X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

‘বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী না থাকলে শিক্ষকের কোনও মূল্য থাকবে না’

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:৫৬

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এবং চলমান আন্দোলনের সমর্থনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নেটওয়ার্ক। মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলক চত্বরে এ অবস্থান কর্মসূচি পালিত হয়।

রাকসু আন্দোলন মঞ্চের সমন্বয়ক আব্দুল মজিদ অন্তরের সঞ্চালনায় কর্মসূচিতে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক কাজী মামুন হায়দার বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর শেষ হলেও এখনও সেই একই প্রক্রিয়ায় ছাত্র নির্যাতন চলছে। শিক্ষার্থীদের ওপর সরকারি দলের হামলা, পুলিশি হামলা নতুন কোনও ঘটনা নয়। দিনের পর দিন এরকম ঘটনার বহু উদাহরণ রয়েছে। আমাদের মধ্যে আরেকটা প্রবণতা দেখা যায়, যেকোনও আন্দোলন হলে তার মধ্যে আমরা ষড়যন্ত্র খোঁজার চেষ্টা করছি। ১৪০ ঘণ্টা ধরে যে শিক্ষার্থীরা অনশন করছে সেদিকে খেয়াল করছি না। আমরা ভাবছি না যে, আমাদের ৩০ জন শিক্ষার্থী সেখানে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে, হাজার হাজার শিক্ষার্থী সেখানে উপাচার্যের বিরুদ্ধে কথা বলছে। সেটা নিয়ে আমরা চিন্তা করছি না। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী না থাকলে শিক্ষকের কোনও মূল্য থাকবে না।’

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, ‘গত কয়েক বছরের আন্দোলনগুলো দেখলে লক্ষ্য করবো, শিক্ষার্থীরা প্রথমে সমঝোতা করার চেষ্টা করে। কিন্তু ব্যর্থ হলে তখন তারা আন্দোলনে নামে। আমরা দেখেছি, ২০০৭ সালে একটি ছাত্র আন্দোলন সরকারের পতন ঘটিয়েছে। শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়ে উপাচার্যের পদে থাকার নৈতিক অধিকার নেই। তার পদত্যাগই একমাত্র সমাধান।’

কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন- পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সালেহ হাসান নকীব। তিনি বলেন,  ‘শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনাটি খুব বড় কোনও ঘটনা ছিল না। প্রশাসন চাইলেই এটার খুব সুন্দর একটা সমাধান করতে পারতো। কিন্তু তারা তা না করে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়। ফলশ্রুতিতে যেটা আজ উপাচার্য বিরোধী আন্দোলনে রূপ নিয়েছে। এখন বিষয়টি নিয়ে সারা দেশের শিক্ষার্থীরা কথা বলছেন। সারা দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা একটা সিন্ডিকেট তৈরি করেছে। তারা শাবিপ্রবির ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত চাচ্ছে না বরং বলছে ফরিদ সাহেব পদত্যাগ করলে তারাও পদত্যাগ করবেন। এর  মানে এখন খুব উঁচু দরে খেলা চলছে।’
 
কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য রাখেন- রাবি শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি শাকিলা খাতুন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের রিদম শাহরিয়ার, ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত হোসেন মিলন, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর রনজু হাসান প্রমুখ। কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করে অংশ নেন ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক আলী রেজা অপু।

/এফআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
সবাই একটু মিতব্যয়ী হোন: প্রধানমন্ত্রী
সবাই একটু মিতব্যয়ী হোন: প্রধানমন্ত্রী
আর্থিক অনুমোদনের ক্ষমতা কমলো পরিকল্পনামন্ত্রীর
আর্থিক অনুমোদনের ক্ষমতা কমলো পরিকল্পনামন্ত্রীর
চলন্ত বাসে ডাকাতির চেষ্টা, গণপিটুনিতে আহত যুবকের মৃত্যু
চলন্ত বাসে ডাকাতির চেষ্টা, গণপিটুনিতে আহত যুবকের মৃত্যু
‘কনকাশন সাব’ দিয়ে বাংলাদেশকে চাপে ফেলেছে শ্রীলঙ্কা
‘কনকাশন সাব’ দিয়ে বাংলাদেশকে চাপে ফেলেছে শ্রীলঙ্কা
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত