X
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২
১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

পার্বত্য জেলার ৫ ফুটবলারকে বরণে প্রস্তুত এলাকাবাসী

রাঙামাটি প্রতিনিধি
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:০৩আপডেট : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:০৩

সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী বাংলাদেশ ফুটবল দলের পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের পাঁচ ফুটবলার বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে বাড়ি ফিরছেন। তাদেরকে মশাল জ্বালিয়ে বরণ করে নিতে প্রস্তুতি নিয়েছেন এলাকাবাসী।

বুধবার রাত ৮টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে বাড়িতে আসার তিন কিলোমিটার পথে ভিন্নভাবে বরণ করা কথা জানান রাঙামাটির ঘাগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শশী মোহন চাকমা।

তিনি জানান, বিকালে চট্টগ্রামে সাফ বিজয়ী পাঁচ ফুটবলার মনিকা, রুপনা, ঋতুপর্ণা, আনাই ও আনুচিংকে সংবর্ধনা দেওয়া হচ্ছে। অনুষ্ঠান শেষে তারা বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেবে। আমরা ঋতুপর্ণার বাসায় যাওয়ার রাস্তায় মগাছড়িতে অপেক্ষা করবো। তখন মশাল জ্বালিয়ে ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হবে।

ঘাগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চন্দ্রা চাকমা বলেন, তারা আজ ঋতুপর্ণার বাসায় থাকবে। বৃহস্পতিবার সকালে তাদেরকে স্কুলের মাঠে সংবর্ধনা দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, পার্বত্য জেলার পাঁচ ফুটবলারের মধ্যে রুপনা ও ঋতুপর্ণার বাড়ি রাঙামাটিতে। আর মনিকা, আনাই ও আনুচিংয়ের বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলায়। তারা সবাই ঘাগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন। আগামীকাল সকালে তাদেরকে স্কুলে সংবর্ধনা দেওয়া হবে। এরপর নিজ জেলায় ফিরবেন খাগড়াছড়ির তিন ফুটবলার। আর রুপনা ও ঋতুপর্ণাকে নিজ জেলা রাঙামাটিতে খোলা ট্রাকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে।

/এফআর/
মাসটি বিজয়ের
মাসটি বিজয়ের
ফ্রান্সকে হারিয়েও তিউনেশিয়ার বিদায়
ফ্রান্সকে হারিয়েও তিউনেশিয়ার বিদায়
১৮ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া দিনাজপুর পৌরসভার
১৮ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া দিনাজপুর পৌরসভার
ডেনিশদের হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া নকআউট পর্বে
ডেনিশদের হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া নকআউট পর্বে
সর্বাধিক পঠিত
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
রিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
ইসলামী ব্যাংকের ৩০ হাজার কোটি টাকা ঋণরিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
তুরস্কের প্রতি সংহতি ন্যাটোর
তুরস্কের প্রতি সংহতি ন্যাটোর