X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

স্পিকারের সঙ্গে মালদ্বীপের হাইকমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৫৮

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি’র সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত মালদ্বীপের হাইকমিশনার শিরুজিমাথ সামি সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সংসদ ভবনস্থ স্পিকারের কার্যালয়ে এ সাক্ষা‌ৎ অনুষ্ঠিত হয়। 

সাক্ষাৎকালে তারা দুদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার, কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম, সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ, মালদ্বীপে বাংলাদেশি শ্রমবাজার প্রভৃতি নিয়ে আলোচনা করেন। সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এ সময় স্পিকার বলেন, ‘কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রমকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে সরকার। সারাদেশের মানুষকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশনের আওতায় নিয়ে আসতে নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার। কোভিডকালীন অর্থনীতিতে বৈশ্বিক মন্দা বিরাজ করলেও বাংলাদেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের দৈনন্দিন জীবন স্বাভাবিক রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সময়োপযোগী কার্যক্রম গ্রহণ করেছেন।’

মালদ্বীপের হাইকমিশনার শিরুজিমাথ সামির বাংলাদেশের সঙ্গে সুদৃঢ় কূটনৈতিক সুসম্পর্কের ধারাবাহিকতা স্মরণ করে বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষের অতিথিপরায়ণ আচরণ এবং নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সত্যি উল্লেখযোগ্য। কোভিড মহামারির মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালিত হয়েছে, যা প্রশংসনীয়।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব আঞ্চলিক অফিসের আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে বাংলাদেশের প্রার্থীকে সমর্থন প্রদান করায় মালদ্বীপ সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে স্পিকার বলেন, ‘পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অগ্রগায়ন ও সুসংহতকরণ সম্ভব। মালদ্বীপের শ্রমবাজারে বাংলাদেশের শ্রমিকরা অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে চলেছে।’

এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসারে মালদ্বীপের ধারাবাহিক সহযোগিতা কামনা করেন। পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন হাইকমিশনার।

এ সময় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

/ইএএচএস/আইএ/

সম্পর্কিত

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন কেবিনেটে যাবে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন কেবিনেটে যাবে: শিক্ষামন্ত্রী

উদ্যোগ নিয়েও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি: অর্থমন্ত্রী

উদ্যোগ নিয়েও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি: অর্থমন্ত্রী

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৮:০৯

বাংলাদেশের সঙ্গে দৃঢ় প্রতিরক্ষা সহযোগিতা রয়েছে যুক্তরাজ্যের এবং ওই দেশ থেকে নিরাপত্তা সামগ্রী ক্রয় করা হলে বন্ধন আরও দীর্ঘ ও দৃঢ় হবে। ইউরোপের দেশটি ইউরোফাইটার, যুদ্ধজাহাজ, সি-১৩০ পরিবহন উড়োজাহাজসহ অন্যান্য সামগ্রী বাংলাদেশের কাছে বিক্রি করতে আগ্রহী।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাজধানীর প্রেস ক্লাবে ডিপ্লোমেটিক করেসপন্ডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ আয়োজিত ডিক্যাব টকে যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত রবার্ট ডিকসন একথা বলেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, প্রতিরক্ষা সামগ্রী সংগ্রহের ক্ষেত্রে দুই দেশের মধ্যে দৃঢ় সহযোগিতা আছে। আমি এখানে থাকাকালীন আমরা পাঁচটি সি-১৩০ পরিবহন উড়োজাহাজ বাংলাদেশ এয়ারফোর্সকে সরবরাহ করেছি। এটি একটি সফল লেনদেন।

যুক্তরাজ্যের রয়্যাল নেভির সার্ভে জাহাজ এখন বিএনএস অনুসন্ধান হিসাবে বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে জানিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, এটি বাংলাদেশ নৌবাহিনীর একটি প্রথা যুক্তরাজ্য থেকে যুদ্ধজাহাজ ক্রয় করা। এটি চলমান থাকুক এ বিষয়ে আমরা অত্যন্ত আগ্রহী।

আমাদের সমুদ্র সক্ষমতা অনেক বেশি এবং আমরা চাই বাংলাদেশ আমাদের কাছ থেকে নিরাপত্তা সামগ্রী ক্রয় করুক কারণ আমরা ভালো জিনিস বানাই এবং দামেও সুলভ বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, যে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ওই দেশ প্রতিরক্ষায় আরও বিনিয়োগ করতে পারে। আমরা (দুদেশ) কিভাবে একসঙ্গে কাজ করতে পারি সেই বিষয়ে আলোচনা করছি।

যুক্তরাজ্য ইউরো ফাইটার কনসোর্টিয়ামের সদস্য এবং জেট বিষয়ে আলোচনার একটি আগ্রহপূর্ণ সুযোগ তৈরি হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, টাইফুন বিমান বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত উপযোগী কিন্তু এর দাম বেশি। তবে এটি বাংলাদেশের জন্য ভালো হবে যদি তারা এটি কিনতে চায়।

ন্যাভাল সামগ্রী ক্রয়ের অনেক সুযোগ রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এ ধরনের লেনদেনে বন্ধন আরও দীর্ঘ ও দৃঢ় হয়।

/এসএসজেড/এমএস/

সম্পর্কিত

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

নির্বাচন কমিশনের প্রস্তুতি আগ্রহের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাজ্য

নির্বাচন কমিশনের প্রস্তুতি আগ্রহের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাজ্য

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন কেবিনেটে যাবে: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫৩

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন সেটি কেবিনেটে যাবে ‑ বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে সচিবালয়ে ২০২১ সালের এসএসসি, দাখিল, এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল (ভোকেশনাল) পরীক্ষা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

শিক্ষা আইন চূড়ান্ত করার বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, 'আইন তৈরি একটা লম্বা প্রক্রিয়া। আমাদের কাজ সম্পন্ন করেছি। এখন এটি কেবিনেটে যাবে। কেবিনেট থেকে চূড়ান্ত ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে বা কেবিনেট কিছু অবজারভেশন দিয়ে পাস করে দিতে পারে। এরপর সেটি সংসদে যাবে। এরপরে আইনি প্রক্রিয়াটি আমাদের হাতে নয়।'

/এসএমএ/এমএস/

সম্পর্কিত

স্কুল শিক্ষার্থীদের এক সপ্তাহের মধ্যেই করোনার টিকা

স্কুল শিক্ষার্থীদের এক সপ্তাহের মধ্যেই করোনার টিকা

‘শিক্ষার্থীরা যেন উদ্যোক্তা হতে পারে সে লক্ষ্যে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে’

‘শিক্ষার্থীরা যেন উদ্যোক্তা হতে পারে সে লক্ষ্যে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে’

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর

উদ্যোগ নিয়েও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি: অর্থমন্ত্রী

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪৫

সরকারি ২৬ প্রতিষ্ঠানকে শেয়ার বাজারে আনার বিষয়ে একবার উদ্যোগ নিয়েছিলাম, কিন্তু তখন পারিনি ‑ বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন কারণেই আমরা উদ্যোগ নেওয়ার পরেও সরকারি ২৬ প্রতিষ্ঠানকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি। বাজারে যখন কোনও ভালো শেয়ার থাকে না তখন মার্কেট একদিকে বেশি চলে যায়। সারাবিশ্বে এটি হয়। সেজন্য এমন সমস্যা থাকলে সরকার বাজেট দিয়ে বাজার ভারসাম্য রাখে। সেজন্য আমরা উদ্যোগটি নিয়েছিলাম। দেখা গেলো যে ­‑ আমাদের মার্কেটে যে পরিমাণ শেয়ার থাকা দরকার ছিলো সেটি আছে। সেজন্য সরকারকে আর সেই কাজ করতে হয়নি বলেও জানান তিনি।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, শেয়ার বাজারে লাভের পাশাপাশি ঝুঁকির বিষয়টিও মাথায় রাখতে হবে। সারা বিশ্বেই শেয়ার বাজার একইভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। লাভের জন্য আপনি আসবেন, কিন্তু ঝুঁকির বিষয়টিও আপনার মাথায় রাখতে হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, কেউ যদি অনেক লাভের জন্য কোনও কিছু চিন্তা না করেই বিনিয়োগ করেন তাহলে তো হবে না। বাজারেরও তো একটি ভিত্তি আছে, সেটা হলো অর্থনীতি। তাই অর্থনীতি যতো শক্তিশালী হবে ততই শেয়ার বাজার শক্তিশালী হবে। অন্য কোনওকিছু দিয়ে এটিকে প্রভাবিত করার সুযোগ নেই। সবাই বুঝে-শুনে বাজারে আসবেন। বাজারে দৈনিক লেনদেন হচ্ছে। দৈনিক ওঠা-নামা করছে। সুতরাং এটা অনেক বেশি সেনসিটিভ।

/এসআই/এমএস/

সম্পর্কিত

খাদ্যশস্যের দাম বাড়ছে: অর্থমন্ত্রী

খাদ্যশস্যের দাম বাড়ছে: অর্থমন্ত্রী

২০২১ সালে সাড়ে ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন: অর্থমন্ত্রী

২০২১ সালে সাড়ে ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন: অর্থমন্ত্রী

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩৫

যুক্তরাজ্যের বাজারে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে ডিপ্লোমেটিক করেসপন্ডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ডিক্যাব) আয়োজিত ডিক্যাব টকে যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত রবার্ট ডিকসন একথা বলেন।

তিনি বলেন, গত ৫০ বছরে বাংলাদেশ অভূতপূর্ব উন্নতি করেছে এবং স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বের হয়ে যাচ্ছে। দেশটির উন্নতি মসৃণ করার জন্য বের হয়ে যাওয়ার পরবর্তী তিন বছর পর্যন্ত শুল্কমুক্ত সুবিধা অব্যাহত থাকবে।

যুক্তরাজ্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে গেছে এবং এর ফলে বাংলাদেশের বাণিজ্য নীতি কি হবে সেটি স্বাধীনভাবে বিবেচনা করার সুযোগ পেয়েছি। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য বিনিয়োগ সংলাপ হয়েছে বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, এইচএসবিসি, ইউনিলিভারসহ যুক্তরাজ্যে অনেক বড় কোম্পানি এখানে ব্যবসা করছে এবং আরও অনেকে এখানে ব্যবসা করতে পারে যদি বাজার সুবিধা পায়।

ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের একটি দেশ বাংলাদেশ এবং ওই দেশগুলোর প্রবৃদ্ধি হচ্ছে এবং এখানে জনসংখ্যা বাড়ছে বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, আগামী দশকে আমরা বাণিজ্য, নিরাপত্তা, সমুদ্র নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন বিষয়ে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে সম্পৃক্ত হবো। বাংলাদেশে রাষ্ট্রদূত হিসাবে আমি বিভিন্ন সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করছি।

/এসএসজেড/এমএস/

সম্পর্কিত

নির্বাচন কমিশনের প্রস্তুতি আগ্রহের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাজ্য

নির্বাচন কমিশনের প্রস্তুতি আগ্রহের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাজ্য

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

বারবার প্রকল্পের সময় বৃদ্ধি করা দুঃখজনক: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:১৪

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, শর্ট টার্ম অথবা লং টার্ম যে প্রকল্পই নেওয়া হোক না কেন সেগুলো অবশ্যই টেকসই ও প্রোডাক্টিভ হতে হবে এবং টাইমলাইন অনুযায়ী শেষ করতে হবে। আমরা অনেক প্রকল্প গ্রহণ করি কিন্তু বারবার প্রকল্পের সময় বৃদ্ধি করা হয় ‑ যা অত্যন্ত দুঃখজনক।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাজধানীর স্পেক্ট্রা কনভেনশন সেন্টারে ‘ডেল্টা প্লান-২০২১ বাস্তবায়ন ও জলবায়ু সহিষ্ণু নগর উন্নয়নে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহকে সম্পৃক্তকরণ’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বন্যা, নদী ভাঙন, নদী ব্যবস্থাপনা, নগর ও গ্রামে পানি সরবরাহ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও নিষ্কাশন ব্যবস্থাপনার দীর্ঘমেয়াদী কৌশল হচ্ছে ডেল্টা প্ল্যান তথা ‘ব-দ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০’।

নেদারল্যান্ডসের আদলে গ্রহণ করা শতবর্ষী ডেল্টা প্ল্যানকে দেশের ভবিষ্যৎ উন্নয়নের চাবিকাঠি হিসেবে উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী জানান, এই প্ল্যান বাস্তবায়নে যেসব চ্যালেঞ্জ রয়েছে সেগুলোকে চিহ্নিত করে পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করছে সরকার।

টেকসই উন্নয়নের কোনও বিকল্প নেই উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, নগর এবং গ্রাম দুটোকেই সমান বিবেচনায় নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নির্ধারণ করা হচ্ছে। মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল-এমডিজি সফলভাবে বাস্তবায়ন করার পর এসডিজি-২০৩০ এবং জাতীয় লক্ষ্যমাত্রা-২০৪১ এর রোড ম্যাপ অনুযায়ী লক্ষ্য পূরণে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।

মন্ত্রী বলেন, মানুষ শহরমুখী হওয়ার মূল কারণ হিসেবে যেসব বিষয় উল্লেখ করা হয় তার চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে নাগরিকের আধুনিক সুবিধা নিশ্চিত না করা। এটি করা না গেলে শহরমুখী মানুষ ঠেকানো সম্ভব হবে না। আবার মানুষকে শহরে না আসার জন্য বাধাও দেওয়া সম্ভব না। তাই প্রত্যন্ত অঞ্চলে নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে হবে।

তাজুল ইসলাম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ধ্বংসস্তূপ দেশ পেয়ে বলেছিলেন ‑ এদেশে আমার মাটি ও মানুষ আছে। সেই মাটি ও মানুষকে সম্পৃক্ত করে এলাকাভিত্তিক সম্পদের উৎসগুলোকে কাজে লাগাতে হবে। আমাদের লক্ষ্যমাত্রা চূড়ান্ত করা আছে, শেখ হাসিনার সঠিক নেতৃত্ব আছে। সকল বাধা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দেশ উন্নয়নের শিখরে পৌঁছে যাবে।

সিভিএফ বাংলাদেশের বিশেষ প্রতিনিধি আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ‑ স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এবং নেদারল্যান্ডসের হেড অব মিশন অ্যান ভ্যান লিউয়েন।

/এসএস/এমএস/

সম্পর্কিত

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন কেবিনেটে যাবে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন কেবিনেটে যাবে: শিক্ষামন্ত্রী

উদ্যোগ নিয়েও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি: অর্থমন্ত্রী

উদ্যোগ নিয়েও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি: অর্থমন্ত্রী

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

খাদ্যশস্যের দাম বাড়ছে: অর্থমন্ত্রী

খাদ্যশস্যের দাম বাড়ছে: অর্থমন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন কেবিনেটে যাবে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষা আইনের কাজ সম্পন্ন, এখন কেবিনেটে যাবে: শিক্ষামন্ত্রী

উদ্যোগ নিয়েও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি: অর্থমন্ত্রী

উদ্যোগ নিয়েও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ার বাজারে আনতে পারিনি: অর্থমন্ত্রী

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

যুক্তরাজ্যে ২০২৯ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

বারবার প্রকল্পের সময় বৃদ্ধি করা দুঃখজনক: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

বারবার প্রকল্পের সময় বৃদ্ধি করা দুঃখজনক: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

খাদ্যশস্যের দাম বাড়ছে: অর্থমন্ত্রী

খাদ্যশস্যের দাম বাড়ছে: অর্থমন্ত্রী

নির্বাচন কমিশনের প্রস্তুতি আগ্রহের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাজ্য

নির্বাচন কমিশনের প্রস্তুতি আগ্রহের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করছে যুক্তরাজ্য

প্রত্যাবর্তন নির্ভর করছে আদালতের ওপর: ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত

প্রত্যাবর্তন নির্ভর করছে আদালতের ওপর: ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত

যে কারণে ভারতে স্থগিত হলো শিল্পী রোকেয়া সুলতানার প্রদর্শনী

যে কারণে ভারতে স্থগিত হলো শিল্পী রোকেয়া সুলতানার প্রদর্শনী

সংসদের ১৫তম অধিবেশন ১৪ নভেম্বর

সংসদের ১৫তম অধিবেশন ১৪ নভেম্বর

সর্বশেষ

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কাছে যেসব অস্ত্র বিক্রি করতে চায় যুক্তরাজ্য

শিশুদের জলবায়ু ঘোষণাপত্র কপ-২৬’র এজেন্ডায় অন্তর্ভুক্ত করা জরুরি: স্পিকার

শিশুদের জলবায়ু ঘোষণাপত্র কপ-২৬’র এজেন্ডায় অন্তর্ভুক্ত করা জরুরি: স্পিকার

আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের নতুন গান (ভিডিও)

আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের নতুন গান (ভিডিও)

সমৃদ্ধির ২২ বছর উদযাপন করলো প্রিমিয়ার ব্যাংক

সমৃদ্ধির ২২ বছর উদযাপন করলো প্রিমিয়ার ব্যাংক

৫ নভেম্বর পর্যন্ত ভারতে ইলিশ রফতানি

৫ নভেম্বর পর্যন্ত ভারতে ইলিশ রফতানি

© 2021 Bangla Tribune