৪০ গৃহহীন পরিবারের নতুন জীবন

Send
মাজহারুল হক লিপু, মাগুরা
প্রকাশিত : ২২:২৬, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:২৮, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০

 

মাগুরায় ৪০টি গৃহহীন পরিবারের চোখে আজ নতুন স্বপ্ন। গুচ্ছ গ্রাম ‘গ্রিনসিটি’ তাদের দিয়েছে নতুন জীবন। জাতীয় পতাকার রঙের আদলে সুবজ ও লাল রঙের ঘরগুলো এখন তাদের নিজের ঘর। নিজস্ব ঘর না থাকায় তারা এতো দিন কেউ বাবার বাড়িতে, কেউ ভাড়া করা বস্তিতে, কেউ বা অন্যের বাড়িতে আশ্রিত ছিলেন। সরকারিভাবে প্রাপ্ত এই আশ্রয়ন প্রকল্পের দুই কক্ষের বাড়ি শুধু তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই দেবে না, তাদের কর্মসংস্থানের জন্যও রয়েছে প্রশিক্ষণসহ নানা প্রকল্প।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ১ একর ২০ শতাংশ জমিতে ৮০ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৪০টি দুই কক্ষ বিশিষ্ট ঘরের এই গ্রিনসিটিতে ৪০টি গৃহহীন ভূমিহীন পরিবার ঠাঁই পেয়েছেন। এসব পরিবারের অধিকাংশই নারী। অধিকাংশই স্বামী পরিত্যক্ত ও বিধবা। এখানে রয়েছে একটি মিলনায়তন। যেখানে নিয়মিতভাবে পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে যাতে তারা স্বাবলম্বী হয়ে উঠতে পারে।

গ্রিন সিটিতে ঠাঁই পাওয়া সখিনা খাতুন বলেন, 'অন্যের বাড়িতি কাজ কইরে জীবন কাটাই। নিজির ঘর হবে কোনোদিন স্বপ্নেও ভাবিনি। খুব ভালো লাগতিছে।'

অপর গৃহহীন জাহেদা বেগম বলেন, 'আমি কোনদিন ভাবিনি নিজির এট্টা বাড়ি হবে। যারা এরম এটটা ব্যবস্থা কইরে দিলো তাগের জন্যি অনেক দোয়া।'

মাগুরা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান জানান, ভূমি মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে গুচ্ছগ্রাম দ্বিতীয় প্রকল্পের আওতায় এই গ্রিনসিটি স্থাপিত হয়েছে। তবে অন্যান্য গুচ্ছগ্রাম থেকে এটির নকশা, স্থাপনা ও কার্যক্রমে ভিন্নতা আনা হয়েছে। এর আগে মাগুরা সদরের জগদলে ১৫টি ভূমিহীন হতদরিদ্র পরিবারের জন্যে স্থাপিত হয়েছে পিংক ভিলেজ। যেটি সারা দেশে এখন অনন্য মডেল। একইভাবে এই গ্রিনসিটি অনুকরণীয় একটি কাজ হিসাবে চিহ্নিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ
X