বেগমগঞ্জে দুই মানব পাচারকারী আটক

Send
নোয়াখালী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:৫৩, আগস্ট ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৪, আগস্ট ০৮, ২০২০

আটককৃত দুই মানব পাচারকারী নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার জিরতলি ইউনিয়নে বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) রাতে অভিযান চালিয়ে দুই মানব পাচার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, একই এলাকার মৃত ফেঞ্জু মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৫৫) ও মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে মো. আনোয়ার হোসেন প্রকাশ কালা মিয়া (২৮)।
জেলা পুলিশ এর বিশেষ শাখার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিবি কুলছুম (৩৫) নামে এক নারীর অভিযোগের সূত্র ধরে ওই দুই মানব পাচারকারীকে গ্রেফতার করা হয়।

অভিযোগে জানা যায়, বিবি কুলছুমের ভাই মো. আলাউদ্দিন ৮ বছর যাবৎ লিবিয়ায় কর্মরত। তার ভাইয়ের সঙ্গে বেগমগঞ্জের জনৈক মহিনের পরিচয়। পরবর্তীতে তার প্রস্তাবে প্রলুব্ধ হয়ে ইতালীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে। জুনের প্রথম দিকে মহিন তার পরিবারের ইমু নাম্বার সংগ্রহ করে আলাউদ্দিনসহ নোয়াখালীর ১৪-১৫ জন লোক মাফিয়া চক্রের হাতে আটক বলে জানায়। তাদের উদ্ধারের জন্য জন প্রতি ৬ লাখ টাকা করে দিতে হবে। তাদের মুক্তির জন্য জরুরি ভিত্তিতে মহিনের দেওয়া বিভিন্ন বিকাশ নাম্বারে টাকা পাঠানোর জন্য তাগিদ দেয়। তা না হলে আলাউদ্দিনসহ সবাইকে হত্যা করে লাশ সাগরে ভাসিয়ে দেওয়া হবে। পরবর্তীতে কুলছুমের পরিবার থেকে বিভিন্ন বিকাশ নাম্বারে বিভিন্ন সময়ে তিন লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা দেওয়া হয়। এরপর মহিন আরও টাকার জন্য চাপ দিতে থাকে।
নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি (ডিবি) কামরুজ্জামান শিকদার জানান, উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ সুপার নোয়াখালীর নির্দেশনায় ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুই মানব পাচারকারীকে গ্রেফতার করে। মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা দায়ের করে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
জেলা পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন জানান, আসামিরা একটি সঙ্গবদ্ধ মানব পাচার চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা স্থানীয় দরিদ্র শ্রেণির অসহায় মানুষদের প্রলুদ্ধ করে কৌশলে বাংলাদেশ হতে লিবিয়ায় নিয়ে আটক, নির্যাতন ও মুক্তিপণ আদায় করে আসছে।
তিনি আরও জানান, এ বিষয়ে তদন্ত করে এর সঙ্গে স্থানীয়ভাবে আরও যারা জড়িত তাদের গ্রেফতারের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অধিকতর তদন্তে প্রয়োজনে সিআইডিকে দায়িত্ব দেয়া হবে।  

/আরআইজে/

লাইভ

টপ