X
শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২
১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
ভালোবাসা বিশেষ

অনিমেষ বললো, একদম ঢং কইরো না: ভাবনা

মাহমুদ মানজুর
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৩:২৯আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৯:০৫

ভাবনা/ ছবি: সংগৃহীত অনিমেষ-ভাবনা। দু’জনের মূল পরিচিতি, পরিচালক এবং অভিনেত্রী। যদিও গেল ক’বছরে মিডিয়ার উৎসুক পাঠকদের কাছে তারা প্রতিনিয়ত ধরা দিচ্ছেন প্রেমময় খোলা কবিতার বই হিসেবে। কারণ, লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের বাইরে তাদের পারস্পরিক বোঝাপড়া, উপস্থিতি এবং সেলফিতে থাকে না কোনও লুকোচুরি। যেন একে অপরের সঙ্গে লেপ্টে আছেন প্রতিটি মুহূর্ত। এসব দেখে তাদেরকে আদর্শ প্রেমিক যুগল আখ্যা দেওয়াই যায়। যদিও এই নিয়ে মিডিয়ায় রয়েছে নানা মুনির নানা মত। মানে দু’জনার সম্পর্কটা ঠিক কোন অবস্থানে স্থির হয়ে আছে- সেটি এখনও কুয়াশাচ্ছন্ন।

ভালোবাসা দিবসের বিশেষ আয়োজনে এসব নিয়েই বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেন আশনা হাবিব ভাবনা।

অনিমেষ আইচ ও ভাবনা/ ছবি: আকাশ বাংলা ট্রিবিউন: বসন্তের প্রথম (১৩ ফেব্রুয়ারি) প্রহরে দারুণ একটা সারপ্রাইজ দিলেন ফেসবুক মাধ্যমে।

ভাবনা: (মধুর হাসি) ও বিয়ের ছবিটা?

বাংলা ট্রিবিউন: হুম, বিয়ের ছবি। হঠাৎ দিয়েছেন বলে বিষয়টি ধাক্কা লাগার মতোই। যদিও কনের সাজে দারুণ মানিয়েছে আপনাকে। কিন্তু বরের সাজটা হলো না!

ভাবনা: (এবার ভুবন ভোলানো হাসি) বর না। বর না। তিনি (অনিমেষ আইচ) ছিলেন কনের ব্যক্তিগত শিল্প নির্দেশক। তার নির্দেশনায় পহেলা ফাল্গুনের প্রায় সারাদিন কনে সেজেছি। ছবি তুলেছি। অনেক মজা হয়েছে।

বাংলা ট্রিবিউন: মানে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার নেট প্র্যাকটিস ছিল এটা!

ভাবনা: (এবার গগণবিদারি হাসি) মোটেই না। বিয়ের দিন-তারিখ সব চূড়ান্ত আছে। সেটা দেরি আছে। ফলে নেট প্র্যাকটিসের অনেক সময় পাবো। তবে বসন্তের প্রথম দিনে আমরা ব্রাইডাল ফটোশুট করেছি একটি ইভেন্টের জন্য। আমার বোনের একটা পারলার আছে। সেটির জন্য।

বাংলা ট্রিবিউন: বসন্তের প্রথম দিন লাল শাড়ি পরে পুরোটাই ক্যামেরার সামনে?

ভাবনা: এবার দুঃখের কথা বলি। এমন একটা বসন্তদিন কেটে গেল কেউ আমাকে একটা হলুদ থান কাপড়ের শাড়িও দিলো না। ব্রাইডাল শুটের ফাঁকে কথাটি খুব করে মনে হলো। বোনকে বললাম, আচ্ছা বলতো আমার আসলে প্রবলেম কী? আমি কি এতই অসুন্দর, অযোগ্য?

কনে সাজে ভাবনা সঙ্গে শিল্পনির্দেশক অনিমেষ বাংলা ট্রিবিউন: এই তো উইকেট মিস করলেন! প্রশ্নটা বোনকে কেন করবেন?

ভাবনা: ও মা… বলেছি তো! অনিমেষকেও কথাটা বলেছি। যদিও, তিনি তখন আমার কনে সাজের শিল্প নির্দেশনায় খুব সিরিয়াস ছিলেন।

বাংলা ট্রিবিউন: কী বললেন তাকে?

ভাবনা: তাকে সুন্দর করে নিচু গলায় বললাম, অনিমেষ- সবাই তো বলে আপনার সঙ্গে আমার খুউব ইয়ে চলছে। মানে প্রেম-ভালোবাসা। আপনি তো আমাকে একটা হলুদ শাড়িও দিতে পারতেন এমন দিনে।

বাংলা ট্রিবিউন: বাহ! বাহ! উত্তর দিয়েছেন তো? নাকি ক্যাবলাকান্তের মতো ক্যাচ মিস করা হাসি দিয়ে চুপ?

ভাবনা: জি না। আমার আবদার শুনে উল্টো তিনি কী বললেন জানেন! তিনি বললেন, একদম ঢং কইরো না…। কথাটা শুনে বুকের বাম পাশটায় ভালোই চোট লেগেছিল।

বাংলা ট্রিবিউন: এটা তিনি একদম ঠিক করেননাই…

ভাবনা: না, ঠিকই করেছেন। কারণ, উনার সঙ্গে আমার সম্পর্কটা আসলে এ ধরনেরই।

কোনও এক রান্নার অনুষ্ঠানে অনিমেষ-ভাবনা বাংলা ট্রিবিউন: তাহলে এই যে চলমান সময়, স্থিরচিত্র, সিনেমা, ব্রাইডাল শুট, শিল্পনির্দেশনা, জন্মোৎসব, প্রিমিয়ার, বেঙ্গল ফেস্ট এবং রাজ্যের ফিসফাসফিস- সবই মিথ্যে? অনিমেষ-ভাবনা’র মধ্যে কিছু নেই!

ভাবনা: আছে। অনেক কিছুই আছে আমাদের মধ্যে। অনিমেষের প্রতি আমার ভালোবাসা প্রচণ্ড। ওর দিক থেকেও তাই। প্রথম কারণ, সে আমার প্রথম সিনেমার ডিরেক্টর। নায়িকা হিসেবে তাকে ভালো না বেসে উপায় নেই! হুম, আমাদের প্রথম কাছে আসার গল্পটা তো এভাবেই।

আর এখন বলবো- অনিমেষের সঙ্গে আমার ভালো একটা ক্রিয়েটিভ পার্টনারশিপ আছে। এবং এটাই আমাদের সম্পর্কের অন্যতম ট্যাগ লাইন। এখান থেকে আমাদের এই পথচলাকে প্রেম ভাবতে পারেন, লিভ টুগেদার বলতে পারেন, অভিনয় বলতে পারেন এমনকি বন্ধুতাও। কিন্তু আমি মনে করি- আমাদের সম্পর্কটা মূলত ক্রিয়েটিভিটির মোড়কে জড়িয়ে আছে।  

বাংলা ট্রিবিউন: এই কথাগুলো কিন্তু নব্বই দশকের মতোই শোনাচ্ছে, ‘আমরা দুজন ভালো বন্ধু’ টাইপ! অথচ আপনাদের প্রাত্যহিক জীবন-ছবি কিন্তু বেশ সাবলীল এবং প্রচুর কথাও বলে সেসব।

ভাবনা: একদমই নব্বই দশক নয়। আমি একবারও বলিনি, আমরা বন্ধু। একবারও বলিনি- এসব প্রেমের খবর নিন্দুকেরা ছড়াচ্ছে। আমি স্পষ্ট করেই বলেছি, অনিমেষের প্রতি আমার ভালোবাসা প্রচণ্ড। আরও বলেছি, আমাদের মধ্যে একটা ক্রিয়েটিভ পার্টনারশিপ রয়েছে। এবং এটাও সত্যি বলেছেন, আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে চলাফেলায় কিন্তু কোনও দ্বিধা বা লুকানোর বিষয় নেই। যেমন ব্রাইডালের যে ছবিটা অনিমেষ পহেলা ফাল্গুন ফেসবুকে পোস্ট করেছে- সেটা দেওয়ার পর আমি মজা করেই বললাম, এই ছবি নিয়ে চারদিকে মজার মজার কী কী হয় কে জানে।

বাংলা ট্রিবিউন: আজ  বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। প্রেম-ভালোবাসা বিষয়টিকে আপনি ঠিক কোন দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখেন? মানে আপনার এক্সপেরিয়েন্স কী বলে?  

ভাবনা: আমি জানি না আসলে। আমি বলতে চাই, বিবাহের আগে আমি মূলত সিঙ্গেল। আর প্রেম আমার কাছে এক ধরনের অভ্যস্ততার মতো। একদমই অভ্যাসের বিষয়। আমার অভিজ্ঞতা তাই বলে।

একান্তে ভাবনা-অনিমেষ বাংলা ট্রিবিউন: বসন্ত দিনে কনে সেজেছেন। আজ ভালোবাসার দিনে কী পরিকল্পনা? আপনার শিল্পনির্দেশক কী বলছেন?

ভাবনা: আজ বিকাল তিনটায় একাত্তর টিভিতে লাইভ আছে। এরপর রেডিও স্বাধীনে ৫টায়। লাইভে লাইভে কাটবে আমার ভ্যালেন্টাইন ডে উইথ অনিমেষ আইচ। কারণ, আমাদের স্বল্পদৈর্ঘ্য ‘বরষা’ মুক্তি পাচ্ছে আজ  রাতেই।

এর বাইরে ভালোবাসা দিবসও বসন্ত দিনের মতোই যাবে। জানি কেউ আমাকে একটা লাল গোলাপও দেবে না আজ। কেউ আর প্রপোজও করে না এখন…। সে শিল্পনির্দেশকই হোক আর নির্মাতাই হোক।   

বাংলা ট্রিবিউন: স্বাভাবিক। সবাই জেনে রেখেছে আপনি বুকড, শিল্পনির্দেশকের ক্যানভাসে…

ভাবনা: না না। অনিমেষ নিজেই তো আজ পর্যন্ত আমাকে প্রপোজ করেনি। একটা হলুদ শাড়ি দিলো না। একটা টকটকা লাল তাজা ফুল দিবে না। জানেন, আমার ইদানীং খুব বিয়ের প্রপোজাল আসছে। খুলনায় শুটিং করতে গিয়েছি সেদিন। আমি আর মোশাররফ করিম। সেখানে এক চৌধুরী ভিলায় বিশ্রাম নিয়েছি কিছুক্ষণ। সেই ভিলার ছেলের সঙ্গে আমার বিয়ের প্রস্তাব চলে আসে ঢাকায়! আমাকে ইদানিং যেই বাবা-মা দেখেন তারাই তাদের পুত্রবধু করার জন্য বিয়ের প্রস্তাব দেন! মা-খালারা আমাকে পছন্দ করেন শুধু। ছেলেরা আর প্রপোজ করে না।

বাংলা ট্রিবিউন: আলাপের শুরুতে বিয়ের দিন-ক্ষণ ঠিক হওয়ার কথা বলেছেন! কবে?

ভাবনা: হুম। ঠিক ১২ বছর পর বিয়ে করবো। আরও  ১১জন পছন্দের ডিরেক্টর আছেন আমার তালিকায়। বিয়ের আগেই তাদের সঙ্গে কাজ করতে হবে। দেন, বিয়ে।

বাংলা ট্রিবিউন: তবুও আপনাদের দু’জনকে ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা। যদিও মূল বিষয়টি এখনও অস্পষ্টই থেকে গেল! তবুও শুভকামনা।

ভাবনা: ধন্যবাদ। দোয়া করবেন আমাদের জন্য। যেন আমাদের ক্রিয়েটিভ পার্টনারশিপটা এগিয়ে নিতে পারি।

কোনও এক মাজারে, দু’জনে... /এমএম/ 

সম্পর্কিত
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
মক্কা-মদিনা সফরে পূর্ণিমা
মক্কা-মদিনা সফরে পূর্ণিমা
বিয়ের জন্য পাত্র খুঁজছেন স্বস্তিকা!
বিয়ের জন্য পাত্র খুঁজছেন স্বস্তিকা!
গোয়ার উৎসবে সিনেমার সঙ্গে ফারিয়ার রূপের ঝলক
গোয়ার উৎসবে সিনেমার সঙ্গে ফারিয়ার রূপের ঝলক
সম্মাননা পেলেন বাচিক শিল্পী আশরাফুল আলম ও কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম
দুই দিনের রবীন্দ্রসংগীত উৎসব শুরুসম্মাননা পেলেন বাচিক শিল্পী আশরাফুল আলম ও কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম
নিষিদ্ধ হচ্ছেন রাশমিকা!
নিষিদ্ধ হচ্ছেন রাশমিকা!