আবাসিক এলাকায় শ্যালো মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন, হুমকির মুখে বাকি বাড়িঘর ও সড়ক

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:৫০, জুলাই ০৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০০, জুলাই ০৪, ২০২০

বগুড়ার সোনাতলায় প্রশাসনকে অবহিত না করে পুকুরের মতো গর্ত খুঁড়ে বালু তুলছেন এক প্রভাবশালী। এতে ধসের মুখে পড়েছে প্রতিবেশীদের বাড়ি-ঘর।

বগুড়ার সোনাতলার পদ্মপাড়া গ্রামের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় শ্যালো মেশিন বসিয়ে মাটির গভীর থেকে অবাধে বালু উত্তোলন করছেন এক ব্যক্তি। তার এ কাজে আশপাশের শতাধিক বাড়িঘর ও দুটি সড়ক হুমকির মুখে পড়েছে। ভুক্তভোগীরা এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, সোনাতলা উপজেলার পাকুল্লা ইউনিয়নের পদ্মপাড়া গ্রামের মৃত ইফাজ উদ্দিনের ছেলে ইলিয়াস আলী তার বাড়ির কাছে শ্যালো মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করছেন। এ ব্যাপারে তিনি স্থানীয় প্রশাসনের কাছে অনুমতি নেননি।

ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন, প্রভাবশালী ইলিয়াস বালু উত্তোলন করায় গভীর গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। আশপাশে অনেক বাড়িঘর রয়েছে। গভীর থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ না হলে যে কোনও প্রাকৃতিক দূর্যোগে ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে। এতে তাদের বাড়িঘর বিলীন হয়ে যাবে। প্রাণহানির আশঙ্কাও করছেন তারা। এছাড়াও পদ্মপাড়া-পাকুল্লা ও পদ্মাপাড়া-হরিখালী সড়কটি ধসে যেতে পারে।

এ ব্যাপারে বালু উত্তোলনকারী ইলিয়াস আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করলে তাকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তার স্ত্রী ক্ষুব্ধ কণ্ঠে জানান, বাড়ি নির্মাণের জন্য নিজেদের জমি থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে কারও ক্ষতি হওয়ার কথা নয়।

সোনাতলা থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মাসউদ চৌধুরী জানান, আবাসিক এলাকায় গভীর গর্ত থেকে বালু উত্তোলনের বিষয়ে তার জানা নেই। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনাতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর আলম জানান, ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় শ্যালো মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের কোনও সুযোগ নেই। প্রয়োজনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

/টিএন/

লাইভ

টপ