বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকে নাম-ভূমিকায় আরিফিন শুভ

Send
রঞ্জন বসু, দিল্লি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:৩৮, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:১৯, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০

বঙ্গবন্ধু (বামে) ও তাঁর আদলে আরিফিন শুভবাংলাদেশ ও ভারত সরকারের যৌথ প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যে জীবননির্ভর কাহিনিচিত্র (বায়োপিক) নির্মিত হতে যাচ্ছে, তাতে নাম-ভূমিকায় অভিনয় করবেন বাংলাদেশের চিত্রতারকা আরিফিন শুভ।

বাংলা ট্রিবিউন জানতে পেরেছে, বঙ্গবন্ধুর ভূমিকায় তার নাম চূড়ান্ত হওয়ার পরই আরিফিন শুভ ভারতের মুম্বাইতে উড়ে গিয়েছেন এবং সেখানে সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ছবিটির পরিচালক শ্যাম বেনেগালের উপস্থিতিতে চুক্তিপত্রেও সই করেছেন।

তবে উভয় সরকারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আগে এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের কেউই মুখ খুলতে রাজি হননি।
বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের পরিচালক ও বলিউডের প্রবীণ চিত্রনির্মাতা শ্যাম বেনেগালের সঙ্গেও বাংলা ট্রিবিউন যোগাযোগ করেছিল। তবে তিনি এ খবর যেমন উড়িয়ে দেননি, তেমনি এর সত্যতাও নিশ্চিত করেননি।
বুধবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকালে তাকে ফোনে পেয়ে যেতেই যখন আমরা জিজ্ঞেস করি, ‘আরিফিন শুভর নাম কি বঙ্গবন্ধুর ভূমিকায় চূড়ান্ত হয়েছে’, প্রবীণ পরিচালক প্রথমেই হেসে ফেলেন।
তারপরেই বলেন, ‘দেখুন, এ ব্যাপারে আমার কিছু বলা শোভা পায় না।’
‘এই ছবি উভয় সরকারের প্রযোজনায় নির্মিত হচ্ছে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকেই আপনারা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানতে পারবেন’, যোগ করলেন শ্যাম।
তিনি আরও ইঙ্গিত দেন, খুব শিগগিরই সরকারের কাছ থেকে বঙ্গবন্ধুসহ অন্যান্য ভূমিকায় কারা অভিনয় করছেন, শিল্পীদের সেই নামের তালিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।
সেই তালিকায় বাংলাদেশের শিল্পীরা সংখ্যায় অনেক বেশি হলেও ভারতেরও কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রী থাকছেন।
তবে দুই বাংলার মানুষের যথারীতি সবচেয়ে বেশি আগ্রহ ছিল বঙ্গবন্ধুর ভূমিকায় কাকে দেখা যাবে সেটা নিয়েই। আরিফিন শুভর নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সেই জল্পনার অবসান হতে চললো।
বাংলাদেশি তারকা আরিফিন শুভ এর আগে ‘ছুঁয়ে দিলো মন’, ‘ঢাকা অ্যাটাক’, ‘সাপলুডু’, ‘অস্তিত্ব’র মতো অনেক বাণিজ্য-সফল ছবি করেছেন। ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর সঙ্গে তার ছবি ‘আহা রে’ বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গ, সীমান্তের দু’পাশেই আদৃত হয়েছে।

এদিকে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে নির্মিতব্য এই বায়োপিকে বঙ্গবন্ধুর মা সায়রা বানুর চরিত্রের জন্য আগেই চূড়ান্ত হয়েছেন দেশের অন্যতম জ্যেষ্ঠ অভিনেত্রী দিলারা জামান। ছবিটির সঙ্গে যুক্ত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় গেল সপ্তাহে তিনি দেশের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘জানি না ঠিকভাবে করতে পারবো কিনা। তবে ইতিহাসের অংশ হওয়ার এই সুযোগ পেয়ে আমি খুবই সম্মানিতবোধ করছি। আনন্দিত হয়েছি। এত বড় পরিচালক, নিশ্চয়ই আমাকে দিয়ে চরিত্রটা বের করে নেবেন। বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ পড়েছি। তাঁর মা–বাবার সাক্ষাৎকার দেখেছি। আমি অপেক্ষা করছি কাজটা করার জন্য।’’
এছাড়াও এই বায়োপিকে খন্দকার মোশতাকের চরিত্রে ফজলুর রহমান বাবু এবং হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর চরিত্রে অভিনয় করার বিষয়ে চূড়ান্ত হওয়ার খবর মিলেছে অভিনেতা-নির্মাতা তৌকীর আহমেদের।
জানা গেছে, বাংলা ভাষায় নির্মিত হচ্ছে ছবিটি। তবে পর্দায় হিন্দি সাবটাইটেল থাকবে।
বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনার এই চলচ্চিত্রটির জন্য বাজেট নির্ধারিত হয়েছে ৩৫ কোটি টাকা। এই বাজেটের ৬০ ভাগ দিচ্ছে বাংলাদেশ ও ৪০ ভাগ ভারত।
বায়োপিকটি নির্মাণে শ্যাম বেনেগালের সহযোগী পরিচালক হিসেবে কাজ করছেন দয়াল নিহালানি। চিত্রনাট্য করেছেন অতুল তিওয়ারি ও শামা জায়েদি। শিল্প নির্দেশনার দায়িত্ব পেয়েছেন নীতিশ রায়। কস্টিউম ডিরেক্টর হিসেবে আছেন শ্যাম বেনেগালের মেয়ে পিয়া বেনেগাল।
আরও জানা গেছে, এই বায়োপিকে উঠে আসবে বাংলাদেশের অভ্যুদয় থেকে পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের নির্মম ট্র্যাজেডি। তারুণ্য থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং পরবর্তী সময়ের মুজিবের দেখা মিলবে ছবিতে।
চলতি বছরের ১৭ মার্চ শততম জন্মবর্ষে পদার্পণ করবেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। শুরু হবে মুজিববর্ষ। জানা গেছে, সেদিন থেকে শুরু হবে এই সিনেমার শুটিং। এই মুজিববর্ষেই অর্থাৎ ২০২১ সালের ১৭ মার্চের আগেই আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি দেওয়া হবে ছবিটি।
তবে এর সবকিছুই মিলেছে নির্ভরযোগ্য একাধিক সূত্র থেকে। শিগগিরই পুরো ছবির বিষয়ে চূড়ান্ত ঘোষণা আসবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দফতর থেকে।

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ