চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের বিমার অংক বাড়িয়ে ১০ লাখ রুপি করলেন মমতা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:২৯, মার্চ ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩১, মার্চ ৩০, ২০২০

করোনা পরিস্থিতিতে জরুরি পরিষেবায় যুক্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিমার অংক পাঁচ থেকে বাড়িয়ে দশ লাখ রুপি করার ঘোষণা দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার তিনি বলেছেন, মানুষ বেঁচে থাকলে পয়সা আসবে। তাই চিকিৎসক-নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের বিমার অংক ৫ লাখ রুপি থেকে বাড়িয়ে ১০ লাখ রুপি করা হলো। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এখবর জানিয়েছে।


ভারতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। ভাইরাসটির বিস্তার ঠেকাতে ২১ দিনের লকডাউনে থাকা অবস্থাতে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৯২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। ফলে সোমবার পর্যন্ত ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৭১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২৯ জনের। পশ্চিমবঙ্গে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২১ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২ জন।
এর আগে মমতা ঘোষণা করেছিলেন, করোনা মোকাবিলায় কাজে নিয়োজিত ১০ লাখ মানুষের জন্য ৫ লাখ রুপির বিমার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সোমবার চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিমার অংক দ্বিগুণ করার ঘোষণা দিলেন।
মমতা বলেন, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পরিবারের কারও হলেও এই বিমার আওতায় আসবে। যারা কুরিয়ার বহন করেন, রান্না করেন, সাফাইয়ের কাজ করছেন, আয়ার কাজ করছেন, আশার মেয়েরা, আইসিডিএসকর্মী, সবাই এই বিমার আওতায় আসবেন। বেসরকারি সংস্থায় যারা একাজ করছেন, তাদেরও এই বিমার আওতায় আনা হবে। পুলিশে যারা রয়েছেন, তারাও এই বিমার আওতায় আসবেন।
করোনা মোকাবিলায় সোমবার রাজ্যের সচিবালয় নবান্নে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেন তৃণমূল নেত্রী।
নার্স, ডাক্তার, স্বাস্থ্যকর্মী, আশাকর্মীদের বাড়ি দূরে হলে কাছাকাছি থাকার ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেন মমতা। ডাক্তার-নার্সদের খাওয়া-দাওয়ার কোনও সমস্যা হচ্ছে কিনা খোঁজ নেন তিনি।
মমতা বলেন, আরও ৩০০ ভেন্টিলেটরের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ব্যবস্থা করা হচ্ছে মোবাইল ভেন্টিলেটরেরও।

/এএ/

লাইভ

টপ