শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার অভিযোগে অস্ত্র আইনে মামলা

Send
নড়াইল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:৩১, জুন ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৩৬, জুন ১৭, ২০১৯

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে পিস্তল হাতে হামলাকারী  নড়াইল সরকারি উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে ছাত্রদের বিক্ষোভ মিছিলের ওপর পিস্তল নিয়ে হামলার অভিযোগে মামলা হয়েছে। ওই বিদ্যালয়ের এক ছাত্র সোমবার (১৭ জুন) অস্ত্র আইনে নড়াইল সদর থানায় এ মামলা করে। মামলায় চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১০-১২ জনকে আসামি করা হয়েছে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইলিয়াস হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নাম উল্লেখ করা আসামিরা হলেন– নড়াইল শহরের মহিষখোলা এলাকার আবুল হোসেনের দুই ছেলে ঠিকাদার রেজাউল আলম ওরফে জার্মান আলম (৫০) ও কামরুল ইসলাম (৪০), একই এলাকার কাদের মোল্লার ছেলে ঠিকাদার মঈনউল্লাহ দুলু (৫০) ও দুখু মিয়া (৪০)।

এ মামলার বাদী মো. জাকারিয়া খান ওই বিদ্যালয়ের ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। সে শহরের ভওয়াখালী এলাকার জুলমত খানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ জুন সকালে নড়াইল সরকারি উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রদেশ কুমার মল্লিক তার প্রাইভেট কোচিংয়ে এক ছাত্রীকে চড় মারেন। ওই ছাত্রী এ ঘটনা বাড়িতে গিয়ে জানালে তার বাবা ঠিকাদার মঈনউল্লাহ দুলুকে জানায়। এরপর দুলু ওই শিক্ষককে বাসা থেকে শার্টের কলার ধরে টেনেহিঁচড়ে বের করে নিয়ে এসে মারধরসহ লাঞ্ছিত করেন। এ ঘটনা জানাজানি হলে ছাত্ররা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। তারা এর প্রতিবাদে রবিবার সকালে সড়ক অবরোধ ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ঘেরাও করে। এ সময় দুলুর সমর্থকরা আন্দোলকারী ছাত্রদের মারপিট ও ভয় দেখায়। একপর্যায়ে বিক্ষোভকারী ছাত্রদের ওপর পিস্তল নিয়ে চড়াও হয় দুলুর সমর্থক ঠিকাদার রেজাউল করিম (জার্মান আলম)।

এ ঘটনার পর জেলা প্রশাসকের নির্দেশে রেজাউল করিমের লাইসেন্সকৃত পিস্তলটি জব্দ করে থানায় জমা রাখা হয়েছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ