মরাগাছ কাটার টেন্ডার পেয়ে কাটা হচ্ছে জীবিত গাছ!

Send
জামালপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৯:৪৮, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৫২, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০

মরাগাছ কাটার টেন্ডার পেয়ে কাটা হচ্ছে জীবিত গাছ! 

রাস্তার ধারের মরা গাছ কাটার টেন্ডারে অংশ নিয়ে ঠিকাদার কেটে নিয়ে যাচ্ছে জীবিত গাছ। জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে এ অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স মা-মনি এন্টারপ্রাইজ এর বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার ( ২৪ সেপ্টেম্বর ) উপজেলার দিগপাইত- সরিষাবাড়ী-তারাকান্দি সড়কে এ ঘটনা ঘটেছে।

সড়ক ও জনপথ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা’র অধীন সড়ক ও জনপথ এর অপারেশন ডিভিশন (পূর্বাঞ্চল) থেকে নির্বাহী বৃক্ষ পরিপালনবিদ এর স্বাক্ষরে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের দিগপাইত-সরিষাবাড়ী-তারাকান্দি সড়কের দুপাশে অবস্থিত মরা ও হেলে পড়া ঝুঁকিপূর্ণ বাধা সৃষ্টিকারী ৭৯টি গাছ অপসারণ করার জন্য টেন্ডার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। নিলামে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে কার্যাদেশ পান টাঙ্গাইলের মেসার্স মা-মনি এন্টারপ্রাইজ এর প্রোপাইটর সোহেল রানা রিপন।

মরাগাছ কাটার টেন্ডার পেয়ে কাটা হচ্ছে জীবিত গাছ!

নির্বাহী বৃক্ষ পরিপালনবিদ (চ. দা.) মীর মুকুট মো. আবু সাঈদ স্বাক্ষরিত কার্যাদেশ গত ১৩ সেপ্টেম্বর দেওয়া হয় ওই প্রতিষ্ঠানটিকে। এর পরেই প্রতিষ্ঠানটি সড়কে গাছ কাটা শুরু করে। কিন্তু, বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এলাকায় গেলে দেখা যায়, ঠিকাদারের ম্যানেজার জমির উদ্দিন, ওয়াহেদ আলী, সর্দার আশরাফ হোসেনের নেতৃত্বে তিনটি গ্রুপে প্রায় ৫০ জন শ্রমিক সড়কের দু’পাশে অবস্থিত মরা ও জীবিত গাছ সব গাছ কেটে নিচ্ছে।

এ সময় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, নিলামে অপ্রয়োজনীয় মরা গাছ কাটার কথা থাকলেও মূল্যবান বৃহৎ রেইনট্রি কড়ই, শিশু, আকাশিসহ প্রায় শতাধিক গাছ কর্তন করেন ঠিকাদারের লোকজন যা তাদের পাওয়া মোট টেন্ডারে উল্লিখিত সংখ্যার চেয়েও বেশি। জীবত গাছ কাটায় স্থানীয় সচেতন মহলের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। 

মরাগাছ কাটার টেন্ডার পেয়ে কাটা হচ্ছে জীবিত গাছ!

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব উদ্দিন আহমদ জানান, সড়ক ও জনপথের রাস্তার গাছ কর্তনের বিষয়ে আমি কিছু জানি না। এটি জামালপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলীর কাজ।

এ ব্যাপারে ময়মনসিংহ বিভাগের সড়ক ও জনপথের উপ-সহকারী প্রকৌশলী পরিতোষ ঘোষ জানান, কার্যাদেশ অমান্য করে গাছ কর্তন করায় দরদাতা প্রতিষ্ঠানকে গাছ কাটা বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে জামালপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, কার্যাদেশ বহির্ভূত গাছ কর্তন করলে কার্যাদেশ প্রাপ্ত দরদাতা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

 

/টিএন/

লাইভ

টপ