তাপস পালের মৃত্যুর জন্য বিজেপি দায়ী: মমতা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:১৩, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:২১, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০

জনপ্রিয় অভিনেতা ও তৃণমূল নেতা তাপস পালের অকাল মৃত্যুর জন্য ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারকে দায়ী করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের প্রাক্তন সাংসদের আকস্মিক প্রয়াণের পর মমতা অভিযোগ করেছেন, ‘কেন্দ্রীয় এজেন্সির চাপে তাপস পাল ক্ষতিবিক্ষত ছিল। ওর কী অপরাধ ছিল? লাঞ্ছনা, গঞ্জনার শিকার হয়েছে ও…কেন্দ্রের ঘৃণ্য রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক আচরণ থেকে কেউই রেহাই পাচ্ছেন না। আমার চোখের সামনে তিন জনের মৃত্যু হল। সুলতান আহমেদ, তাপস পাল আর প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীর। কী খেলা চলছে জানি না।’

উল্লেখ্য, রোজভ্যালিকাণ্ডে ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন তাপস পাল। এরপর প্রায় ১৩ মাস জেলবন্দি ছিলেন তিনি। সে সময়ই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন বাংলা সিনেমার এক সময়কার এই সুপারস্টার। এরপর থেকেই কার্যত নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছিলেন তাপস। অন্যদিকে, নারদ কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়েছিল তৃণমূল সাংসদ সুলতান আহমেদ ও হাওড়ার সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সিবিআই-এর চাপেই সুলতানের আকস্মিক মৃত্যু ও প্রসূনের স্ত্রীর মৃত্যু বলে দাবি তৃণমূলের।

গত দুই বছর ধরে হৃদযন্ত্রের অসুস্থতায় ভুগছিলেন তাপস পাল। এজন্য বেশ কয়েকবারই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি। পারিবারিক সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে ভারতীয় বার্তা সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, সম্প্রতি মেয়েকে দেখতে মুম্বাই যান তাপস পাল। সেখান থেকে কলকাতা ফেরার পথে বিমানবন্দরে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। মঙ্গলবার ভোর চারটার দিকে সেখানেই তার মৃত্যু হয়। 

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তাপস পালের অকাল মৃত্যুর প্রসঙ্গে সুলতান ও প্রসূনের স্ত্রীর প্রয়াণের কথা বলে কেন্দ্রকে যেভাবে দুষলেন মমতা, তা রাজনৈতিকভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তাপস পালের মৃত্যু আবার প্রমাণ করল, একটা এজেন্সির অত্যাচারে একটা মানুষ নিজেকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তুলেছিল, ক্ষতবিক্ষত ছিল, হয়তো মৃত্যুর আগে জানলও না ওর কী অপরাধ ছিল! তাপসের মতো নম্বর ওয়ান ফিল্মস্টারকে জেল খাটতে হয়েছে।’

/বিএ/

লাইভ

টপ