জাবি উপাচার্যের ‘দুর্নীতি’ প্রকাশ, সাত দফা দাবি

Send
জাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৪:৪২, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪২, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

জাবি উপাচার্যের দুর্নীতির অভিযোগ পুস্তিকা আকারে প্রকাশ করেন আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাজাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ পুস্তিকা আকারে প্রকাশ করেছেন উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে আন্দোলনরত ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ মঞ্চের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ও মানবিক অনুষদ ভবনের শিক্ষক লাউঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।
২২৪ পৃষ্ঠার ওই পুস্তিকায় উপাচার্যের বিরুদ্ধে উন্নয়ন প্রকল্পসহ নানা ক্ষেত্রে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের তথ্য-উপাত্ত, মাস্টারপ্ল্যানের ত্রুটি, আন্দোলনের যৌক্তিকতা, আন্দোলনরতদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, দুর্নীতির অভিযোগ ও আন্দোলন সংক্রান্ত সংবাদের প্রতিবেদন, কলাম ও ছবি তুলে ধরেছেন আন্দোলনকারীরা।

সাত দফা প্রস্তাব
বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার জন্য সাত দফা প্রস্তাবনা তুলে ধরেছেন আন্দোলনকারীরা। প্রস্তাবগুলো হলো- বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনায় সব প্রশাসনিক, একাডেমিক ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের অর্থনৈতিক হিসাব প্রকাশ, মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়ন, সংশোধন ও যেকোনো অবকাঠামোগত উন্নয়নে সকল অংশীজনের মতামত ও অংশগ্রহণ নিশ্চিত এবং তদারক কমিটি গঠন, বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থা ছাড়া উপাচার্যের বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগ না করা, উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন ছাড়া উপাচার্য নিয়োগ না করা, ছাত্র সংসদ নির্বাচন দিয়ে সিনেট পূর্ণাঙ্গ করা, পূর্ণাঙ্গ আবাসিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘোষণার বাস্তবায়ন এবং বাণিজ্যিক কোর্স ও বিভিন্ন স্থাপনার বাণিজ্যিক ব্যবহার বন্ধ করা।
সংবাদ সম্মেলনে পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু বলেন, ‘উপাচার্য নিজের পদে থেকে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হলে দুর্নীতির মহোৎসব দেখা যাবে। তিনি উন্নয়নকাজ দেখভালের যোগ্যতা হারিয়েছেন বলেই আমরা তার পদত্যাগ চেয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয় এখন গভীর সংকটে রয়েছে। আশা করছি, সরকার বিষয়টি খতিয়ে দেখবে।’
আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুশফিক উস সালেহীন বলেন, ‘চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের মুরাদ চত্বরে আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার স্থিরচিত্র প্রদর্শন ও গণসংযোগ করা হবে। উন্নয়ন প্রকল্পে আর্থিক অসঙ্গতির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করা হবে।’
সংবাদ সম্মেলনে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ মঞ্চের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র দর্শন বিভাগের অধ্যাপক রায়হান রাইন, পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক খবির উদ্দিন, নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মির্জা তাসলিমা সুলতানা, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক তারেক রেজা, নাজমুল হাসান তালুকদার ও শামীমা সুলতানা এবং আন্দোলনরত বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, দুর্নীতির অভিযোগে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে গত কয়েক মাস ধরে আন্দোলন করে আসছেন ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ মঞ্চের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ধারাবাহিক আন্দোলনের একপর্যায়ে গত ৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও করেন আন্দোলনকারীরা। পরদিন ৫ নভেম্বর আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালান। এ ঘটনায় ওই দিনই এক জরুরি সিন্ডিকেট সভায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা এবং শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের মধ্যেই নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে উপাচার্যের অপসারণ, ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদ ও বিশ্ববিদ্যালয় চালুর দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেন আন্দোলনকারীরা। গত ৪ ডিসেম্বর সিন্ডিকেটের এক জরুরি সভায় বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

আরও পড়ুন: ছাত্রলীগ দায়িত্ব নিয়ে কাজটি করেছে, আমি কৃতজ্ঞ: জাবি ভিসি

              জাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা (ভিডিও)

              জাবি বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়ার নির্দেশ

 

/ওআর/

লাইভ

টপ