X
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
৩ বৈশাখ ১৪৩১

দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে পুনর্মিলন সম্ভব না: কিম জং উন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৬ জানুয়ারি ২০২৪, ১৬:০৩আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২৪, ০৯:১২

দক্ষিণ কোরিয়াকে এক নাম্বার শত্রু রাষ্ট্র হিসেবে গণ্য করে সংবিধানে পরিবর্তনের আহ্বান জানিয়েছেন উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন। তিনি বলেন, দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে একত্রীকরণ আর কোনওভাবে সম্ভব না। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান খবরটি জানিয়েছেন। 

উত্তর কোরিয়ার পার্লামেন্টে দেওয়া এক বক্তৃতায় কিম বলেন, তিনি আর বিশ্বাস করেন না যে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে একত্রীকরণ সম্ভব। সেই সঙ্গে শাসন ব্যবস্থাকে পরিবর্তন করার জন্য দক্ষিণ কোরিয়াকে অভিযুক্ত করেছেন কিম।

উত্তর কোরীয় নেতা বলেন, আমরা যুদ্ধ চাই না, তবে যুদ্ধ চেপে বসলে সেটা এড়ানোর মনমানসিকতা আমাদের নেই। তাঁর এই বক্তব্যের পর এসব সংস্থার কার্যক্রম গুটিয়ে নেওয়া হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়া তিনটি সংস্থা বন্ধ করবে। তিনটি প্রতিষ্ঠান হলো কমিটি ফর দ্য পিসফুল রিউনিফিকেশন অব দ্য কান্ট্রি, দ্য ন্যাশনাল ইকোনমিক কো-অপারেশন ব্যুরো এবং ইন্টারন্যাশনাল ট্যুরিজম যা একীকরণ এবং আন্ত-কোরিয়ান পর্যটন তত্ত্বাবধান করে।

সম্প্রতি একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। এর জের ধরে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে বেশ টানাপোড়েন শুরু হয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের সময় কিমের পাশে তার মেয়েকে দেখা যায়। ধারণা করা হচ্ছে কিমের উত্তরসূরী হতে পারে তার মেয়ে।

কিমের মন্তব্যে নিন্দা জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক ইওল। তিনি বলেন, এর মধ্যে উত্তর কোরিয়ার দেশবিরোধী চরিত্র প্রকাশ পেয়েছে। 

ইউন উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণেরও নিন্দা করেছিলেন, সতর্ক করে দিয়েছেন যে এর প্রতিশোধ নেওয়া হবে। 

বিশ্লেষকরা বলছেন, দক্ষিণ কোরিয়াকে তার সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ হিসেবে গণ্য করে এবং ভবিষ্যতের যেকোনও যুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহারকে ন্যায্যতা দেওয়ার চেষ্টা করতে পারে পিয়ংইয়ং। 

কিম বলছেন, একটি যুদ্ধ দক্ষিণ কোরিয়াকে ধ্বংস করবে এবং তার সবচেয়ে বড় মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের কাছেও তারা একটি অকল্পনীয় পরাজয় গ্রহণ করবে। তিনি বলেন, কোরীয় উপদ্বীপে যুদ্ধের ঘটনায়, আমি মনে করি এটি সম্পূর্ণরূপে দখল, দমন, এবং পুনরুদ্ধার এবং এটিকে আমাদের ভূখণ্ডে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে চিন্তা করাও গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে আন্তঃসীমান্ত সম্পর্কের সাম্প্রতিক অবনতি কিছু কোরিয়ার পর্যবেক্ষকদের মধ্যে উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে।

ইয়োনহাপ বার্তা সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের শেষের দিকে ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির এক বৈঠকে কিম জং-উন উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়াকে দুটি রাষ্ট্র একে অপরের প্রতিকূল হিসাবে বর্ণনা করেছিলেন।

এ পরিস্থিতিতে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র যৌথ সামরিক মহড়া জোরদার করেছে। 

/এসএসএস/
সম্পর্কিত
লেবাননে এক হিজবুল্লাহ কমান্ডারকে হত্যার দাবি ইসরায়েলের
ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ২৯ মাওবাদী নিহত
রুশ হামলা ঠেকানোর ক্ষেপণাস্ত্র ফুরিয়ে গেছে: জেলেনস্কি
সর্বশেষ খবর
নারিনকে ছাপিয়ে বাটলার ঝড়ে রাজস্থানের অবিশ্বাস্য জয়
নারিনকে ছাপিয়ে বাটলার ঝড়ে রাজস্থানের অবিশ্বাস্য জয়
সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু
সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু
ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস আজ
ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস আজ
অপরাধে জড়িয়ে পড়া শিশু-কিশোরদের সংশোধনের উপায় কী
অপরাধে জড়িয়ে পড়া শিশু-কিশোরদের সংশোধনের উপায় কী
সর্বাধিক পঠিত
ঘরে বসে আয়ের প্রলোভন: সবাই সব জেনেও ‘চুপ’
ঘরে বসে আয়ের প্রলোভন: সবাই সব জেনেও ‘চুপ’
ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো ১৩ জনের
ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো ১৩ জনের
উৎসব থমকে যাচ্ছে ‘রূপান্তর’ বিতর্কে, কিন্তু কেন
উৎসব থমকে যাচ্ছে ‘রূপান্তর’ বিতর্কে, কিন্তু কেন
চুরি ও ভেজাল প্রতিরোধে ট্যাংক লরিতে নতুন ব্যবস্থা আসছে
চুরি ও ভেজাল প্রতিরোধে ট্যাংক লরিতে নতুন ব্যবস্থা আসছে
প্রকৃতির লীলাভূমি সিলেটে পর্যটকদের ভিড়
প্রকৃতির লীলাভূমি সিলেটে পর্যটকদের ভিড়