X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ছাত্রলীগ প্রেসিডেন্ট-‌সে‌ক্রেটা‌রির বিরু‌দ্ধে মামলা

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৪০

আওয়ামী লীগ-যুবলীগ-ছাত্রলীগ কর্মী‌দের ম‌ধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কু‌ড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগ সভাপ‌তি রাজু আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হো‌সেনসহ ছাত্রলী‌গের ছয় নেতাকর্মীর না‌মে মামলা হ‌য়ে‌ছে। সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মর্তুজা জানান, জেলা আওয়ামী লী‌গের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান বাদী হ‌য়ে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সকা‌লে কু‌ড়িগ্রাম সদর থানায় মামলা দা‌য়ের ক‌রেন।

এর আগে সোমবার রা‌তে কু‌ড়িগ্রাম সা‌র্কিট হাউজ চত্ব‌রে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিকের সামনে এ সংঘর্ষে জড়ান নেতাকর্মীরা। জেলা আওয়ামী লী‌গের ব‌র্ধিত সভায় অংশ নি‌তে কু‌ড়িগ্রা‌মে আসেন সাখাওয়াত। সংঘর্ষে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান ও কৃষি বিষয়ক সম্পাদক নাজুসহ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আহত হন বলে জানা গেছে। স্লোগান ‌দেওয়া ও কেন্দ্রীয় নেতা‌কে আগে শু‌ভেচ্ছা জানা‌নোকে কেন্দ্র ক‌রে জেলা ছাত্রলী‌গের সভাপ‌তি রাজু আহ‌মে‌দের পাঞ্জা‌বির কলার টে‌নে ছিঁড়ে দেওয়া‌য় সংঘ‌র্ষের সূত্রপাত হয় ব‌লে ঘটনাস্থলে থাকা একা‌ধিক নেতাকর্মী সূ‌ত্রে জানা গে‌ছে। সংঘ‌র্ষে আহতরা রা‌তেই প্রাথ‌মিক চি‌কিৎসা নেন। প‌রে মঙ্গলবার সকা‌লে জেলা আওয়ামী লী‌গের ব‌র্ধিত সভা শুরু হয়।

মামলার বিষয়ে জান‌তে সংঘ‌র্ষে আহত জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মামলার বাদী ওবায়দুর রহমানের সঙ্গে যোগা‌যোগ করা হ‌লে তি‌নি ব‌র্ধিত সভায় থাকায় তার বক্তব‌্য পাওয়া যায়‌নি।

গোলাম মর্তুজা জানান, মারপিট ক‌রে আহত করা এবং বিশৃঙ্খলা সৃ‌ষ্টির অভিযো‌গে মামলা হ‌য়ে‌ছে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

পানি কমলেও দুর্ভোগ কমেনি বানভাসি মানুষের

পানি কমলেও দুর্ভোগ কমেনি বানভাসি মানুষের

দেশের দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী ঘুমান না: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

দেশের দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী ঘুমান না: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৫৩

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ধর্মীয় উসকানিমূলক বক্তব্য পোস্ট করায় শোভন কুমার দাস (২৭) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে যশোর র‌্যাব ক্যাম্পের সদস্যরা। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকালে তাকে যশোর শহরের বকচর হুঁশতলা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি নড়াইলের কালিয়া উপজেলার জোকারচর গ্রামের শ্যামল কুমার দাসের ছেলে।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত জানিয়েছেন র‌্যাব যশোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার মো. নাজিউর রহমান।

এতে বলা হয়, শোভন তার ফেসবুক আইডি থেকে ১৫ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর সকাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে বেশ কিছু ধর্মীয় উসকানিমূলক পোস্ট ও লিংক শেয়ার করেন। তার পোস্ট গুজবভিত্তিক ও উসকানিমূলক হওয়ায় বিভিন্ন শ্রেণি বা সম্প্রদায়ের মধ্যে শত্রুতা, ঘৃণা, বিদ্বেষ, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট ও বিশৃঙ্খলা তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে শোভন কুমার দাসকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনার সঙ্গে অজ্ঞাত আরও ৪/৫ যুক্ত আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নাজিউর রহমান জানান, ধর্মীয় উসকানিমূলক পোস্টসহ মোবাইলফোন উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে আসামিকে যশোর কোতোয়ালি থানায় সোপর্দ করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:৪৪

পঞ্চগড়ে দুটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই জন নিহত এবং দুই জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত একজনকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা জানান, শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে পঞ্চগড়-তেঁতুলিয়া মহাসড়কের জগদল ঠুটাপাখুরী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন– জেলার সদর উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের বোদাপাড়া এলাকার আফজল হোসেনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (২৮) এবং তেঁতুলিয়া উপজেলার তিরনইহাট ইউনিয়নের গোয়াবাড়ি এলাকার হামিদুল ইসলামের ছেলে রিফাদুজ্জামান বাবু (২০)।

স্বজনদের আহাজারি পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রবিবার দুপুরে রাশেদুল এবং একই এলাকার তবিবর রহমানের ছেলে শাহিন হোসেন (২০) বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে পঞ্চগড় শহরে যাচ্ছিলেন। পথে জগদল ঠুটাপাখুরী এলাকায় আসলে বিপরীত দিক থেকে আসা আরেকটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে রাশেদুল এবং অপর মোটরসাইকেলের আরোহী রিফাদুজ্জামান বাবুর মৃত্যু হয়। এ সময় আহত হন মোটরসাইকেল আরোহী শাহিন এবং তেঁতুলিয়া উপজেলার তিরনইহাট ইউনিয়নের ইসলামবাগ এলাকার আলমের ছেলে রনি (২২)।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক রাশেদুল ও বাবুকে মৃত ঘোষণা করেন এবং গুরুতর আহত শাহিনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। অপর আহত রনি পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:১৪

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে স্বাভাবিক পাঠদান কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার শেষে জানুয়ারিতে নতুন ক্লাস শুরু হবে। তখন ক্লাসের সংখ্যা আরও বাড়ানো হতে পারে। 

শনিবার (২৩ অক্টোবর) চাঁদপুর শহরের বাবুরহাট এলাকায় নবনির্মিত পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয়ের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এই মুহূর্তে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানোর কোনও সুযোগ নেই। কারণ, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করেই শিক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। এছাড়া বিশ্বের কিছু দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ দেখা গেছে। তাই এই মুহূর্তে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, পৌর মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান, কমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আতাউর রহমান, চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম দেব কুমার মালু, প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী প্রমুখ।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০৫

কুমিল্লার পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় সারাদেশের সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনর্নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন হিন্দু- বৌদ্ধ- খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত। তিনি বলেন, যেসব জেলায় সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা হয়েছে, সে সব ঘটনার তদন্তে সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নেতৃত্বে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলায় জড়িতদে গ্রেফতার করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনঃ নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের পুর্নবাসন, যথাযথ ক্ষতিপূরণ ছাড়াও আহতদের চিকিৎসা এবং নিহতদের প্রতিটি পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানান। 

শনিবার (২৩ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর আন্দরকিল্লা মোড় এলাকায় সংগঠনটির উদ্যোগে আয়োজিত গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে উপস্থিত হয়ে তিনি এসব দাবি জানান। গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে সনাতন ধর্মাবলম্বী হাজার হাজার নারী পুরুষ অংশ নেন।

তিনি বরেন, সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলায় জড়িতদে গ্রেফতার করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

রানা দাশগুপ্ত অভিযোগ করেন, সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকার পরেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব পালনে গাফিলতি ছিল। যারা অবহেলা ও গাফিলতি করেছেন, তাদের চিহ্নিত করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি। এছাড়া সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের মোকাবিলায় যেসব এমপি, মন্ত্রী, জনপ্রতিনিধি এগিয়ে আসেননি তাদেরকেও চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক, রাজনৈতিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি। 

তিনি আরও বলেন, ১৯৭২ সালের সংবিধানের পুনর্বহাল এবং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের ইশতিহারে প্রতিশ্রুত সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন, জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন এবং বৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়নসহ দ্রুত বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

পরে তিনি এসব দাবিতে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে পথযাত্রা কর্মসূচির ঘোষণা করেন। রানা দাশগুপ্ত বলেন, উল্লেখিত দাবি সমূহের অগ্রগতি পর্যালোচনায় এনে পরবর্তীতে এসব দাবির সমর্থনে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে চল চল ঢাকায় চল, স্লোগানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অভিমূখে পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করা হবে। 

গণঅনশন কর্মসূচি শেষে আন্দরকিল্লা থেকে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি টেরিবাজার, লালদীঘি হয়ে নিউমার্কেট এলাকায় গিয়ে শেষ হয়।



/টিটি/

সম্পর্কিত

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫:২১

পটুয়াখালী-বরিশাল মহাসড়কের পায়রা নদীর ওপর সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। রবিবার (২৪ অক্টোবর) সকাল ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন স্বপ্নের পায়রা সেতু। উদ্বোধনের পরই যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ফোর লেনের এই সেতুটি। পায়রা সেতুর প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশালী আবদুল হালিম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহৃত সেতুটি দক্ষিণাঞ্চলবাসীর জন্য আশীর্বাদ বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

সেতু দিয়ে যান চলাচল শুরু হলে শরীয়তপুরের কাঁঠালবাড়ি থেকে সরাসরি কুয়াকাটার সঙ্গে প্রায় ২১৩ কিলোমিটার সড়কের নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ স্থাপন হবে। এর মাধ্যমে স্থানীয়দের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি, পর্যটন শিল্পের বিকাশ এবং পায়রা সমুদ্র বন্দরের ব্যবহার বাড়বে, সর্বোপরি আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ঘটবে। বরিশাল বিভাগে এ সর্ববৃহৎ এ সেতু দিয়ে যান চলাচল শুরু হলে পটুয়াখালী-বরগুনা জেলাসহ উপকূলীয় ১০ উপজেলার যোগাযোগ ব্যবস্থায় অভূতপূর্ব উন্নয়ন দেখা যাবে।

লেবুখালী সেতু ঘোচাবে ঢাকা-কুয়াকাটার দূরত্ব

বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার শেষ ও পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার লেবুখালী ইউনিয়নের শুরুর অংশে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমন্ডিত পায়রা নদীর ওপর সেতুটির অবস্থান। বরিশালের প্রান্তে সেতুটির পশ্চিম দিকে শেখ হাসিনা সেনানিবাসের অবস্থান। পদ্মাসেতুর টোল প্লাজা থেকে এ সেতুটি ১৩৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। বরিশাল নগরের রুপাতলী থেকে ২৯ কিলোমিটার, পটুয়াখালী শহর থেকে ১১ কিলোমিটার এবং সাগরকন্যা কুয়াকাটার বাস টার্মিনাল থেকে ৭৯ কিলোমিটার দূরে এ সেতুর অবস্থান। সেতুর উত্তর দিকে ওজন স্কেল এবং দক্ষিণ দিকে ইলেকট্রনিক টোল প্লাজা নির্মাণ করা হয়েছে।

পায়রা সেতু পায়রা সেতু প্রকল্প পরিচালক আব্দুল হালিম জানান, সেতুটি উদ্বোধনের জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। সাজ সাজ রব বিরাজ করছে সেতুর উভয়পাড়ে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। সেজন্য সেতুর দক্ষিণ প্রান্তে বিশাল প্যান্ডেল প্রস্তুত করা হয়েছে। যেখানে পটুয়াখালীর পাঁচ সংসদ সদস্য ছাড়া বরিশাল ও পটুয়াখালী জেলার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

লেবুখালী সেতু যাদের চিন্তা বাড়ালো

পায়রা সেতু প্রকল্প অফিস জানায়, পায়রা সেতু নির্মাণে ব্যয় হয়েছে এক হাজার ৪৪৭ কোটি টাকা। যার ৮২ ভাগ অর্থ বহন করছে কুয়েত ফান্ড ফর আরব ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট এবং এপেক ফান্ড। ২০১৬ সালের ২৪ জুলাই শুরু হওয়া এ সেতুর ইতোমধ্যে শতভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এক হাজার ৪৭০ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ১৯ দশমিক ৭৬ মিটার প্রস্থের সেতুর উভয়পাড়ে প্রায় সাত কিলোমিটার অ্যাপ্রোচ সড়ক রয়েছে। নদী শাসনের কাজও প্রায় সম্পন্ন হয়েছে।

 তিনি আরও বেলেন, এ সেতুতে হেলথ মনিটরিং সিস্টেম ব্যবহারের ফলে ভূমিকম্প, বজ্রপাতসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগ অথবা ওভারলোডেড গাড়ির কারণে ক্ষতি এড়াতে পূর্বাভাস মিলবে। নদীর মধ্যে এবং পাশে থাকা পিয়ারে যাতে কোনও নৌযান ধাক্কা দিতে না পারে সে জন্য পিয়ারের পাশে নিরাপত্তা পিলার স্থাপন করা হচ্ছে। এছাড়া এটি দেশের দ্বিতীয় ব্রিজ, যা এক্সট্রা ডোজ ক্যাবল সিস্টেমে তৈরি করা হয়েছে। পায়রা সেতু নির্মাণে নদীর তলদেশে বসানো হয়েছে ১৩০ মিটার দীর্ঘ পাইল, যা দেশে সর্ববৃহৎ। ৩২টি স্প্যানের মূল সেতুটি বিভিন্ন মাপের ৫৫টি টেস্ট পাইলসহ ১০ টি পিয়ার, পাইল ও পিয়ার ক্যাপের ওপর নির্মিত। এছাড়া সেতুতে রয়েছে ১৬৭টি বক্স গার্ডার সেগমেন্ট। এতে করে দূর থেকে সেতুটিকে ঝুলন্ত মনে হবে। জোয়ারের সময় নদী থেকে সেতুটি ১৮ দশমিক ৩০ মিটার উঁচুতে থাকবে। চার লেনের সেতুটির উভয়পাশে মোট এক হাজার ২৬৮ মিটার অ্যাপ্রোচ সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে।

মাত্রাতিরিক্ত ভারী যান উঠলেই সিগন্যাল দেবে লেবুখালী সেতু

বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার সাইফুল ইসলাম জানান, নান্দনিক সৌন্দর্যে ভরপুর সেতুটি সড়ক যোগাযোগে এ অঞ্চলের আর্থসামাজিক উন্নয়নে বড় ধরনের ভূমিকা রাখবে। এরফলে বরিশাল থেকে কুয়াকাটা যেতে আর কোনও ফেরি থাকছে না। স্বল্প সময়ে বরিশাল-কুয়াকাটা হবে। 

তিনি আরও জানান, বরিশাল বিভাগের মধ্যে এত বড় সৌন্দর্যমন্ডিত সেতু দ্বিতীয়টি নেই। ইতোমধ্যে অনেক ভ্রমণপিপাসু মানুষ সেতুটি দেখতে এখানে জড়ো হচ্ছে প্রতিদিন  তিনি বলেন, সেতুটি চালু হলে বরিশাল থেকে পটুয়াখালী আসতে সর্বোচ্চ সময় লাগবে মাত্র এক ঘণ্টা। আর মাত্র দুই থেকে আড়াই ঘণ্টায় বরিশাল থেকে কুয়াকাটায় যাওয়া যাবে।

পটুয়াখালী পৌরশহরের বাসিন্দা ঠিকাদার মো. হাফিজুর রহমান বলেন, পায়রা সেতু চালু হলে আমরা অল্প সময়ে বরিশাল যেতে পারবো। বরিশাল কিংবা ঢাকা যাওয়া-আসার সময় লেবুখালী ঘাটে ফেরির অপেক্ষায় অনেক সময় দাঁড়িয়ে থাকতে হতো। এখন তা হবে না। 

যে হারে টোল দিতে হবে পায়রা সেতুতে

পটুয়াখালী প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বপন ব্যানার্জি বলেন, স্বপ্নের পায়রা সেতুর কারণে দক্ষিণাঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা একধাপ এগিয়ে যাবে। এর প্রভাবে দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি, পর্যটন শিল্পের বিকাশ, মৎস্য বন্দর এবং পায়রা সমুদ্র বন্দরসহ সর্বোপরি আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ঘটবে।

নারী এমপি কাজী কানিজ সুলতানা হেলেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিয়েছে। অল্প দিনের মধ্যেই পদ্মা সেতু চালু হবে। এরপর ঢাকা থেকে কুয়াকাটা ফেরিবিহীন সড়ক যোগাযোগে নবদিগন্ত সূচনা হবে। পায়রা সেতু চালু হলে পটুয়াখালীর পায়রা সমুদ্রবন্দর, পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র, ইপিজেড ও কৃষিতে ব্যাপক পরিবর্তন ঘটবে। এ অঞ্চলের আর্থসামাজিক উন্নয়নসহ দেশের অর্থনীতিতে সেতুটি ব্যাপক প্রভাব ফেলবে। পর্যটন খাতেও বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে বলে মনে করেন তিনি।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

ইকবাল ও মাজারের খাদেমদের ৭ দিনের রিমান্ড

ইকবাল ও মাজারের খাদেমদের ৭ দিনের রিমান্ড

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

৫ দিন পর জ্বলেছে চুলা, ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা পীরগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্তদের

পানি কমলেও দুর্ভোগ কমেনি বানভাসি মানুষের

পানি কমলেও দুর্ভোগ কমেনি বানভাসি মানুষের

দেশের দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী ঘুমান না: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

দেশের দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রী ঘুমান না: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

মেয়েসহ নিখোঁজ স্ত্রীকে ফিরে পেতে চান স্বামী 

মেয়েসহ নিখোঁজ স্ত্রীকে ফিরে পেতে চান স্বামী 

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

‘স্বাধীনতাবিরোধীরাই সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

ভারতে পাচারকালে স্বর্ণের বারসহ আটক এক

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

সর্বশেষ

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

‘খালে বর্জ্য নিক্ষেপকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

অভ্যন্তরীণ সমস্যা ভুলে একসঙ্গে সংগ্রামের অনুরোধ মির্জা ফখরুলের

অভ্যন্তরীণ সমস্যা ভুলে একসঙ্গে সংগ্রামের অনুরোধ মির্জা ফখরুলের

‘মরীচিকা’র পর ওয়েবে তাদের নতুন ‘সিন্ডিকেট’

‘মরীচিকা’র পর ওয়েবে তাদের নতুন ‘সিন্ডিকেট’

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

© 2021 Bangla Tribune