কেউ বললেই আমি মেয়র পদ ছেড়ে দিতাম: নাছির

Send
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
প্রকাশিত : ১৬:৩৭, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৫০, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০

সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন আ জ ম নাছির উদ্দিনদলীয় মনোনয়ন থেকে বাদ পড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, ‘আমি মিথ্যাচার, অপরাজনীতি, অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের শিকার। আমার কাছে মেয়র পদটা বড় নয়। রাজনীতিটা বড়। কেউ যদি এসে আমাকে বলতেন, মেয়র পদ থেকে সরে যাও, আমি ছেড়ে দিতাম।’

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি এ কথা বলেন।

আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, ‘একটি বিষয়ে আমি খুব কষ্ট পেয়েছি। ষড়যন্ত্র করতে গিয়ে আমার নামে মিথ্যাচার করা হয়েছে। যেখানে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর আমি চট্টগ্রাম কলেজে প্রতিবাদ মিছিল করেছি, বঙ্গবন্ধুর খুনি কর্নেল ফারুকের সভা পণ্ড করেছি, এ শহরে কোথাও তাদের সভা-সমাবেশ করতে দেইনি, সেই জায়গায় খুনির কোনও এক ভাইয়ের ছবি ফেসবুকে দিয়ে চরম অপপ্রচার ও মিথ্যাচার করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘অপপ্রচারকারীরা বঙ্গবন্ধুর যে খুনির ভাইয়ের ছবি ফেসবুকে দিয়েছে, তাকে আমি চিনিও না,  কোনোদিন দেখিওনি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আমার দুঃসময়ে পাশে থাকা আকরাম খানের আহ্বানে অক্সিজেন এলাকায় একটি দোকান উদ্বোধনে গিয়েছিলাম। ওই ছবিটা সেখানেই তোলা হয়েছে। যার সঙ্গে আমার কোনও ধরনের সম্পৃক্ততা নেই। মেয়র পদের মনোনয়ন আটকে দেওয়ার জন্য এ ধরনের ষড়যন্ত্রের আশ্রয় নেওয়া খুবই দুঃখজনক। কারও মেয়র পদ লাগলে আমাকে সরাসরি বলতে পারতো। প্রয়োজনে আমি মনোনয়ন সংগ্রহ করতাম না। কিন্তু এ রকম এ অপপ্রচার কিছুতেই কাম্য নয়।’

নাছির উদ্দিন বলেন, ‘আমার কোনও অভিমান নেই। রাগ, ক্ষোভ নেই। আমি রাজনৈতিক কর্মী, মাঠের কর্মী। মাঠ থেকে আজ এ পর্যায়ে এসেছি। অনেকবার মৃত্যুর মুখোমুখি হয়েছিলাম। চট্টগ্রাম কলেজকে শিবিরমুক্ত করতে গিয়ে নির্মমভাবে আক্রান্ত হয়েছিলাম। নির্যাতন ছিল নিত্যদিনের সঙ্গী। তাই আমার নতুন করে পরীক্ষা দেওয়ার আর কিছু নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি সবাইকে বলছি-তোমরা আমাকে নির্বাচিত করার জন্য যেভাবে কাজ করতে সেই ভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রার্থী রেজাউল করিম ভাইয়ের জন্য কাজ করবে। আমি শতভাগ উজাড় করে দেবো। রেজাউল ভাই আগামীকাল আসবেন। তিনি আসার পর আমরা সবাই বসবো। বসে নির্বাচনি কর্মপন্থা ঠিক করবো।’

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলামে সঞ্চালনায় বৈঠকে বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সভাপতি আলী আব্বাস, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি কলিম সরওয়ার, বিএফইউজের সাবেক সহ-সভাপতি শহীদ উল আলম, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ম. শামশুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী প্রমুখ।

 

/এফএস/

লাইভ

টপ