সায়মা ধর্ষণ ও হত্যা মামলা: আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি পরিবারের

Send
তোফায়েল হোছাইন
প্রকাশিত : ১০:০২, মার্চ ০৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:২৯, মার্চ ০৯, ২০২০

সামিয়ার বাবা আব্দুস সালাম (মাঝ খানে)

শিশু সামিয়া আফরিন সায়মার কথা মনে হলে এখনও রাতে ঘুমাতে পারেন না তার মা সানজিদা আক্তার। এখনও সন্তানের কথা মনে হলে বাকরুদ্ধ হয়ে যান, স্বাভাবিকভাবে চলাফেরাও করতে পারেন না তিনি। বাংলা ট্রিবিউনকে এসব কথা জানালেন সামিয়ার বাবা আব্দুস সালাম। তিনি বলেন, ‘ হারুন আমার মেয়ের ওপরে পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে তাকে হত্যা করেছে। আমরা তার সর্বোচ্চ  শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দাবি করছি।’

আব্দুস সালাম বলেন, ‘আসামির শাস্তি যেন দ্রুত কার্যকর হয়,সরকারের কাছে সেটাও প্রত্যাশা করছি।’

গত বছরের ৫ জুলাই রাজধানীর ওয়ারিতে শিশু সামিয়া আফরিন সায়মাকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার রায় ঘোষণা হবে আজ  সোমবার (৯ মার্চ)।

পুলিশ হেফাজতে আসামি হারুন আর রশীদঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক কাজী আব্দুল হান্নান রায় ঘোষণা করবেন। মোট ৫৮ দিনে এ মামলার বিচার কাজ শেষ করলেন বিচারক।

বিচার প্রক্রিয়ার বিষয়ে সায়মার বাবা আব্দুস সালাম বলেন,‘মামলার বিচার কার্যক্রম খুব দ্রুততম সময়ের মধ্যে শেষ হয়েছে। এতে রাষ্ট্রপক্ষের প্রসিকিউটরের কাছে আমরা সন্তুষ্ট। রায়ে যদি আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি হয়, তাহলে আরও বেশি সন্তুষ্টি পাবো।’

গত ৫ মার্চ রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক কাজী আব্দুল হান্নান রায় ঘোষণার জন্য আজকের তারিখ নির্ধারণ করেন। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি আসামি হারুন আদালতে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন। তার আগে গত ২ জানুয়ারি  হারুন অর রশিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ট্রাইব্যুনাল।

সামিয়া আফরিন সায়মাগত বছরের ৩০ অক্টোবর হারুনকে একমাত্র আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) ওয়ারি জোনাল টিমের প্রধান আরজুন।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৫ জুলাই সন্ধ্যা থেকে শিশু সায়মাকে তাদের বাসভবনে খোঁজ করে পাচ্ছিল না পরিবার। পরে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে ওই ভবনের নবম তলার ফাঁকা ফ্ল্যাটের ভেতরে তাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পান পরিবারের সদস্যরা। খবর পেয়ে পুলিশ এসে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে। পরের দিন ৬ জুলাই সায়মার বাবা আব্দুস সালাম ওয়ারি থানায় মামলা করেন।৭ জুলাই কুমিল্লা থেকে  হারুনকে গ্রেফতার করা হয়। বর্তমানে সে কারাগারে রয়েছে।

আরও পড়ুন:


শিশু সামিয়া ধর্ষণ ও হত্যা মামলার রায় আজ

ওয়ারীতে সাত বছরের শিশুর মরদেহ উদ্ধার

দ্রুত সময়ে হত্যাকারীর ফাঁসি চাই: সায়মার বাবা (ভিডিও)

শিশু সায়মাকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় হারুনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

 

 

/টিএইচ/এপিএইচ/

লাইভ

টপ