ফোন ও পিআইডি অ্যাক্রেডিটেশন কার্ড ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবুবকর সিদ্দিকের আদালত এই আদেশ দেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এর আগে, গত ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে এ আবেদন করেছিলেন রোজিনার আইনজীবী প্রশান্ত কুমার কর্মকার। এরপর এই বিষয়ে শুনানির জন্য আদালত আজকের দিন ধার্য করেন।

চলতি বছর ১৭ মে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কক্ষ থেকে ‘তথ্য চুরি’র অভিযোগ এনে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হয়। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। প্রায় এক সপ্তাহ দেশব্যাপি বিষয়টি নিয়ে তুমুল আলোচনার সৃষ্টি করে। গত ২৩ মে সকালে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বাকি বিল্লার আদালত পাঁচ হাজার টাকার মুচলেকায় সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের জামিন মঞ্জুর করেন।

আরও পড়ুন:
সাংবাদিক রোজিনার রিমান্ড নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ 
সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

/এমএইচজে/ইউএস/

সম্পর্কিত

নকল ওষুধসহ গ্রেফতার ৩

নকল ওষুধসহ গ্রেফতার ৩

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

নুরুল থেকে ‘বন্দর ইসলামের’ উত্থান যেভাবে

নুরুল থেকে ‘বন্দর ইসলামের’ উত্থান যেভাবে

হেফাজত আমির বাবুনগরী আর নেই

হেফাজত আমির বাবুনগরী আর নেই

শিশু হত্যা মামলায় আল আমিনের যাবজ্জীবন

শিশু হত্যা মামলায় আল আমিনের যাবজ্জীবন

পিতা-মাতার পাশে শায়িত হবেন এমপি আলী আশরাফ

পিতা-মাতার পাশে শায়িত হবেন এমপি আলী আশরাফ

সংসদ সদস্য ও সাবেক ডেপুটি স্পিকার আলী আশরাফ মারা গেছেন

সংসদ সদস্য ও সাবেক ডেপুটি স্পিকার আলী আশরাফ মারা গেছেন

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসকসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসকসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

টেকনাফে কোস্টগার্ডের অভিযানে আন্দামান গোল্ড বিয়ার জব্দ

টেকনাফে কোস্টগার্ডের অভিযানে আন্দামান গোল্ড বিয়ার জব্দ

বাবুনগরীর প্রেস সচিব ফারুকী ৪ দিনের রিমান্ডে

বাবুনগরীর প্রেস সচিব ফারুকী ৪ দিনের রিমান্ডে

ভারতীয় নারীর সঙ্গে পরকীয়া, হত্যার ছক কষেছিলেন বাবুল নিজেই

ভারতীয় নারীর সঙ্গে পরকীয়া, হত্যার ছক কষেছিলেন বাবুল নিজেই

সর্বশেষ

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

আগাম জামিন পেলেন কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী

আগাম জামিন পেলেন কেয়া কসমেটিকসের চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রী

চলমান স্থিতিশীলতা বিনষ্টের চেষ্টা করছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

চলমান স্থিতিশীলতা বিনষ্টের চেষ্টা করছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

‘শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে তরুণদের দক্ষতাবৃদ্ধি জরুরি’

‘শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে তরুণদের দক্ষতাবৃদ্ধি জরুরি’

© 2021 Bangla Tribune