X
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪
২ শ্রাবণ ১৪৩১

নিয়োগে অনিয়ম: অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট

রংপুর প্রতিনিধি
২৫ জুন ২০২৪, ২১:১৪আপডেট : ২৫ জুন ২০২৪, ২১:১৪

নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগে রংপুরের সমাজকল্যাণ বিদ্যাবিথী বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ নাহিদ ইয়াসমিনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গত রবিবার দুপুরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক রুবেল হোসেন রংপুর আদালতে চার্জশিট দেন। 

যোগ্যতা না থাকার পরও অধ্যক্ষ পদে নিয়োগের অভিযোগে গত ১৬ মে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হোসাইন শরীফ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। মঙ্গলবার (২৫ জুন) বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক রুবেল হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘পুরো বিষয়টি তদন্ত করে সংগৃহীত রেকর্ডপত্র ও সাক্ষীর বক্তব্য পর্যালোচনার পর নাহিদ ইয়াসমিনের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি ৪০৯/৪২০ ও দুদক আইনের ৫(২) ধারায় আদালতে চার্জশিট দিয়েছি।’

চার্জশিটের বরাত দিয়ে অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ বলেন, ‌‘নাহিদ ইয়াসমিন প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ থাকার সময় শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকার পরও অধ্যক্ষ পদে আবেদন করেন। এরপর সাজানো নিয়োগ পরীক্ষার মাধ্যমে অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পান। এর মধ্য দিয়ে তিনি শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। জালিয়াতির মাধ্যমে নিয়োগ পেয়ে সরকারি বেতন-ভাতা ও অন্যান সুবিধা নিয়েছেন। ২০০৪ সালের অক্টোবর থেকে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত সরকারি ৫৫ লাখ ৯১ হাজার ৩৬২ টাকা অবৈধভাবে গ্রহণ করেছেন। তাকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। আগামী ২৩ জুলাই চার্জশিটের ওপর শুনানি হবে। ওই দিন আসামি আদালতে হাজির না হলে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হবে।’

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, নাহিদ ইয়াসমিন ১৯৭৭ সালে রাজশাহী বোর্ডের অধীনে মাধ্যমিক পরীক্ষায় তৃতীয় বিভাগে, ১৯৭৯ সালে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় তৃতীয় বিভাগে, ১৯৮২ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলামের ইতিহাস বিভাগে স্নাতক পরীক্ষায় দ্বিতীয় বিভাগে এবং ১৯৮৩ সালে একই বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর পরীক্ষায় দ্বিতীয় বিভাগে উত্তীর্ণ হন। ১৯৯৫ সালের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও কর্মচারীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা–সংক্রান্ত নীতিমালা অনুযায়ী অধ্যক্ষ পদে আবেদনের জন্য উপযুক্ত নন তিনি। কারণ নীতিমালা অনুযায়ী দুটি বিভাগে তৃতীয় শ্রেণি থাকা ব্যক্তি অধ্যক্ষ হওয়ার যোগ্য নন।

দুদকের রংপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, দুদকের অনুসন্ধানকালে সংগৃহীত রেকর্ডপত্র ও সাক্ষীর বক্তব্য পর্যালোচনায় দেখা গেছে নাহিদ ইয়াসমিন ১৯৮৭ সালের ৭ জুলাই ওই প্রতিষ্ঠানে ইসলামের ইতিহাস বিষয়ের প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৮৮ সালের ১ মার্চ এমপিওভুক্ত হন। ১৯৯৫ সালে একই প্রতিষ্ঠানে পদোন্নতি পেয়ে সহকারী অধ্যাপক হন। ওই পদে দায়িত্ব পালনকালে সাবেক অধ্যক্ষের অবসরজনিত কারণে ২০০১ সালের ৯ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ম্যানেজিং কমিটি সভার সিদ্ধান্তের আলোকে স্থানীয় একটি পত্রিকায় ২০০২ সালের ১৬ নভেম্বর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে অধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা কী হবে, তা ইচ্ছাকৃতভাবে উল্লেখ করা হয়নি।

এমপিওভুক্ত বেসরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও অধ্যক্ষ নিয়োগ সংক্রান্তে বিদ্যমান নীতিমালা পর্যালোচনা করে দেখা যায়, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্য জনবল কাঠামো মোতাবেক অধ্যক্ষ পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় শ্রেণীর অনার্সসহ দ্বিতীয় শ্রেণীর স্নাতকোত্তর ডিগ্রি থাকতে হবে। সব পরীক্ষায় দ্বিতীয় বিভাগ থাকতে হবে। জনবল কাঠামো ১৯৯৫ অনুযায়ী শিক্ষাগত যোগ্যতার ক্ষেত্রে দুটি তৃতীয় শ্রেণি/বিভাগ গ্রহণযোগ্য ছিল না। যেহেতু নাহিদ ইয়াসমিনের অধ্যক্ষ নিয়োগকালে দুটি তৃতীয় বিভাগ ছিল, সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের নিয়োগে অনিয়ম হয়েছে।

পর্যালোচনায় আরও দেখা যায়, সমাজকল্যাণ বিদ্যাবিথী বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তির প্রেক্ষিতে যে ছয় জন অধ্যক্ষ পদে নিয়োগের আবেদন করেন, তাদের পাঁচ জনই ওই প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন বিভাগে শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। অপর একজন মাহিগঞ্জ কলেজে উপাধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত।

মামলার বাদী দুদকের সহকারী পরিচালক হোসাইন শরীফ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘নাহিদ ইয়াসিন নীতিমালা অমান্য করে অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পেয়েছেন। সেজন্য তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। ইতোমধ্যে মামলাটি তদন্ত করে আদালতে চার্জশিট দিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।’

 

/এএম/
সম্পর্কিত
ছাত্রদলের সাবেক সভাপতিসহ ৭ জন রিমান্ডে
মতিউর পরিবারের ১৯ কোম্পানির শেয়ার অবরুদ্ধ, জমি ক্রোকের নির্দেশ
প্রশ্নপত্র ফাঁসপিএসসির উপ-পরিচালকসহ ৬ জনের রিমান্ড শুনানির নতুন তারিখ
সর্বশেষ খবর
প্রজন্মের মধ্যে বিভক্তি রাষ্ট্রের জন্য শুভ নয়: বিএসপি
প্রজন্মের মধ্যে বিভক্তি রাষ্ট্রের জন্য শুভ নয়: বিএসপি
ট্রাম্প হত্যাচেষ্টা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান ইরানের
ট্রাম্প হত্যাচেষ্টা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান ইরানের
কাল সারা দেশে বিক্ষোভ ডেকেছেন চরমোনাই পীর
কোটা-সংস্কার আন্দোলনকাল সারা দেশে বিক্ষোভ ডেকেছেন চরমোনাই পীর
হল ছাড়ছেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা
হল ছাড়ছেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা
সর্বাধিক পঠিত
সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা
সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা
কী আছে ড. জাফর ইকবালের মূল লেখায়
কী আছে ড. জাফর ইকবালের মূল লেখায়
ছাত্রলীগের ১৫ কর্মীকে ছয়তলা থেকে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ
ছাত্রলীগের ১৫ কর্মীকে ছয়তলা থেকে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ
রোকেয়া হল ছাত্রলীগের নেত্রীর কক্ষে হামলা, মারধর
রোকেয়া হল ছাত্রলীগের নেত্রীর কক্ষে হামলা, মারধর
ছাত্রলীগ থেকে পদত্যাগ করলেন আরেক নেতা, লিখলেন ‘আর পারলাম না’
ছাত্রলীগ থেকে পদত্যাগ করলেন আরেক নেতা, লিখলেন ‘আর পারলাম না’