X
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪
১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
কান উৎসব ২০২৪

কানের সমান্তরাল তিন বিভাগে কোন কোন দেশের ছবি

জনি হক
জনি হক
১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১৫:৩১আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০০:৫৩

কান চলচ্চিত্র উৎসবের সমান্তরাল তিন বিভাগ ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইট, ক্রিটিকস’ উইক এবং এসিআইডি’তে এবারের আসরে নির্বাচিত চলচ্চিত্রের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। ক্যামেরা দ’র পুরস্কারের জন্য কানের অফিসিয়াল সিলেকশনের পাশাপাশি এই তিন বিভাগে নির্বাচিত নবাগত পরিচালককে বিবেচনায় রাখা হয়। এছাড়া অফিসিয়াল সিলেকশনের পাশাপাশি ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইট ও ক্রিটিকস’ উইকে নির্বাচিত ছবিকে পুরস্কারের বেলায় বিবেচনায় রাখে চলচ্চিত্র সমালোচকদের আন্তর্জাতিক ফেডারেশন ফিপরেসি।

শুরুতে ৫৬তম ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইটে নির্বাচিত চলচ্চিত্রের কথা বলা যাক। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ফোরাম দে ইমাজে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তালিকাটি ঘোষণা করা হয়। এতে রয়েছে ভারতের করণ কান্ধারি পরিচালিত পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘সিস্টার মিডনাইট’। এশিয়া থেকে স্থান পেয়েছে জাপানের ইয়োকো ইয়ামানাকা পরিচালিত ‘ডেজার্ট অব নামিবিয়া’ এবং ইয়োকো কুনো ও নোবুহিরো ইয়ামাসতা পরিচালিত ‘গোস্ট ক্যাট আনজু’, তাইওয়ানের চাং ওয়েই লিয়েং ও ইউ চাও ইন পরিচালিত ‘মংগ্রেল’।

১৯৬৮ সালে ফ্রান্স জুড়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের কারণে কান উৎসব বাতিল হয়। এর পরের বছর (১৯৬৯) সমান্তরাল বিভাগ কাজেন দে সিনেয়াস্ত (ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইট) চালু করে ফ্রেঞ্চ ডিরেক্টরস গিল্ড। এতে প্রথমবারের মতো যুক্ত হয়েছে পিপল’স চয়েস। এর অংশ হিসেবে দর্শকদের ভোটে একটি অসাধারণ সিনেম্যাটিক উপস্থাপনাকে পুরস্কৃত করা হবে। সমাপনীতে প্রয়াত বেলজিয়ান নারী নির্মাতা শান্টাল আকেরম্যানের ফাউন্ডেশন ৭ হাজার ৫০০ ইউরো পুরস্কার দেবে বিজয়ী চলচ্চিত্রের পরিচালককে। তার নির্মিত ‘আমেরিকান স্টোরিস: ফুড, ফ্যামিলি অ্যান্ড ফিলোসফি’ দেখানো হবে স্পেশাল স্ক্রিনিংয়ে। ১৯৮৯ সালে ৩৯তম বার্লিন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতা বিভাগে নির্বাচিত হয় এটি।

৫৬তম ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইটের উদ্বোধন হবে আগামী ১৫ মে। অনুষ্ঠানে ফরাসি সংগঠন সোসাইটি অব দ্য ফিল্ম ডিরেক্টরসের পক্ষ থেকে সম্মানসূচক ক্যারোস দ’র সম্মান পাবেন ব্রিটিশ চলচ্চিত্র পরিচালক আন্ড্রেয়া আর্নল্ড। ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইট চলবে ২৫ মে পর্যন্ত। সমাপনীতে পিপল’স চয়েস ছাড়া যথারীতি থাকছে সেরা ইউরোপিয়ান সিনেমা (ইউরোপা সিনেমাস লেবেল অ্যাওয়ার্ড), সেরা ফরাসি ভাষার সিনেমা (এসএসিডি অ্যাওয়ার্ড), আর্ট সিনেমা অ্যাওয়ার্ড এবং ইলি প্রাইজ।

>> ৫৬তম ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইটের নির্বাচিত তালিকা

পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
দিস লাইফ অব মাইন (সোফি ফিলিয়ের, ফ্রান্স, উদ্বোধনী চলচ্চিত্র)
ক্রিসমাস ইভ ইন মিলার’স পয়েন্ট (টাইলার টায়োরমিনা, যুক্তরাষ্ট্র)
ডেজার্ট অব নামিবিয়া (ইয়োকো ইয়ামানাকা, জাপান)
ইস্ট অব নুন (হালা এলকুসি, মিসর)
ইট দ্য নাইট (ক্যারোলিন পজ্জি ও জোনাথন ভিনেল, ফ্রান্স)
ইইপিএইচইউএস (কারসন লান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র)
গেজার (রায়ান জে. স্লোন, যুক্তরাষ্ট্র, প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র)
গোস্ট ক্যাট আনজু (ইয়োকো কুনো ও নোবুহিরো ইয়ামাসতা, জাপান)

‘গুড ওয়ান’ ছবির দৃশ্য গুড ওয়ান (ইন্ডিয়া ডোনাল্ডসন, যুক্তরাষ্ট্র, প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র)
ইন হিজ ওন ইমেজ (থিয়েরি দ্যু পেরেত্তি, ফ্রান্স)
মংগ্রেল (চাং ওয়েই লিয়েং ও ইউ চাও ইন, তাইওয়ান, প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র)
সাভানা অ্যান্ড দ্য মাউন্টেন (পাওলো কারনেইরো, পর্তুগাল)
সিস্টার মিডনাইট (করণ কান্ধারি, ভারত)
সামথিং ওল্ড, সামথিং নিউ, সামথিং বরোড (এরনান রোসেল্লি, আর্জেন্টিনা)
দ্য ফলিং স্কাই (এরিক হশা ও গ্যাব্রিয়েলা কারনেইরো দা কুনিয়া, ব্রাজিল)
দ্য হাইপারবোরিয়ানস (ক্রিস্তোবাল লেয়ন ও ওয়াকিন কোসিনিয়া, চিলি)
দ্য আদার ওয়ে অ্যারাউন্ড (হোনাস ত্রুয়েবা, স্পেন)
টু অ্যা ল্যান্ড আননোন (মাহেদি ফ্লাইফাল, ফিলিস্তিন/ডেনমার্ক)
ইউনিভার্সেল ল্যাঙ্গুয়েজ (ম্যাথু র‍্যানকিন, কানাডা)
ভিজিটিং আওয়ার্স (প্যাত্রিসিয়া ম্যাজুই, ফ্রান্স)
প্লাস্টিক গানস (জ্যঁ-ক্রিস্তোফ মুরিস, ফ্রান্স, সমাপনী চলচ্চিত্র)

‘ভিজিটিং আওয়ার্স’ ছবির দৃশ্য স্পেশাল স্ক্রিনিং
আমেরিকান স্টোরিস: ফুড, ফ্যামিলি অ্যান্ড ফিলোসফি (শান্টাল আকেরম্যান, বেলজিয়াম)

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
আফটার দ্য সান (রায়ান মাকির্দি, ফ্রান্স/আলজেরিয়া)
অঁন্তোয়ান, এলিজ অ্যান্ড লেয়দঁ (জুল ফোলে, ফ্রান্স)
এক্সট্রিমলি শর্ট (কোজি ইয়ামামুরা, জাপান)
ইমাকিউলাতা (কিম লেয়া সাকাল, লেবানন)
মালবেরি ফিল্ডস (য়ুয়েন চোং নিয়া, ভিয়েতনাম)
আওয়ার ওন শ্যাডো (আগুস্তিনা সানচেজ গাভিয়ের, আর্জেন্টিনা)
দ্য মুভিং গার্ডেন (ইনেস লিমা, পর্তুগাল)
ভেরি জেন্টেল ওয়ার্ক (নেট লেভে, যুক্তরাষ্ট্র)
হোয়েন দ্য ল্যান্ড রানস অ্যাওয়ে (ফ্রেদেরিকো লোবো, পর্তুগাল)

ক্রিটিকস’ উইক

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের চলচ্চিত্র পরিচালকদের প্রথম কিংবা দ্বিতীয় ছবি নির্বাচিত হয়ে থাকে ক্রিটিকস’ উইকে। এর ৬৩তম আসরে ১১টি ছবি নির্বাচিত হয়েছে। এরমধ্যে প্রতিযোগিতা বিভাগে ৭টি এবং স্পেশাল স্ক্রিনিংসে রয়েছে ৪টি ছবি। এগুলো তৈরি হয়েছে ১৬টি ভিন্ন ভিন্ন দেশের অর্থায়নে কিংবা সৃজনশীল জোগানে। প্রতিযোগিতায় একমাত্র আমেরিকান চলচ্চিত্র ‘ব্লু সান প্যালেস’, পরিচালনায় চীনা বংশোদ্ভূত কনস্ট্যান্স সাং।

নির্বাচিত ১১টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে ৯টি বিভিন্ন পরিচালকের প্রথম ছবি। ফলে এগুলো ক্যামেরা দ’র পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবে। ১১টি ছবির মধ্যে তিনটির পরিচালক কিংবা সহ-পরিচালক নারীরা। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের প্রতিযোগিতায় রয়েছে ১০টি। এছাড়া তিনটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবির বিশেষ প্রদর্শনী হবে। 

ক্রিটিকস’ উইকের প্রধান নির্বাহী আভা কায়েন গত ১৫ এপ্রিল সকালে ফ্রান্সে নির্বাচিত চলচ্চিত্রের তালিকা ঘোষণা করেন। তিনিই এগুলো বেছে নিয়েছেন। তার সঙ্গে কাজ করেছেন প্রোগ্রামারদের পৃথক দুটি কমিটি। এবারের আসরের জন্য ১ হাজার ৫০টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র এবং ২ হাজার ১৫০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র জমা পড়ে।

৬৩তম ক্রিটিকস’ উইকে প্রধান বিচারকের আসনে থাকবেন স্প্যানিশ চলচ্চিত্র পরিচালক রদ্রিগো সরোগোয়েন। তার নেতৃত্বে বিচারকের দায়িত্ব পালন করবেন রুয়ান্ডার অভিনেত্রী এলিয়ানে উমুহিরে, ফরাসি চলচ্চিত্র প্রযোজক সিলভি পিয়ালা, বেলজিয়ান চিত্রগ্রাহক ভির্জিনিয়া সুরদেই ও প্যারিস ভিত্তিক কানাডিয়ান চলচ্চিত্র সমালোচক ও সাংবাদিক বেন ক্রল। তাদের বিচারে দেওয়া হবে সেরা পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র হিসেবে গ্র্যান্ড প্রাইজ, ফ্রেঞ্চ টাচ জুরি প্রাইজ, লুই রদেরের ফাউন্ডেশন কর্তৃক সেরা অভিনেতা কিংবা অভিনেত্রীর জন্য উদীয়মান তারকা পুরস্কার এবং স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের জন্য লাইৎজ সিনে ডিসকোভারি প্রাইজ।

আগামী ১৪ মে কান চলচ্চিত্র উৎসবের ৭৭তম আসরের পর্দা উঠবে। এর একদিন পর আগামী ১৫ মে ক্রিটিকস’ উইকের উদ্বোধন হবে। ১০ দিনের এই আয়োজনের সমাপ্তি ঘটবে ২৪ মে।

কান উৎসবের সমান্তরাল বিভাগ হিসেবে ১৯৬২ সালে চালু হয় স্যুমেন দ্যু লা ক্রিতিক (ক্রিটিকস’ উইক)। এটি চালু করে ফরাসি চলচ্চিত্র সমালোচকদের সংগঠন ফ্রেঞ্চ ইউনিয়ন অব ফিল্ম ক্রিটিকস।

>>৬৩তম ক্রিটিকস’ উইকের নির্বাচিত তালিকা

* প্রথম চলচ্চিত্র

‘জুলি কিপস কোয়ায়েট’ ছবির দৃশ্য প্রতিযোগিতা বিভাগ
বেবি (মার্সেলো কায়তেনো, ব্রাজিল-ফ্রান্স-নেদারল্যান্ডস)
দ্য ব্রিঙ্ক অব ড্রিমস (নাদা রিয়াদ ও আয়মান এল আমির, মিসর-ফ্রান্স-ডেনমার্ক-কাতার-সৌদি আরব)
* ব্লু সান প্যালেস (কনস্ট্যান্স সাং, যুক্তরাষ্ট্র)
* জুলি কিপস কোয়ায়েট (লিওনার্দো ফন ডেইল, বেলজিয়াম-সুইডেন)
* লোকাস্ট (কেফ, তাইওয়ান-ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র)
* লা পাম্পা / ব্লক পাস (অঁন্তোয়ান শোভ্রলিয়ের, ফ্রান্স)
* সায়মন অব দ্য মাউন্টেন (ফেদেরিকো লুইস, আর্জেন্টিনা-চিলি-উরুগুয়ে)

স্পেশাল স্ক্রিনিংস
* গোস্ট ট্রেইল (জোনাথন মিলে, ফ্রান্স-জার্মানি-বেলজিয়াম, উদ্বোধনী চলচ্চিত্র)
* কুইনস অব ড্রামা (অ্যালেক্সি লঙ্গলোয়াঁ, ফ্রান্স-বেলজিয়াম)
অ্যাক্রস দ্য সি (সাইদ হামিচ বেনলার্বি, ফ্রান্স-মরক্কো-বেলজিয়াম-কাতার)
অ্যানিমেল (এমা বেনেস্তান, ফ্রান্স-বেলজিয়াম, সমাপনী চলচ্চিত্র)

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র (প্রতিযোগিতা)
আলাজার (বেজা হাইলু লেমা, ইথিওপিয়া-ফ্রান্স-কানাডা)
দ্য গার্ল অ্যান্ড দ্য পট (ভ্যালেন্টিনা ওমে, ব্রাজিল)
মাই সেন্সেস আর অল আই হ্যাভ টু অফার (ইজাদরা নেভিস মার্কিজ, পর্তুগাল)
হোয়াট উই আস্ক অব অ্যা স্ট্যাচু ইজ দ্যাট ইট ডাজন’ট মুভ (ড্যাফনি ইরিতাকিস, গ্রিস-ফ্রান্স)
শি স্টেইস (মারিনতিয়া গুতিয়েরেজ ভেলাজকো, মেক্সিকো)
মন্টসুরিস পার্ক (গিল সেলা, ফ্রান্স)
অ্যাবসেন্ট (জেম দেমিরার, তুরস্ক)
র‌্যাডিক্যালস (আরভিন বেলারমিনো, ফিলিপাইন-যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ-ফ্রান্স)
সুপারসিলি (ভেরোনিকা মার্টিরাডোনা, ফ্রান্স)
ড্যান্সিং ইন দ্য কর্নার (ইয়ান বুইনোস্কি, পোল্যান্ড)

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র (স্পেশাল স্ক্রিনিংস)
সাউদার্ন ব্রাইডস (এলেনা লোপেজ রিয়েরা, সুইজারল্যান্ড-স্পেন)
১৯৯৬ অর দ্য মিসফরচুন্স অব সলভাইগ (লুসি বরল্যুতো, ফ্রান্স)
সোনা ডে (আনা হিন্টস ও তুষার প্রকাশ, এস্টোনিয়া)

এসিআইডি
চলচ্চিত্র পরিচালকদের আরেকটি সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য ডিফিউশন অব ইন্ডিপেন্ডেন্ট সিনেমা (এসিআইডি) ১৯৯২ সাল থেকে সক্রিয়। ফরাসি ও আন্তর্জাতিক নির্মাতাদের চলচ্চিত্র পরিবেশনায় সহযোগিতা করে থাকে এই সংগঠন। গত বছর স্বর্ণপাম জয়ী জাস্টিন ত্রিয়ে পরিচালিত ‘এজ অব প্যানিক’ ২০১৩ সালে প্রদর্শিত হয় এই সমান্তরাল বিভাগে।

এসিআইডির এবারের আসরে ৬টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও ৩টি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্বাচিত হয়েছে। আগামী ১৫ মে থেকে ২৪ মে পর্যন্ত কানে এগুলোর প্রদর্শনী হবে।

>> এসিআইডির নির্বাচিত তালিকা

‘মি বেস্তিয়া’ ছবির দৃশ্য পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র

ফটোজেনিকো (মার্সিয়া রোমানো ও ব্যুনোয়াঁ সাবাতিয়ের, ফ্রান্স)

ইন রিট্রিট (মায়সাম আলি, ভারত-ফ্রান্স)

ইট ডাজন’ট ম্যাটার (জশ মন্ড, যুক্তরাষ্ট্র-ফ্রান্স)

কিউকা – বিফোর সামার’স এন্ড (কস্তিস কারামুদান্নিস, গ্রিস-উত্তর ম্যাসেডোনিয়া)

মি বেস্তিয়া / মাই বিস্ট (ক্যামিলা বেলত্রান, কলম্বিয়া-ফ্রান্স)

মোস্ট পিপল ডাই অন সানডেজ (আইয়ার সাইদ, আর্জেন্টিনা-ইতালি-স্পেন)

প্রামাণ্য চলচ্চিত্র

অ্যা ফায়ারল্যান্ড (মোনা কনভার্ট, ফ্রান্স)

ইট’স নট জাস্ট গুডবাই (গিউম ব্রাক, ফ্রান্স)

শাঁতু রুজ (এলেন মিলানো, ফ্রান্স)

/এমএম/
সম্পর্কিত
লড়াই জমিয়ে দিলো ইরান, কে জিতবে স্বর্ণপাম
কান উৎসব ২০২৪লড়াই জমিয়ে দিলো ইরান, কে জিতবে স্বর্ণপাম
আঁ সাঁর্তে রিগায় সেরা চীনা ছবি, অভিনেত্রী ভারতের অনসূয়া
কান উৎসব ২০২৪আঁ সাঁর্তে রিগায় সেরা চীনা ছবি, অভিনেত্রী ভারতের অনসূয়া
ইতিহাসের পাতায় পায়েল কাপাডিয়া
কান উৎসব ২০২৪ইতিহাসের পাতায় পায়েল কাপাডিয়া
শিক্ষার্থী নির্মাতাদের বিভাগে ভারতীয় তরুণ-তরুণীর জয়
কান উৎসব ২০২৪শিক্ষার্থী নির্মাতাদের বিভাগে ভারতীয় তরুণ-তরুণীর জয়
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
‘অ্যানিমেল’কে ছাড়িয়ে গেলো ‘লাপাতা লেডিস’!
‘অ্যানিমেল’কে ছাড়িয়ে গেলো ‘লাপাতা লেডিস’!
লড়াই জমিয়ে দিলো ইরান, কে জিতবে স্বর্ণপাম
কান উৎসব ২০২৪লড়াই জমিয়ে দিলো ইরান, কে জিতবে স্বর্ণপাম
স্থূল আর অগভীর ভাবনার প্রচার-প্রসার দেখে হতাশ লাগে: বাপ্পা
স্থূল আর অগভীর ভাবনার প্রচার-প্রসার দেখে হতাশ লাগে: বাপ্পা
‘তুফান’র গানে প্রীতম, আছেন পর্দায়ও!
‘তুফান’র গানে প্রীতম, আছেন পর্দায়ও!
আঁ সাঁর্তে রিগায় সেরা চীনা ছবি, অভিনেত্রী ভারতের অনসূয়া
কান উৎসব ২০২৪আঁ সাঁর্তে রিগায় সেরা চীনা ছবি, অভিনেত্রী ভারতের অনসূয়া