X
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

আড়াই লাখে ইজারা, দিনে আদায় লাখ টাকা!

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলায় মেঘনা নদীর দুই তীরের অন্তত পাঁচ কিলোমিটার এলাকা সম্প্রতি ইজারা দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। আড়াই লাখ টাকায় ইজারা নিয়ে দিনে লাখ টাকা আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ নৌকার মাঝি, কৃষক-শ্রমিকসহ আশুগঞ্জের পাঁচ গ্রামের মানুষ। এর প্রতিবাদে সম্প্রতি মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে তারা।

তবে বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তারা বলছেন, এ বিষয়ে কোনও অভিযোগ পাননি তারা। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করা হবে। তদন্ত করে সত্যতা পেলে ইজারা বাতিল করা হবে।

গ্রামবাসী জানায়, আশুগঞ্জ উপজেলার পাওয়ার স্টেশন কোম্পানির কৃত্রিম খাল থেকে উপজেলার তাজপুর পর্যন্ত মেঘনার দুই তীরের অন্তত পাঁচ কিলোমিটার প্লাবন ভূমি গত ২৪ আগস্ট থেকে ১০ মাসের জন্য ইজারা দেয় বিআইডব্লিউটিএ। ইজারা নেন উপজেলার সোহাগপুর গ্রামের কাশেম মোল্লার ছেলে মো. মহিউদ্দিন মোল্লা। এরপর ইজারা নেওয়া পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে কোনও নৌযান চলাচল করলে, ড্রেজার দিয়ে বালু তুললে ও নৌকা চলাচল করলে রশিদ দিয়ে টাকা আদায় করছেন ইজারাদারের লোকজন।এতে ক্ষুব্ধ তাজপুর, দূর্গাপুর, বাহাদুরপুর, সোহাগপুর ও সোনারামপুর গ্রামের মানুষ। গ্রামের কয়েকশ মানুষ আশুগঞ্জ মেঘনার তীরে জড়ো হয়ে ইজারা বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেন।

তাদের অভিযোগ, ঘাট-পন্টুন এমনকি যোগাযোগের রাস্তা না থাকা সত্ত্বেও মেঘনার প্লাবন ভূমি ও কৃষিজমি ইজারা দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ। ইজারা নিয়ে মানুষের পকেট কাটছেন ইজারাদার। অবিলম্বে ইজারা বাতিলের দাবি জানান গ্রামবাসী।

সম্প্রতি মানববন্ধন করে ইজারা বাতিলের দাবি জানিয়েছে গ্রামবাসী

আশুগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আশিকুল ইসলাম মিলন বলেন, মেঘনার দুই তীরের পাঁচ কিলোমিটার এলাকা দুই লাখ ৫২ হাজার টাকা ইজারা দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ। এখন প্রতিদিন দুই পাড়ের মানুষের কাছ থেকে লাখ টাকা জোর করে আদায় করেন ইজারাদার। মানুষের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে টাকা আদায় করা হয়। এ নিয়ে মানুষের সঙ্গে ঝামেলার সৃষ্টি হয়। এলাকায় বড় ধরনের কোনও ঘটনা ঘটলে এর দায় বিআইডব্লিউটিএর উপ-পরিচালক শহীদ উল্যাহকে নিতে হবে। তার বিরুদ্ধে আগেও অনেক অভিযোগ আছে। নদীর তীরের সব ব্যবসায়ীর কাছ থেকে টাকা আদায় করেছেন তিনি। আমরা প্রশাসন ও ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করবো, তাকে যেন দ্রুত অপসারণ করা হয়।

স্থানীয় ব্যবসায়ী সালাউদ্দিন বলেন, বেআইনিভাবে বিআইডব্লিউটিএর উপ-পরিচালক কৃষিজমি ও নদীর তীর ইজারা দিয়েছেন। যারা ইজারা নিয়েছেন তারা প্রতিদিন রশিদ কেটে লাখ টাকা আদায় করছেন। এতে সাধারণ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। যদি ইজারা বাতিল করা না হয় তাহলে বড় ধরনের আন্দোলন হবে।

স্থানীয় কৃষক বাহাউদ্দিন বলেন, গত ৩০ বছর ধরে এই জমিতে আমরা হাল চাষ করে ছেলেমেয়ে নিয়ে জীবনযাপন করছি। এখন দুই লাখ ৫২ হাজার টাকায় ইজারা নিয়ে লাখ লাখ টাকা আয় করছেন ইজারাদার। আমরা নদীতে কাজ করতে পারি না। ইজারাদার এসে টাকা দাবি করেন। আমরা খুবই বিপদে পড়ছি। এখন আমরা আন্দোলনে নামছি। মরলে, মরে যাব। এ জন্য দায়ী হবেন বিআইডব্লিউটিএর উপ-পরিচালক।

স্থানীয় নৌকার মাঝি বাবুল মিয়া বলেন, আমার নৌকার মালিককে দেওয়ার জন্য একটা রশিদ দিয়ে গেছেন ইজারাদারের লোকজন। এক নৌকায় ৬-৭ হাজার ফুট বালু নিতে পারি। প্রতি ফুটে ২৫ পয়সা করে হিসাব করে টাকা দেওয়ার কথা বলে গেছেন তারা।

এ বিষয়ে ইজারাদার মো. মহিউদ্দিন মোল্লা বলেন, যেখানে বালু, ইট লোড-আনলোড করা হয়, সেখানে মালামালের নির্দিষ্ট দর দেওয়া আছে। যদি কেউ অভিযোগ করে জোর করে আদায় করা হচ্ছে, সেটা সত্য নয়। বিআইডব্লিউটিএর শর্ত অনুযায়ী ইজারা আদায় করা হয়।

এ ব্যাপারে বিআইডব্লিউটিএর আশুগঞ্জ-ভৈরব নৌ-বন্দরের উপ-পরিচালক শহীদ উল্যাহ বলেন, টেন্ডার দেওয়ার কোনও ক্ষমতা নেই আমাদের। আমরা এগুলো ঢাকায় পাঠিয়ে দিই। টেন্ডারগুলো তিন জায়গায় হয়। এখানে, ঢাকা প্রধান কার্যালয় ও মন্ত্রণালয়ে। যে কেউ ঢাকা থেকেও টেন্ডার নিতে পারেন। এলাকাবাসীর অভিযোগের বিষয়ে লিখিত পেলে বিষয়টি তদন্ত করা হবে। তদন্তে ইজারার শর্ত ভঙ্গের প্রমাণ পেলে অব্যশই ইজারা বাতিল করা হবে। লিখিত অভিযোগ পেলে কমিটি গঠন করে বিষয়টি তদন্ত করা হবে।

আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অরবিন্দু বিশ্বাস বলেন, বিষয়টি নিয়ে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলবো আমরা। অনিয়ম কিংবা দুর্নীতির প্রমাণ পেলে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়কে জানানো হবে।

/এএম/ /এসএইচ/

সম্পর্কিত

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১২ শিশুর মৃত্যু

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১২ শিশুর মৃত্যু

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

ধর্ষণের অভিযোগে জাপা নেতা গ্রেফতার

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২৪

ময়মনসিংহে স্ত্রীর সহায়তায় টানা পাঁচ মাস এক কিশোরীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগে জেলার জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির (জাতীয় পার্টির অঙ্গ সংগঠন) সভাপতি হোসেন আলীকে (৫০) গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৪।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১২টায় নগরীর কৃষ্টপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অভিযুক্তকে কোতোয়ালি মডেল থানায় সোপর্দ করেছে র‍্যাব। এর আগে র‍্যাব-১৪-এর কাছে লিখিত অভিযোগ করেন ওই কিশোরীর পিতা।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে ভুক্তভোগীর পিতা বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় হোসেন আলী ও তার স্ত্রী তামান্না বেগমকে (১৯) আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেন, নগরীর কৃষ্টপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকার সুবাদে প্রতিবেশী হোসেন আলী ওই কিশোরীর বাসায় আসতো এবং কথাবার্তা বলতো। চলতি বছরের ১৫ জানুয়ারি সকালে হোসেন আলীর তৃতীয় স্ত্রী তামান্না বেগম ভুক্তভোগীকে তাদের ঘরে ডেকে নিয়ে পূর্বপরিকল্পিতভাবে সেভেন-আপের সঙ্গে নেশা জাতীয় ওষুধ সেবন করায়। এতে অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে ধর্ষণ করে মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে হোসেন আলী। ধর্ষণের ঘটনাটি প্রকাশ করলে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তার সঙ্গে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্ক করতে বলে ধর্ষক। পরদিন (১৬ জানুয়ারি) সকালে আবারও তামান্না বেগম ওই কিশোরীকে ডেকে স্বামী হোসেন আলীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের জন্য ঘরে ঢুকিয়ে দিয়ে দরজা বন্ধ করে বাইরে বসে পাহারা দেয়।

এভাবে টানা পাঁচ মাস ওই কিশোরীকে ভিডিও ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে হোসেন আলী। পরবর্তী সময়ে ঘটনাটি কিশোরী তার মাকে জানালে মান-সম্মানের ভয়ে তারা ভাড়া বাসা ছেড়ে অন‍্যত্র চলে যায়। কিন্তু ধর্ষক হোসেন আলী সেখানেও অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের নিয়ে এলাকায় মহড়া দিয়ে মেয়েকে অপহরণ করে হত‍্যার হুমকি দিয়েছে বলেও এজাহারে অভিযোগ করেন বাদী।

ওসি আরও জানান, সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামিকে ময়মনসিংহ আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

জুয়ার আসর থেকে ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৬

জুয়ার আসর থেকে ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৬

বিয়ের দিন ধর্ষণের শিকার তরুণী

বিয়ের দিন ধর্ষণের শিকার তরুণী

ময়মনসিংহে মৃত্যু-শনাক্ত কমেছে

ময়মনসিংহে মৃত্যু-শনাক্ত কমেছে

এসপি কার্যালয়ের সামনে কনস্টেবলের ২ সন্তানকে ফেলে গেলেন মা

এসপি কার্যালয়ের সামনে কনস্টেবলের ২ সন্তানকে ফেলে গেলেন মা

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১২ শিশুর মৃত্যু

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:১৮

সাতক্ষীরায় হঠাৎ করেই বেড়েছে নিউমোনিয়ার প্রকোপ। সদর হাসপাতালের মাত্র ২৬টি শিশু শয্যার বিপরীতে রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ৯৩ জন শিশু চিকিৎসাধীন ছিল। আর সেপ্টেম্বরের ১৯ দিনে হাসপাতালে ৫০৯ জন শিশু চিকিৎসা নিয়েছে। এর মধ্যে ১২ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। 

তবে হাসপাতালে সেবা নিতে এসে চিকিৎসক-নার্স এবং কর্মীদের অভাব রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন রোগীর স্বজনরা। জানা গেছে, মাত্র একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দিয়ে চলছে শিশু বিভাগ। কর্তৃপক্ষ বলছে প্রতিমাসে শিশু চিকিৎসক চেয়ে প্রতিবেদন দিলেও কোনও ফল পাওয়া যাচ্ছে না। চিকিৎসক ও জনবল সংকটের পরেও সর্বোচ্চ সেবা দানের চেষ্টা রয়েছে বলে দাবি করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

শিশু ওয়ার্ডে শয্যা খালি না থাকায় বারান্দায় অসুস্থ শিশুদের নিয়ে অবস্থান নিয়েছেন স্বজনরা খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ১০০ শয্যার সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে শিশু বেড রয়েছে ১১টি। তিনটি কেএমপি বেড ও কর্তৃপক্ষের চেষ্টায় আরও ১২টি বেড বৃদ্ধিতে বর্তমানে মোট ২৬টি বেড রয়েছে। তবে চিকিৎসাধীন আছে ৯৩ জন শিশু। হাসপাতালের একটি বেডে ২-৩ জন শিশুতে চিকিৎসা দিতেও দেখা গেছে। বারান্দা-সিঁড়িতেও চলছে শিশুদের চিকিৎসা। শুধু ওয়ার্ড নয়, যেখানেই ফাঁকা সেখানেই কাঁথা-বালিশ আর গামলা-বাটি নিয়ে বিছানা পেতে শিশু রোগীর চিকিৎসা চলছে। সঙ্গে রয়েছে অভিভাবকদের চাপ।

শিশু ওয়ার্ডে শয্যা খালি না থাকায় বারান্দায় অসুস্থ শিশুদের নিয়ে অবস্থান নিয়েছেন স্বজনরা স্বজনরা বলছেন, ওয়ার্ডের দায়িত্বে একজন মাত্র চিকিৎসক। ওয়ার্ডের রোগী দেখে বাইরের রোগী দেখার সময়ই পান না তারা। অভিভাবকরা বলছেন, বিদ্যুতের সংকট, সবস্থানে ফ্যান না থাকা, অতিরিক্ত গরমে শিশু রোগী ও অভিভাবকরাও নাকাল হচ্ছেন। তারা জরুরিভাবে আরও চিকিৎসক যুক্ত করার দাবি জানান। 

এ বিষয়ে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. অসীম কুমার সরকার বলেন, ঋতুজনিত কারণে এখন শিশুদের নিউমোনিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন গড়ে ২৬ থেকে ৩০ জন করে রোগী ভর্তি হচ্ছে। এরফলে ওয়ার্ডে সবাইকে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। রোগী ও স্বজনরাও কষ্ট পাচ্ছেন। তবে তিনি রোগীর অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, শিশুরা অসুস্থ হলেই দ্রুত চিকিৎসকের কাছে নিয়ে আসতে হবে। তা না হলে পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করবে। 

একই বেডে চলছে দুই শিশুর চিকিৎসা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ শাফায়েত হোসেন বলেন, শিশু রোগী যেমন বেড়েছে, তেমনি চিকিৎসক ও জনবল সবকিছুরই সংকট। এরই মধ্যে মানুষকে সেবা প্রদানের কার্যক্রম অব্যাহত আছে। তিনি আরও বলেন, শুধু সদর হাসপাতাল নয়, মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও শিশু হাসপাতালেও শিশুদের চিকিৎসার ব্যবস্থা আছে, কোনও শিশু নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হলে সেসব স্থানে নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।  

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:১৬

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় চারজন আহত হয়েছেন। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড উত্তরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। এছাড়া বারাকপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ আনসারের এক সমর্থককে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে।

আহতরা হলেন- ইমরান শেখ, আহাদ শেখ, কামাল মল্লিক, আলমগীর মোল্লা ও সাগর। তাদের মধ্যে সাগর চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ আনসারের সমর্থক। 

দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান উল্লাহ চৌধুরী জানান, কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় চারজন আহত হয়। তাদেরকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত সাগর জানান, সকালে বাসা থেকে বের হওয়ার পর সন্ত্রাসীরা তাকে পেটাতে শুরু করে। এরপর আহতাবস্থায় ফেলে চলে যায়। 

এদিকে বাগেরহাটের শরণখোলার রায়েন্দা ইউপির রাজেশ্বায় নির্বাচনি সহিংসতায় তিনজন আহত হয়েছেন। সকাল ৮টার দিকে আহত তিনজন ফুটবল প্রতীকের মেম্বার প্রার্থী কবির খানের সমর্থক। তারা হলেন- রেজাউল, সেলিম ও বাদশা। তাদেরকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছে দেবীগঞ্জ পৌরসভার মানুষ

প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছে দেবীগঞ্জ পৌরসভার মানুষ

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

বৃষ্টিতে ভোটকেন্দ্রের চাল দিয়ে পড়ছে পানি 

বৃষ্টিতে ভোটকেন্দ্রের চাল দিয়ে পড়ছে পানি 

প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছে দেবীগঞ্জ পৌরসভার মানুষ

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৪৯

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ পৌরসভায় প্রথমবারের মতো ভোটগ্রহণ চলছে। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। বিশেষ করে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। তবে কোনও কোনও কেন্দ্রে পুরুষ ভোটারেরও দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। 

নয়টি কেন্দ্রের ৩২টি বুথে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ চলছে। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা। দেবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে নয় জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৬৩ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখানে দলীয় প্রার্থীসহ আওয়ামী লীগের আরও চারজন দলীয় নেতাকর্মী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

নারী ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো

তারা হলেন—দেবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী (নৌকা), উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুর নেওয়াজ (মোবাইল ফোন), যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক (রেল ইঞ্জিন), যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ (ক্যারাম বোর্ড) ও পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আখতার হোসেন নিউটন (জগ)। 

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিএনপির দুই নেতা দেবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এফ এস এম মোফাখখারুল আলম বাবু (চামচ) ও দেবীগঞ্জ পৌর যুবদলের আহ্বায়ক সরকার ফরিদুল ইসলাম (নারিকেল গাছ) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন আরও দুজন। তারা হলেন—সাংবাদিক জাকারিয়া ইবনে ইউসুফ (ইস্ত্রি মেশিন) ও মাসুদ পারভেজ (কম্পিউটার প্রতীক)।

নির্বাচন উপলক্ষে প্রশাসনের কঠোর নজরদারি লক্ষ্য করা গেছে। ভোট কেন্দ্রগুলোতে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ছয়জন পুলিশ ও নয়জন আনসার সদস্য দায়িত্বে রয়েছেন। এ ছাড়া আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, তিন প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের দুইটি ও পুলিশের চারটি ভ্রাম্যমাণ টিম টহলে রয়েছে।

বিভিন্ন জটিলতায় দেবীগঞ্জ পৌরসভায় এতদিন নির্বাচন হয়নি

রিটার্নিং অফিসার ও দেবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রত্যয় হাসান জানান, সকাল থেকেই শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। ভোটাররা স্বতঃস্ফূর্তভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন। কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎপর রয়েছে। 

নয়টি কেন্দ্রে নয়জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৩২ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ৬৪ জন পোলিং অফিসার নির্বাচনি দায়িত্ব পালন করছেন। নয়টি কেন্দ্রের মধ্যে দুইটিকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এবং চারটি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহিৃত করা হয়েছে। পৌরসভায় মোট ভোটার ১০ হাজার ৯১৪ জন।

২০১৪ সালে দেবীগঞ্জ সদর ইউনিয়ন ও দেবীডুবা ইউনিয়নের কিছু অংশ নিয়ে দেবীগঞ্জ পৌরসভা গঠন করা হয়। সীমানাসহ অন্যান্য জটিলতায় এই পৌরসভায় নির্বাচন হয়নি। এবার প্রথমবারের মতো নির্বাচন হচ্ছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

বিলীন হওয়ার পথে ৩ গ্রাম

বিলীন হওয়ার পথে ৩ গ্রাম

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫৮

ব্যালট ছিনতাইয়ের ঘটনায় টেকনাফের উনছিপ্রাং ও লম্বাবিল কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাস্তায় অবরোধ করে গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পারভেজ চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আবু সুফিয়ান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইরফানুল হক চৌধুরী ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন। 

টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা মো. বেদারুল ইসলাম বলেন, 'উনছিপ্রাং ও লম্বাবিল কেন্দ্রে ব্যালট পেপার খুঁজে না পাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই ইউপি সদস্যর সমর্থকরা হামলা ও ভাঙচুর চালায়। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।’ 

এছাড়া টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ হাজি বশির আহমদ উচ্চ বিদ্যালয়ে জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগে এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মো.ফারুক। 

এদিকে কক্সবাজারে টেকনাফের চারটি ইউনিয়নে সোমবার সকাল ৮টায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। বিভিন্ন কেন্দ্রে ঘুরে নারী ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

চার ইউনিয়নের নির্বাচনে চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত মহিলা ও সাধারণ সদস্য হিসেবে ৪২৮ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতে নৌকার চার জনসহ চেয়ারম্যান ২৫ জন, সংরক্ষিত মহিলা ৬৮ জন ও সাধারণ সদস্য হিসেবে ৩৩৫ জন লড়ছেন।



/টিটি/

সম্পর্কিত

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১২ শিশুর মৃত্যু

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১২ শিশুর মৃত্যু

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

সোনাগাজীতে কেন্দ্রের গোপন কক্ষ থেকে ৯ বহিরাগত আটক  

সোনাগাজীতে কেন্দ্রের গোপন কক্ষ থেকে ৯ বহিরাগত আটক  

মহেশখালীতে আ.লীগ-বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের গোলাগুলিতে নিহত ১  

মহেশখালীতে আ.লীগ-বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের গোলাগুলিতে নিহত ১  

চলছে ১৬০ ইউপির নির্বাচন, কেন্দ্রে নারী ভোটার বেশি

চলছে ১৬০ ইউপির নির্বাচন, কেন্দ্রে নারী ভোটার বেশি

সিনহা হত্যা মামলা: তৃতীয় দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

সিনহা হত্যা মামলা: তৃতীয় দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

সর্বশেষ

ধর্ষণের অভিযোগে জাপা নেতা গ্রেফতার

ধর্ষণের অভিযোগে জাপা নেতা গ্রেফতার

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১২ শিশুর মৃত্যু

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১২ শিশুর মৃত্যু

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

মুফতি যুবায়েরের সন্ধান চায় তার পরিবার

মুফতি যুবায়েরের সন্ধান চায় তার পরিবার

রাশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুক হামলা, নিহত ৮

রাশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুক হামলা, নিহত ৮

© 2021 Bangla Tribune