২০২০ সালে ক্ষমতা ছাড়ছেন না মাহাথির?

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৪৭, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৯, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯

নির্বাচনি জোট গড়ার সময় জোটসঙ্গী আনোয়ার ইব্রাহিমকে ২ বছরের মধ্যে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তবে সম্প্রতি এ নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। গত ১০ ডিসেম্বর মাহাথির নির্বাচনি অঙ্গীকার বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিলেও শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) কাতারের দোহা সম্মেলনে নির্ধারিত সময়ে পদত্যাগ না করার ইঙ্গিত দিলেন তিনি।

২০১৮ সালের সাধারণ নির্বাচনে শর্তসাপেক্ষে মাহাথিরের নেতৃত্বে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করে সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিমের দল পিকেআর। প্রধান শর্ত ছিল, ক্ষমতায় এলে পিকেআর প্রধান আনোয়ার ইব্রাহিমকে কারামুক্ত করবেন মাহাথির। আর দুই বছর দায়িত্ব পালনের পর ওই জোটসঙ্গীর হাতে প্রধানমন্ত্রিত্ব হস্তান্তর করে পদত্যাগ করবেন তিনি। কিন্তু সম্প্রতি এ নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার কাতারে দোহা সম্মলেনে মাহাথিরকে ২০২০ সালে পদত্যাগের বিষয়ে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা। জবাবে তিনি জানান, পদত্যাগ করার আগে পূর্বের সরকারের সৃষ্ট সংকটগুলোর সুরাহা করতে চান তিনি। ‘আমি প্রতিশ্রুতি দিয়েছি, আমি পদত্যাগ করবো এবং জোটের প্রস্তাবিত প্রার্থীর কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করবো।’ তবে ৯৪ বছর বয়সী মাহাথির কবে নাগাদ পদত্যাগ করবেন এ ব্যাপারে সুর্নিদিষ্ট করে কিছুই জানাননি।

মাহাথিরের উত্তরসূরি হিসেবে আনোয়ার সবচেয়ে বেশি যোগ্য কীনা এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমার কাছ থেকে কে প্রধানমন্ত্রিত্ব নেবে সে বিষয়ে কোনও নিশ্চয়তা দিতে পারি না। পূর্ব অভিজ্ঞতার কারণে আনোয়ারকে সবচেয়ে বেশি যোগ্য মনে করতে পারি না।’

মাহাথিরের ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয় এ বছর অক্টোবরের শেষের দিকে। সে সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে পিকেআর-এর উপপ্রধান আজমিন আলী নিজ দলের শীর্ষ নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের চেয়ে বরং মাহাথিরের প্রতিই সমর্থন ব্যক্ত করেন। অর্থমন্ত্রী আজমিন সে সময় বলেন, জনরায়ের প্রতি সম্মান দেখিয়ে মাহাথির মোহাম্মদকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার মেয়াদ পূর্ণ করতে দেওয়া উচিত। তবে ডিসেম্বরে মাহাথির ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতিশ্রুতি দেন।

১০ই ডিসেম্বর মাহাথির প্রতিশ্রুতি দেন,  রাজনৈতিক জোটের সঙ্গী আনোয়ার ইব্রাহিমের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন তিনি। আনোয়ারের বিরুদ্ধে নতুন করে সমকামিতার অভিযোগ ওঠা সত্ত্বেও তিনি তার কাছে ক্ষমতা দেওয়ার কথা জানান। তবে কয়েকদিনের মাথায় দোহা সম্মেলনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মাহাথিরের কথোপকথনে তার ক্ষমতা ছাড়ার বিষয়ে অস্পষ্টতার ইঙ্গিত পাওয়া গেল।

 

/এইচকে/বিএ/

লাইভ

টপ