২০২০ সালের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ১০ শহর

Send
জার্নি ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:১৪, জুন ১৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৫, জুন ১৩, ২০২০

পাখির চোখে হংকংবিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় হংকং, জুরিখ, সিঙ্গাপুরকে স্বাভাবিকই লাগবে। তাই বলে আশগাবাত! মধ্য এশিয়ার দেশ তুর্কমেনিস্তানের রাজধানীর কথা পর্যটকদের গন্তব্যের তালিকায় খুব কমই থাকে। অথচ আশগাবাত এখন বিশ্বের দ্বিতীয় ব্যয়বহুল শহর।

২০২০ সালে বিদেশি কিংবা পর্যটকদের থাকার জন্য বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহরের নতুন তালিকা প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের মানবসম্পদ পরামর্শক সংস্থা মারসার। তাদের বসবাসের ব্যয় জরিপের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর তালিকায় সাতে থাকা আশগাবাত এবার পাঁচ ধাপ এগিয়ে উঠেছে দুই নম্বরে।

এ নিয়ে ২৬ বার জরিপটি করেছে আমেরিকান প্রতিষ্ঠানটি। বিভিন্ন দেশের সরকার ও বহুজাতিক সংস্থাকে কর্মীদের বেতন নির্ধারণে সহায়তা করাই এর লক্ষ্য। বিশ্বব্যাপী ২০৯টি গন্তব্যস্থলে খাবার, বাসস্থান, পরিবহন, বিনোদন ও গৃহস্থালী সামগ্রীসহ ২০০টি উপকরণের ভিত্তিতে জীবনযাত্রার ব্যয় প্রতিফলিত হয়েছে এই র্যা ঙ্কিংয়ে।

গতবারের মতোই র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে আছে রাজনৈতিক অস্থিরতায় জর্জরিত হংকং। শীর্ষ ১০ ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় এশিয়ার আধিপত্য লক্ষণীয়। এর মধ্যে চীনেরই তিনটি। হংকং ছাড়া বাকি দুটির মধ্যে সাংহাই ছয় থেকে নেমে সাত নম্বরে ও বেইজিং আট থেকে নেমে পড়েছে দশে। দুই থেকে তিনে নেমে গেছে জাপানের রাজধানী টোকিও। পাঁচ নম্বরে জায়গা পেয়েছে সিঙ্গাপুর।

র‌্যাঙ্কিংয়ে ইউরোপের প্রতিনিধিত্ব করেছে সুইজারল্যান্ড। দেশটির তিন শহর আছে তালিকায়। এর মধ্যে পাঁচ থেকে চারে উঠেছে জুরিখ। ১২ থেকে বার্ন আট নম্বরে ও জেনেভা ১৩ থেকে উঠে স্থান পেয়েছে নয়ে।

চমকপ্রদ ব্যাপার হলো, লন্ডনকে টপকে গেছে নাইজেরিয়ার লাগোস। আফ্রিকার ব্যবসায়ের রাজধানীতে পরিণত হয়েছে এই শহর। র্যা ঙ্কিংয়ে ১৮ নম্বরে আছে এটি। এর ঠিক নিচেই ইংল্যান্ডের রাজধানী লন্ডন (১৯তম)।

মারসার জানিয়েছে, জরিপের তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে গত মার্চে। এ কারণে করোনাভাইরাস মহামারির পুরো প্রভাব ব্যয়বহুল শহরের র্যা ঙ্কিংয়ে প্রতিফলিত হয়নি। তবে আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়েছে। এ কারণে বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর আরও ব্যয়বহুল হয়ে উঠছে। মুদ্রার ওঠানামা, পণ্য ও বিভিন্ন সেবার মূল্যবৃদ্ধি এবং বাসস্থানের খরচ বেড়ে যাওয়াসহ বিভিন্ন কারণে এসব শহর আরও ব্যয়বহুল হয়ে যাচ্ছে।

মারসার স্ট্র্যাটেজির প্রধান ও ক্যারিয়ার প্রেসিডেন্ট ইলিয়া বনিক জানান, এ বছর করোনা সম্পর্কিত পণ্যগুলো আলাদাভাবে পর্যবেক্ষণ করেছেন তারা। এক্ষেত্রে এন্টিসেপটিক স্প্রে ও সাবানসহ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার উপকরণের জন্য সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর নির্বাচিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক সিটি। মূল তালিকায় এটি ৯ থেকে উঠেছে ছয় নম্বরে।

অন্যদিকে টেবিলের তলানির দিকে সস্তা শহরের তালিকায় আছে আফ্রিকান রাষ্ট্র তিউনিসিয়ার রাজধানী তিউনিস (২০৯) ও নামিবিয়ার রাজধানী উইন্ডহোক (২০৮) এবং এশিয়ার দেশ উজবেকিস্তানের রাজধানী তাসখন্দ (২০৭) ও কিরগিজস্তানের বিশকেক (২০৬)। এর মধ্যে আধুনিকতা, সড়ক ব্যবস্থা ও সাশ্রয়ী গাড়ি ভাড়ার সুবাদে ভ্রমণপ্রেমীদের গন্তব্যের তালিকায় সহজেই জায়গা করে নিতে পারে নামিবিয়া। সস্তা শহরের তালিকায় আরও আছে ভারতের কলকাতা।

নামিবিয়ার চার তারকা মানের হিলটন উইন্ডহোক হোটেলের ভাড়া ১০০ ডলার থেকে শুরু২০২০ সালের শীর্ষ ১০ ব্যয়বহুল শহর
১. হংকং (চীন)
২. আশগাবাত (তুর্কমেনিস্তান)
৩. টোকিও (জাপান)
৪. জুরিখ (সুইজারল্যান্ড)
৫. সিঙ্গাপুর
৬. নিউ ইয়র্ক সিটি (যুক্তরাষ্ট্র)
৭. সাংহাই (চীন)
৮. বার্ন (সুইজারল্যান্ড)
৯. জেনেভা (সুইজারল্যান্ড)
১০. বেইজিং (চীন)

তথ্যসূত্র: লোনলি প্লানেট

/জেএইচ/
টপ