অন্যরকম দিন পার করলেন পরী, নিপুণ ও সানী-মৌসুমী

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০০:০৩, আগস্ট ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৩৯, আগস্ট ০২, ২০২০

নিপুণ ও পরীমনি২০১৬ সালে বিএফডিসিতে কোরবানি দেওয়ার রীতি শুরু করেন চিত্রনায়িকা পরীমনি।
প্রথমবার একটি দিয়ে কোরবানি শুরু হলেও পরের বছরগুলোতে যথাক্রমে দুটি, তিনটি ও চারটি করে গরু কোরবানি দেন এ নায়িকা। এবারের ঈদে সেই সংখ্যাটি দাঁড়ালো পাঁচে। এফডিসির ৯নং ফ্লোরের সামনে এই কোরবানি হয়। চিত্রনায়িকা নিপুণও এবার অসচ্ছল শিল্পীদের জন্য এফডিসিতে কোরবানি দিয়েছেন। তবে কোনও ঘোষণা ছাড়াই অনেকটা চমকে দিয়ে গরু নিয়ে হাজির হয়েছেন ওমর সানী। এই চিত্রনায়ক ও তার স্ত্রী চিত্রনায়িকা মৌসুমীর পক্ষ থেকে এটি কোরবানি দেওয়া হয়।

সকালে কোরবানি দিয়ে এফডিসি ত্যাগ করেন সানী। তিনি বলেন, ‘অসচ্ছল শিল্পী ও কলাকুশলীদের জন্য এ কোরবানি দেওয়া হয়েছে। এফডিসির বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী, আমাদের নিম্ন আয়ের শিল্পী ও কলাকুশলীদের মধ্যে মাংস বিতরণ করবেন। এখানে আমার আপাতত কাজ নেই। তাই কোরবানি শেষ করে চলে যাচ্ছি।’

এদিকে নিপুণ ও পরীমনি ঈদের দিন বিকালে উপস্থিত হয়ে তাদের কোরবানির মাংস অসচ্ছল শিল্পীদের হাতে তুলে দেন। এ সময় নিপুণ বলেন, ‘এফডিসি আমার আরেক পরিবার। বর্তমানে চলচ্চিত্রে কাজ কমে যাওয়া ও করোনায় বিপদে পড়েছেন বেশিরভাগ সহশিল্পী, যাদের কোরবানি দেওয়ার মতো সামর্থ্য নেই বললেই চলে। তাই আমি এগিয়ে এসেছি।’

এদিকে কোরবানি প্রথা শুরু করার পর এফডিসিতে ‌‘রানি মা’ ডাকনাম পান পরীমনি। এবারও তার জন্য ছিল কলাকুশলীদের অপেক্ষা। অন্যান্যবারের চেয়ে এবার আরও পরিকল্পিতভাবে মাংস বিতরণ করেন এই নায়িকা।

01
পরী বলেন, ‘আমি ‌এফডিসির সন্তান। এটা আমার পরিবার। ঈদের খুশির দিনে সবার সঙ্গে সুখ ভাগাভাগি করে নিতে এসেছি।’

/এম/এমওএফ/

লাইভ

টপ