X
সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২
৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

চট্টগ্রামে সেই নালার ওপর দেয়াল তুললো কারা?

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
০২ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৪আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৪

নালায় পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী সাদিয়ার মৃত্যুর পর ঘটনাস্থল ফুটপাতের উন্মুক্ত অংশে দেয়াল তুলে দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতের কোনও এক সময় সেখানে দেয়ালটি তুলে দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয় পান দোকানদার পরিমল। তবে দেয়ালটি কারা তুলেছেন সেটি তিনি জানেন না।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী বিপ্লব দাশ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দেয়ালটি চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (চউক) নির্মাণ করেছে। সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে ওখানে দেয়াল তুলে দেওয়ার জন্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করলে তারা এটি নির্মাণ করেন।’

কিন্তু চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বলছে ভিন্ন কথা। এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের প্রকল্প পরিচালক চউকের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহফুজুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দেয়ালটি কে বা কারা নির্মাণ করেছে সেটি আমার জানা নেই। চউক নির্মাণ করলেতো আমি অবশ্যই জানতাম। দেয়ালটি সিটি করপোরেশন নিজেই নির্মাণ করতে পারে বলে ধারণা তার। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী বিপ্লব দাশ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, যেখানে দেয়াল তুলে দেওয়া হয়েছে ওইটা এবং এর বিপরীত পাশের নালা দুটি সিডিএ’র অধীনে, তাদের নালার ওপরে সিটি করপোরেশন কেন দেয়াল নির্মাণ করবে। দেয়ালটি তারাই নির্মাণ করেছে। 

 শনিবার (২ অক্টোবর) সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, আগ্রাবাদ মোড় থেকে চৌমুহনীর দিকে যাওয়া সড়কটি ডানপাশের নালার ওই অংশটি ছাড়া পুরো নালায় স্ল্যাব বসানো হয়েছে। শুধু ওই অংশে নালাটি উন্মুক্ত ছিল। পুরো নালার ওপর স্ল্যাব থাকায় আনমনে কেউ ওই নালার ওপর দিয়ে হেঁটে আসলেই সেখানে নালায় পড়ে যাওয়ার কথা।

ঘটনাস্থলের ১০ ফুট দূরে পরিমলের পান দোকান। এ সর্ম্পকে জানতে চাইলে পরিমল বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, শুধু সাদিয়া নয়, গত সপ্তাহে আরও চার জন ওই নালায় পড়েছেন। ওই সময় নালায় ময়লার স্তুপ থাকায় তাদের সবাইকে আমরা গিয়ে তুলেছি। কিন্তু সাদিয়া যেদিন নালায় পড়ে ওই সময় নালায় বৃষ্টির কারণে স্রোত ছিল। তাই সে নালার ময়লায় ডুবে যায়। এ কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। নালার উন্মুক্ত অংশের পাশেই একটি ল্যাম্প পোস্ট আছে। দীর্ঘদিন ওই ল্যাম্পপোস্টে বাতিও জ্বলতো না বলে জানিয়েছেন পরিমল।

 তিনি বলেন, সাদিয়া যে সময় নালায় পড়ে তখন এই অংশটা অন্ধকার ছিল। পাশে থাকা ল্যাম্পপোস্টের বাতিটিও দীর্ঘদিন অকেজো ছিল। অন্ধকারে তাই এখানে নালার ওপর স্ল্যাব আছে কিনা সেটি বোঝা যেতো না।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাত ১০টার দিকে ফুটপাত দিয়ে নানার সঙ্গে হেঁটে যাওয়ার সময় নালায় পড়ে নিখোঁজ হন আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সেহেরিন মাহবুব সাদিয়া। ঘটনার ৫ ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে ৩০ গজ দূর কয়েক টন ময়লা সরিয়ে সাদিয়ার লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার পর তার নানা জানান, আগ্রাবাদ মোড় থেকে চশমা কিনে বাসায় ফেরার পথে ফুটপাত দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় সাদিয়া নালায় পড়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে নালায় লাফ দিয়েও তিনি সাদিয়াকে উদ্ধার করতে পারেননি। 

/টিটি/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
কাঁথায় মুড়িয়ে খাতাগুলো নেন শেখ হাসিনা
কাঁথায় মুড়িয়ে খাতাগুলো নেন শেখ হাসিনা
পারমাণবিক কেন্দ্রে বিপর্যয়ের ঝুঁকি ‘প্রতিদিন বাড়ছে’: ইউক্রেন
পারমাণবিক কেন্দ্রে বিপর্যয়ের ঝুঁকি ‘প্রতিদিন বাড়ছে’: ইউক্রেন
১১ ঘণ্টা পর মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু
গাজীপুরে বগি লাইনচ্যুত১১ ঘণ্টা পর মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু
কীভাবে হয়েছিল প্রতিবাদ?
কীভাবে হয়েছিল প্রতিবাদ?
এ বিভাগের সর্বশেষ
১১ ঘণ্টা পর মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু
গাজীপুরে বগি লাইনচ্যুত১১ ঘণ্টা পর মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানালেন কাজী নাবিল
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানালেন কাজী নাবিল
অর্থ আত্মসাৎ মামলায় কৃষি অফিসের নৈশপ্রহরী কারাগারে 
অর্থ আত্মসাৎ মামলায় কৃষি অফিসের নৈশপ্রহরী কারাগারে 
সেতু থেকে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ রাসেলের মরদেহ উদ্ধার
সেতু থেকে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ রাসেলের মরদেহ উদ্ধার
এক মাসে ৩ বার ভেঙেছে বাঁধ, ৪ হাজার মানুষের দুর্ভোগ 
এক মাসে ৩ বার ভেঙেছে বাঁধ, ৪ হাজার মানুষের দুর্ভোগ