X
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২০:০২

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উপলক্ষে রাজধানীতে বর্নাঢ্য জুশনে-জুলুস বের করেছে আনজুমানে আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট। পরে মহানবীর শুভাগমনের তাৎপর্য, তাঁর জীবনাদর্শ অনুসরণের গুরুত্বারোপ করে আলোচনা সভা, মিলাদ-কেয়াম শেষে দেশ-জাতি ও মুসলিম বিশ্বের কল্যাণ কামনা করে দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর কাদেরিয়া আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণ থেকে জশনে জুলুসটি শুরু হয়। জুলুসে নেতৃ্ত্ব দেন  পীর সৈয়্যদ মুহাম্মদ সাবির শাহ্ (মাদ্দাজিল্লুহুল আলী)। জুলসটি রাজধানীর মোহম্মদপুরের শাজাহান রোড, আসাদ গেট হয়ে নুরজাহান রোড, তাজমহল রোড, শিয়া মসজিদ, রিং রোড, শ্যামলী, খিলজী রোড, বাবর রোড অতিক্রম করে  কাদেরিয়া তৈয়্যেবিয়া আলিয়া (কামিল) মাদ্রাসায় গিয়ে শেষ হয়।

কলেমা খচিত বিভিন্ন রঙ-বেরঙের পতাকা নিয়ে ইয়া নবী সালাম আলাইকা, মোস্তফা জানে রহমত খচিত পতাকা নিয়ে অংশ নেন অনুসারীরা।

পরে মোহাম্মদপুর কাদেরিয়া আলীয়া মাদ্রাসা ময়দানে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন  পীর সৈয়দ সাবির শাহ।

এসময় তিনি বলেন,  ‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র ব্যবস্থা গঠনে প্রিয় নবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই। মহানবীর আদর্শ হুবহু অনুসরণ না করার কারণে পৃথিবীতে আজ  এত অশান্তি।  সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের উপস্থিতিও এ কারণে। আর মহানবীর আদর্শ বাদ দিয়ে তাঁর নামে বিকৃত ইসলাম প্রচার করা হচ্ছে। এ কারণে মানুষ পথভ্রষ্ট হচ্ছে।’

সৈয়দ সাবির শাহ বলেন, ‘সমাজে শান্তি ফিরিয়ে আনতে প্রিয় হাবিবের দর্শনই যথেষ্ট। কারণ, এই পৃথিবীতে অশান্তির কবর রচনা করে শান্তি, সাম্য-ন্যায়-নিষ্ঠা প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন হযরত মোহাম্মদ (সা.)। তাই সবকিছুতে তাঁর জীবনাদর্শ অনুসরণ করতে হবে। তাহলে অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট গঠিত হবে। জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের কবর রচনা হবে এবং দুনিয়া-আখেরাতে সফল হওয়া যাবে।’

মাহফিলের আলোচনায় অংশ নেন— পিএইচপি গ্রুপের চেয়ারমান সূফি আলহাজ্ব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ঢাকা দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী, আনজুমানের কেন্দ্রীয় সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট  মুহাম্মদ মহসিন, সেক্রেটারি জেনারেল  মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

 

/সিএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

জাপানি দুই শিশুকে নিয়ে আপিল শুনানি ১২ ডিসেম্বর

জাপানি দুই শিশুকে নিয়ে আপিল শুনানি ১২ ডিসেম্বর

হাফ ভাড়া তদারকিতে মালিক সমিতির ৯ টিম

হাফ ভাড়া তদারকিতে মালিক সমিতির ৯ টিম

শ্যাডো ইকোনমিক সেক্রেটারি হলেন টিউলিপ

শ্যাডো ইকোনমিক সেক্রেটারি হলেন টিউলিপ

অন্য এলাকায় হালকা, ভারী বৃষ্টি হতে পারে সিলেট-চট্টগ্রামে  

অন্য এলাকায় হালকা, ভারী বৃষ্টি হতে পারে সিলেট-চট্টগ্রামে  

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

জাপানি দুই শিশুকে নিয়ে আপিল শুনানি ১২ ডিসেম্বর

জাপানি দুই শিশুকে নিয়ে আপিল শুনানি ১২ ডিসেম্বর

হাফ ভাড়া তদারকিতে মালিক সমিতির ৯ টিম

হাফ ভাড়া তদারকিতে মালিক সমিতির ৯ টিম

শ্যাডো ইকোনমিক সেক্রেটারি হলেন টিউলিপ

শ্যাডো ইকোনমিক সেক্রেটারি হলেন টিউলিপ

অন্য এলাকায় হালকা, ভারী বৃষ্টি হতে পারে সিলেট-চট্টগ্রামে  

অন্য এলাকায় হালকা, ভারী বৃষ্টি হতে পারে সিলেট-চট্টগ্রামে  

যা আছে মুরাদ হাসানের পদত্যাগপত্রে

যা আছে মুরাদ হাসানের পদত্যাগপত্রে

‘পদত্যাগপত্র লিখে মুরাদ হাসানের স্বাক্ষরের জন্য পাঠানো হয়েছে’

‘পদত্যাগপত্র লিখে মুরাদ হাসানের স্বাক্ষরের জন্য পাঠানো হয়েছে’

কোম্পানিতে আসতে চান না বাস মালিকরা

কোম্পানিতে আসতে চান না বাস মালিকরা

বুয়েটছাত্র আবরার হত্যা মামলার রায় বুধবার

বুয়েটছাত্র আবরার হত্যা মামলার রায় বুধবার

আড়াইহাজারে গ্যাস লিকেজে দগ্ধ ৪ জনের একজন মারা গেছেন

আড়াইহাজারে গ্যাস লিকেজে দগ্ধ ৪ জনের একজন মারা গেছেন

মোনাশ কলেজের স্টাডি সেন্টারের অনুমোদন দেয়নি ইউজিসি

মোনাশ কলেজের স্টাডি সেন্টারের অনুমোদন দেয়নি ইউজিসি

সর্বশেষ

শিশুসহ পলাতক বাবাকে দেশে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ

শিশুসহ পলাতক বাবাকে দেশে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ

কেনীয় পুলিশ সদস্যের গুলিতে স্ত্রীসহ ৬ জন নিহত

কেনীয় পুলিশ সদস্যের গুলিতে স্ত্রীসহ ৬ জন নিহত

চতুর্থ শিল্পবিপ্লব বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু ১০ ডিসেম্বর

চতুর্থ শিল্পবিপ্লব বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু ১০ ডিসেম্বর

দেশের দ্রুততম মানব এখন মুক্ত

দেশের দ্রুততম মানব এখন মুক্ত

টানা বৃষ্টিতে কোটি টাকা ক্ষতির মুখে দুবলার চরের জেলেরা

টানা বৃষ্টিতে কোটি টাকা ক্ষতির মুখে দুবলার চরের জেলেরা

© 2021 Bangla Tribune