আট দিন আটকে রেখে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

Send
গাইবান্ধা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:৪৩, নভেম্বর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০৬, নভেম্বর ১১, ২০১৯

গাইবান্ধার সাঘাটায় অপহরণের পর এক স্কুলছাত্রীকে আট দিন আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রিন্স মিয়াকে (২৩) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বোনারপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক (ইনচার্জ) এনায়েত কবীর।

এর আগে, সকালে ভরতখালি ইউনিয়নের উল্লাবাজার এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়ে স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার ও অভিযুক্ত প্রিন্স মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলার বরাত দিয়ে পুলিশ পরির্দশক এনায়েত কবীর জানান, গত ৩ নভেম্বর বিকালে বোনারপাড়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রী স্কুল ছুটির পর বাড়ি ফিরছিলেন। পথে প্রিন্স মিয়া তাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কৌশলে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এরপর প্রিন্স উল্লাবাজার এলাকার ওয়াহেদুল ইসলামের বাসা ভাড়া নিয়ে তাকে আটক করে রাখে। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও ওই ছাত্রীর কোনও সন্ধান পায়নি পরিবারের লোকজন। রবিবার (১০ নভেম্বর) রাতে হঠাৎ ওই ছাত্রী নিজেই ফোন করে অপহরণের ঘটনাটি পরিবারকে জানায়। পরে ফোনের সূত্র ধরে সোমবার সকালে অভিযান চালিয়ে ওই বাসা থেকে স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার এবং প্রিন্সকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় রবিবার রাতে প্রিন্স মিয়া ও তার সহযোগী নয়ন মিয়ার বিরুদ্ধে সাঘাটা থানায় মামলা করেন স্কুলছাত্রীর মা। প্রিন্সকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামি নয়নকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রী আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে।
গ্রেফতার প্রিন্স মিয়া সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম রাঘবপুর গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে। প্রিন্স পেশায় মাহেন্দ্র চালক।

/এএইচ/এমওএফ/

লাইভ

টপ