নির্মিত হলো নির্বাক ছবি

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:০১, অক্টোবর ২৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৩২, অক্টোবর ২৮, ২০২০

একটি দৃশ্যে ছবি ও শাহেদবর্তমান সময়ে ধর্ষণ এক ভয়াল রূপ ধারণ করেছে সমাজের প্রায় প্রতিটি স্তরে। এমনই এক প্রেক্ষাপট নিয়ে সম্প্রতি নির্মিত হলো স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘পিতৃস্বত্বা’।
এটি রচনা-পরিচালনা করেছেন নাদিয়া আফরিন।
ছবিটির প্রধান বৈশিষ্ট্য, এটি সংলাপহীন বা নির্বাক ধারায় নির্মিত। মানে শিল্পীদের মুখে থাকছে না কথা। পুরোটা অভিনয় করেছেন অভিব্যক্তি বা এক্সপ্রেশন দিয়ে! যেমনটা হতো ১৯ শতকের শুরুর দিকে, সাদা-কালো ছবির যুগে। তবে সদ্য নির্মিত ছবিটি রঙিন।
এর প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাহেদ শরীফ খান ও ফারজানা ছবি। বিভিন্ন চরিত্রে আরও আছেন তনামী হক, ঐশী, নাফিজা, পূর্ণতা, মিল্টন প্রমুখ।
কাজটি প্রসঙ্গে ফারজানা ছবি বললেন, ‘এতে আমার নাম জয়িতা। নানামুখী চরিত্রে নিয়মিত অভিনয় করছি। তবে কিছু চরিত্রের প্রতি তীব্র টান অনুভব করি। জয়িতা তেমনই একটি চরিত্র। গল্পটা সমসাময়িক ও ভয়ঙ্কর। এতে অভিনয় করাটা আমার কাছে শিল্পী হিসেবে সামাজিক দায়িত্ব বলে মনে হয়েছে।’
এদিকে শাহেদ শরীফ খান বললেন, ‘আমার অভিনয় জীবনের অন্যতম একটি চরিত্র এটি। শুটিংয়ের সময় বারবারই নিজের কন্যাশিশুটির কথা মনে হয়েছে। আপাতত এর বেশি কিছু বলতে চাই না। প্রত্যাশা করি জগতের প্রতিটি শিশু নিরাপদে থাক।’
শুটিংয়ে নির্মাতার (মাঝে) সঙ্গে দুই শিল্পীর দুষ্টুমিপরিচালক নাদিয়া আফরিন রেখা জানালেন, সাড়ে আট মিনিট ব্যাপ্তির স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি মূলত আন্তর্জাতিক উৎসবগুলোতে প্রদর্শনের জন্য নির্মাণ করেছেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, ইউএনডিপিসহ নারী ও শিশু বিষয়ক দেশীয়-আন্তর্জাতিক নানা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেও যুক্ত হচ্ছে ছবিটি।
রেখার ভাষায়, ‘সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই মূলত কাজটি আমি করলাম। কারণ, ধর্ষণ বিষয়ে যা চলছে, সেটির প্রতিবাদ প্রতিটি মানুষেরই করা দরকার। আমিও করলাম এই নির্বাক ছবিটির মাধ্যমে। আমার বিশ্বাস, বিশ্ব আমার এই ছবিটিকে মূল্যায়ন করবে।’

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ