সবকিছু খালেদা জিয়ার সম্মতির অপেক্ষায়: অ্যাটর্নি জেনারেল

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৩:০১, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:১৫, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

আদালত থেকে বেরিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াচিকিৎসার অংশ হিসেবে ওষুধ পুশ করার বিষয়ে সবাই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সম্মতির অপেক্ষায় আছেন বলে আদালতকে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনের বিরোধিতাকালে বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল আদালতে অ্যাটর্নি জেনারেল এই কথা বলেন।

মাহবুবে আলম বলেন, ‘বায়োলজিক্যাল ট্রিটমেন্টের জন্য খালেদা জিয়াকে যে ওষুধ পুশ করতে হবে তা একটি প্রতিষ্ঠান আমাদের দেশে আমদানি করে। তাই সবকিছুই তার (খালেদা জিয়া) সম্মতির জন্য অপেক্ষা করছে। ডাক্তাররাও তার সম্মতির অপেক্ষায় আছেন বলে বোর্ড রিপোর্টে জানানো হয়েছে।’

এ মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বিরোধিতা করে দুদক আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খানও শুনানি করছেন।

এর আগে আইনজীবী জয়নুল আবেদীন ও খন্দকার মাহবুব হোসেন খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন। তাদের শুনানি শেষে অ্যাটর্নি জেনারেল রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করতে গেলে জয়নুল আবেদীন তার উদ্দেশে বলেন, ‘অ্যাটর্নি জেনারেল রাষ্ট্রনিযুক্ত প্রধান আইন কর্মকর্তা। আর খালেদা জিয়াও এ রাষ্ট্রেরই একজন নাগরিক। তাই রাষ্ট্রের আইন কর্মকর্তা হওয়ায় তাকে রাষ্ট্রের নাগরিক খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করতে আহ্বান জানাই।’

উভয় পক্ষের আইনজীবীদের শুনানি শেষে বিচারপতিরা খাস কামরায় ফিরে যান। প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আমরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে কিছু পরে এসে আদেশ দিচ্ছি।’

উল্লেখ্য, এর আগে চ্যারিটেবল মামলায় ৩১ জুলাই বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ করেছিলেন। এরপর ১৪ নভেম্বর হাইকোর্টের খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের করেন তার আইনজীবীরা। আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় ১৪০১ পৃষ্ঠার ওই আপিল আবেদন দাখিল করা হয়। ওই আপিলের শুনানি নিয়ে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন চেয়ে মামলার কার্যক্রম বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) পর্যন্ত মুলতবি করেছিলেন আপিল আদালত।

২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রশাসনিক ভবনের সাত নম্বর কক্ষে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৫-এর বিচারক মো. আখতারুজ্জামান জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেন। 

 

/বিআই/এফএস/

লাইভ

টপ