অনুদান দিলে শুটিং ও প্রিমিয়ারে নেবেন ডি নিরো-ডিক্যাপ্রিও

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ০০:০০, এপ্রিল ১৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:১৫, এপ্রিল ১৭, ২০২০

লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও-রবার্ট ডি নিরোএক জীবনে একবারই এমন সুবর্ণ সুযোগ মেলে! হলিউডের দুই প্রজন্মের দুই অভিনেতা রবার্ট ডি নিরো ও লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও তাদের আগামী ছবির সেটে ঘোরার সুযোগ দেবেন একজন ভক্তকে। শুধু তা-ই নয়, প্রিমিয়ারেও থাকতে পারবেন সেই ভাগ্যবান। এজন্য ‘অল ইন চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক কোভিড-১৯ তহবিলে অনুদান দিতে হবে। যারা এগিয়ে আসবেন তাদের নিয়ে থাকবে প্রাইজ ড্র। সেখান থেকে নির্বাচিত হবেন একজন।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে আমেরিকার অসহায় মানুষদের খাদ্য সহায়তা দেওয়ার লক্ষ্যে গত মঙ্গলবার ‘অল ইন চ্যালেঞ্জ’ কার্যক্রম চালু করেন ব্যবসায়ী মাইকেল জি. রুবিন। বুধবার পর্যন্ত এতে যোগ দিয়েছেন অর্ধশত তারকা। ইতোমধ্যে ৫৬ লাখ ডলার উঠেছে। অর্থাৎ ৪৭ কোটি ৫৮ লাখ টাকারও বেশি।

মার্টিন স্করসেসির পরিচালনায় ‘কিলারস অব দ্য ফ্লাওয়ার মুন’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করবেন ডি নিরো ও ডিক্যাপ্রিও। এতে তুলে ধরা হবে ১৯২০ সালে ওকলাহোমা রাজ্যের উপজাতিদের হত্যার ঘটনা। ডেভিড গ্র্যানের ঐতিহাসিক গ্রন্থ অবলম্বনে এর চিত্রনাট্য তৈরি হয়েছে। ছবিটির শুটিংয়ে একদিন সারাবেলা থাকতে পারবেন একজন দাতা। এমনকি  প্রিমিয়ারে অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকছে তার।  

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে বুধবার ভিডিও শেয়ার করে ডিক্যাপ্রিও লিখেছেন, ‘মার্টিন স্করসেসি, ডি নিরো ও আমার সঙ্গে কাজ করলে কেমন লাগবে ভেবেছেন? সুযোগটি পেতে অল ইন চ্যালেঞ্জ ডটকম ভিজিট করে এই কর্মসূচিতে অংশ নিন ও যতটা পারেন অনুদান দিন।’

টুইটে দুই অস্কার জয়ী ম্যাথু ম্যাকোনাহে ও জেমি ফক্স এবং সঞ্চালক এলেন ডিজেনারেসের নাম উল্লেখ করে ডিক্যাপ্রিও জানতে চান, ‘আপনারা আমাদের সঙ্গে শামিল হবেন?’

অস্কার জয়ী ম্যাথু ম্যাকোনাহে একজন দাতাকে টেক্সাসে তার সঙ্গে আলাদা বক্সে বসে আমেরিকান ফুটবল খেলা দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। ডিজেনারেস তার ‘দ্য এলেন শো’র একটি পর্ব যৌথভাবে সঞ্চালনার সুযোগ দেবেন একজন দাতাকে। একইসঙ্গে তিনি ১০ লাখ ডলার অনুদান দিয়েছেন।
অভিনেতা বিল মারে, কেভিন হার্ট, গায়ক জাস্টিন টিম্বারলেক, জাস্টিন বিবার ও আমেরিকার অনেক ক্রীড়াবিদ নিজেদের কাছাকাছি এসে সময় কাটানোর সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন দাতাদের।

বিবার তো লকডাউন শেষ হলে ভাগ্যবান এক ভক্তের বাড়িতে যাওয়ার প্রতিজ্ঞা করেছেন। শুধু তা-ই নয়, ২০০৯ সালের হিট গান ‘ওয়ান লেস লোনলি গার্ল’ পরিবেশন করতে চান তিনি। কেভিন হার্ট তার আগামী ছবিতে সংলাপ থাকবে এমন একটি চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন। জেনিফার লোপেজের প্রেমিক সাবেক খেলোয়াড় অ্যালেক্স রড্রিগেজ বেসবল প্রশিক্ষণের পাশাপাশি দুপুরে একসঙ্গে খাওয়ার সুযোগ দেবেন দাতাকে।

‘অল ইন চ্যালেঞ্জ’ আয়োজকদের আশা, তাদের হাতে ১০ কোটি ডলার আসবে। এ বিপুল অর্থ মিলস অন হুইলস, ফিডিং আমেরিকা, নো কিড হাংরি ও আমেরিকা’স ফুড ফান্ডের মাধ্যমে অসহায় শিশু ও বয়স্ক এবং করোনাযোদ্ধা স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ব্যয় হবে। 

আমেরিকা’স ফুড ফান্ড তহবিলটি চালু করেছেন ডিক্যাপ্রিও। এতে তিনি ও অ্যাপলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের স্ত্রী লরেন পাওয়েল জবস মিলে ৫০ লাখ ডলার দিয়েছেন।

লেডি গাগা-রিয়ান্না

করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় এগিয়ে আসা পশ্চিমা তারকারা

* দাতব্য সংস্থা গ্লোবাল সিটিজেনের সঙ্গে মিলে ৩ কোটি ৫০ লাখ ডলার সংগ্রহ করেছেন গায়িকা লেডি গাগা। এছাড়া স্বাস্থ্যকর্মীসহ করোনায় দায়িত্ব পালন করা সবার প্রতি সম্মান জানাতে আগামীকাল ‘টুগেদার অ্যাট হোম’ শীর্ষক দুই ঘণ্টার কনসার্ট তত্ত্বাবধান করবেন তিনি।
* গায়িকা রিয়ান্নার ক্লারা লিওনেল ফাউন্ডেশন আফ্রিকাসহ বিভিন্ন দেশে খাবার, নমুনা পরীক্ষা কিট, পিপিই’র জন্য ৫০ লাখ ডলার দিয়েছে। এছাড়া লস অ্যাঞ্জেলেসের গৃহ নির্যাতনের শিকার নারীদের সাহায্যার্থে টুইটার সিইও জ্যাক ডরসির তহবিলে ২১ লাখ ডলার দিয়েছেন তিনি। 
* স্যার এলটন জন বিশ্বব্যাপী এইচআইভি আক্রান্তদের সহায়তায় ১০ লাখ ডলার অনুদান দিয়েছেন। এছাড়া আইহার্ট লিভিং রুম কনসার্ট ফর আমেরিকা শীর্ষক আয়োজন সঞ্চালনা করেছেন তিনি। এর মাধ্যমে উঠেছে ১ কোটি ডলার। 
* আইরিশ ব্যান্ড ইউটু আয়ারল্যান্ডের করোনাযোদ্ধাদের সহায়তায় ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামের (পিপিই) জন্য ১ কোটি পাউন্ড অনুদান দিয়েছে। ব্যান্ডটির গায়ক বোনো ব্যক্তিগতভাবে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে সরবরাহ নিশ্চিত করেছেন।
* সঞ্চালক অপরাহ উইনফ্রে আমেরিকাজুড়ে করোনা মহামারিতে ভুক্তভোগীদের জন্য সব মিলিয়ে ১ কোটি ডলার দিচ্ছেন।









তথ্যসূত্র: বিবিসি

/জেএইচ/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ