৩ নারীকে গাছে বেঁধে বসতঘর গুঁড়িয়ে দিলো সন্ত্রাসীরা

Send
পিরোজপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:২২, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:২৯, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০



 পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার ধানীশাফা ইউনিয়নের পশ্চিম পাতাকাটা গ্রামে মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রকাশ্যে এক বৃদ্ধাসহ তিন নারীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে বসতঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এসময় সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের প্রদর্শনীতে এলাকায় ভীতি ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রুহুল (২৫) ও ইয়াসিন (২২) নামে দুই জনকে আটক করে।

মঠবাড়িয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ইসমাইল হোসেন জানান, পশ্চিম পাতাকাটা গ্রামের মৃত লাল মিয়া মৃধার ছেলে আলতাফ মৃধা তার পৈত্রিক সম্পত্তিতে বসতঘর তুলে প্রায় ৩০ বছর ধরে বসবাস করছেন। গত ৮/৯ বছর ধরে একই বাড়ির সাইদ মৃধা আলতাফের সীমানায় জমি পাবেন বলে দাবি জানিয়ে আসছেন। এ নিয়ে থানা পুলিশের সদস্য ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সালিশ চলছে।

 ইউপি সদস্য ইসমাইল হোসেন বলেন, সালিশ ব্যবস্থা চলমান থাকা অবস্থায় সাইদ মৃধা ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের দিয়ে আলতাফ মৃধার বসতঘরটি গুঁড়িয়ে দিয়েছেন। বিষয়টি খুবই অমানবিক।

সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত বৃদ্ধা নূরুন্নাহার (৭০) জানান, ঘর ভাঙচুরের সময় ঘরে রাখা নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, জমির দলিলপত্র, পাসপোর্ট ও মালামাল সন্ত্রাসীরা লুট করে নিয়ে গেছে।

তিন নারীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে ঘরবাড়ি গুঁড়িয়ে দেওয়ার ঘটনা মধ্যযুগীয় বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ধানীশাফা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হারুনর রশীদ। তিনি বলেন, প্রকাশ্যে আলতাফ মৃধার মা নূরুন নাহার, বোন হোসনেয়ারা ও অপর এক নারীকে যারা গাছের সঙ্গে বেঁধে ঘরবাড়ি গুঁড়িয়ে দিয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত।

মঠবাড়িয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল হক জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

/টিটি/

লাইভ

টপ