X

সেকশনস

শহীদ মিনারে আলোকচিত্রী আনোয়ার হোসেনকে শেষ শ্রদ্ধা

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:২৮

শ্রদ্ধাঞ্জলি

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আলোকচিত্রী ও মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেনের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সর্বস্তরের মানুষ।

সোমবার (৩ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার আগে তার মরদেহ শহীদ মিনারে আনা হয়। পরে সর্বস্তরের মানুষ তাকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী মারিয়াম হোসেন এবং দুই ছেলে আকাশ হোসেন ও মেঘদূত হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় ঢাকার জেলা প্রশাসকের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম।

পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বাদ জোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সংরক্ষিত জায়গায় তাকে দাফন করা হবে।

আনোয়ার হোসেনের মরদেহে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষে অতিরিক্ত সচিব মান্নান ইলিয়াছ, বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউট, দৃক ও পাঠ্যশালা, ছাত্র ইউনিয়ন, মুভিয়ানা ফ্লিম সোসাইটি, স্বাধীনতা শিক্ষক সোসাইটি, বাংলাদেশ শর্ট ফিল্ম সোসাইটি, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম, মুক্তিযুদ্ধ ৭১, প্রথম আলো পরিবার, আরটিভি পরিবার, বিডি ফটোগ্রাফার্স ইউনিটি ক্লাব, ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশ, বাংলাদেশ ফটোগ্রাফি অ্যাসোসিয়েশন, জাতীয় কবিতা পরিষদ, চিত্রালী পাঠক-পাঠিকা চলচ্চিত্র সংসদ, রণেশ দাশগুপ্ত চলচ্চিত্র সংসদ, শিল্পী ফকির আলমগীর, স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, নাট্যব্যক্তিত্ব খ ম হারুনসহ বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠন শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

ফ্রান্স প্রবাসী আনোয়ার হোসেন গত ২৮ নভেম্বর বাংলাদেশে আসেন। শনিবার (১ ডিসেম্বর) সকালে পান্থপথের হোটেল ওলিও ড্রিম হেভেন থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

১৯৪৮ সালের ৬ অক্টোবর পুরান ঢাকায় আনোয়ার হোসেনের জন্ম। আরমানিটোলা স্কুল থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় বোর্ডে তৃতীয় হয়েছিলেন। নটর ডেম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে ভর্তি হয়েছিলেন বুয়েটের স্থাপত্যবিদ্যা বিভাগে। সেখানেও ভালো ফল করেন। তবে একসময় সিনেমাটোগ্রাফি পড়তে চলে যান ভারতে। ১৯৬৭ সালে আলোকচিত্রী হিসেবে জীবন শুরু করেন তিনি।

‘সূর্য দীঘল বাড়ী’, ‘এমিলের গোয়েন্দা বাহিনী’, ‘পুরস্কার’, ‘অন্য জীবন’, ‘লালসালু’, ‘শ্যামলছায়া’ চলচ্চিত্রের চিত্রগ্রাহক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান আনোয়ার হোসেন। কমনওয়েলথ গোল্ড মেডেলসহ ৬৮টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। ১৯৯৫ সালে ফ্রান্সে চলে যান আনোয়ার হোসেন। ১৯৯৬ সালে ফরাসি মেয়ে মারিয়ামকে বিয়ে করেন।

ছবি: নাসিরুল ইসলাম

/এসএস/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

প্রত্যেককে ডিজিটাল দক্ষতা অর্জন করতে হবে: মোস্তাফা জব্বার

প্রত্যেককে ডিজিটাল দক্ষতা অর্জন করতে হবে: মোস্তাফা জব্বার

মার্চ-এপ্রিলে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

মার্চ-এপ্রিলে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

২৫ জনকে দিয়ে শুরু হবে দেশের করোনা টিকা কর্মসূচি

২৫ জনকে দিয়ে শুরু হবে দেশের করোনা টিকা কর্মসূচি

ভ্যাকসিনের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

ভ্যাকসিনের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

ভারতীয় ভ্যাকসিন হস্তান্তর অনুষ্ঠান ‘পদ্মায়’

ভারতীয় ভ্যাকসিন হস্তান্তর অনুষ্ঠান ‘পদ্মায়’

ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

প্রাইভেট হাসপাতালে এখনই করোনার টিকা নয়

প্রাইভেট হাসপাতালে এখনই করোনার টিকা নয়

‘আমার গ্রাম আমার শহর’ বাস্তবায়নে গুচ্ছভিত্তিক কমিটি করা হবে

‘আমার গ্রাম আমার শহর’ বাস্তবায়নে গুচ্ছভিত্তিক কমিটি করা হবে

৯ মাস পর মৃত্যুর সংখ্যা নামলো ১০-এর নিচে

৯ মাস পর মৃত্যুর সংখ্যা নামলো ১০-এর নিচে

ঘর পাচ্ছেন ৭০ হাজার ভূমিহীন: শনিবার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

ঘর পাচ্ছেন ৭০ হাজার ভূমিহীন: শনিবার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

পাট মজুতে কঠোর সরকার

পাট মজুতে কঠোর সরকার

বিএনপি সবকিছুতেই লুটপাট দেখে: তথ্যমন্ত্রী

বিএনপি সবকিছুতেই লুটপাট দেখে: তথ্যমন্ত্রী

সর্বশেষ

গাজীপুরে করোনা ভ্যাকসিন দেবেন নার্স ও কমিউনিটি চিকিৎসা কর্মকর্তাগণ

গাজীপুরে করোনা ভ্যাকসিন দেবেন নার্স ও কমিউনিটি চিকিৎসা কর্মকর্তাগণ

মানিকগঞ্জে প্রসূতির রহস্যজনক মৃত্যু

মানিকগঞ্জে প্রসূতির রহস্যজনক মৃত্যু

স্মৃতি হারানো রোগে নিঃস্ব এক বাবার পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান

স্মৃতি হারানো রোগে নিঃস্ব এক বাবার পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান

সৎ মেয়েকে হত্যার দায়ে মায়ের যাবজ্জীবন

সৎ মেয়েকে হত্যার দায়ে মায়ের যাবজ্জীবন

ভাতিজিকে ব্লেড দিয়ে আঁচড়ে দিয়ে রক্তাক্ত, চাচা গ্রেফতার

ভাতিজিকে ব্লেড দিয়ে আঁচড়ে দিয়ে রক্তাক্ত, চাচা গ্রেফতার

যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা

যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা

কালিহাতীতে আ.লীগের সম্মেলনে সংঘর্ষ, আহত ৪

কালিহাতীতে আ.লীগের সম্মেলনে সংঘর্ষ, আহত ৪

বাগেরহাট পৌরসভায় একক প্রার্থী হিসেবে বিজয়ের পথে ৩ কাউন্সিলর

বাগেরহাট পৌরসভায় একক প্রার্থী হিসেবে বিজয়ের পথে ৩ কাউন্সিলর

তারেক সোলেমানের পরিবারের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি নওফেলের

তারেক সোলেমানের পরিবারের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি নওফেলের

ছোটভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেলো বড়ভাইয়ের

ছোটভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেলো বড়ভাইয়ের

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার তিন শিক্ষককে অপসারণচেষ্টা!

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার তিন শিক্ষককে অপসারণচেষ্টা!

জেসিআইয়ের উদ্যোগে শীতার্তদের কম্বল বিতরণ

জেসিআইয়ের উদ্যোগে শীতার্তদের কম্বল বিতরণ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

শুরু হচ্ছে সিসিমপুরের নতুন মৌসুম

শুরু হচ্ছে সিসিমপুরের নতুন মৌসুম

তারিক আনামকে নিয়ে নতুন ছবি

তারিক আনামকে নিয়ে নতুন ছবি

অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু আর নেই

অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু আর নেই

নতুন বছরে বড় ঘোষণা দিলেন সাইমন-মাহি

নতুন বছরে বড় ঘোষণা দিলেন সাইমন-মাহি

‘হায়দার’ সিনেমায় গাইলেন শফি মণ্ডল

‘হায়দার’ সিনেমায় গাইলেন শফি মণ্ডল

বায়োপিক ‘বঙ্গবন্ধু’: প্রথম ফ্লাইটে গেলেন শুধু দিব্য

বায়োপিক ‘বঙ্গবন্ধু’: প্রথম ফ্লাইটে গেলেন শুধু দিব্য

বিমানবাহিনীতে হত্যাকাণ্ড নিয়ে তথ্যচিত্র

বিমানবাহিনীতে হত্যাকাণ্ড নিয়ে তথ্যচিত্র

প্রধানমন্ত্রীর চরিত্রে থাকছেন না হিমি

প্রধানমন্ত্রীর চরিত্রে থাকছেন না হিমি

অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে নেতার মামলা

অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে নেতার মামলা

আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ পরিচালক মামুন

আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ পরিচালক মামুন


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.