এপারে ‘বেলাশেষে’ ওপারে ‘ছুঁয়ে দিলে মন’‘বেপরোয়া’র দাপটে কোণঠাসা ‘কৃষ্ণপক্ষ’!

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০০:০৫, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৪৩, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৬

ছবি মুক্তি দুই দেশেই। তাই উত্তেজনার থরথর আবেগ আকাশমুখী। প্রভাব পড়ছে দুই দেশের চলচ্চিত্রপ্রেমীদের মাঝে। দুই বাংলার ৪টি ছবি- ‘কৃষ্ণপক্ষ’, ‘বেলাশেষে’, ‘বেপরোয়া’ ও ‘ছুঁয়ে দিলে মন’। প্রথম তিনটি মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশে। যার প্রথমটি দেশীয়, পরের দুটি বিদেশি। এরমধ্যে বেশ দাপটের সঙ্গে সর্বাধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ‘বেপরোয়া’। গত সপ্তাহে দুটি হলে (স্টার সিনেপ্লেক্স ও ব্লকবাস্টার) ছবিটি মুক্তি পায়। কিন্তু বড় পরিসরে আজ শুক্রবার ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে সর্বোচ্চ ৫১টি প্রেক্ষাগৃহে। অন্যদিকে ‘বেপরোয়া’ ছবির দাপটে বাংলাদেশের আলোচিত ছবি ‘কৃষ্ণপক্ষ’ ও কলকাতার ‘বেলাশেষে’ হল পেয়েছে মাত্র ২৫টির মতো।

‘বেপরোয় ‘ ছবির দাপটে কোনঠাসা ‘কৃষ্ণপক্ষ’পরিবেশক সমিতির সূত্রে জানা গেছে, ‘বেলাশেষে’ ১০টির মতো হল পাচ্ছে। সব মিলিয়ে ভারতীয় ছবি দুটি ৬০টির বেশি হল পাবে। অপরদিকে ‘কৃষ্ণপক্ষ’ পেয়েছে মাত্র ১৬টি হল!

দেশীয় এবং আলোচিত নতুন ছবি ‘কৃষ্ণপক্ষ’র হলপ্রাপ্তিতে কেন এমন পরিণতি? এমন প্রশ্ন রাখা হয়েছিল বাংলাদেশ পরিবেশক সমিতির নেতা মিঞাঁ আলাউদ্দিনের কাছে। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বললেন, ‘‘এ ধরনের (কৃষ্ণপক্ষ) ছবি চলে আধুনিক ও কিছু ঐতিহ্যবাহী প্রেক্ষাগৃহতে। যেমন- ঢাকার সিনেপ্লেক্স, চট্টগ্রামের আলমাস বা যশোরের মণিহারে। দেশের বেশিরভাগ হলে এ ধরনের সিনেমা চলার ইতিহাস কম। আর এ কারণে হল মালিকরা তাদের পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে হয়তো ছবিটি নিতে আগ্রহ দেখায়নি। আর ‘কৃষ্ণপক্ষ’র মাকের্টিং পলিসিতে কিছু ভুল আছে।’’

‘বেপরোয়া’র বেজায় দাপট বাংলাদেশি পরিবেশক সমিতিতে!তাবে ‘কী সেই ভুল’ সেটা তিনি উল্লেখ করতে চাননি।
জানা যায়, ‘কৃষ্ণপক্ষ’ ও ‘বেপরোয়া’ বিপণনের দায়িত্ব পেয়েছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। দেশের ছবির চেয়ে বিদেশি ছবি কীভাবে এতগুলো হল পেতে পারে- তা ব্যাখ্যায় তারা বলেছেন হল মালিকদের চাহিদা। পাশাপাশি দেখা গেছে, জাজের নিজের প্রযোজনার ছবি (হিরো ৪২০) এ মুহূর্তে বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে চলছে। তাই সব মিলিয়ে ‘কৃষ্ণপক্ষ’র অবস্থা বেশ নাজুক। তবে বিষয়গুলোতে জাজের কোনও প্রভাব নেই বলে দাবি প্রতিষ্ঠানটির।

নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের গল্প অবলম্বনে ‘কৃষ্ণপক্ষ’ নির্মাণ করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড। এর চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মেহের আফরোজ শাওন। ছবিতে অভিনয় করেছেন রিয়াজ, মাহিয়া মাহি, ফেরদৌস আহমেদ, আজাদ আবুল কালাম, তানিয়া আহমেদ, জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, তারিক স্বপন, আরফান আহমেদ, মাসুদ আখন্দ, ঝুনা চৌধুরী, জয়ীতা মহলানবীশ, মৌটুসী বিশ্বাস, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, কায়েস চৌধুরী, ফারুক আহমেদ, রফিক উল্লাহ সেলিম, জুয়েল রানা, পূজা চেরী, এহসানুর রহমান, রিমু রোজা খন্দকার, মতিঊল আলম, লাবণ্য, টুকটুকি প্রমুখ।

‘বেলাশেষে’র অবস্থাও বেশ নাজুক‘কৃষ্ণপক্ষ’ দেখা যাবে যেসব প্রেক্ষাগৃহে- ঢাকার বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্স, যমুনা ফিউচার পার্কের ব্লকবাস্টার সিনেমাস, বলাকা সিনেওয়ার্ল্ড, শ্যামলি, অভিসার, পূর্ণিমা, ফরিদপুরের বনলতা, সিলেটের বিজিবি অডিটোরিয়াম, জয়দেবপুরের চন্দনা, নাটোরের ছায়াবানী, টাঙ্গাইলের মধুপুরের মমতা, নাগপুরের রাজিয়া, পাবনার রূপকথা ও সিরাজগঞ্জের চালার সাগরিকা প্রভৃতি।

এদিকে ‘বেপরোয়া’ ছবিতে অভিনয় করেছেন নবাগত সূর্য ও পাপড়ি। এর পরিচালক পীযূষ সাহা।

‘বেলাশেষে’তে অভিনয় করেছেন কলকাতার বর্ষীয়ান অভিনয়শিল্পী সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত। ৩০ বছর পর তারা জুটিবদ্ধ হয়েছেন এ ছবির মাধ্যমে। এটির পরিচালক নন্দিতা রায় ও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। এতে আরও অভিনয় করেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, শঙ্কর চক্রবর্তী, ইন্দ্রানী দত্ত, অপরাজিতা, খরাজ মুখোপাধ্যায়, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, মনামি ঘোষ প্রমুখ।

অন্যদিকে ‘বেলাশেষে’ ছবির বিনিময়ে আজ একই দিনে ভারতের কলকাতায় ১১টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে শিহাব শাহীন পরিচালিত বাংলাদেশের ছবি ‘ছুঁয়ে দিলে মন’। এতে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ এবং মম।    

কলকাতার ১১ প্রেক্ষাগৃহে ‘ছুঁয়ে দিলে মন’/এমআই/এমএম/

লাইভ

টপ