X
বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২
২৩ আষাঢ় ১৪২৯

ভবদহ জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানে টিআরএম চালুর দাবি

আপডেট : ০৮ মে ২০২২, ১২:০৬

যশোরের ভবদহ জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানে টিআরএম (টাইডাল রিভার ম্যানেজমেন্ট) চালুর দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটি।  

শনিবার (৭ মে) অভয়নগর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের শ্রী নদীর ওপর নির্মিত ভবদহ স্লুইস গেটে (২১ ভেন্ট) এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানান সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির উপদেষ্টা ইকবাল কবীর জাহিদ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার ভবদহ অঞ্চলের নদী ও জনপদবাসীকে ডুবিয়ে মারার স্থায়ী ব্যবস্থা করার নীতি গ্রহণ করেছে। যে কারণে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) নদী বাঁচানোর পরিবর্তে নদীকে হত্যা করছে।

তারা আরও বলেন, সরকারের গৃহীত ডেল্টা প্লান-১০০ ঘোষণায় ভবদহ এলাকার জলাবদ্ধতার সমস্যা সমাধানে সুষ্পষ্টভাবে পরিকল্পিত জোয়ারাধার (টিআরএম) বাস্তবায়নের কথা বলা রয়েছে। টিআরএম কার্যক্রম বন্ধ হওয়ায় হরি নদীতে ব্যাপক পলি জমা হয়। এতে জলাবদ্ধতা স্থায়ী রূপ নেয়। আর পানি উন্নয়ন বোর্ড ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় বিভিন্ন প্রকল্পের নামে অর্থ তছরূপ শুরু করে।

শ্রী নদীর ওপর নির্মিত ভবদহ স্লুইস গেটে শনিবার সংবাদ সম্মেলন করেন ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির নেতৃবৃন্দ

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, যেখানে টিআরএম ছাড়া বিকল্প নেই, সেখানে মিথ্যা তথ্য দিয়ে পানি সেচ প্রকল্প গ্রহণ করে কোটি কোটি টাকা তছরুপ ও জনপদের মানুষের শত শত কোটি টাকার ফসল, বসতবাড়ি নষ্ট ও মানবিক বিপর্যয়ের স্থায়ী ব্যবস্থা করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। গত মৌসুমে সেচের মাধ্যমে ব্যাপক ফসল উৎপাদনের কথা বললেও প্রকৃতপক্ষে ২৫ হাজার হেক্টর জমিতে ফসল হয়নি। এখনও বিলগুলো পানির তলে। অনেক স্কুল ও বসতবাড়ি জলাবদ্ধ রয়েছে। এ অবস্থায় স্থানীয়রা ৪৫ কোটি টাকার সেচ প্রকল্প বাতিল করার জন্য মতামত দিয়েছে। কিন্তু জনগণের মতামত উপেক্ষা করে আবারও তিন কোটি ৮০ লাখ টাকার পাম্প স্থাপনের বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে এবং ৪৫ কোটি টাকার প্রস্তাবিত প্রকল্প অনুমোদনের পাঁয়তারা চলছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী গণস্বার্থবিরোধী ও সরকারকে বিভ্রান্ত করতে প্রধান ভূমিকা পালন করছে। এজন্য সংবাদ সম্মেলন থেকে তার অপসারণ ও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়েছে।

এর আগে সংগ্রাম কমিটির নেতৃবৃন্দ হরি নদের বিভিন্ন স্থান ঘুরিয়ে দেখেন। সেখানে হরি নদের বিভিন্ন স্থানে হাঁটু থেকে কোমর পর্যন্ত পানির অবস্থান দেখা যায়। সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের আহবায়ক রণজিত বাওয়ালী, সদস্য গাজী আব্দুল হামিদ, শিবপদ বিশ্বাস, কানু বিশ্বাস, মেখর বিশ্বাস, তৃষা চামেলি, রাজু আহমেদ, আজিজ সরদার, অধ্যাপক অনিল বিশ্বাস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এদিকে সেচযন্ত্রে জলাবদ্ধতার সাফল্যের বিষয়ে মতামত দিয়েছেন পাউবো যশোরের নির্বাহী প্রকৌশলী তাওহীদুল ইসলাম। 

তার মতে, গত বছরের জানুয়ারি থেকে ভবদহে পরীক্ষামূলক ২০টি পাম্প মেশিন দিয়ে সেচ চলছে। এর মাধ্যমে পানি সেচ সফল হয়েছে। হরি নদে নাব্যতা বেড়েছে। সে কারণে বড় পরিসরে সেচের কার্যক্রম গ্রহণ করা হচ্ছে। এজন্য প্রায় ৪৫ কোটি টাকার একটি উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা পরিকল্পনা কমিশনে পাসের অপেক্ষায় রয়েছে।

/এসএইচ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ঋণ অনুপাতের গরমিল, অর্থনৈতিক অস্থিরতায় চীন
ঋণ অনুপাতের গরমিল, অর্থনৈতিক অস্থিরতায় চীন
এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশ
এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশ
চার লাখে কেনা ‘রংবাজ-বিন্দাসের’ দাম এখন ৩০ লাখ
চার লাখে কেনা ‘রংবাজ-বিন্দাসের’ দাম এখন ৩০ লাখ
সফর সংক্ষিপ্ত করে লন্ডনে ফিরছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সফর সংক্ষিপ্ত করে লন্ডনে ফিরছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী
এ বিভাগের সর্বশেষ
আসছি বলে নিখোঁজ, ৫ দিন পর মিললো সাংবাদিকের লাশ
আসছি বলে নিখোঁজ, ৫ দিন পর মিললো সাংবাদিকের লাশ
বড় ভাইয়ের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেলো ছোট ভাইয়ের
বড় ভাইয়ের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেলো ছোট ভাইয়ের
পেঁয়াজ আমদানি শুরু, কেজি ৩৬ টাকা
পেঁয়াজ আমদানি শুরু, কেজি ৩৬ টাকা
জোড়াগেট পশুহাটে ১৩০০ কেজির ‘ধলা মানিক’
জোড়াগেট পশুহাটে ১৩০০ কেজির ‘ধলা মানিক’
ঈদে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
ঈদে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত