মেকআপ হবে ঘরে, শুটিংয়ে থাকবে চিকিৎসক-নার্স

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২:১০, মে ০৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৬, মে ০৬, ২০২০

`গাঙ্গুবাই কাতিয়াওয়াড়ি'র ভূমিকায় আলিয়া ভাট, ‘ময়দান’ ছবিতে অজয় দেবগণ এবং ‘কুলি নম্বর ওয়ান’ পোস্টারে সারা আলি খান ও বরুণ ধাওয়ানকরোনাভাইরাসের কারণে ভারতে আরোপিত অবরোধ (লকডাউন) থাকায় থমকে আছে বলিউড। কোথাও কোনও শুটিং নেই। ফিল্ম স্টুডিওর বাইরে কোনও তারকার ভ্যানিটি ভ্যান নেই। তবে আশা করা হচ্ছে, এ মাসের শেষ দিকে লকডাউন শিথিল হবে।

সবকিছু স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসার পর কীভাবে চলচ্চিত্রের শুটিং প্রক্রিয়া চলবে সেই বিষয়ে পরিকল্পনা চলছে। ধারণা করা হচ্ছে, আগামী জুলাই থেকে আবারও সেটে ফিরতে পারবে সবাই। তবে এর আগে সুরক্ষা ব্যবস্থা হিসেবে বেশকিছু নতুন নিয়ম চালু করবে প্রডিউচার’স গিল্ড অব ইন্ডিয়া।
অভিনয়শিল্পীসহ কলাকুশলীদের সুরক্ষায় নতুন যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হবে সেগুলোর তালিকা করেছে প্রযোজক সিদ্ধার্থ রয় কাপুরের নেতৃত্বাধীন কমিটি। এ নিয়ে সোমবার (৫ মে) ভার্চুয়াল বৈঠক করেছে সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্টস অ্যাসোসিয়েশন (সিআইএনটিএএ) ও ফেডারেশন অব ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ (এফডাব্লিউআইসিই)।
বলিউডে শুটিংয়ে প্রস্তাবিত সুরক্ষা ব্যবস্থা
* শুটিং শুরুর আগে পুরো সেট জীবাণুমুক্ত করা।
* সকালে প্রতিটি ইউনিটে সংস্পর্শে না গিয়ে সবার শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা।
* অভিনেতা-অভিনেত্রীরা বাড়িতেই মেকআপ নেওয়াসহ পুরোপুরি সেজে সেটে আসবেন।
* অভিনয়শিল্পীরা কেবল প্রয়োজনীয় কর্মীকে সেটে আনতে পারবেন।
* শুটিংয়ে চিকিৎসক ও নার্স উপস্থিত থাকবেন।
* ১২ ঘণ্টার শুটিংয়ের জন্য কলাকুশলীদের চারটি করে মাস্ক দিতে নির্মাতাদের অনুরোধ করা হবে।
* শুটিং শুরুর প্রথম তিন মাস ষাটোর্ধ্ব কাউকে কোনও কাজে নেওয়া যাবে না।
এফডাব্লিউআইসিই’র সাধারণ সম্পাদক অশোক দুবে জানান, শ্রমিকদের জন্য বিমা করার প্রস্তাব দেওয়া হবে। সংগঠনটির সভাপতি বিএন তিওয়ারি বলেন, “আমরা ধরে রেখেছি জুলাই থেকে আবারও শুটিং শুরু হবে। তবে কোনও শিল্পীকে ঝুঁকিতে ফেলা যাবে না। সঞ্জয়লীলা বানসালির ‘গাঙ্গুবাই কাতিয়াওয়াড়ি’ ও অজয় দেবগণের ‘ময়দান’ ছবির জন্য বিশাল বাজেটে সেট তৈরি হলেও নষ্ট হওয়ার পথে। সবাই পরিস্থিতি বুঝতে পেরে সব মেনে নিয়েছেন।”
এদিকে প্রযোজক সমিতির একজন মুখপাত্র জানান, এসব দিকনির্দেশনার চূড়ান্ত করার কাজ চলছে। তার কথায়, ‘এটি কেবলই প্রাথমিক খসড়া। ভবিষ্যতে শুটিং কার্যক্রম পুনরায় শুরু করার জন্য এসব নিয়ম তৈরি করেছে গিল্ড। যেকোনও সুরক্ষা ব্যবস্থার নির্দেশিকা সরকারি কর্মকর্তা, পেশাদার চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর সঙ্গে পরামর্শ করে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।’
শিগগিরই লকডাউন উঠে গেলে বলিউডের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনে ব্যস্ত হয়ে যাবে। বরুণ ধাওয়ান ও সারা আলি খানের ‘কুলি নম্বর ওয়ান’ ও অক্ষয় কুমারের ‘বেল বটম’ ছবির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান পূজা এন্টারটেইনমেন্ট শুটিংয়ে সর্বোচ্চ স্তরের সুরক্ষা ব্যবস্থা ও স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা করবে বলে জানিয়েছে। তাদের কথায়, ‘পুনরায় কাজ শুরু করার অনুমতি এলে সরকার ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের সমস্ত নির্দেশিকা অনুসরণ করা হবে।’
প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো যেসব উদ্যোগ নেবে
* আউটডোর শুটিংয়ে বহনযোগ্য শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রসহ বিশাল তাঁবু ব্যবহার করা।
* সেটে মানুষের উপস্থিতি সীমিত রাখা।
* পুরো শুটিং এলাকাকে স্যানিটাইজ করা।
* সবার জন্য মাস্ক ও গ্লাভস বাধ্যতামূলক করা।
* সরঞ্জামাদি নিয়মিতভাবে জীবাণুমুক্ত করা।
* সেটে সবসময় স্বাস্থ্যকর্মী রাখা।
এদিকে সিনেমা হলে সহসা দর্শকরা যাবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকায় প্রযোজকরা অন্তর্জালে ছবি মুক্তির বিষয়ে ভাবছেন। চলচ্চিত্র নির্মাতা সুজিত সরকার তার ‘গুলাবো সিতাবো’ (অমিতাভ বচ্চন ও আয়ুষ্মান খুরানা) স্ট্রিমিং সাইটে দেখাতে রাজি। তবে নিজেদের ছবি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিতে অপেক্ষা করার জন্য নির্মাতাদের প্রতি আবেদন জানিয়েছে মাল্টিপ্লেক্স অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়া (এমএআই)।
কোয়ারেন্টিন-পরবর্তী সময়ে বলিউড তারকাদের পারিশ্রমিক কমাতে হবে বলে মনে করেন বাণিজ্য বিশ্লেষকরা। রণবীর সিং ও বরুণ ধাওয়ান ২৫-৩৫ কোটি রুপি নিয়ে থাকেন। দীপিকা পাড়ুকোন, আলিয়া ভাট ও শ্রদ্ধা কাপুরের সম্মানী ৫-১২ কোটি রুপি। তবে পরিস্থিতির কথা ভেবে আগামী দুই বছর তারকারা কম পারিশ্রমিক নিতে পারেন। অয়ন মুখার্জি পরিচালিত ‘ব্রক্ষ্মাস্ত্র’র দুই অভিনয়শিল্পী রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাট পরিস্থিতির কথা ভেবে পারিশ্রমিক কম নেওয়ার কথা জানিয়ে দিয়েছেন প্রযোজক করণ জোহরকে।
তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, বলিউড হাঙ্গামা

/জেএইচ/এমএম/

লাইভ

টপ