ডাকসু প্রতিনিধিদের সমালোচনা পরিহার করা উচিত: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

Send
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৩:৫৯, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৩২, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯

কথা বলছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) প্রতিনিধিদের কাজের সমালোচনা না করতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) হাকিম চত্বরে ডাকসুর উদ্যোগে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বই মেলা’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাবির নবনির্বাচিত ডাকসু আমাদের এবং শিক্ষার্থীদের সহায়তা করছে। তাদের নিজেদের মতো কাজ করতে দিতে হবে। উঠতে বসতে তাদের কাজের সমালোচনা, তাদের মধ্যে টানাপড়েন নিয়ে জাতীয় গণমাধ্যমগুলোতে আলোচনা, রাতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা টকশোতে ডাকসু নিয়ে আলোচনা। আমার মনে হয় আমরা যারা বড় তাদের এটা কিছুটা হলেও পরিহার করা উচিত।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্রের বয়স কাগজে-কলমে ৫০-এ এখনও পৌঁছায়নি। এর মধ্যে অর্ধেকের বেশি সময় অগণতান্ত্রিক সরকার বিভিন্ন সময় জোর করে দেশ পরিচালনা করেছে। তো সেই অর্থে দেশের গণতন্ত্রের বয়সও কিন্তু তিন যুগ পূর্ণ হয়নি। সময় দিতেই হবে। ২০০৮ এর ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনের পরে জাতীয় সংসদ প্রতিষ্ঠিত হলো অনেক দিন পরে। সেটা ছিল অনেক প্রত্যাশার মধ্য দিয়ে। সে নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছিল। অপরাজনীতি গণতান্ত্রিক ধারা চর্চার রাজনীতিকে আস্থা করে নিক্ষেপ করতে সবকিছু করে। ঠিক একইভাবে বিভিন্ন সময়ে ডাকসুর সমালোচনা, ছাত্ররাজনীতির সমালোচনা, অনেক ক্ষেত্রে ছাত্রলীগের সমালোচনাও করা হয়। ভালোমন্দ মিলিয়েও তো সবকিছু। এসময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। এভাবে আমাদের এমপি-মন্ত্রীদেরও হেয় করার চেষ্টা করা হয়।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। তিনিও এই উদ্যোগকে স্বাগত জানান। আগামী ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই বইমেলা চলবে বলে জানা যায়। 

/এসআইআর/এসটি/এমএমজে/

লাইভ

টপ